দুবাই থেকে ঢাকা বিমান ভাড়া | দুবাই টু ঢাকা টিকেটের দাম কত জানুন

দিনে দিনে বিভিন্ন দেশ হতে বাংলাদেশে যাতায়াত আরও সহজ হচ্ছে। বাড়ছে ঢাকা এয়ারপোর্টে ফ্লাইটের সংখ্যা। ফলে অনেকেই জানতে চাচ্ছেন দুবাই টু বাংলাদেশ ফ্লাইট রেট। আমাদের রাষ্ট্রীয় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ও আন্তর্জাতিক অনেক বিমান সংস্থাই এখন বিভিন্ন দেশ থেকে ঢাকায় ফ্লাইট পরিচালনা করছে নিয়মিত। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সাথে ঢাকার বিমান চাহিদা বর্তমানে অনেক বেশি কেননা এসব জায়গায় অসংখ্য প্রবাসি বাংলাদেশি রয়েছেন। তাছাড়া ঘুরতে কিংবা কাজের সন্ধানেও এসব স্থানের বিমান টিকেটের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এমন একটি জনপ্রিয় রুট হচ্ছে দুবাই থেকে ঢাকার রুট। দুবাই থেকে ঢাকার বিমান টিকেট কাটার চাহিদা সবসময় বেশি। আজকের এই পোস্টে জেনে নিতে পারবেন দুবাই থেকে ঢাকা পর্যন্ত কারা ফ্লাইট পরিচালনা করছে এবং এই রুটে প্লেনের ভাড়া কেমন হয়ে থাকে।

প্লেনে যে কোন ভ্রমণের পরিকল্পনায় সবার আগে জেনে নেয়া উচিত সেই গন্তব্যের বিমান ভাড়া সম্পর্কে। দুবাই একটি জনপ্রিয় গন্তব্য হওয়ায় দুবাই থেকে ঢাকার প্লেনের ভাড়া জেনে নেয়া জরুরি। আপনি যদি দুবাই থেকে ঢাকার ওয়ান ওয়ে প্লেনের টিকেটের মূল্য জানতে চান তবে এই পুরো পোস্টটি পড়ে নিতে পারেন। আশা করা যায় দুবাই রুটের ভাড়া সম্পর্কে একটি পরিপূর্ণ ধারণা পেয়ে যাবেন এখান থেকেই।

দুবাই থেকে ঢাকা পর্যন্ত যেসব এয়ারলাইন্স ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে

দুবাই একটি জনপ্রিয় গন্তব্য হওয়ায় দুবাই থেকে ঢাকায় অনেকগুলো এয়ারলাইন্স নিয়মিত তাদের ফ্লাইট পরিচালনা করছে। এর মধ্যে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সব ধরণের এয়ারলাইন্সই রয়েছে। মূলত এসব এয়ারলাইন্স বিভিন্ন বিরতিতে তাদের ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে। 

দেশীয় এয়ারলাইন্সের মধ্যে দেশের একমাত্র সরকারি বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এবং অন্যতম শীর্ষ বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলা তাদের ফ্লাইট নিয়মিত পরিচালনা করে থাকে দুবাই আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্ট হতে। বিদেশি ও আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থার মধ্যে আপনি অসংখ্য অপশন পাবেন। যেমনঃ ইতিহাদ এয়ারওয়েস, ইন্ডিগো এয়ার, জাজিরা এয়ারওয়েস, সালামএয়ার, শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্স, গালফ এয়ার, ফ্লাইদুবাই, ভিস্তারা, এমিরেটস, ওমান এয়ার, সৌদি আরাবিয়ান এয়ারলাইন্স, কুয়েত এয়ারওয়েস, কাতার এয়ারওয়েস, তুরকিশ এয়ারওয়েস ইত্যাদি। এসব এয়ারলাইন্স সাধারণত বিভিন্ন স্টপে বিমান পরিবর্তনের মাধ্যমে তাদের সেবা দিয়ে থাকে। তবে সরাসরি ফ্লাইটও রয়েছে কিছু।

দুবাই থেকে ঢাকা ফ্লাইটের ধরণ ও সময়

দুবাই থেকে ঢাকার বিমান ভাড়া মূলত চাহিদার উপর নির্ভর করলেও ফ্লাইটের ধরণের উপরও নির্ভর করে থাকে। আপনি বিভিন্ন ক্লাসের টিকেট কাটতে পারবেন বিভিন্ন এয়ারলাইন্সে। বিজনেস ক্লাস হচ্ছে সবথেকে প্রিমিয়াম ক্লাসের টিকেট। আর তাই এই টিকেট মূল্যও বেশি হয়ে থাকে। এছাড়া স্টপেজ ও সেবার উপর নির্ভর করে বিভিন্ন মূল্যের টিকেট পাওয়া যায়। ঢাকা পর্যন্ত সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করছে দেশীয় দুটি বিমান সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এবং ইউএস বাংলা। তবে আন্তর্জাতিক কিছু বিমান সংস্থাও সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করছে ঢাকা পর্যন্ত। এদের মধ্যে রয়েছে ফ্লাইদুবাই এবং এমিরেটস।

সরাসরি ফ্লাইটে ৪ ঘণ্টা ৩৫ মিনিট হতে ৫ ঘণ্টা পর্যন্ত সময় লাগে দুবাই থেকে ঢাকা পৌঁছাতে। এছাড়া স্টপেজ অনুযায়ী ফ্লাইট টাইম কম বেশি হয়ে থাকে অন্যান্য ফ্লাইটগুলোতে।

দুবাই টু ঢাকা বিমান ভাড়া কত? দুবাই টু বাংলাদেশ ফ্লাইট রেট

দুবাই টু ঢাকা প্লেন ভাড়া বিভিন্ন ক্যাটাগরির হয়ে থাকে। ১৪ হাজার টাকা থেকে টিকেটের মূল্য শুরু হয়। আপনি চাইলে ১০ লাখ টাকার বেশি মূল্যের টিকেটও ক্রয় করতে পারেন। টিকেট অনুযায়ী বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যায়। ফলে নিজের ইচ্ছা ও সামর্থ্য অনুযায়ী টিকেট নেয়ার ভালো সুযোগ রয়েছে এই রুটে।

সবথেকে কম ভাড়া ১৪,২৭৪ টাকায় দুবাই থেকে ঢাকার টিকেট নিতে পারবেন ইন্ডিগো এয়ারলাইন্সের মাধ্যমে। ২৪ হাজার টাকা পর্যন্ত বিভিন্ন ফ্লাইটের টিকেট রয়েছে এখানে। তবে ভারতে আপনাকে বিমান পরিবর্তন করতে হবে একবার। এই ফ্লাইটে সময় লাগতে পারে ১২ ঘণ্টা থেকে শুরু করে ২৬ ঘণ্টা পর্যন্ত। কাজেই টিকেট কিনবার আগে (এবং পরেও) এই ব্যাপারে টিকেট চেক করে নিতে হবে ও খেয়াল রাখতে হবে।

১৬ হাজার টাকা বা এর আশেপাশে থেকে টিকেট পেয়ে যাবেন ইতিহাদ এয়ারওয়েসের। তবে তারা আবু ধাবি তে স্টপেজ দিয়ে থাকে। ৯ ঘণ্টা থেকে শুরু করে ১ দিনেরও বেশি সময়ের ফ্লাইট টাইমের ফ্লাইট রয়েছে তাদের। এছাড়া ১৭ হাজার টাকা মূল্যে শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সেরও টিকেট পেতে পারেন আপনি যেটি স্টপেজ দেবে কলম্বোতে। এই ফ্লাইতেও আপনার ১০ ঘণ্টার উপরে সময় লাগবে। ⭐️ সৌদি আরব থেকে ঢাকা প্লেন ভাড়া কত? জানুন এখানে

dubai to dhaka biman vara

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

দেশীয় বিমান সংস্থা ইউএস বাংলার সরাসরি ফ্লাইট টিকেটের মূল্য শুরু ১৮,৫০০ টাকা থেকে। মাত্র ৫ ঘণ্টায় দ্রুত ঢাকা পৌঁছাতে পারবেন তাদের ফ্লাইটে। এছাড়া ২১ হাজার টাকা থেকে ফ্লাই দুবাইয়ের নন স্টপ টিকেটও পেয়ে যেতে পারেন। ২৫ হাজার টাকা বাজেট থাকলে এমিরেটস আপনাকে দেবে সেরা সুবিধা। মাত্র ৪ ঘণ্টা ৩৫ মিনিট ফ্লাইট টাইমের মধ্যেই আপনি ঢাকা পৌঁছে যেতে পারবেন সরাসরি ফ্লাইটে। ২৫ হাজার টাকা থেকে ৫ লাখ টাকা মূল্যের টিকেট রয়েছে এমিরেটসের। সরাসরি বেশ কয়েকটি ফ্লাইট তারা নিয়মিত পরিচালনা করে থাকে।

২০ হাজার টাকা থেকে ২৫ হাজার টাকার মধ্যে আরও টিকেট পাবেন গালফ এয়ার, ওমান এয়ার, ভিস্তারা এয়ারলাইন্সের। তবে তাদের ফ্লাইটগুলো সরাসরি নয় এবং ৭ ঘণ্টা থেকে ২৬ ঘণ্টা পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।

তবে ৩০ হাজার টাকায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সরাসরি ফ্লাইট সেবা উপভোগ করতে পারবেন। তাদের সরাসরি ফ্লাইটে মাত্র ৪ ঘণ্টা ৫৫ মিনিটেই ঢাকায় পৌঁছে যেতে পারবেন। ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল্যের টিকেট রয়েছে তাদের।

কুয়েত এয়ারওয়েস, কাতার এয়ারওয়েস ইত্যাদি এয়ারলাইন্সগুলো ৩৫ হাজার টাকার অধিক মূল্যের টিকেটও দিয়ে থাকে। এই ফ্লাইটগুলোতে আপনি আরও আধুনিক সুবিধা ও আরামের ব্যবস্থা পাবেন। যদিও সরাসরি ফ্লাইট না হওয়ায় ফ্লাইট টাইম বেশি থাকবে।

তুরকিশ এয়ারলাইন্স টিকেট দিচ্ছে ৫১,০০০ টাকা থেকে যা ইস্তাম্বুলে একটি স্টপেজ দিয়ে আপনাকে ঢাকা পৌঁছে দেবে। কুয়েত এয়ারওয়েস, কাতার এয়ারওয়েসেরও এই দামের টিকেট রয়েছে। এসব টিকেটে আপনি আরামদায়ক ফ্লাইট পাবেন।

একদম প্রিমিয়াম ক্যাটাগরির টিকেট চাইলে আপনি এমিরেটস এয়ারলাইন্সের টিকেট পেয়ে যাবেন। এক লাখ টাকার উপরের মূল্যের এসব টিকেটে আছে সরাসরি কিংবা এক বা একাধিক স্টপেজ দিয়ে ঢাকা পৌঁছানোর সুযোগ। এমিরেটস ছাড়াও ২ লাখ টাকা থেকে ইতিহাদ এয়ারওয়েসের প্রিমিয়াম টিকেটও রয়েছে। সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্স, সৌদি এয়ারলাইন্স ইত্যাদি এয়ারলাইন্সের টিকেট আপনি এর থেকেও বেশি মূল্যে পেতে পারেন। ⭐️ কম দামে বিমানের টিকিট কেনার কৌশল | সস্তায় প্লেনের টিকেট কাটুন এভাবে

অর্থাৎ দুবাই থেকে ঢাকার প্লেন ভাড়া বিভিন্ন রকমের রয়েছে। আপনার চাহিদা ও সুবিধা অনুযায়ী এখান থেকে বাছাই করে নেয়ার সুযোগ রয়েছে। দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বেশ কয়েকটি সংস্থা সরাসরি বিমান পরিচালনা করায় এই রুটে ভ্রমণ বেশ সহজ হয়ে উঠেছে। তবে সব থেকে কম মূল্যে ভ্রমণ করতে চাইলে এই রুটে আপনাকে সরাসরি ফ্লাইটে না উঠে স্টপেজ ফ্লাইটে উঠতে হবে। এই রুটের ভাড়া বেশ কম, তবে অধিক ভাড়াতে আরামে যাতায়াতের সুযোগও রয়েছে। কাজেই ব্যস্ততম এই রুটে আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী ফ্লাইট বাছাই করে নিতে পারেন। ⭐️ মালয়েশিয়া টু বাংলাদেশ বিমান ভাড়া ও প্লেন টিকেটের দাম কত জানুন

এছাড়া বিমান ভাড়া নিয়মিত পরিবর্তন হয় বলে উপরে উল্লিখিত ভাড়া যে কোন সময় বাড়তে বা কমতে পারে। কাজেই ভ্রমণের আগে অনলাইনে সঠিক ভাড়া দেখে নেয়া জরুরি। তবে আশা করা যায় এই পোস্ট থেকে দুবাই থেকে ঢাকা রুটের ভাড়ার একটি পরিপূর্ণ ধারণা পেয়ে যাবেন।

👉 দুবাই টু চট্টগ্রাম টিকেটের দাম কত | দুবাই থেকে চিটাগং প্লেন টিকেট মূল্য

👉 Dubai to Dhaka Flight Ticket Price

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,503 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *