বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ড বিমান ভাড়া কত?

বাংলাদেশের ভ্রমনপিপাসু মানুষদের কাছে বর্তমানে এশিয়া মহাদেশের থাইল্যান্ড দেশটির জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। থাইল্যান্ড দেশটি যেমন সুন্দর এটির সংস্কৃতিও অসাধারণ সুন্দর। এই দেশটির সৌন্দর্যে মুগ্ধ হবে না এমন মানুষ পাওয়া বড় মুশকিল। বাংলাদেশ থেকে মানুষজন প্রতিনিয়ত থাইল্যান্ডের উদ্দেশ্যে যাতায়াত করছে। হানিমুন থেকে শুরু করে বন্ধু বান্ধবদের সাথে ঘোরা প্রতিটা ক্ষেত্রেই বিদেশি ভ্রমন স্থল হিসেবে থাইল্যান্ড শীর্ষ স্থানীয় পর্যায় ধারন করে আছে।

বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাওয়ার জন্য ননস্টপ, একটি ট্রানজিট এমনকি দুইটি ট্রানজিট সম্পন্ন ফ্লাইট এর ব্যবস্থা রয়েছে। আমাদের আজকের আর্টিকেলে আমরা বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাওয়ার বিমান ভাড়া এবং ফ্লাইটের সময় কাল সম্পর্কিত বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। এতে করে বাংলাদেশ থেকে যারা বিমান যোগে থাইল্যান্ডে যেতে ইচ্ছুক তাদের জন্য কোন এয়ারলাইন্সের বিমান টিকিট কাটা সুবিধা হবে তা জানতে পারবেন। আমরা রাউন্ড ট্রিপের খরচ দেখানোর চেষ্টা করেছি। আপনি যদি মাসখানেক আগে টিকেট কাটেন তাহলে অনেক কম মূল্যে টিকেট পাবেন।

বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে কোন এয়ারলাইন্সের বিমান চলাচল করে?

বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাবার জন্য দেশি বিদেশি নানা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট বিদ্যমান রয়েছে। বিদেশি এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্স, ভিস্তারা এয়ারলাইন্স, ইন্ডিগো এয়ার, থাই এয়ারওয়েজ, ব্যাংকক এয়ারলাইন্স, এমিরেটস, কাতার এয়ারওয়েজ, তার্কিশ এয়ারলাইন্স, এয়ার ইন্ডিয়া অন্যতম। এছাড়া বাংলাদেশি এয়ারলাইন্স গুলোর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর পাশাপাশি ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স ও বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাত্রী আনা নেওয়া করে।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ড যাওয়ার বিমান খরচ কত? 

বাংলাদেশের এয়ারলাইন্স হিসেবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ঢাকা থেকে থাইল্যান্ডের ব্যাংককের উদ্দেশ্যে ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স থাইল্যান্ডের ব্যাংককে যেতে নন স্টপ ফ্লাইট ব্যবহার করে থাকে। এর জন্য যাত্রীকে কম পক্ষে ২৬ হাজার টাকা খরচ করতে হবে। তবে দিন ভেদে এই খরচ আরও বাড়বে। এছাড়া বিজনেস ক্লাস বা এ ধরনের প্রিমিয়াম ক্লাসের জন্য খরচ অনেক বাড়বে। নন স্টপ ফ্লাইট হওয়ার কারণে এই এয়ারলাইন্সে ঢাকা থেকে থাইল্যান্ডের ব্যাংককে যেতে সময় লাগে মাত্র ২ ঘন্টা ৩০ মিনিট। 

ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সে থাইল্যান্ডে যাওয়ার বিমান খরচ কত? 

বাংলাদেশের এয়ারলাইন্স হিসেবে ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স ও ঢাকা থেকে থাইল্যান্ডের উদ্দেশ্যে ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে। ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স থাইল্যান্ড যেতে নন স্টপ ফ্লাইট ব্যবহার করা। এর জন্য রাউন্ড ট্রিপে যাত্রীকে প্রায় ২৬ হাজার  টাকা থেকে প্রায় ৮৫ হাজার ৫০০ টাকা পর্যন্ত খরচ করতে হয়। ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্সে ঢাকা থেকে থাইল্যান্ডে যেতে সময় লাগে ২ ঘন্টা ৩০ মিনিট। 

শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাওয়ার বিমান খরচ কত?

এই এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডের ব্যাংককে যাওয়ার জন্য বিমান ভাড়া সর্বনিম্ন ২৪ হাজার ৯০০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৫৩ হাজার ৫০০ পর্যন্ত টাকা হয়ে থাকে। থাইল্যান্ডে যেতে শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সে প্রায় ১৪ ঘন্টা ৪৫ মিনিট থেকে ২১ ঘন্টা ২৫ মিনিট সময় লাগে। শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইন্সের বিমান গুলো সাধারণত কলম্বোতে তাদের ট্রানজিট সম্পন্ন করে। 

ভিস্তারা এয়ারলাইন্সে থাইল্যান্ডে যাওয়ার খরচ কত? 

ভারতের দিল্লী অথবা মুম্বাইতে ট্রানজিট সম্পন্ন করা এই এয়ারলাইন্সে থাইল্যান্ড যেতে খরচ হয় প্রায় ৩২ হাজার ৫৫০ টাকা থেকে শুরু করে প্রায় ৫৩ হাজার ৬০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। ভিস্তারা এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যেতে প্রায় ১ দিন ৪৫ মিনিট থেকে ১ দিন ৩ ঘন্টা ৫ মিনিটের মতো সময় লেগে থাকে। 

ইন্ডিগো এয়ারে থাইল্যান্ডে যেতে কত টাকা লাগে?

ভারত থেকে পরিচালিত ইন্ডিগো এয়ারে থাইল্যান্ডে যাওয়ার বিমান ভাড়া সর্বনিম্ন ৩২ হাজার ৬০০ টাকা থেকে শুরু হয়ে সর্বোচ্চ ৫৭ হাজার ৯০০ টাকা হয়ে থাকে। এই এয়ারলাইন্সের বিমান সাধারণত কলকাতাতে ট্রানজিট সম্পন্ন করে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাত্রী নিয়ে যায়। ইন্ডিগো এয়ারের থাইল্যান্ড যেতে ৮ ঘন্টা ৫ মিনিট সময় লেগে থাকে।

থাই এয়ারওয়েজে থাইল্যান্ডে যাওয়ার বিমান টিকিটের মূল্য কত? 

থাইল্যান্ডে পরিচালিত থাই এয়ারওয়েজ সবচেয়ে কম খরচে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে নন স্টপ যাত্রী নিয়ে যাতায়াত করে থাকে। নন স্টপ থাইল্যান্ডে যাতায়াতের জন্য থাই এয়ারওয়েজের মাত্র ২ ঘন্টা ৩০ মিনিট সময় লাগে। এই এয়ারওয়েজে যাত্রা করার জন্য একজন যাত্রীকে প্রায় ৩৫ হাজার ৯৫০ টাকা থেকে ৫৩ হাজার ৪০০ টাকা পর্যন্ত খরচ করতে হয়।

ব্যাংকক এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ড যেতে কত টাকা লাগে?

বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ড যেতে ব্যাংকক এয়ারলাইন্সে ৫৭ হাজার ৯০০ টাকা থেকে ৬৫ হাজার ৬৫০ টাকা খরচ হয়। ব্যাংকক এয়ারলাইন্স কোনো প্রকার ট্রানজিট সম্পন্ন না করে নন স্টপ তাদের ফ্লাইট গুলো পরিচালনা করে থাকে। বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ড যেতে এই এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটগুলো ২ ঘন্টা ৩০ মিনিট সময় নিয়ে থাকে। 👉 কম দামে বিমান টিকেট পাওয়ার উপায়

Bangladesh to thailand biman vara

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

এমিরেটেসে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ড বিমান ভাড়া কত?

সংযুক্ত আরব আমিরাতে পরিচালিত এমিরেটস এয়ারলাইন্স বিশ্বের জনপ্রিয় কিছু এয়ারলাইন্স এর মধ্যে অন্যতম। এই এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাওয়ার জন্য প্রায় ১ লক্ষ ২৯ হাজার ৫৫০ টাকা থেকে শুরু করে ১ লক্ষ ৬৯ হাজার টাকা পর্যন্ত খরচ হতে পারে। দুবাইতে একটি ট্রানজেকশন সম্পন্ন করা এই এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যেতে প্রায় ১৫ ঘণ্টা ৪০ মিনিট থেকে ১ দিন ১১ ঘন্টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। 👉 এমিরেটস এয়ারলাইন্স সম্পর্কে চমকপ্রদ কিছু তথ্য

কাতার এয়ারওয়েজের থাইল্যান্ড বিমান টিকিটের মূল্য কত?

১ লক্ষ ৩৭ হাজার ৩৪০ টাকা থেকে শুরু করে ১ লক্ষ ৬৮ হাজার ১০০ টাকা পর্যন্ত খরচ করে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাওয়া সম্ভব। কাতার এয়ারওয়েজে থাইল্যান্ডে যেতে ১৪ ঘন্টা ৩০ মিনিট থেকে ১ দিন ৮ ঘন্টা ৩৫ মিনিট পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। কাতার এয়ারওয়েজ তাদের থাইল্যান্ডের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়া ফ্লাইটগুলো কাতারের দোহায় ট্রানজিট করে থাকে।

👉 ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স টিকেট চেক করার নিয়ম

তার্কিশ এয়ারলাইন্স এর ফ্লাইটে করে থাইল্যান্ড যাওয়ার খরচ কত?

তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে ট্রানজেকশন করা এই এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট গুলোতে থাইল্যান্ডে যেতে প্রায় ২২ ঘন্টা ৪৫ মিনিট থেকে ১ দিন ৭ ঘন্টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে। তার্কিশ এয়ারলাইন্সে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যেতে বিমান খরচ প্রায় ১ লক্ষ ৭৫ হাজার ১০০ টাকা থেকে শুরু করে ২ লক্ষ ৯ হাজার ১০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। এই এয়ারলাইন্স তাদের যাত্রীদের যাতায়তের জন্য A330-300 কিংবা বোয়িং ৭৮৭-৯ বিমান ব্যবহার করে থাকে।

এয়ার ইন্ডিয়াতে থাইল্যান্ডে যাওয়ার খরচ কত?

এয়ার ইন্ডিয়া ভারতের অন্যতম বড় একটি এয়ারলাইন্স প্রতিষ্ঠান। এয়ার ইন্ডিয়া বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যেতে প্রায় ২ লক্ষ ৭০ হাজার ৩০০ টাকা এর মতো খরচ হতে পারে। এয়ার ইন্ডিয়া এর এই ফ্লাইটটি ভারতের দুটি রাজ্য কলকাতা এবং মুম্বাইতে তাদের ট্রানিজিট সম্পন্ন করে থাকে।এয়ার ইন্ডিয়াতে বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ড যেতে প্রায় ১৬ ঘটা ৫ মিনিট পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে। 

বিমানের টিকিটের মূল্য মূলত ভ্রমনের তারিখ এবং টিকিটের ধরনের উপর নির্ভর করে থাকে। যেহেতু থাইল্যান্ডে যাওয়ার ক্ষেত্রে বেশিরভাগ মানুষের মূল লক্ষ্য থাকে ঘোরা ফেরা তাই স্বল্প বাজেটের মধ্যে টিকিট ক্রয় করা লাভ জনক। এসকল কারনে এয়ারলাইন্সের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট এর পাশাপাশি বিভিন্ন থার্ড পার্টি ওয়েবসাইট যেমন ফ্লাইট এক্সপার্ট, গো জায়ান, ট্রিপ ডট কম ইত্যাদি থেকেও টিকিট কেটে নিতে পারেন। কেননা এসকল ওয়েবসাইট বিভিন্ন সময় বিমান টিকিটের উপর অফার প্রদান করতে পারে। বাংলাদেশ থেকে থাইল্যান্ডে যাবার বিমান টিকিটের মূল্য সম্পর্কিত আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কেমন লেগেছে তা আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারবেন। 

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,561 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *