বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন ২০২০

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন ২০২০

গতবছর স্মার্টফোনের রাজ্যে বেজেললেস ডিসপ্লে কিংবা ওয়াটার-ড্রপ নচ এর মত নতুন কিছু ডিজাইন ট্রেন্ড এসেছিল। সেই সাথে ডুয়াল/ট্রিপল ক্যামেরায় বোকেহ ইফেক্ট অথবা ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার করার ফিচারটিও খুব হাইপ তৈরি করেছিল। ২০২০ সালে এসে এই ফিচারগুলোরই একটু উন্নত রূপ দেখা যাচ্ছে ফোনগুলোতে।

তো চলুন এক নজরে ২০২০ সালে (এখন পর্যন্ত বাজারে আসা) বিশ্বের সেরা স্মার্টফোনগুলো দেখে নিই।

১০. রিয়েলমি এক্স২ প্রো

রিয়েলমি এক্স২ প্রো

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকার ১০ নম্বরে আছে রিয়েলমি এক্স২ প্রো। গত বছরের যে কয়টি ফোন বাজারে এসেই তুমুল সাড়া ফেলেছিল, এর মধ্যে রিয়েলমি এর এক্স২ প্রো ডিভাইসটি অন্যতম। এই ফোনের এমন জনপ্রিয়তার পেছনে অন্যতম কারণ হল সাশ্রয়ী দামে সেসময়ের কোয়ালকম এর চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস এর উপস্থিতি। সুপার এমোলেড ডিসপ্লেযুক্ত রিয়েলমি এক্স২ প্রো তে থাকছে ৮ থেকে ১২ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম এবং ৬৪ থেকে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত ইন্টারনাল স্টোরেজ বেছে নেওয়ার সুযোগ।

ফোনটিতে রয়েছে কোয়াড ক্যামেরা সেটাপ। ৬৪ মেগাপিক্সেলের মেইন ক্যামেরা সেন্সরের সাথে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো, ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড এবং ২ মেগাপিক্সেলের একটি ডেপথ সেন্সর। ফোনের সামনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি শুটার। আন্ডার ডিসপ্লে ফিংগারপ্রিন্ট এর সাথে ৩.৫এমএম হেডফোন জ্যাক ও রয়েছে ফোনটিতে। ৪০০০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি দ্বারা চালিত রিয়েলমি এক্স২ প্রো ডিভাইসটি। রিয়েলমি এক্স২ প্রো এর সর্বনিম্ন দাম ৩৫ হাজার টাকার মত।

 

৯. শাওমি রেডমি কে৩০ প্রো / পোকো এফ২ প্রো

শাওমি রেডমি কে৩০ প্রো / পোকো এফ২ প্রো

শাওমির স্মার্টফোন লাইনআপ, রেডমি কে সিরিজ, এর কোয়ালিটি স্ট্যান্ডার্ড এবং ভ্যালু-ফর-মানি ট্যাগ এর জন্য ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছে। লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন চিপসেট, স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫, দৃষ্টিনন্দন ডিজাইন এবং ২১৮ গ্রামের খানিকটা ভারী বডি নিয়ে আমাদের তালিকার নবম স্থানে অবস্থান করছে শাওমি রেডমি কে৩০ প্রো। বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় এটিও স্থান পেল। এর ইন্টারন্যাশনাল ভ্যারিয়েশন হিসেবে পোকো এফ২ প্রো ফোনটিকে বিবেচনা করতে পারেন।

সর্বোচ্চ ৮ জিবি র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজযুক্ত রেডমি কে ৩০ প্রো ফোনে থাকছে সুপার এমোলেড ডিসপ্লে, যার পিক্সেল ডেনসিটি ৩৯৫ পিপিআই। ফোনের সামনে রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি শুটার এবং ফোনের ব্যাকে রয়েছে ৬৪মেগাপিক্সেলের মেইন ক্যামেরা, ১৩মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড, ৮ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো এবং ২ মেগাপিক্সেলের ডেপথ সেন্সর। ৪৭০০ মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি থাকছে রেডমি কে ৩০ প্রো তে। ফোনটির সর্বনিম্ন দাম ৪২৫ ডলার।

 

৮. অপো ফাইন্ড এক্স ২ প্রো

অপো ফাইন্ড এক্স ২ প্রো

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকার ৮ নম্বরে আছে অপো ফাইন্ড এক্স ২ প্রো ডিভাইসটি। ৬.৭ ইঞ্চির বিশাল ডিসপ্লে, ১২ জিবি র‍্যাম এর অপো ফাইন্ড এক্স ২ প্রো তে থাকছে সর্বোচ্চ ৫১২ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ। আন্ডার ডিসপ্লে অপটিক্যাল ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর থাকছে অপো ফাইন্ড এক্স ২ প্রো এর এমোলেড ডিসপ্লেতে। এইচডিআর ১০+ সাপোর্টেড ওই ডিসপ্লেতে আরো রয়েছে ১২০ হার্জ রিফ্রেশ রেট। এন্ডয়েড ১০ বেসড কালারওএস ৭.১ দ্বারা চালিত ফাইন্ড এক্স ২ প্রো চলবে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ চিপসেট দ্বারা।

৪৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড এবং আল্ট্রাওয়াইড লেন্সের সাথে যুক্ত করা হয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো লেন্স। ফোনের সামনে রয়েছে ৩২ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ফ্ল্যাগশিপ এই ফোনে থাকছেনা ৩.৫এমএম হেডফোন জ্যাক। ফোনটি চলবে ৪২৬০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি দ্বারা। অপো ফাইন্ড এক্স ২ প্রো এর দাম ১ লাখ ১২ হাজার টাকার মত।

 

৭. শাওমি মি ১০ প্রো

শাওমি মি ১০ প্রো

কমদামে ভালো স্মার্টফোন বিক্রি করার সুবাদে আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষের হাতেই শোভা পায় শাওমি’র ফোনগুলি। তবে আমাদের এই তালিকার সপ্তম স্থানে অবস্থান করছে শাওমি’র তরফ থেকে আসা একটি ট্রু ফ্ল্যাগশিপ লেভেল ডিভাইস। কথা বলছি শাওমি মি ১০ প্রো ফোনটিকে নিয়ে। বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকা করলে এর স্থান অবধারিত।

মি ১০ প্রো ফোনটির অন্যতম প্রধান আকর্ষণ হল এর ১০৮ মেগাক্সপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা। এছাড়াও ৫জি এর দেখা মিলবে ফোনটিতে। ৬.৬৭ ইঞ্চির অনেকটাই বিশাল দেখতে এই ফোন চলবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ চিপসেট দ্বারা। ১০৮ মেগাপিক্সেলের মেইন ক্যামেরার পাশাপাশি ফোনের ব্যাকে রয়েছে ৮, ১২ এবং ২০ মেগাপিক্সেলের শক্তিশালী তিনটি ক্যামেরা। ফোনের ফ্রন্টে রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ১২ জিবি র‍্যাম ১২৮জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের ফোনটিতে রয়েছে ৪৫০০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি। শাওমি মি ১০ প্রো এর দাম ৬৮ হাজার টাকার আশেপাশে।

 

৬. ওয়ানপ্লাস ৮ প্রো

ওয়ানপ্লাস ৮ প্রো

নিজেদের ফ্ল্যাগশিপ কিলার বলে দাবি করা ওয়ানপ্লাস যে এবার নিজেরাই ফ্ল্যাগশিপ হয়ে গিয়েছে, তা নিয়ে প্রযুক্তি পিপাসুদের মাথাব্যাথার শেষ নেই। তবে আপনি যদি বিশ্বের সবচেয়ে ভালো ফোন কোনটি তা জিজ্ঞাসা করেন, সেক্ষেত্রে বর্তমান সময়ের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় স্থানের দাবিদার ওয়ানপ্লাস ৮ প্রো ডিভাইসটি।

৬.৭৮ ইঞ্চির বিশাল ডিসপ্লের এই ফোনটিতে রয়েছে চারটি ব্যাক ক্যামেরা – ৪৮ মেগাপিক্সেল ওয়াইড, ৮ মেগাপিক্সেল টেলিফটো, ৪৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড এবং ৫ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সর। ১৬ মেগাপিক্সেল সেল্ফি ক্যামেরা থাকছে ফোনটিতে। ফোনটি চলবে স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্রসেসর এবং ৪৫১০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি দ্বারা। ১২ জিবি র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকছে ফোনটিতে। ওয়ানপ্লাস ৮ সিরিজ সম্পর্কে আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন। ওয়ানপ্লাস ৮ প্রো এর দাম শুরু ৮৯৯ ডলার থেকে।

 

৫. মটোরোলা এজ প্লাস

মটোরোলা এজ প্লাস

নজরকাড়া ডিজাইন এবং বর্তমান সময়ের অসাধারণ সব স্মার্টফোন প্রযুক্তির এক চমৎকার উদাহরণ, মটোরোলা এজ প্লাস ডিভাইসটি। ৯৫% এর অধিক স্ক্রিন-টু-বডি রেশিও নিয়ে ৬.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে থাকছে মটোরলা এজ প্লাসে। বিশ্বের সবচেয়ে ভালো মোবাইল এর তালিকায় এটিও স্থান পাবে।

১০৮ মেগাপিক্সেল অসাধারণ ক্যামেরা, ৫০০০ মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারির এই ফোনটিতে থাকছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ প্রসেসর। ফোনের ব্যাকে আরো রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো এবং ১৬ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড সেস্নর। সেলফি ক্যামেরা হিসেবে ফোনের ফ্রন্টে থাকছে ২৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ১২ জিবি র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ থাকছে ফোনটিতে। এর দাম শুরু ৮০০ ডলার থেকে।

 

৪. গুগল পিক্সেল ৪এক্সএল

গুগল পিক্সেল ৪এক্সএল

গুগলের পিক্সেল সিরিজের মূল আকর্ষণ এর হাই কোয়ালিটি ক্যামেরা। প্রাইমারি ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সহ গুগল পিক্সেল ৪ এক্সএল এর ব্যাকে এবার যুক্ত করা হয়েছে সেকেন্ডারি ১৬ মেগাপিক্সেল টেলিফটো ক্যামেরা। পিক্সেল ৪ এর ফ্রন্টে থাকছে ৮ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ৩৭০০ মিলিএম্প এর এই ফোনে থাকছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ চিপসেট।

এছাড়াও গুগলের এন্ড্রয়েড এর লেটেস্ট ভার্সন ১০ এর  আউট-অফ-দ্যা-বক্স দেখা মিলছে পিক্সেল ৪ এক্সএল এ। বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় এর অবস্থান অবধারিত। গুগল পিক্সেল ৪ এক্সএল এর দাম ও অন্যান্য তথ্য জানতে এই পোস্টটি পড়ুন। পিক্সেল ৪ এক্সএল এর দাম শুরু ৮৯৯ ডলার থেকে।

 

৩. হুয়াওয়ে পি৪০ প্রো

হুয়াওয়ে পি৪০

সম্প্রতি চীন-যুক্তরাজ্য বাণিজ্য যুদ্ধের জের ধরে কিছুটা হলেও জৌলুশ কমেছে চাইনিজ স্মার্টফোন জায়ান্ট হুয়াওয়ে এর। তবে নিজেদের ফোনে গুগলের এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে না পারার ব্যাপারটি পর্যন্ত রুখে দিতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটিকে। তারই প্রমাণস্বরুপ বিশ্বের সেরা ফোন তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে হুয়াওয়ে পি ৪০ প্রো ফোনটি।

৫০ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড, ১২ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো এবং ৪০ মেগাপিক্সেলের তিনটি লেন্স থাকছে থাকছে ফোনটির মূল ক্যামেরায়। এছাড়াও ফোনের সামনে রয়েছে ৩২ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। স্পেসিফিকেশন শুনে আহামরি কিছু মনে না হলেও ক্যামেরা পারফরমেন্স এর দিক দিয়ে এই তালিকার সেরা ফক্ন হুয়াওয়ে পি৪০ প্রো। হুয়াওয়ে এর নিজস্ব প্রসেসর, কিরিন ৯৯০ ৫জি চালিত ৬.৫৮ ইঞ্চির ডিসপ্লেযুক্ত ফোনটিতে থাকছে ৮ জিবি র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। ফোনটিকে পাওয়ার আপ করবে ৪২০০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি। আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন।  পি৪০ প্রো এর দাম শুরু ১০৯৫ ডলার থেকে।

 

২. আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স

আইফোন ১১ প্রো

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোনের তালিকায় আইফোন থাকবেনা – তা আবার হয় নাকি। এ্যাপল এর আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স স্থান পেয়েছে আমাদের তালিকার দ্বিতীয় স্থানে। নতুন সুপার আল্ট্রাওয়াইড ক্যামেরা এবং ৩৯৬৯ মিলিএম্প এর ব্যাটারি থাকছে আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স এ। এতে পাচ্ছেন ৬.৫ ইঞ্চি স্ক্রিন, এ১৩ বায়োনিক চিপ সিপিইউ ও ডলবি এটমস অডিও।

আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স এর মূল ক্যামেরায় মোট তিনটি লেন্স রয়েছে (প্রতিটি ১২ মেগাপিক্সেল)। একটি হচ্ছে ওয়াইড লেন্স, আরেকটি টেলিফটো লেন্স এবং অন্যটি আলট্রা ওয়াইড লেন্স। এর মাধ্যমে আপনি চারগুণ অপটিক্যাল জুম করার সুবিধা পাবেন। এগুলো দিয়ে ৬০ ফ্রেম/সেকেন্ড রেটে ফোরকে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স এর দাম শুরু ১০৯৯ ডলার থেকে। বিস্তারিত ফিচার জানতে এখানে ক্লিক করুন

 

১. স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা
স্মার্টফোন জগতে অত্যাধুনিক এবং অভাবনীয় সব ফিচার যুক্ত করে প্রযুক্তি বিশ্বে রীতিমত সাড়া ফেলে দেওয়া স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা ফোনটি দখল করে নিয়েছে বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকার শীর্ষস্থানটি।

৮কে ভিডিও রেকর্ডিং, ১০০এক্স স্পেস জুম এর মত অবাক করা সব ফিচারে ঠাসা স্যামসাং এস ২০ আল্ট্রা ফোনটি। ৫জি সাপোর্ট এর পাশাপশি র‍্যাম এবং ডিসপ্লের দিক দিয়েও এটি অতিক্রম করেছে পূর্বের সব রেকর্ড। ১৬ জিবি র‍্যাম এবং ৫১২ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ এর স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা চলবে স্যামসাং এর শক্তিশালী এক্সিনোস ৯৯০ চিপসেট দ্বারা। তবে গ্লোবাল ভার্সনে স্ন্যাপড্রাগন ৮৬৫ দ্বারা চলবে ফোনটি।

এছাড়াও ৪৮ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো এবং ১২ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রা-ওয়াইড সেন্সর এর পাশাপাশি ৪০ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরাও থাকছে ফোনটিতে। এতসব চোখ ধাঁধানো স্পেসিফিকেশন এর ফোন, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রাতে থাকছে ৫০০০ মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি।

স্মার্টফোন জগতে এক নতুন দিগন্তের সূচনা করেছে স্যামস্যাং গ্যালাক্সি এস২০ আল্ট্রা ফোনটি। তাই বিশ্বের সেরা স্মার্টফোনের তালিকার শীর্ষস্থানে অবস্থান করছে ফোনটি। এর সর্বনিম্ন দাম ১ লাখ ১০ হাজার টাকার মত। আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

আপনার কী মতামত? কমেন্টে জানান!

আপনি অনলাইনে যতগুলো স্মার্টফোন র‍্যাংকিং পাবেন, তা একটা আরেকটার সাথে মিলবেনা। এমনকি আপনার নিজের বিবেচনায়ও হয়ত আলাদা র‍্যাংকিং চলে আসবে। এই তালিকায় থাকা প্রতিটি ফোনই অসাধারণ। বিক্রেতাভেদে এদের দাম ভিন্ন হতে পারে। বাংলাটেক টোয়েন্টিফোর ডটকম থেকে প্রযুক্তি বিষয়ক আরো অনেক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইল ইনবক্সে পেতে এখানে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করে নিন।

তো, আপনার দৃষ্টিতে ২০২০ এর সেরা ফোন কোনটি? কমেন্টে জানিয়ে দিন! ধন্যবাদ।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,251 other subscribers

Comments