আইটেল ভিশন ৫ প্লাস ফোনে কম দামে বিশাল চমক – শাওমির সাথে লড়াই!

বর্তমান স্মার্টফোন বাজারের অবস্থার কথা কারোই অজানা নয়। অফিসিয়ালি ফোনগুলোর দাম ধাপে ধাপে বেড়েই চলেছে, আবার সাশ্রয়ী ফোনগুলোতে রয়েছে অসংখ্য কম্প্রোমাইজ। এমন অবস্থায় ভিশন ৫ প্লাস ডিভাইসটি নিয়ে এলো আইটেল যা হতে পারে ১৫হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে আপনার জন্য সেরা ফোন। এই পোস্টে আইটেল ভিশন ৫ প্লাস ফোনটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানবেন।

ডিজাইন ও ডিসপ্লে

ডিজাইন হলো আইটেল ভিশন ৫ প্লাস এর অন্যতম প্রধান আকর্ষণ। বাজেট ফোনগুলো যেখানে দাম কম রাখতে ডিজাইনে কমতি রাখছে, সেখানে আইটেল হেঁটেছে উল্টোপথে। দামে কম হলেও দেখতে বেশ অসাধারণ এই ফোনটি। সানশাইন ব্লু ও স্টারি ব্ল্যাক কালারে পাওয়া যাবে ফোনটি যার মধ্যে উভয়ই দেখতে বেশ অসাধারণ। ফোনের ব্যাক প্যানেল প্লাস্টিক হলেও দেখতে বেশ প্রিমিয়াম লাগে।

ফোনের ফ্রন্টে রয়েছে ৬.৬ইঞ্চির ফুলএইচডি প্লাস ডিসপ্লে। এই ডিসপ্লেটি একটি ভি শেপ এর নচযুক্ত ডিসপ্লে। ভালো ব্যাপার হচ্ছে এখানে ডিসপ্লের রেজ্যুলেশন হাই রাখা হয়েছে। এই বাজেটের অনেক ফোনে ৯০হার্জ রিফ্রেশ রেট দেখা যায়, তবে তার চেয়ে হাই রেজ্যুলেশনের ডিসপ্লে অধিক কাজে আসবে। ফোনের ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর স্থান পেয়েছে পাওয়ার বাটনে।

পারফরম্যান্স

আইটেল ভিশন ৫ প্লাস ফোনটি চলবে ইউনিসক টি৬০৬ অক্টা-কোর প্রসেসর দ্বারা। ইতিমধ্যে অনেক বাজেট ফোনে আমরা এই প্রসেসর দেখতে পেয়েছি। ফোনের দাম কম রাখার পাশাপাশি এই প্রসেসরের কল্যাণে ডিসেন্ট পারফরম্যান্স পাওয়া যায় দাম বিবেচনায়। অ্যান্ড্রয়েড ১২ দ্বারা চলবে ফোনটি, যাতে আইটেল ওএস এর দেখা পেয়ে যাবেন।

আইটেল ভিশন ৫ প্লাস ফোনটিতে ৪জিবি র‍্যাম ও ১২৮জিবি স্টোরেজ রয়েছে। এই দামের একটি ফোনে ১২৮জিবি স্টোরেজ প্রশংসার দাবি রাখে। এছাড়া ৩জিবি পর্যন্ত ভার্চুয়াল র‍্যাম ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে ফোনটিতে। সাধারণ গেমিং মোটামুটি ভালোভাবে হ্যান্ডেল করতে পারবে ফোনটি। তবে জেনে রাখা ভালো, ফোনটি কোনো গেমিং ফোন নয়।

ক্যামেরা

আইটেল ভিশন ৫ প্লাস ফোনটির ব্যাকে ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ রয়েছে। এখানে ১৬মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরার পাশাপাশি একটি ২মেগাপিক্সেল ও একটি ভিজিএ ক্যামেরা রয়েছে। প্রাইমারি ক্যামেরার ছবি দাম বিবেচনায় মানানসই বলা চলে। ফোনের ব্যাক ক্যামেরা দ্বারা ১০৮০পি ৩০এফপিএস ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরা দ্বারা ৫মেগাপিক্সেল সেল্ফি তোলা যাবে। এখানেও ১০৮০পি ৩০এফপিএস ভিভিও রেকর্ড করতে পারবেন যা বেশ ভালো একটি ফিচার। ফোনের ক্যামেরাতে বিউটি মোড এর পাশাপাশি আরো অনেক ফিচার পেয়ে যাবেন যা ব্যবহার করে ফোনের ক্যামেরার পরিপূর্ণ এক্সপেরিয়েন্স গ্রহণ করতে পারবেন।

itel Vision 5 Plus আইটেল ভিশন ৫ প্লাস

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

ব্যাটারি

আইটেল ভিশন ৫ প্লাস ফোনটিতে ৫০০০মিলিএম্প এর ব্যাটারি রয়েছে। ফোনের বক্সে পেয়ে যাবেন ১৮ওয়াট এর ফাস্ট চার্জার। ফুল চার্জে যেকোনো ধরনের ব্যবহারকারী একদিন ব্যাটারি ব্যাকাপ পেয়ে যাবেন ফোনটি থেকে। মজার ব্যাপার হলো এই ফোনের বক্সে ইয়ারফোনও পেয়ে যাবেন যা আজকাল কোনো ফোনেই নেই বললেই চলে।

দাম

আইটেল ভিশন ৫ প্লাস পাওয়া যাবে ৪জিবি র‍্যাম ও ১২৮জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে। আইটেল ভিশন ৫ প্লাস এর দাম ১৩,৬৯০টাকা। এই দামে ১২৮জিবি স্টোরেজ এর পাশাপাশি আরো বেশ কিছু অসাধারণ ফিচার অফার করছে ফোনটি যা বেশ প্রশংসার যোগ্য।

একনজরে আইটেল ভিশন ৫ প্লাস এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬ইঞ্চি ফুলএইচডি+
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক টি৬০৬
  • র‍্যামঃ ৪জিবি (+৩জিবি ভার্চুয়াল র‍্যাম)
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি
  • প্রাইমারি ক্যামেরাঃ ১৬মেগাপিক্সেল
  • সেল্ফি ক্যামেরাঃ ৫মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প
  • চার্জিংঃ ১৮ওয়াট
  • দামঃ ১৩,৬৯০টাকা

১৩,৬৯০টাকায় আপনার কাছে কেমন লেগেছে আইটেল ভিশন ৫ প্লাস? ফোনটি সম্পর্কে আপনার মতামত আমাদের জানাতে পারেন কমেন্ট সেকশনে।

👉 ভিডিওঃ স্মার্টফোন বেশি গরম হওয়া থেকে মুক্তির উপায়

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,636 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.