স্যামসাংয়ের বিরুদ্ধে গ্যালাক্সি এস৪ এ বেঞ্চমার্ক জালিয়াতির অভিযোগ

galaxy s 4 32423দক্ষিণ কোরীয় ইলেকট্রনিকস নির্মাতা স্যামসাং এর ফ্ল্যাগশিপ এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন গ্যালাক্সি এস৪ নির্মাণের ক্ষেত্রে কোম্পানিটির বিরুদ্ধে পারফর্মেন্স বেঞ্চমার্ক জালিয়াতির অভিযোগ তুলেছেন গবেষকরা। একদল স্বাধীন বিশেষজ্ঞ ডিভাইসটির গ্রাফিক্স প্রসেসিং স্পিড সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছেন। তারা বলছেন, স্যামসাং জিএস৪ এর চিপ তৈরির সময় এমন কিছু কৌশল ব্যবহার করেছে যাতে বাজারের বহুল ব্যবহৃত নির্দিষ্ট কয়েকটি বেঞ্চমার্কিং এপ্লিকেশন দ্বারা পরীক্ষা করার সময় এটি স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুত চলে। অর্থাৎ, বেঞ্চমার্ক এপ্লিকেশনে গ্যালাক্সি এস৪ যে জিপিইউ স্পিড দেখাবে, বাস্তবে সেটটি ব্যবহার করতে গেলে আপনি তার চেয়ে কম গতি পাবেন।

বিওন্ড থ্রিডি ফোরামে এরকম একটি পোস্ট আসার পর ইলেকট্রনিক চিপ টেস্টের জন্য সুপরিচিত সাইট এনান্ডটেকও বিষয়টি নিয়ে অনুসন্ধান করে এবং সেখানেও একই ফলাফল আসে- অর্থাৎ, জিএস৪ এর চিপে বাস্তবের চেয়ে বেঞ্চমার্ক পার্ফর্মেন্স বেশি দেখা গেছে।

গ্যালাক্সি এস ৪ এর আন্তর্জাতিক ভার্সনের সাথে এই অভিযোগটি সম্পর্কযুক্ত, যাতে কোম্পানিটির এক্সিনস ৫ অক্টা চিপ ব্যবহার করা হয়েছে। জিএল বেঞ্চমার্ক ২.৫.১, কোয়াড্রান্ট এবং এনটুটু সফটওয়্যারে টেস্ট করার সময় স্মার্টফোনটির জিপিইউ স্পিড পাওয়া যায় ৫৩২ মেগাহার্টজ। অথচ ফোনটিতে কাজ করার সময়, যেমন এডভান্স কোন গেম খেললে এতে সর্বোচ্চ স্পিড পাওয়া গেছে ৪৮০ মেগাহার্টজ। অর্থাৎ, ডিভাইসটি প্রকৃত দক্ষতার চেয়ে ১১% বেশি বেঞ্চমার্ক প্রদর্শন করে।

কিন্তু উপরোক্ত ঘটনায় স্যামসাং নিজেদেরকে নির্দোষ বলে দাবি করেছে। কোম্পানিটির পক্ষ থেকে ইস্যুকৃত এক স্টেটমেন্টে জিপিইউ স্পিডের প্রাপ্ত তারতম্যের ব্যাপারটি স্বীকার করা হলেও তারা বলেছে সর্বোচ্চ ৫৩৩ মেগাহার্টজ স্পিড মূলত ফুলস্ক্রিন মুডে চলা বিশেষ কিছু এপের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে, যেমন ক্যামেরা, গ্যালারি, এস ব্রাউজার এবং নির্দিষ্ট কয়েকটি বেঞ্চমার্কিং সফটওয়্যার।

যাইহোক, গ্যালাক্সি এস ৪ এর এই জিপিইউ অপটিমাইজেশন প্রযুক্তি বিশ্বে ভালভাবে নেয়া হয়নি। যদিও অনেকে স্যামসাংয়ের “ট্রিক”কে প্রতারণা বলে অভিহিত করেছেন, তবে এতে হ্যান্ডসেটটির বিক্রির ওপর তেমন একটা প্রভাব পড়বেনা বলেই মনে করেন কোন কোন বিশ্লেষক।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,980 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.