ইনফিনিক্স হট ২০এস এলো সাধ্যের মধ্যে দারুণ সুবিধা নিয়ে

সারা বিশ্বের স্মার্টফোন বাজারে বর্তমানে রীতিমতো আগুন লেগেছে বললেও ভুল হবেনা। আগে মানুষ কমদামে ফোন কিনতে আনঅফিসিয়াল ফোনের দিকে ঝুঁকত, কিন্তু বর্তমানে অফিসিয়াল আনঅফিসিয়াল সকল ফোনের দাম বেড়েছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে, যার ফলে বাজেট ক্রেতাদের বেশ মুশকিলে পড়তে হচ্ছে ফোন কেনার সময় সিদ্ধান্ত গ্রহণে।

এমন সময় ইনফিনিক্স নিয়ে এলো একটি মিড-রেঞ্জ বাজেটের অসাধারণ ফোন যা হতে পারে বাজেট ক্রেতাদের কাছে স্বস্তির নিঃশ্বাস। কথা বলছি ইনফিনিক্স হট ২০এস ফোনটি সম্পর্কে। দাম কম হলেও অসাধারণ সব ফিচারে ভর্তি এই ফোনটি। বাজেট ফোন হলেও কোনো ফিচারে কমতি নেই এই ফোনে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ইনফিনিক্স হট ২০এস সম্পর্কে বিস্তারিত।

ডিজাইন ও ডিসপ্লে

ডিজাইনের দিক দিয়ে বাজেট সেগমেন্টে বাজারের অন্য ফোনগুলোর চেয়ে কিছুটা নতুনত্ব আনার চেষ্টা করে থাকে ইনফিনিক্স। সেই ধারা বজায় থাকছে ইনফিনিক্স হট ২০এস ফোনটির ক্ষেত্রেও। বক্স টাইপের ডিজাইনের ফোনটির ব্যাকে সুন্দরভাবে স্থান পেয়েছে ট্রিপল ব্যাক ক্যামেরা সেটাপ।

বাজারের অন্য সব বাজেট ফোনের চেয়ে আলাদা ধাঁচের এই ডিজাইন অনেকটা স্ট্যান্ড-আউট করে বলতেই হবে। ফোনের ফ্রন্টে পাঞ্চ হোল ক্যামেরা রয়েছে। অর্থাৎ ফোনটির ফ্রন্ট ও ব্যাকে বেশ মডার্ন ডিজাইন রেখেছে কোম্পানিটি। এবার আসি এই ফোনের প্রথম আকর্ষণ, এর ডিসপ্লে সেকশনে। ৬.৭৮ইঞ্চির ফুলএইচডিপ্লাস ডিসপ্লে রয়েছে ইনফিনিক্স হট ২০এস ফোনটিতে। এখানে মাথানষ্ট সংযোজন হলো ১২০হার্জ রিফ্রেশ রেট।

২০ হাজার টাকা দামের ফোনে এই ফিচার এই প্রথম দেখা যাচ্ছে। আবার হাই রিফ্রেশ রেট ফিচার এড করতে গিয়ে লো রেজ্যুলেশনের ডিসপ্লেও প্রদান করেনি ইনফিনিক্স যা প্রশংসার যোগ্য বটে। ইনফিনিক্স এই ডিসপ্লেকে বলছে হাইপারভিশন গেমিং-প্রো ডিসপ্লে, যাতে ভ্যারিয়েবল রিফ্রেশ রেট রয়েছে।

পারফরম্যান্স

বর্তমানে বাজেট ফোনগুলোর সবচেয়ে বড় কমতি থাকে এর পারফরম্যান্স ডিপার্টমেন্টে। তবে ইনফিনিক্স হট ২০এস এর ক্ষেত্রে এই বিষয়টি আলাদা। এখানে মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৬ প্রসেসর রয়েছে যা এর আগে আমরা ২০হাজার টাকার চেয়ে অধিক দামের ফোনে দেখেছি।

ইনফিনিক্স হট ২০এস ফোনটির হেলিও জি৯৬ প্রসেসর কিন্তু বেশ শক্তিশালী। পারফরম্যান্সের দিক দিয়ে হেলিও জি৯৬ অনেকটা স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি প্রসেসরের সমান যা আমরা ৩০হাজার টাকা দামের ফোনেও দেখতে পাই। সহজ ভাষায় বলতে গেলে এই দামে এই প্রসেসর পুরোই পয়সা উসুল বলা চলে।

ইনফিনিক্স হট ২০এস ফোনটিতে ৮জিবি র‍্যাম ও ১২৮জিবি স্টোরেজ থাকছে। ভার্চুয়াল র‍্যাম এর কল্যাণে র‍্যাম ১৩জিবি পর্যন্ত এক্সটেন্ড করা যাবে। আবার ডেডিকেটেড এসডি কার্ড স্লট ব্যবহার করে স্টোরেজ বাড়ানোর সুযোগও রয়েছে।

ইনফিনিক্স হট ২০এস ফোনটিতে ব্যাটারি রয়েছে ৫০০০মিলিএম্প এর। ১৮ওয়াট ফাস্ট চার্জার পেয়ে যাবেন ফোনের বক্সে। এই ফোন আবার ৫ওয়াট রিভার্স চার্জিংও সাপোর্ট করে। অ্যান্ড্রয়েড ১২-বেসড এক্সওএস ১২ দ্বারা চলবে ফোনটি। এছাড়া ফোনটিতে স্টিরিও স্পিকার ও সাইড-মাউন্টেড ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সরও রয়েছে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

Infinix Hot 20S

👉 ইনফিনিক্স মোবাইলের দাম

ক্যামেরা

এবার আসি ইনফিনিক্স হট ২০এস এর ক্যামেরা ডিপার্টমেন্টে। ৫০মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ রয়েছে ফোনটিতে। ৫০মেগাপিক্সেল মেইন সেন্সরের পাশাপাশি দুইটি ২মেগাপিক্সেল হেল্পিং সেন্সর রয়েছে। সর্বোচ্চ ১৪৪০পি রেজ্যুলেশনে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে এই ক্যামেরা দ্বারা। ফোনের ফ্রন্টে ৮মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে যা দ্বারা ১০৮০পি রেজ্যুলেশনে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। অর্থাৎ ক্যামেরা ডিপার্টমেন্টে কোনো কমতি রাখেনি ইনফিনিক্স। 

দাম

ইতিমধ্যে জেনেছেন ফোনটি ৮জিবি র‍্যাম ও ১২৮জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে। দেশের বাজারে অফিসিয়ালি ইনফিনিক্স হট ২০এস এর দাম ১৮,৯৯৯টাকা। আমরা মনে করি এই দামে এই ফোনটি একটি অসাধারণ ডিল, আপনার কাছে ফোনটি কেমন লেগেছে তা জানাতে পারেন কমেন্ট সেকশনে।

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,561 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *