ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহারের নিয়ম

মেসেঞ্জার হলো ফেসবুক তথা মেটা এর মালিকানাধীন একটি ইন্সট্যান্ট মেসেজিং সার্ভিস। ২০১১ সালের আগস্ট মাসে চালু হওয়া এই সার্ভিস “ফেসবুক চ্যাট” এর বদলে যাত্রা শুরু করে। ফেসবুক একাউন্ট থাকলে যেকেউ মেসেঞ্জার ব্যবহার করতে পারেন।

বাংলাদেশে মেসেঞ্জার একটি ব্যাপক পরিচিত মেসেজিং অ্যাপ। চলুন জেনে নেওয়া যাক মেসেঞ্জার ব্যবহারের নিয়ম, মেসেঞ্জারের ফিচার, ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত।

ফেসবুক মেসেঞ্জার ডাউনলোড

ফেসবুক মেসেঞ্জার (Facebook Messenger) ব্যবহার করা যাবে অ্যান্ড্রয়েড, আইওএসডেস্কটপ অ্যাপ থেকে। এছাড়াও messenger.com ভিজিট করে কম্পিউটার থেকে ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে মেসেঞ্জার ব্যবহার করা যাবে। আবার অ্যাপল এর অ্যাপল ওয়াচেও মেসেঞ্জার ব্যবহার করা যায়।

কিছু ব্রাউজারে দ্রুত মেসেঞ্জার অ্যাকসেস করার জন্য এড-অন রয়েছে। যদিওবা এসব এক্সটেনশন ফেসবুকের তরফ থেকে অফিসিয়াল টুল নয়, তবে এসব ব্যবহার করে বিনামুল্যে মেসেঞ্জার ব্যবহার করা যায়। যেমনঃ ফায়ারফক্স ব্যবহারকারীগণ “Messenger for Facebook” এড-অন ব্যবহার করে মজিলা ফায়ারফক্স ব্যবহার করে অন্য সাইট ভিজিট করার সময়েও মেসেঞ্জার ব্যবহার করতে পারবেন।

মেসেঞ্জারের ফিচারসমুহ

মেসেঞ্জারে ফিচারের সংখ্যা গুণতে গেলে খুব বেশি না হলেও প্রতিটি ফিচার বেশ কাজের। চলুন জেনে নেওয়া যাক মেসেঞ্জারের গুরুত্বপূর্ণ সকল ফিচার সম্পর্কে বিস্তারিত।

টেক্সট, ছবি, বা ভিডিও পাঠানো

মেসেঞ্জার একটি টেক্সটিং অ্যাপ, যা ওয়ান-অন-ওয়ান বা গ্রুপ মেসেজিংয়ের জন্য ব্যবহার করা যায়। পাশাপাশি মেসেঞ্জার ব্যবহার করে ছবি ও ভিডিও পাঠানো সম্ভব। এছাড়াও বিল্ট-ইন ইমোজি, স্টিকার ও গিফসমুহ ব্যবহার করা যায় কনভার্সেশনে।

মেসেঞ্জারে সুবিধাজনক একটি ফিচার হলো যখন কোনো চ্যাটে কেউ টাইপ করতে থাকে, মেসেজ ডেলিভার হয় কিংবা কেউ মেসেজ পড়ে; প্রতিটি বিষয়ের জন্য আলাদা ইন্ডিকেটর রয়েছে। এছাড়াও কোনো মেসেজ কখন পাঠানো হয়েছে ও কখন পড়া হচ্ছে বা সিন করা হচ্ছে, সেটিও টাইমস্ট্যাম্পসহ দেখানো হয়।

ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহার করে কাউকে মেসেজ পাঠাতে হলে আপনি অনেক ভাবে সেটা করতে পারেন। যেমনঃ

  • কম্পিউটার বা মোবাইল ব্রাউজারে ফেসবুক সাইট ভিজিট করে সেখানে প্রাপ্ত মেসেঞ্জার বা মেসেজেস অপশন থেকে
  • ফেসবুক লাইট অ্যাপের মধ্যে থাকা মেসেঞ্জার অপশন থেকে
  • কম্পিউটার বা মোবাইল ব্রাউজার থেকে মেসেঞ্জার ডটকম সাইট ভিজিট করে
  • মোবাইল বা কম্পিউটারে মেসেঞ্জার অ্যাপ ব্যবহার করে

মোবাইলে যে মূল ফেসবুক অ্যাপ আছে সেই অ্যাপে মেসেঞ্জার ফিচার বিল্ট-ইন নেই। আপনাকে আলাদাভাবে মেসেঞ্জার অ্যাপ ডাউনলোড করে নিতে হবে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

আপনি যদি কোনো ফেসবুক ব্যবহারকারীকে মেসেঞ্জারে মেসেজ পাঠাতে চান, তাহলে প্রথমে তার ফেসবুক প্রোফাইল ভিজিট করুন। তার নামের নিচে মেসেজ অপশন দেখতে পাবেন।

ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহারের নিয়ম

আপনি যদি মোবাইলে মেসেঞ্জার অ্যাপ ব্যবহার করেন, তাহলে ফেসবুকের ঐ প্রোফাইলের নিচে মেসেজ বাটনে ক্লিক করলে মেসেঞ্জার অ্যাপ ওপেন হবে। তখন মেসেজ লেখার অপশন পাবেন।

মেসেঞ্জারে মেসেজ পাঠানোর নিয়মঃ

  • মেসেঞ্জার অ্যাপ কিংবা ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন
  • Chats ট্যাবে ট্যাপ করুন ও যাকে মেসেজ দিতে চান, তার নাম সিলেক্ট করুন। এছাড়া টপবারে থাকা সার্চ এর মাধ্যমেও কাংখিত ব্যাক্তির আইডি খুঁজে নিতে পারেন
  • নতুন কাউকে মেসেজ করতে চাইলে অ্যাপের ডানদিকের টপ কর্নারে থাকা পেন্সিল আইকনে ট্যাপ করুন
  • এরপর যাকে মেসেজ করতে চান, তার একাউন্ট সিলেক্ট করুন। একাধিক আইডি সিলেক্ট করার মাধ্যমে গ্রুপ মেসেজ ও তৈরি করতে পারবেন
  • চ্যাটের বোটমে থাকা টেক্সটবক্সে কাংখিত মেসেজ টাইপ করুন ও পাশে থাকা পেপার এয়ারপ্লেন আইকনে ট্যাপ করে মেসেজ সেন্ড করুন
ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহারের নিয়ম

মেসেজ পাঠানো মেসেজ কেউ পড়লে মেসেজ স্ট্যাটাস দেখানো হয়। যেমনঃ

  • শুধুমাত্র নীল রংয়ের সার্কেল মানে হলো উক্ত মেসেজ সেন্ড হচ্ছে
  • টিক চেকমার্কসহ নীল সার্কেল মানে উক্ত মেসেজ সেন্ড হয়েছে
  • টিক চেকমার্কসহ সম্পূর্ণ নীল সার্কেলের মানে হলো উক্ত মেসেজ কাংখিত ব্যাক্তির ডিভাইসে গিয়ে পৌছেছে
  • পাঠানো মেসেজ পড়া হলে যাকে মেসেজ পাঠানো হয়েছে তার প্রোফাইল পিকচার ছোট করে মেসেজ এর পাশে দেখানো হয়

👉 ফেসবুক মেসেঞ্জার থেকে মেসেজ মুছে ফেলার উপায়

মেসেঞ্জারে ছবি বা ভিডিও পাঠানোর নিয়মঃ

  • কোনো চ্যাটে প্রবেশ করে ক্যামেরা বাটন বা গ্যালরি বাটন ট্যাপ করে ছবি বা ভিডিও পাঠানো যাবে
  • ক্যামেরা বাটন ট্যাপ করলে সরাসরি ফোনে ছবি তুলে বা ভিডিও রেকর্ড করে পাঠানো যাবে
  • গ্যালারি বাটনে ট্যাপ করলে ফোনে থাকা ছবি বা ভিডিও সিলেক্ট করা যাবে ও এরপর Send এ ট্যাপ করলে সিলেক্ট করা ছবি বা ভিডিও পাঠানো যাবে

এছাড়াও টেক্সটবক্সের পাশে থাকা স্মাইলি আইকনে ট্যাপ করে গিফ (Gif), স্টিকার, ইত্যাদি পাঠানো যাবে।

ফেসবুকের মতো একইভাবে মেসেঞ্জারের চ্যাটে আসা মেসেজসমুহে রিয়েক্ট করা যায়। মেসেঞ্জারের মাধ্যমে অডিও ও ভিডিও শেয়ার করার আরেকটি সুবিধা হলো সেন্ড করা ও রিসিভ করা সকল মিডিয়া ক্লাউড ইনবক্সে জমা থাকে। অর্থাৎ ডিভাইস পরিবর্তন করলেও পাঠানো মিডিয়া সংরক্ষিত থাকে।

👉 ফেসবুক ডার্ক মোড চালু করার নিয়ম

ফেসবুক একাউন্টে আসা সকল মেসেজ মেসেঞ্জারে সেভ হয়ে থাকে। এছাড়াও কোনো মেসেঞ্জারে কোনো চ্যাট ডিলিট করলে ফেসবুকেও সেই চ্যাট ডিলেট হয়ে যায়। “Ignore Messages” ফিচার এর মাধ্যমে বিরক্তিকর কনটাক্ট বা গ্রুপসমুহ এড়িয়ে চলা সম্ভব। তবে অধিকাংশ স্পাম মেসেজ বা ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট একসেপ্ট না করা একাউন্টের মেসেজ “Message Requests” এ এসে জমা হয় যা মেসেঞ্জার থেকে প্রোফাইল আইকন সিলেক্ট করে “Message Requests” এ ট্যাপ করলে দেখতে পাবেন।

ভয়েস ও ভিডিও কল

টেক্সিং এর পাশাপাশি অডিও ও ভিডিও কল হলো মেসেঞ্জার এর জনপ্রিয় ফিচার। মোবাইল অ্যাপ ও ডেস্কটপ ভার্সন, উভয় ক্ষেত্রেই অডিও ও ভিডিও কল কাজ করে। বিনামূল্যে অডিও ও ভিডিও কল ফিচার প্রদানের মাধ্যমে মেসেজিং অ্যাপ এর পাশাপাশি ইন্টারনেট কলের অন্যতম প্রধান অ্যাপে পরিণত হয়েছে মেসেঞ্জার। মেসেঞ্জারে কাউকে কল করতেঃ

  • মেসেঞ্জার অ্যাপে প্রবেশ করে Chats ট্যাব থেকে কিংবা সার্চ করে কাংখিত কনটাক্ট খুঁজে বের করুন
  • এরপর চ্যাটের টপে থাকা উক্ত ব্যাক্তির নামের পাশে অডিও ও ভিডিও কলের বাটন দেখতে পাবেন
ফেসবুক মেসেঞ্জার ব্যবহারের নিয়ম
  • এখানে প্রথম বাটনটি ব্যবহার করে অডিও কল করা যাবে
  • দ্বিতীয় বাটনটি ট্যাপ করে ভিডিও কল করা যাবে

অডিও মেসেজ

টেক্সট মেসেজ কিংবা কল – দুটির কোনোটিই আপনার পছন্দের না হলে মেসেঞ্জারের ভয়েস মেসেজ বেশ কাজে আসতে পারে। যেকোনো চ্যাটে মাইক বাটন ট্যাপ করলে রেকর্ডিং শুরু হয় ও রেকর্ড শেষ হলে উক্ত ভয়েস মেসেজ ডিলিট বা চ্যাটে সেন্ড করা যায়। টাইপ করতে না চাইলে বা বিরক্ত লাগলে ভয়েস মেসেজ একট স্বস্তিদায়ক সংযোজন হতে পারে।

👉 ফেসবুক মেটাভার্স এর নতুন ফিচারগুলো জেনে নিন

ব্লকিং

কনটাক্টদের ব্লক করার ফিচার দিয়েছে মেসেঞ্জার। এছাড়াও আবার আনব্লক ও করা সম্ভব। মেসেঞ্জারে কাউকে ব্লক করতে চাইলেঃ

  • মেসেঞ্জারে প্রবেশ করে কাংখিত ব্যাক্তির একাউন্ট সিলেক্ট করুন
  • এরপর উক্ত চ্যাটের টপে থাকা কল বাটনসমূহের পাশে থাকা ইনফরমেশন (i) আইকনে ট্যাপ করুন
  • নিচে স্ক্রলে করে৷ Block এ ট্যাপ করুন
ফেসবুক মেসেঞ্জারে ব্লক করার নিয়ম
  • উক্ত ব্যাক্তিকে শুধুমাত্র মেসেঞ্জারে ব্লক করতে “Block on messenger” ও ফেসবুকেও ব্লক করতে “Block on Facebook” সিলেক্ট করুন

ব্লক করা ব্যাক্তিকে আনব্লক করতেঃ

  • মেসেঞ্জারে প্রবেশ করে নিজের প্রোফাইল পিকচারে ট্যাপ করুন
  • Privacy সিলেক্ট করুন
  • এরপর Blcoked Accounts এ প্রবেশ করুন
  • এখন মেসেঞ্জারে ব্লক করার ব্যাক্তিদের তালিকা দেখতে পাবেন, যেখান থেকে তাদের আনব্লক করতে পারবেন

👉 ফেসবুক এবং মেসেঞ্জারে বিরক্তিকর লোকজন ব্লক করার উপায়

টাকা পাঠানো

ডেবিট কার্ডের তথ্য ব্যবহার করে মেসেঞ্জারে বন্ধু বা পরিবার ও ব্যবসাসমূহের কাছে অর্থ পাঠানো সম্ভব। মোবাইল অ্যাপ ও ডেস্কটপ ভার্সন, উভয়েই এই ফিচারটি কাজ করে। তবে বাংলাদেশে এখনো মেসেঞ্জারের মাধ্যমে পেমেন্ট এর ফিচারটি আসেনি।

মেসেঞ্জারে পেমেন্ট করতে বা অর্থ লেনদেন করতে প্রথমে ফেসবুক পে (Facebook Pay) সেট করতে হয়। এরপর যেকোনো চ্যাটে গিয়ে মেন্যু থেকে Send Money সিলেক্ট করে টাকা পাঠানো বা টাকার জন্য অনুরোধ জানানো যায়। এছাড়াও কোনো কিছুর পেমেন্ট চাইতে দামসহিত বার্তা পাঠিয়ে পেমেন্ট রিকোয়েস্ট পাঠানো যায়। ট্রানজেকশন সম্পর্কে মনে রাখতে শর্ট মেমোও রাখা যায়।

লোকেশন শেয়ারিং

ঠিকই শুনেছেন! মেসেঞ্জার অ্যাপের মাধ্যমে লোকেশন শেয়ারিং ও সম্ভব। আপনার লোকেশন কারো সাথে শেয়ার করতে চাইলে মেসেঞ্জারের এই ফিচারটি ব্যবহার করে খুব সহজে তা করতে পারবেন। মেসেঞ্জারের বিল্ট-ইন লোকেশন শেয়ারিং ফিচার শুধুমাত্র মোবাইল অ্যাপে কাজ করে।

মেসেঞ্জার থেকে শেয়ার করা লোকেশন এক ঘন্টা পর্যন্ত লাইভ লোকেশন প্রদানে সক্ষম। যেকোনো চ্যাট এর বোটম মেন্যু সিলেক্ট করে Location এ ট্যাপ করে প্রদত্ত নির্দেশনা অনুসারে লোকেশন শেয়ার করা যাবে। মেসেঞ্জারে লোকেশন শেয়ার করতেঃ

  • মেসেঞ্জারে প্রবেশ করে কাংখিত চ্যাট সিলেক্ট করুন
  • স্ক্রিনের বোটমে থাকা চারটি ডটযুক্ত/প্লাস বাটনে ট্যাপ করুন
  • এরপর Location অপশন সিলেক্ট করুন
ফেসবুক মেসেঞ্জারে লোকেশন শেয়ারিং
  • আপনার লোকেশন শেয়ার করতে Share Live Location এ ট্যাপ করুন, যা পরবর্তী ৬০মিনিট ধরে আপনার লোকেশন উক্ত কনটাক্টের সাথে শেয়ার করবে
  • এছাড়াও ডানদিকের কর্নারে থাকা পুশপিন আইকন ব্যবহার করে অন্য যেকোনো লোকেশন ও শেয়ার করা যাবে

👉 ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়

গ্রুপ মেসেজ

মেসেঞ্জারে সর্বোচ্চ ২৫০ জনকে নিয়ে গ্রুপ চ্যাট খোলা সম্ভব। মেসেঞ্জার গ্রুপসমুহের নাম থেকে শুরু করে ডিফল্ট ইমোজি, কালার, থিম, ইত্যাদি পরিবর্তন করা যায়। এছাড়াও গ্রুপের মেম্বারদের আলাদা নিকনেম দেওয়া যায়।

মেসেঞ্জারে নতুন গ্রুপ খুলতে অ্যাপে প্রবেশ করে ডানদিকে উপরের কর্নারে থাকা পেন্সিল আইকনে ট্যাপ করুন ও “Create a new group” অপশনটি সিলেক্ট করুন। এরপর যাদেরকে গ্রুপে এড করতে চান, তাদের একাউন্ট সিলেক্ট করে Next চাপুন। পরবর্তী নির্দেশনা অনুসরণ করে মেসেঞ্জার গ্রুপ খোলার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করুন। সাধারণ চ্যাটের মত গ্রুপের সকল ফিচার কাস্টমাইজ করা যায়।

ফেসবুক মেসেঞ্জার

নোটিফিকেশন ও রিংটোন

মেসেঞ্জারের নোটিফিকেশন ও রিংটোন সেকশন নিজের পছন্দের মতো সাজানোর সুযোগ রয়েছে। একজন ব্যবহারকারী চাইলে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ফেসবুকের নোটিফিকেশন বন্ধ রাখতে পারেন। নোটিফিকেশন সেটিংস মোবাইল অ্যাপ ও ডেস্কটপ অ্যাপ, উভয় ক্ষেত্রেই একইভাবে কাজ করে।

আবার কোনো চ্যাটে প্রবেশের পর মেন্যুতে গেলে উক্ত চ্যাটের জন্য আলাদাভাবে নোটিফিকেশন সেট করতে পারবেন। চাইলে যেকোনো গ্রুপ বা ব্যাক্তির মেসেজের নোটিফিকেশন বন্ধ রাখতে পারবেন মেসেঞ্জারে। মেসেঞ্জারের নোটিফিকেশন এডজাস্ট করতেঃ

  • মেসেঞ্জার অ্যাপে প্রবেশ করে প্রোফাইল পিকচার ট্যাপ করুন
  • এরপর Notifications & Sound এ ট্যাপ করুন
  • এখান থেকে মেসেঞ্জারে আসা মেসেজ থেকে শুরু করে কল পর্যন্ত সবকিছুর নোটিফিকেশন নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

নতুন কনটাক্ট এড করা

মেসেঞ্জারে নতুন কনটাক্ট এড করার সবচেয়ে সেরা উপায় হলো ফেসবুকে ফ্রেন্ড হওয়া। তবে ফেসবুক ফ্রেন্ড হওয়া ছাড়াও মেসেঞ্জারে পাঠানো মেসেজের রিপ্লাই করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেঞ্জারে এড হয়ে যায়। এছাড়াও মেসেঞ্জার একটি কাস্টম কোড প্রদান করে, যা স্ক্যান করে যেকেউ মেসেঞ্জারে আপনাকে এড করতে পারবে।

👉 ফ্রি ফেসবুক অফারঃ বিনামূল্যে ব্যবহার করুন ফেসবুক!

এডিটর

মেসেঞ্জার ব্যবহার করে টুকটাক ছবি ও ভিডিও এডিটিং করা যায়। ছবি বা ভিডিও ক্রপ/ট্রিম করা, টেক্সট এড করা, বা ব্রাশ দিয়ে আকিঁবুকিঁ করতে এই এডিটিং টুল ব্যবহার করা যায়।

সিক্রেট কনভারসেশন

মেসেঞ্জারের কনভারসেশনকে বাড়তি মাত্রার সুরক্ষা প্রদান করে “Secret Conversations” ফিচারটি। এটি ব্যবহার করে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপটেড মেসেজিং সম্ভব। যেকোনো চ্যাটের অপশনে সিক্রেট কনভারসেশন শুরু করার ফিচার দেখতে পাবেন।

👉 ফেসবুক মেসেঞ্জারের ভ্যানিশ মোড নিজ থেকেই মেসেজ মুছে ফেলবে

ফেসবুক ছাড়া মেসেঞ্জার ব্যবহার

পুর্বে ফেসবুক ও মেসেঞ্জার অনেকটা আলাদা সার্ভিস ছিলো। তখন ফোন নাম্বার ব্যবহার করে আলাদাভাবে মেসেঞ্জার একাউন্ট খোলা সুযোগ ছিলো। তবে বর্তমানে মেসেঞ্জার ব্যবহার করতে হলে ফেসবুক একাউন্ট থাকা আবশ্যক। তবে ফেসবুক একাউন্ট দিয়ে মেসেঞ্জার একটিভ করার পর উক্ত ফেসবুক একাউন্ট ডিসেবল করে দিলেও মেসেঞ্জার ব্যবহার করা যাবে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,268 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.