২০ লাখের বেশি হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট বন্ধ হলো – সাবধান হোন আপনিও

User Safety Monthly Report অনুসারে জুন মাসে ব্যান করা হয় ২০লক্ষের অধিক হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট, তাও কেবলমাত্র ভারতে। একইভাবে ফেসবুকে ২৫লক্ষ ছবি, ভিডিও, পোস্ট, কমেন্ট, ইত্যাদি কনটেন্ট ন্যুডিটি / সেক্সুয়াল একটিভিটি এর কারণ দেখিয়ে সরিয়ে নেয় ফেসবুক। ইন্সটাগ্রাম থেকে একই কারণে একই মাসে বাদ পড়ে ৬১৯,৫০০টি কনটেন্ট।

হোয়াটসঅ্যাপ মোট ৬৩২টি রিপোর্ট পায় ব্যবহারকারী থেকে, যার মধ্যে ৪২৬টি ছিলো ব্যান অ্যাপিল ও ৬৪টির ক্ষেত্রে তৎক্ষনাৎ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। সব মিলিয়ে উক্ত সময়ে ভারতে ২.২১মিলিয়ন একাউন্ট ব্যান করে হোয়াটসঅ্যাপ। অন্যদিকে মে মাসে ১.৯মিলিয়ন একাউন্ট একই কারণে ব্যান করে দেয় হোয়াটসঅ্যাপ।

ব্যবহারকারী দ্বারা দায়ের করা রিপোর্ট এর পাশাপাশি নিজেদের এলগরিদম ও টুলস ব্যবহার করেও হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্টের স্ট্যাটাস ঠিক করে। প্ল্যাটফর্মটির মাধ্যমে যাতে কোনো ধরনের কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট ছড়িয়ে না যায়, তার খেয়াল রাখতে প্রতি মাসে প্রচুর পরিমাণে একাউন্ট ব্যান করে হোয়াটসঅ্যাপ। 

এডাল্ট ন্যুডিটি, বুলিয়্যিং, হ্যারাসমেন্ট, সন্ত্রাস, হেইট স্পিচ সহ অন্তত ১৩ ধরনের পলিসি রয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামে। কোনো ধরনের স্প্যাম বা গ্রাফিক্যাল কনটেন্ট ছড়িয়ে পড়া থেকে রক্ষা করে এসব পলিসি। তাই নিজের হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান থেকে বাঁচাতে চাইলে অবশ্যই কোনো ধরনের অপব্যবহার থেকে দূরে থাকুন।

হোয়াটসঅ্যপ একাউন্ট যেসব কারণে ব্যান হতে পারে, সে সম্পর্কে আমাদের একটি ডেডিকেটেড পোস্ট রয়েছে। উক্ত পোস্টে হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট যে কারণে ব্যান করা দেওয়া হতে পারে সে সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করা হয়েছে। সবার উচিত হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট কেনো ব্যান হয়ে পারে সে সম্পর্কে জ্ঞান রাখা।

হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হতে পারে যেসব কারণে সেসব কারণ জানতে এখানে ক্লিক করুন। উল্লেখিত কারণগুলো জেনে নিয়ে উল্লেখিত কাজগুলো থেকে দূরে থাকুন ও আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্টকে ব্যান থেকে রক্ষা করুন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,261 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.