হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট বন্ধ হতে পারে যেসব কারণে

মেসেজিং অ্যাপগুলোর মধ্যে হোয়াটসঅ্যাপ এর আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তার কথা কারোই অজানা নয়। ইন্সট্যান্ট যোগাযোগ হোক কিংবা ভিডিও কল, সব ক্ষেত্রে প্রচুর পরিমাণে ব্যবহৃত হয়ে থাকে হোয়াটসঅ্যাপ। তবে প্ল্যাটফর্মটিতে রয়েছে কিছু নিয়ম-কানুন যা সকলের জন্য মেনে চলা বাধ্যতামূলক। আবার এসব নিয়ম ভঙ্গ করার কারণে বিভিন্ন শাস্তি ভোগ করতে হতে পারে।

এমন কিছু কাজ আছে যেগুলো করার কারণে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান বা বন্ধ হয়ে যেতে পারে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি কারণে হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হতে পারে, এসব কারণ জেনে নিয়ে এগুলা করা থেকে দূরে থেকে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্টকে নিরাপদ রাখুন।

অফিসিয়াল অ্যাপ ব্যবহার না করা

অফিসিয়াল হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপ ছাড়াও থার্ড পার্টি অ্যাপের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করা যায়। হোয়াটসঅ্যাপ প্লাস বা জিবি হোয়াটসঅ্যাপ, এই ধরনের কিছু অ্যাপ রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ অফিসিয়াল অ্যাপ ছাড়াই হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যবহার করা যায়। সম্প্রতি এই ধরনের অ্যাপগুলোর মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করলে হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্লক করে দেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে।

অফিসিয়াল অ্যাপ ব্যবহার করে প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহারের পরামর্শ প্রদান করে কতৃপক্ষ। থার্ড-পার্টি অ্যাপের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করার বিষয়টি হোয়াটসঅ্যাপ কতৃপক্ষ ডিটেক্ট করতে পারলে প্রথমে ওয়ার্নিং দেওয়া হয় ও পরবর্তীতে একাউন্ট ব্যান করাও হতে পারে। তাই হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান থেকে বাঁচাতে থার্ড-পার্টি অ্যাপের মাধ্যমে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন।

অতিরিক্ত গ্রুপ তৈরী করা

গ্রুপ হোয়াটসঅ্যাপের একটি অন্যতম ফিচার। কিন্তু অল্প সময়ের মধ্যে কোনো কারণ ছাড়া গ্রুপ খুলে সেখানে অন্যদের এড করার কারণে হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হয়ে যেতে পারে। তাই অযথা হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ তৈরী করা থেকে বিরত থাকুন।

থার্ড পার্টিকে মেসেজ পাঠানো

আপনার কন্টাক্ট এ নেই এমন ব্যক্তিদের সাথে অতিরিক্ত যোগাযোগের কারণে অনেক সময় হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হয়ে যেতে পারে। তাই পরিচিত ও ফোনে সেভ আছে এমন ব্যক্তিদের সাথে যোগাযোগের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকাটা সবচেয়ে বুদ্ধিমানের কাজ। নম্বর সেভ না করে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ ও কল দেয়ার উপায় আমরা অনেকেই জানি। কিন্তু এই সুবিধাটির অতিরিক্ত ব্যবহার যাতে না হয় সেটাও খেয়াল রাখা দরকার।

ব্রডকাস্ট লিস্ট এর অপব্যবহার

কোনো উৎসব বা ইভেন্ট সম্পর্কে সবাইকে জানাতে, কিংবা কোনো খুশির দিনে সবাইকে উইশ করতে ব্রডকাস্ট লিস্ট ফিচারটি ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এই ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত মেসেজ পাঠানোর কারণে হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট কোনো নোটিশ ছাড়াই ব্যান হয়ে যেতে পারে। ব্রডকাস্ট লিস্ট ফিচারটির মূল লক্ষ্য অসংখ্য মানুষকে একই মেসেজ পাঠানো হলেও এই ফিচারের অপব্যবহারের কারণে আপনার একাউন্ট ব্যান করা হতে পারে।

একই মেসেজ বারবার পাঠানো

একই মেসেজ সবাইকে বারবার পাঠানো থেকে বিরত থাকুন, এই বিষয়টি হোয়াটসঅ্যাপের নজরে এলে খুব দ্রুত একাউন্ট ব্যান হয়ে যেতে পারে। তাই মেসেজ কপি-পেস্ট করে সবার ইনবক্সে একই মেসেজ পাঠিয়ে অন্যদের বিরক্ত করা থেকে বিরত থাকা শ্রেয়।

ব্লক

অনেকজন ব্যক্তি যদি হোয়াটসঅ্যাপে আপনাকে ব্লক করে থাকে, সেক্ষেত্রে তাদের অ্যাকশনের কারণে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হয়ে যেতে পারে। তবে এইক্ষেত্রে ব্যবহারকারী হিসেবে আপনার হাতে করার মত কিছুই না থাকলেও ইচ্ছাকৃতভাবে অন্যরা আপনাকে ব্লক করতে পারে এমন অবস্থায় যাওয়া এড়িয়ে চলুন।

👉 ১৬ লাখ হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট নিষিদ্ধ হলো যে কারণে

থার্ড-পার্টি অ্যাপ থেকে অটো মেসেজ পাঠানো

সম্প্রতি “অটোমেটিক মেসেজ” ফিচারের কারণে অনেকের হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হয়ে যাচ্ছে। মূলত অটোমেটিক মেসেজ / রিপ্লাই পাঠানো যায়, এমন অনেক থার্ড-পার্টি অ্যাপ রয়েছে যেগুলো ব্যবহারের কারণে একটা সময় আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হয়ে যেতে পারে। তাই অটোমেটিক মেসেজ/রিপ্লাই পাঠায়, এমন থার্ড-পার্টি অ্যাপ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। আপনি চাইলে হোয়াটসঅ্যাপের নিজস্ব অ্যাপ ব্যবহার করেই অটো রিপ্লাই পাঠাতে পারেন।

সন্দেহজনক অ্যাকশন

অগণিত মানুষ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে, তবে প্রতিটি একাউন্টে হোয়াটসঅ্যাপ এর এলগরিদম ব্যবহার করে নজর রাখা হচ্ছে। আপনার একাউন্ট থেকে কোনো ধরনের সন্দেহজনক কাজ করা হলে বা এমন কাজ করা হয়েছে বলে যদি হোয়াটসঅ্যাপ ধারণা করে, তাহলে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হতে যেতে পারে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট বন্ধ হতে পারে যেসব কারণে

👉 হোয়াটসঅ্যাপে অটো রিপ্লাই চালু করার নিয়ম

অতিরিক্ত ব্যবহার

ঘাবড়ানোর কোনো কারণ নেই, প্রয়োজনে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু খুব অল্প সময়ের মধ্যে অসংখ্য অ্যাকশন সম্পন্ন করলে সেটিকে অপব্যবহার হিসেবে গণ্য করে হোয়াটসঅ্যাপ, যার ফলাফলস্বরূপ প্রথমে ওয়ার্নিং ও পরে একাউন্ট ও ব্যান হয়ে যেতে পারে।

মূলত একজন সাধারণ মানুষের পক্ষে একাউন্ট ব্যান হওয়ার মত কোনো অ্যাকশন নেওয়া সম্ভব নয়, ইতিমধ্যে উল্লেখ করা থার্ড-পার্টি অ্যাপ ব্যবহার করে এই ধরনের কাজ করা যেতে পারে। তাই আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট নিরাপদ রাখতে চাইলে কোনো ধরনের থার্ড-পার্টি হোয়াটসঅ্যাপ সম্পর্কিত অ্যাপ ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

একাধিকবার ব্লক হওয়া

ইতিমধ্যে কোনো ভুল এর কারণে যদি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট সাময়িকভাবে ব্লক করা হয়ে থাকে, তবে ভবিষ্যতে কোনো ধরনের ভুলের কারণে একাউন্ট ব্লক হওয়ার ঝুঁকি থাকে। তাই উল্লেখিত সকল বিষয় মাথায় রেখে সম্পূর্ণ নিরাপত্তা বজায় রাখুন ও আপনার হোয়াটসঅ্যাপ একাউন্ট ব্যান হওয়া থেকে রক্ষা করুন।

👉 ভিডিওঃ ল্যাপটপ কেনার সময় যা খেয়াল রাখতে হবে

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,059 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.