অ্যান্ড্রয়েড ফোনের লক ভুলে গেলে করণীয়

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে প্যাটার্ন, পিন কোড বা পাসওয়ার্ড সেট করাটা নিরাপত্তার খাতিরে বাধ্যতামূলক হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এই প্যাটার্ন, পিন বা পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে পড়তে হয় মহা মুশকিলে। এই পোস্টে জানবেন অ্যান্ড্রয়েড ফোনের লক ভুলে গেলে করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত।

প্রতিরোধ উত্তম

কোনো ধরনের সমস্যায় পড়ার আগে সবার প্রথমে সতর্কতা গ্রহণ করা উচিত, যাতে সমস্যায় পড়লে খুব সহজে সমাধান করা যায়। অধিকাংশ ক্ষেত্রে ফোনের পাসওয়ার্ড বা লক ভুলে গেলে তা রিসেট করা ছাড়া কোনো উপায় থাকেনা। তাই নিয়মিত আপনার প্রয়োজনীয় ফাইল ও মিডিয়া ব্যাকাপ নিয়ে রাখা বুদ্ধিমানের কাজ হতে পারে।

নিয়মিত আপনার ফটো, ভিডিও, কনটাক্ট, অ্যাপ, সেটিংস, ইত্যাদির ব্যাকাপ নিয়ে রাখুন। এতে কোনো কারণে আপনার ডিভাইস লক হয়ে গেলে গুরুত্বপূর্ণ ফাইল হারানোর চিন্তায় থাকতে হবেনা।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ব্যাকাপ নেওয়ার নিয়ম সম্পর্কে আমাদের ডেডিকেটেড পোস্টে বিস্তারিত জানতে পারবেন। এছাড়া ফ্রি ক্লাউড স্টোরেজ ব্যবহার করেও ফাইল সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন খুব সহজে। চাইলে গুগল ড্রাইভ বা ড্রপবক্স এর মত ক্লাউড স্টোরেজে ফাইল সংরক্ষণ করতে পারেন, আবার এক্সটার্নাল স্টোরেজ বা কম্পিউটারেও ফাইল ব্যাকাপ রাখা যেতে পারে।

এছাড়া আপনার ফোনের প্যাটার্ন সেট করার পর সেটার একটা স্ক্রিনশট নিয়ে নিরাপদ কোনো জায়গায় সংরক্ষণ করতে পারেন। যেমন, গুগল ড্রাইভে বা গুগল ফটোসে রাখতে পারেন। তাহলে প্যাটার্ন ভুলে গেলে অন্য ডিভাইস বা পিসি থেকে গুগল ফটোসে লগইন করে প্যাটার্ন দেখে নিতে পারবেন। এছাড়া ফোনের পিন কোড গোপন কোথাও লিখে রেখে নিরাপদে থাকতে পারবেন।

👉 এন্ড্রয়েড ফোন ব্যাকআপ নেয়ার উপায়

👉 অনলাইনে ফাইল রাখার জন্য সেরা ফ্রি ক্লাউড স্টোরেজ সার্ভিস কোনটি?

স্মার্ট লক

অনেক অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে স্মার্ট লক ফিচার রয়েছে, যার সাহায্যে লোকেশন, ভয়েস কিংবা অন্য ডিভাইস ব্যবহার করে ফোনের লক খোলা যায়। প্রাইমারি লকস্ক্রিন পাসওয়ার্ড বা লক ভুলে গেলে কিংবা হারিয়ে ফেললে এই সেকেন্ডারি অ্যাকসেস এর উপায় বেশ কাজে আসতে পারে।

উল্লেখ্য যে সব ব্র‍্যান্ডের ফোনে স্মার্ট লক ফিচার নেই। স্মার্ট লক সেটাপ করতেঃ

  • ফোনের Settings এ প্রবেশ করুন
  • Lock screen & security মেন্যুতে প্রবেশ করুন
  • Smart Lock অপশনে প্রবেশ করুন

অনেক অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম চালিত ফোনে Secure lock settings নামে একটি অপশন দেখতে পাবেন, যার মধ্যে Smart Lock ফিচারটি থাকবে। এছাড়া Settings থেকে সরাসরি সার্চ এর মাধ্যমেও ফিচারটি অ্যাকসেস করতে পারবেন। এরপর ভয়েস, লোকেশন বা অন্য ডিভাইসকে সেকেন্ডারি অ্যাকসেস মেথড হিসেবে সেট করতে পারবেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের লক ভুলে গেলে করণীয়

👉 মোবাইলের লক ভুলে গেলে কিভাবে খুলব?

পুরোনো অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ক্ষেত্রে

পুরোনো অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসগুলোতে পাসওয়ার্ড রিসেট করার অপশন ছিলো। এই ফিচার শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েড ৪.৪ ও এর আগের ভার্সনগুলোতে কাজ করতো। এসব ডিভাইসে পাসওয়ার্ড কয়েকবার ভুল প্রদানের পর Forget Pattern অপশন দেখতে পাবেন, এরপর উক্ত অপশনে ট্যাপ করে পাসওয়ার্ড রিসেট করতে পারবেন গুগল একাউন্টে লগিন করে। তবে আগে থেকে সেই গুগল একাউন্ট আপনার ফোনে সাইনইন করা থাকতে হবে।

ডিভাইস রিসেট করা

যদি গুগল স্মার্ট লক চালু না থাকে অথবা ফোন কোম্পানির বিল্ট-ইন কোনো পাসওয়ার্ড রিসেট অপশন না থাকে, তাহলে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের প্যাটার্ন বা পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে ফ্যাক্টরি রিসেট করা ছাড়া তেমন আর কোনো উপায় থাকেনা। Google Find My Device চালু থাকলে রিমোটলি এন্ড্রয়েড ফোন ফ্যাক্টরি রিসেট করা যায়। ফাইন্ড মাই সার্ভিস সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিচে লিংক করা ডেডিকেটেড পোস্ট ঘুরে আসুন।

👉 হারানো এন্ড্রয়েড ফোন খুঁজে পাওয়ার উপায়

Find My Device দ্বারা লক হয়ে যাওয়া অ্যান্ড্রয়েড ফোন রিসেট করতে অন্য কোনো কম্পিউটার বা মোবাইল থেকে লক হয়ে যাওয়া ফোনের গুগল একাউন্টে লগিন করুন। এরপর উক্ত ডিভাউস সিলেক্ট করে Erase Device অপশন সিলেক্ট করে ডিভাইস রিসেট করুন। ডিভাইস রিসেট হওয়ার পর পুনরায় গুগল একাউন্ট দিয়ে লগিন করুন।

ফাইন্ড মাই ডিভাইস চালু না থাকলে ম্যানুয়ালি ফোন রিসেট করা যেতে পারে। ফোনের পাওয়ার বাটন ও ভলিউম ডাউন বাটন প্রেস করে ধরে রাখলে কিছুক্ষণ পর Recovery Mode স্ক্রিন দেখতে পাবেন। রিকভারি মোডে ভলিউম বাটন দ্বারা ন্যাভিগেট ও পাওয়ার বাটন দ্বারা সিলেক্ট করুন হয়। রিকভারি মেন্যু থেকে Wipe data/factory reset অপশন সিলেক্ট করুন। এরপর উক্ত ফোন রিসেট হয়ে যাবে ও পুনরায় গুগল একাউন্ট ব্যবহার করে লগিন করতে হবে।

ফোন রিসেট করলে ফোনে থাকা সবকিছু মুছে যায়। কিন্তু পাসওয়ার্ড বা প্যাটার্ন ভুলে গেলে অনেক সময় ফ্যাক্টরি রিসেট করা ছাড়া কোনো উপায় থাকেনা।

👉 এন্ড্রয়েড ফোন ফ্যাক্টরি রিসেট করার নিয়ম

স্যামসাং ফাইন্ড মাই মোবাইল

আপনার ফোন যদি স্যামসাং এর হয় ও ফাইন্ড মাই মোবাইল ফিচারটি ইতিমধ্যে চালু থাকে, তবে স্যামসাং একাউন্ট ব্যবহার করে লক হয়ে যাওয়া স্যামসাং ফোন আনলক করতে পারবেন। যেকোনো কপিউটার থেকে স্যামসাং একাউন্টে লগিন করুন ও ডিভাইস সিলেক্ট করে Unlock my device অপশন সিলেক্ট করলে লক হয়ে থাকা স্যামসাং ফোন আনলক হয়ে যাবে। উল্লেখ্য যে এই প্রসেস কাজ করতে হলে লক হওয়া ফোনে ডাটা বা ওয়াইফাই চালু থাকা বাধ্যতামূলক। একই রকম সুবিধা শাওমি ফোনেও মি একাউন্ট দ্বারা পাবেন। অন্যান্য কিছু ফোনেও তাদের নির্মাতা কোম্পানি কর্তৃক এই সুবিধা দেয়া আছে।

এডভান্সড মেথড (এডিবি)

এডিবি (Android Debug Bridge) ব্যবহার করে লক হয়ে যাওয়া অ্যান্ড্রয়েড ফোন এর লক খোলা যেতে পারে। তবে এডিবি দ্বারা লক খোলার বিষয়টি কিছুটা এডভান্সড, যথেষ্ট প্রযুক্তিগত জ্ঞান না থাকলে এই প্রসেস অনুসরণ না করা শ্রেয়। তবে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে এডিবি দ্বারা ফোন আনলক করতে হলে আগে থেকে অবশ্যই Developer Options চালু থাকতে হবে।

👉 অ্যান্ড্রয়েড ডেভলপার অপশনে লুকানো ফিচারগুলো জেনে নিন

প্রথমে কম্পিউটারে ADB ডাউনলোড করতে হবে ও এরপর ডিভাইস কম্পিউটারের সাথে কানেক্ট করতে হবে। এরপর এডিবি ওপেন করুন ও টাইপ করুনঃ

adb shell rm /data/system/gesture.key

উল্লেখিত কমান্ড লিখার পর Enter প্রেস করুন। এরপর আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের লক মুছে যাওয়ার কথা ও পাসওয়ার্ড রিসেট করতে পারবেন। গুগল নতুন ডিভাইসগুলোতে এনক্রিপশন ব্যবহার করে বলে এই প্রক্রিয়া অনেক ফোনে কাজ নাও করতে পারে।

আপনি কি কখনো আপনার ফোনের লক ভুলে গিয়েছিলেন? কীভাবে সমস্যাটি সমাধান করলেন? কমেন্টে জানান!

👉 ভিডিওঃ জিমেইল একাউন্ট খোলার নিয়ম

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,249 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.