এন্ড্রয়েড ফোন নিরাপদ রাখতে এই কাজগুলো করুন

ভাইরাস বা ম্যালওয়ার থেকে প্রিয় অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে রক্ষা করতে অনেকে এন্টিভাইরাস অ্যাপ ব্যবহার করে থাকেন। প্লে স্টোরে অসংখ্য সিকিউরিটি অ্যাপ রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করা বেশ সহজ। আবার গুগল এর প্লে প্রটেক্ট ফিচার এর উপর অনেকে নির্ভর করে থাকেন।

তবে ম্যালওয়ার দিনদিন আরো জটিল হয়ে উঠছে, যার ফলে নিজ থেকে অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সুরক্ষা নিশ্চিত করা বেশ জরুরি হয়ে উঠেছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক অ্যান্ড্রয়েড ফোনের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে করণীয়সমূহ সম্পর্কে।

ফোনের সেটিংস চেক করুন

অনিরাপদ ফিচার চালু করে বা প্রয়োজনীয় ফিচার অফ করে অজান্তে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সিকিউরিটি ও প্রাইভেসি নষ্ট হতে পারে। এই ধরণের সমস্যা খুঁজে বের করতে ও সমস্যার সমাধান করতে SAFE Me নামে একটি ফ্রি অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন।

লুসিডাস নামে একটি প্রতিষ্ঠান এই অ্যাপটি তৈরী করেছে। কোম্পানিটি অনলাইন থ্রেট এর বিরুদ্ধে সচেতনতা তৈরী করে থাকে। সেইফ মি অ্যাপ ব্যবহার করে ফোনের সেটিংস স্ক্যান করা যাবে ও এই অ্যাপ আপনার সেটিংস এর নিরাপত্তার উপর নির্ভর করে একটি স্কোর প্রদান করবে।

অ্যাপটির ডিভাইস ট্যাবে আপনার সেট করা সেটিংস ঠিক নাকি ভুল তা গ্রিন চেক মার্ক এর মাধ্যমে জানতে পারবেন। কানেকশন ট্যাবেও একইভাবে ভুল সেটিংস এর জন্য রেড ক্রস দেখতে পাবেন। অ্যাপটি ব্যবহারের আগে ইমেইল এড্রেস দ্বারা সাইন আপ করতে হবে। সেইফ মি অ্যাপে একাউন্ট খুললে একটি অসাধারণ সুবিধা পাওয়া যায়, সেটি হলো অ্যাপটি প্রদত্ত ইমেইল এর তথ্য ডার্ক ওয়েবে ফাঁস হলে তা আপনাকে জানিয়ে দিবে।

সেইফ মি অ্যাপে রয়েছে পাসওয়ার্ড ব্যবহার, কল স্ক্যাম, সিম হাইজ্যাকিং ও অন্যান্য ডিজিটাল নিরাপত্তা সম্পর্কিত ১০০টি ফ্রি কোর্স। এসব ভিডিও কোর্স লেসন আকারে সাজানো রয়েছে ও লেসন শেষে শর্ট কুইজ রয়েছে যাতে আপনি আপনার সিকিউরিটি সম্পর্কিত জ্ঞান যাচাই করতে পারেন।

অ্যাপ পারমিশন চেক

অ্যান্ড্রয়েডে বিল্ট-ইন পারমিশন ম্যানেজার রয়েছে যা ব্যবহার করে আনঅথোরাইজড অ্যাপকে ডাটা অ্যাকসেস থেকে দূরে রাখা যায়। এন্ড্রয়েড ৬ ও তার পরের ভার্সনগুলোতে এই ফিচার পেয়ে যাবেন Settings > Apps & notifications > Advanced > Permission manager বা App permissions অপশন থেকে।

কাজের হলেও এই পারমিশন অনেকটা বেসিক। তাই আপনার অ্যাপ পারমিশন ভালোভাবে বুঝতে App Permission Dashboard অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন। এই ফ্রি অ্যাপটিতে সাধারণ টেবিল দ্বারা অ্যাপের পারমিশন হাইলাইট করে দেখায়।

এর ফলে Read contacts, Read call log, Record audio, Camera Access, Location Sharing ইত্যাদি পারমিশন কোন অ্যাপ ব্যবহার করছে তা জানতে পারবেন। যেকোনো অ্যাপে ট্যাপ করে উক্ত অ্যাপের সেটিংস দেখতে পাবেন ও চাইলে অপ্রয়োজনীয় পারমিশন রিমুভ করতে পারবেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

এন্টি-ম্যালওয়্যার প্রটেকশন পরীক্ষা

ফোনে কোনো ধরণের ম্যালওয়্যার অ্যাটাক করার আগে ফোনের সুরক্ষা নিশ্চিত করা উচিত। F-Secure AV Test নামের একটি ফ্রি অ্যাপ ব্যবহার করে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন কতটা নিরাপদ, তা চেক করতে পারবেন।

এই অ্যাপ ব্যবহার করে আপনার ফোনে কোনো ধরণের ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার আছে কিনা তা চেক করতে পারবেন। ইতিমধ্যে যদি কোনো সিকিউরিটি অ্যাপ ব্যবহার করে থাকেন, তবে তার কার্যকরিতা চেক করতে পারবেন F-Secure AV Test অ্যাপ ব্যবহার করে। এটি কিন্তু কোনো এন্টিভাইরাস অ্যাপ নয়।

অ্যাপটি মুলত ফেইক ভাইরাস তৈরি করে আর ফোনের সিকিউরিটি এই ভাইরাসকে রিয়েল টাইমে ডিটেক্ট করতে পারে কিনা তা চেক করার সুযোগ দেয়। আপনার সিকিউরিটি অ্যাপ যদি এই ভাইরাস ডিটেক্ট করে AV Test অ্যাপটিকে ব্লক করে না দেয়, তাহলে বুঝবেন সেই সিকিউরিটি অ্যাপ যথেষ্ট কার্যকর নয়। সেক্ষেত্রে অন্য সিকিউরিটি অ্যাপ বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

এন্ড্রয়েড ফোন নিরাপদ রাখতে এই কাজগুলো করুন

ফোনে থাকা অ্যাপগুলো স্ক্যান করুন

আজকাল বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ফোনে নিজস্ব সিক্যুরিটি অ্যাপ থাকে। সেগুলো দিয়ে আপনার ফোনে থাকা অ্যাপগুলো স্ক্যান করুন। এছাড়া গুগল প্লে স্টোর ওপেন করে উপরের দিকে ডান কোণায় থাকা আপনার প্রোফাইল ইমেজের উপর ট্যাপ করুন। তাহলে যে মেন্যু আসবে সেখানে ‘প্লে প্রটেক্ট’ নামে একটি অপশন পাবেন। সেটি ওপেন করলে অ্যাপ স্ক্যান করার অপশন পাবেন। গুগল প্লে প্রটেক্ট এর এই স্ক্যান ফিচার ব্যবহার করেও ফোনে থাকা অ্যাপ স্ক্যান করতে পারেন।

👉 সারাক্ষণ ইয়ারফোন কানে দেয়ার ক্ষতিকর প্রভাবগুলো জানুন

ব্যাকগ্রাউন্ড প্রসেস চেক

ফোনের ব্যাটারি লাইফ ও র‍্যাম অধিক খরচ হওয়ার পেছনে মূলত দায়ী হলো ব্যাকগ্রাউন্ডে চলতে থাকা বিভিন্ন অ্যাপ। এছাড়া আপনার অজান্তে ফোনে ম্যালওয়্যার প্রবেশ করে তা ব্যাকগ্রাউন্ডে থেকে র‍্যাম ও ব্যাটারি নষ্ট করার পাশাপাশি ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করতে পারে।

ফোনে চলমান প্রসেস দেখার জন্য অনেক টাস্ক ম্যানেজার অ্যাপ রয়েছে। তবে মজার ব্যাপার হলো সেরা টাস্ক ম্যানেজার সকল অ্যান্ড্রয়েড ফোনেই ইন-বিল্ট রয়েছে। এই ফিচার ব্যবহার করতে হলে প্রথমে Developer options চালু করতে হবে। এন্ড্রয়েড ডেভলপার অপশন চালু করতে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপের সেটিংস থেকে About / About সেকশনে প্রবেশ করুন ও Build numer এ ৭বার পরপর ট্যাপ করুন।

এরপর অ্যান্ড্রয়েড এর সেটিংস থেকে Advanced মেন্যুতে প্রবেশ করে Developer options খুঁজে বের করুন। এরপর ব্যাকগ্রাউন্ডে চলমান প্রসেস দেখতে Running services বা Processes অপশনে ট্যাপ করুন। এখানে সন্দেহজনক কোনো প্রসেস দেখলে তাতে ট্যাপ করে Stop সিলেক্ট করে প্রসেসটি বন্ধ করুন।

কিছু অ্যাপ এর প্রসেস কিল করার পরও আবার নিজ থেকে রিস্টার্ট নিয়ে নেয়। প্রথমে উক্ত অ্যাপের সেটিংস চেক করতে পারেন। এতেও কাজ না হলে অ্যাপ ডিলিট করে দিতে পারেন যদি তা কাজে না লাগে। 

উল্লেখিত সকল তথ্য অনুসরণ করে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসকে অনেকাংশে নিরাপদ রাখতে পারবেন।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,264 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.