এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার উপায় (সব অপারেটর)

বাংলাদেশে সকল অপারেটর ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর সুবিধা প্রদান করে থাকে। ফোনে থাকা ব্যালেন্স বন্ধু ও পরিবারের কাছে বেশ সহজে পাঠানো যাবে এই ফিচার ব্যবহার করে। এই পোস্টে জানবেন –

  • রবি টু রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম
  • জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম
  • এয়ারটেল টু এয়ারটেল ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম
  • বাংলালিংক টু বাংলালিংক ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম
  • টেলিটক টু টেলিটক ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম

রবি সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম

রবি থেকে রবি সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর নিয়ম বেশ সহজ। এক রবি সিম থেকে অন্য রবি সিমে টাকা পাঠাতে কোনো ধরনের রেজিস্ট্রেশন এর প্রয়োজন নেই।

রবি সিম থেকে রবি সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুনঃ AMOUNT ও মেসেজ পাঠিয়ে দিন 1212018XXXXXXXX নাম্বারে। এখানে 018XXXXXXXX দ্বারা যে নাম্বারে টাকা পাঠানো হবে সে রবি নাম্বারটি বুঝানো হয়েছে। অর্থাৎ আপনি যদি 01819400400 নাম্বারে ২০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চান, তাহলে মেসেজ অপশনে 20 টাইপ করুন ও 121201819400400 নাম্বারে পাঠিয়ে দিন।

ব্যালেন্স ট্রান্সফার সম্পন্ন হওয়ার পর একটি পিন কোড পাবেন। ভবিষ্যতে কোনো ব্যালেন্স ট্রান্সফারের ক্ষেত্রে এই পিন ব্যবহার করতে পারেন। এই পিন বন্ধ করতে চাইলে OFF লিখে পাঠিয়ে দিন 1220 নাম্বারে।

এছাড়া কারো কাছ থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর জন্য রিকুয়েস্ট পাঠাতে পারবেন। কত টাকা ব্যালেন্স চান তার এমাউন্ট লিখে পাঠাতে হবে 1211018YYYYYYYY নাম্বারে। এখানে 018YYYYYYYY হলো যার কাছে ব্যালেন্স ট্রান্সফারের রিকুয়েস্ট পাঠাবেন তার রবি নাম্বার।

আইভিআরের মাধ্যমে কল করে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য ১২১০ নম্বরে কল করুন।

ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে ২টাকা বা তার বেশি (যেহেতু ভ্যাট প্রযোজ্য হবে) চার্জ কাটবে। আবার ব্যালেন্স যিনি পাবেন তার কাছ থেকেও ২টাকা বা তার বেশি (যেহেতু ভ্যাট প্রযোজ্য হবে) কেটে নেওয়া হবে প্রতি ট্রান্সফারে।

এয়ারটেল সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার

এয়ারটেল সিমে বেশ সহজে ব্যালেন্স ট্রান্সফার এর সুযোগ রয়েছে। এয়ারটেল সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে হলে সিম কমপক্ষে ৩০দিন ব্যবহৃত হতে হবে। সর্বনিম্ন ৫টাকা ও সর্বোচ্চ ১০০টাজা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। একদিন সর্বোচ্চ ৫০০টাকা ও এক মাসে সর্বোচ্চ ১০০০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। প্রাপক ও প্রেরক, উভয়ের কাছ থেকে ফি হিসাবে ২.৫৫টাকা করে কেটে নেওয়া হবে। আরো জানতে HELP লিখে মেসেজ পাঠান 1000 নাম্বারে।

এক এয়ারটেল সিম থেকে অন্য এয়ারটেল সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন BTR<SPACE>016XXXXXXXX<SPACE>AMOUNT ও পাঠিয়ে দিন 1000 নাম্বারে। অর্থাৎ 01600000000 নাম্বারে ২০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চাইলে মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করতে হবে “BTR 016000000000 20” ও পাঠাতে হবে 1000 নাম্বারে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার উপায় (সব অপারেটর)

👉 গ্রামীণফোন ই-সিম সম্পর্কে যেসব তথ্য আপনার জানা দরকার

বাংলালিংক সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার

এক বাংলালিংক সিম থেকে অন্য বাংলালিংক সিমেও ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা বেশ সহজ। সিম একটিভ করার ৩০দিন পর হতে ব্যালেন্স ট্রান্সফার সেবা ব্যবহার করা যাবে। ব্যালেন্স ট্রান্সফার সেবা ব্যবহার করতে প্রথমে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। সর্বোচ্চ ১০০টাকা ও সর্বনিম্ন ১০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। প্রতিদিন সর্বোচ্চ ৫০০টাকা ও প্রতি মাসে সর্বোচ্চ ১০০০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে বাংলালিংক সিমে। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে কোনো ধরনের চার্জ ছাড়া এই সেবা ব্যবহার করা যাবে।

*1000# নাম্বারে ডায়াল করুন ও প্রদত্ত নির্দেশনা অনুসরণ করে একটি পিন জেনারেট করুন যা এসএমএস এর মাধ্যমে পাবেন। এরপর প্রাপ্ত পিন ব্যবহার করে *1000# নাম্বারে ডায়াল করে বাংলালিংক সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে।

🔥 👉 বিকাশে গেম খেলে ২০০০ টাকা পর্যন্ত পুরস্কার জিতুন

গ্রামীণফোন সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম

গ্রামিন সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার ফিচার ব্যবহার করতে হলে সিম কমপক্ষে ৬মাস পুরোনো হতে হবে ও ইতিমধ্যে কমপক্ষে ৩০০টাকা রিচার্জ ব্যবহার থাকতে হবে। সর্বনিম্ন ১০টাকা ও সর্বোচ্চ ১০০টাকা রিচার্জ করা যাবে এক জিপি নাম্বার থেকে অন্য জিপি নাম্বারে। প্রতি মাসে সর্বোচ্চ ১০বার রিচার্জ করা যাবে। যেকোনো প্রিপেইড ও পোস্টপেইড জিপি সিম ব্যবহারকারীকে কোনো বাড়তি চার্জ ছাড়া ব্যালেন্স পাঠানো করা যাবে। আর শুধু প্রিপেইড সিম থেকে ব্যালেন্স পাঠানো যাবে।

জিপি সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার সেবাটি চালু করতে *121*1500# ডায়াল করুন ও এরপর 1 লিখে রিপ্লাই করুন। এছাড়া জিপি অ্যাপ ব্যবহার করেও এই সেবাটি রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে *121*1500# ডায়াল করুন ও 2 লিখে রিপ্লাই করুন, এরপর স্ক্রিনে প্রদর্শিত নির্দেশনা অনুসরণ করুন। *121*1500# ডায়াল করে 3 লিখে রিপ্লাই করে ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন পরিবর্তন করা যাবে।

👉 যেকোনো সিমের মোবাইল নম্বর জানার উপায়

টেলিটক সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার

ফোনে থাকা ব্যালেন্স ব্যবহার করে এক টেলিটক সিম থেকে অন্য টেলিটক সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। শর্টকোড ব্যবহার করে বেশ দ্রুত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে টেলিটক সিমে। প্রতিবারে সর্বোচ্চ ৫০টাকা ও সর্বনিম্ন ১০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। একদিনে সর্বোচ্চ ১০বার ও ৫০০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। প্রতি মাসে সর্বোচ্চ ১০০০টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। শুধুমাত্র প্রিপেইড সিমে এই সুবিধা পাবেন।

*124*PIN*AMOUNT*NUMBER# ডায়াল করে বেশ সহজে এক টেলিটক সিম থেকে অন্য টেলিটক সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। সাধারণত ডিফল্ট পিন 1234 বা 12345678 হয়ে থাকে। অর্থাৎ আপনার পিন যদি হয় 1234 ও আপনি 015123456789 নাম্বারে ২০টাকা পাঠাতে চান, তাহলে *124*1234*20*015123456789# নাম্বারে ডায়াল করতে হবে। এছাড়া মাইটেলিটক অ্যাপ থেকেও এই সেবা নিতে পারবেন।

এই পোস্টে জানলেন কিভাবে সকল সিমে সহজে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে হয়। একই অপারেটরে কিভাবে এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করত সে সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকলে জানাতে পারেন কমেন্ট বক্সে।

👉 বোনাস ভিডিওঃ টেলিটক ১৭ টাকায় ২ জিবি অফারে বড় পরিবর্তন

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

আপনার মতামত কমেন্টে জানান!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,049 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.