বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর ও আনার উপায়

দিনদিন বাড়ছে রেমিটেন্সের তাৎপর্য। অসংখ্য প্রবাসি বাংলাদেশি নিয়মিত দেশে রেমিটেন্স পাঠিয়ে থাকেন। তবে এতদিন ব্যাংক ছাড়া রেমিটেন্স পাঠানোর তেমন কোন বিকল্প পথ ছিল না। অনেক ক্ষেত্রে ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিটেন্স গ্রহণ করা কিছুটা সময়সাপেক্ষ। তবে বর্তমানে বিকাশের মতো মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিসগুলো তাদের সেবার পরিধি আরও বৃদ্ধি করায় মোবাইল ওয়ালেটগুলোর মাধ্যমেও রেমিটেন্স গ্রহণ করা যাচ্ছে। আর এই চিন্তা মাথায় রেখেই বিকাশ ২০১৬ সালে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন এবং মাস্টারকার্ড এর সাথে এক হয়ে মানি ট্রান্সফার সুবিধা চালু করে। তবে ধীরে ধীরে বিকাশে রেমিটেন্স গ্রহণের সুবিধা আরও বেড়েছে। এখন একাধিক উপায়ে বিকাশে রেমিটেন্স পাঠানো বা তোলা যায়।

বিকাশে রেমিটেন্স পাঠানোর তিনটি অফিসিয়াল উপায় রয়েছে বর্তমানে। প্রথম পদ্ধতি হচ্ছে মানি ট্রান্সফার সার্ভিস। এই সার্ভিসের মাধ্যমে বিদেশী ব্যাংক, মানি ট্রান্সফার অরগানাইজেশন (এমটিও)

এবং মানি এক্সচেঞ্জ হাউসগুলোর সাথে একসাথে হয়ে কাজ করে বিকাশ। বিকাশের নির্দিষ্ট পার্টনারের মাধ্যমে সরাসরি বিকাশে টাকা পাঠানো যায় উক্ত পদ্ধতিতে।

দ্বিতীয় পদ্ধতি হচ্ছে পেওনিয়ার। পেওনিয়ার থেকে বিকাশের মাধ্যমে সঙ্গে সঙ্গে টাকা নিয়ে আসা যায়। এতে বাড়তি কোন ঝামেলা নেই। আর অপর উপায়টি হচ্ছে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন বিদেশ থেকে টাকা পাঠানোর ক্ষেত্রে জনপ্রিয় এক নাম। কাজেই সহজে ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন থেকেও টাকা পাঠানো যায় বিকাশে। এরপর যে কোন বিকাশ এজেন্টের থেকে এই টাকা তুলে ফেলা যায়।

আমাদের পোস্টে বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর তিনটি উপায় নিয়েই আমরা আলোচনা করবো। ফলে যারা বিদেশ থেকে সহজে টাকা পাঠাতে চান তারা এই পোস্ট সম্পূর্ণ পড়ে নিতে পারেন। এখানে জানিয়ে রাখছি, ওয়াইজ বা পূর্বের ট্রান্সফারওয়াইজ থেকে সহজেই বিকাশে সরাসরি ও দ্রুত টাকা আনা যায়। এটি পেওনিয়ারের মতোই একটি সেবা। এরকম আরও বেশ কিছু সেবা রয়েছে।

মানি ট্রান্সফার সার্ভিসের মাধ্যমে টাকা পাঠানো

বিকাশের মাধ্যমে দেশের বাহির থেকে বিকাশ ইন্টারন্যাশনাল রেমিটেন্স আনতে নিচের ধাপগুলো অনুরসণ করুনঃ

  • বাংলাদেশের বাইরে বিভিন্ন আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের সাথে বিকাশের পার্টনারশীপ রয়েছে। আপনি যে দেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠাতে চান সেই দেশে বিকাশের সরকার অনুমোদিত অথোরাইজড ও পার্টনারড ব্যাংকের শাখা বা মানি এক্সচেঞ্জ কিংবা এমটিও এজেন্ট এর কাছে যান। তাদেরকে বলুন যে আপনি বাংলাদেশে বিকাশের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে চান।
  • বেনিফিশিয়ারি বিকাশ একাউন্ট নাম্বার এবং বিকাশ একাউন্ট যে নামে খোলা হয়েছিল, সেটি জানান।
  • অর্থ এবং বাকি তথ্য ব্যাংক/মানি এক্সচেঞ্জ কিংবা এমটিও এজেন্টকে প্রদান করে প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন করুন।

দেশের বাহির থেকে ব্যাংক/মানি এক্সচেঞ্জ কিংবা এমটিও এজেন্ট এর সাহায্যে টাকা পাঠানোর ক্ষেত্রে নিচের বিষয়গুলো নিশ্চিত করুনঃ

  • বেনিফিশিয়ারি, অর্থাৎ দেশে যাকে আপনি টাকা পাঠাবেন, তার নিকট রেজিস্টার্ড এবং ভ্যালিড বিকাশ একাউন্ট রয়েছে কিনা।
  • বেনিফিশিয়ারির বিকাশ নাম্বার এবং নাম সঠিকভাবে প্রদান করা হয়েছে কিনা।
  • বাংলাদেশি টাকায় ট্রান্সজেকশন এমাউন্ট নির্ধারিত লিমিট অতিক্রম করছে কিনা।

মানি এক্সচেঞ্জ, ব্যাংকের শাখা এবং সংশ্লিষ্ট যেসব দেশ থেকে বাংলাদেশে রেমিট্যান্স প্রেরণ করতে পারবেন, তার তালিকাঃ (নিচের ইমেজটি আপনার ফোনে বা পিসিতে সেইভ করে তারপর জুম করে দেখতে পারেন।)

বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা পাঠানোর ও আনার উপায়

এই মাধ্যমে প্রাপ্ত সকল অর্থের সঙ্গে আপনি ২.৫% হারে সরকারের দেয়া প্রণোদনাও উপভোগ করতে পারবেন খুব সহজেই।

পেওনিয়ার

পেওনিয়ার ফ্রিল্যান্সার ও প্রবাসীদের কাছে বেশ জনপ্রিয় একটি সেবা। এর মাধ্যমে সহজে টাকা পাঠানো বা রিসিভ করা যায়। বিকাশ এবং পেওনিয়ার রেমিট্যান্স আনার জন্য সেবা চালু করেছে।

বিদেশ থেকে টাকা পাঠানো কিংবা নেয়ার সবথেকে দ্রুততম মাধ্যম হচ্ছে পেওনিয়ার। পেওনিয়ারের মাধ্যমে টাকা পেতে আপনাকে একই তথ্য দিয়ে বিকাশ এবং পেওনিয়ার উভয় স্থানেই অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে হবে। এছাড়া দরকার হবে বিকাশ অ্যাপ। বিদেশ থেকে পাঠানো টাকা প্রথমে পেওনিয়ারে রিসিভ করে এরপর সরাসরি বিকাশে নিয়ে আসতে পারবেন সঙ্গে সঙ্গেই।

বিকাশে কীভাবে পেওনিয়ার থেকে টাকা নিয়ে আসবেন সে বিষয়ে বিস্তারিত পোস্ট রয়েছে আমাদের ওয়েবসাইটে। কাজেই সহজে রেমিটেন্সের টাকা পেওনিয়ারের মাধ্যমে দ্রুতগতিতে পেতে এই পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। এই পদ্ধতিতে টাকা আনার ক্ষেত্রে পেওনিয়ার ২ শতাংশ ফি কেটে নেবে। তবে বিকাশ হতে আলাদা কোন ফি নেই এই সেবায়।

ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন

এটি বিদেশ থেকে টাকা আনার সুবিধায় বিকাশের সর্বশেষ সংযোজন। ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন রেমিটেন্স আনার ক্ষেত্রে খুবই পরিচিত একটি সেবা। অনেক দিন ধরেই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে দেশের ব্যাংকগুলোতে সহজেই বিদেশ থেকে টাকা আনা যায়। তবে এই সেবা এখন আর শুধু ব্যাংকের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, পাওয়া যাবে বিকাশেও।

Bkash Western Union

বিকাশের নতুন এই সেবায় সকল বিকাশ এজেন্ট পয়েন্টগুলোই এখন থেকে সরাসরি ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের টাকা আপনাকে প্রদান করতে পারবে। এই উপায়ে টাকা পেতে আপনাকে বিকাশ অ্যাপও ইন্সটল করতে হবে না। কোন ফর্ম পূরণ বা বাড়তি ঝামেলা ছাড়াই সরাসরি এজেন্ট পয়েন্ট থেকে টাকা তুলে ফেলতে পারা যাবে। টাকা তুলতে দরকার হবে সচল বিকাশ একাউন্ট নাম্বার, গ্রাহকের জাতীয় পরিচয়পত্র, প্রবাসী প্রেরকের কাছ থেকে পাওয়া গোপন নাম্বার (MTCN) এবং পাঠানো টাকার পরিমাণ। শুধুমাত্র এই ৪ টি তথ্য দিয়েই ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন থেকে রেমিটেন্স সংগ্রহ করা যাবে। আর এই সেবা পাওয়া যাবে দিনরাত ২৪ ঘণ্টাই। ফলে রেমিটেন্স পাওয়া হয়ে যাবে আরও দ্রুত ও সহজ।

বিদেশ হতে টাকা পাঠানোর এই পদ্ধতি নিয়েও আমাদের ওয়েবসাইটে রয়েছে বিস্তারিত পোস্ট। কাজেই এই পদ্ধতি ব্যবহার করে টাকা আনতে চাইলে দেখে নিতে পারেন সেই পোস্টটি

এছাড়া এই পদ্ধতিতে টাকা আনলে আপনি সরকারি প্রণোদনার ২.৫ শতাংশ টাকা পেয়ে যাবেন। বিকাশে নেই বাড়তি কোন ক্যাশ আউট চার্জ বা ফি। অর্থাৎ সম্পূর্ণ বিনামূল্যেই এই সেবা ব্যবহার করতে পারবেন আপনি।

অন্যান্য উপায়

বিকাশে বিদেশ থেকে টাকা আনার আরও বেশ কিছু উপায় রয়েছে যেগুলো আমরা অনেকে জানি না। যেমন ওয়াইজ বা পূর্বের ট্রান্সফারওয়াইজ থেকে সহজেই বিকাশে সরাসরি ও দ্রুত টাকা আনা যায়। এটি পেওনিয়ারের মতোই একটি সেবা। এরকম আরও বেশ কিছু সেবা রয়েছে। যেমনঃ রেমিটলি, ওয়ার্ল্ডরেমিট ইত্যাদি। তবে এসব মাধ্যমে খরচ কিছুটা বেশি হতে পারে।

অর্থাৎ বর্তমানে বিকাশের মাধ্যমে উক্ত তিনটি পদ্ধতিতে সহজেই টাকা নিয়ে আসা যাচ্ছে দেশে। এর মধ্যে পেওনিয়ারের মাধ্যমে মুহূর্তেই টাকা পাওয়া গেলেও এতে রয়েছে বাড়তি খরচ। তবে সেই তুলনায় ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের মাধ্যমে টাকা পাঠালে আপনি খরচ ছাড়াই দ্রুত টাকা পেয়ে যেতে পারেন। সুতরাং নিজের পছন্দ অনুযায়ী সরকার অনুমোদিত যে কোন মাধ্যমেই আপনি বিকাশে বিদেশ থেকে টাকা নিয়ে আসতে পারবেন। আপনার পছন্দের পদ্ধতি কোনটি সে বিষয়ে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমাদের।

বিদেশ থেকে বিকাশে টাকা আনার ক্ষেত্রে আপনার কোনো অভিজ্ঞতা আছে কি? থাকলে আমাদেরকে কমেন্টে জানান।

আরো জানুনঃ মানিগ্রাম এর মাধ্যমে বিকাশে রেমিট্যান্স পাঠান মুহূর্তেই

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,575 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *