সকল এন্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য ফ্রি এন্টিভাইরাস আনছে গুগল

ভাইরাস কিংবা ম্যালওয়্যার, এসব বিষয় এমনিতেই বিভিন্ন প্রযুক্তিপণ্য ব্যবহারকারীদের জন্য আতঙ্কের অপর নাম। কিংবা আরও নির্দিষ্ট করে বললে এই তালিকায় সম্প্রতি যুক্ত হয়েছে ওয়ানাক্রাই/ওয়ানাক্রিপ্ট র‍্যানসমওয়্যার। ব্যক্তি পর্যায়ে তো বটেই, ব্যবসায়িক ক্ষেত্র পর্যন্ত মানুষের ঘুম বিদায় করে দিয়েছে বিভিন্ন ক্ষতিকর প্রোগ্রাম। বিশ্বের কোটি কোটি এন্ড্রয়েড ডিভাইস ব্যবহারকারীও এখন ভাইরাসের ভয়ে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। তাদের সবার কথা ভেবে ফ্রি এন্টিভাইরাস উন্মুক্ত করলো এন্ড্রয়েড ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান গুগল।

যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত এ বছরের বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলনে গুগল এন্ড্রয়েডের জন্য নতুন এই নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রকাশ করেছে। গুগল প্লে প্রোটেক্ট নামের এই সিক্যুরিটি সিস্টেম মেশিন লার্নিং এবং অ্যাপ ইউসেজ অ্যানালাইসিসের মাধ্যমে বিপজ্জনক এবং ক্ষতিকর অ্যাপের হাত থেকে ব্যবহারকারীদের রক্ষা করবে।

গুগল প্লে প্রোটেক্ট আলাদা কোনো অ্যাপ হিসেবে নয়, বরং প্রতিটি ডিভাইসের গুগল প্লে স্টোর অ্যাপের মধ্যেই এই নিরাপত্তা ব্যবস্থা যোগ করা থাকবে। অর্থাৎ, আপনার ফোনে যদি গুগল প্লে স্টোর অ্যাপ ইনস্টল করা থাকে, তাহলেই আপনি গুগল প্লে প্রোটেক্ট সেবার সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

গুগল প্লে প্রোটেক্ট নিজে থেকেই চলবে। একে আপনার কোনো নির্দেশনা দিতে হবেনা। এটি সারাক্ষণ চালু থাকবে। প্রতিদিন বিলিয়নের অধিক এন্ড্রয়েড ডিভাইসে ৫০ বিলিয়নের মত অ্যাপ স্ক্যান করবে গুগল প্লে প্রোটেক্ট। অ্যাপ স্ক্যান করে এটি বুঝতে পারবে কোন অ্যাপটি ক্ষতিকর এবং কোন অ্যাপের গতিবিধি সন্দেহজনক।

যদিও, গুগল প্লে স্টোরে যেকোনো অ্যাপ এলেই গুগল সেটি স্ক্যান করে এবং ক্ষতিকর কিছু আছে কিনা তা ভেরিফাই করে। কিন্তু যখন কোনো ব্যবহারকারী এসব অ্যাপ তাদের ডিভাইসে ইনস্টল করেন, তারপর সেই অ্যাপের আর কোনো খোঁজ পায়না গুগল। কেননা তখন এটি ব্যবহারকারীর ডিভাইসে থাকে। এরপর অ্যাপটি ব্যবহারকারীর কোনো ক্ষতি করছে কিনা তা বোঝা গুগলের জন্য কঠিন ছিল এতদিন।

এখন গুগল প্লে প্রোটেক্ট ফিচারটির মাধ্যমে মূলত গুগল সারাক্ষণই প্লে স্টোরের অ্যাপের দিকে নজর রাখতে পারবে, এমনকি ব্যবহারকারীর ডিভাইসেও। এটি ফোনের মধ্যেই ব্যাকগ্রাউন্ডে চলতে থাকবে, সুতরাং এন্ড্রয়েড কমিউনিটির জন্য এটা বেশ বড় একটা সুসংবাদ।

এন্টিভাইরাস ফিচার ছাড়াও গুগল প্লে প্রোটেক্ট সেবার মধ্যে যুক্ত হচ্ছে এন্ড্রয়েডের জন্য ‘ফাইন্ড মাই ডিভাইস’ ও ‘সেইফ ব্রাউজিং’ ফিচার। ফাইন্ড মাই ডিভাইস এর আগেও এন্ড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার নামের একটি অ্যাপের মাধ্যমে প্রদান করত গুগল, যার মাধ্যমে হারানো ডিভাইসের অবস্থান নির্ণয় করা যায়। আর সেইফ ব্রাউজিং ফিচারটি ক্রোম ব্রাউজারের মাধ্যমে সরবরাহ করা হবে, যেটি ব্যবহারকারীদের ক্ষতিকর সাইট ব্রাউজ করা থেকে বিরত রাখবে।

গুগল প্লে প্রোটেক্ট আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই গুগল প্লে স্টোর অ্যাপে চলে আসবে বলে জানিয়েছে গুগল।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,688 other subscribers

Comments