গুগলের এই অ্যাপ ছবি থেকে অংক সমাধান করে দেবে!

গুগল নিয়ে এসেছে একটি এআই-পাওয়ার্ড অ্যাপ যা তাদের প্রোডাক্টিভিটি টুলস স্যুটে এড হতে যাচ্ছে। এই অ্যাপের কল্যাণে কঠিন গাণিতিক সমস্যাগুলো সমাধান করা যাবে বেশ সহজে।

গুগল এর অ্যাপ লাইনআপে যুক্ত হলো নতুন Photomath অ্যাপ। ক্রোয়েশিয়া-ভিত্তিক এই সেবা ২০২২ এর মে মাসে কিনে নেয় গুগল, তবে গত বছর প্রায় পুরোটাই খরচ হয়ে যায় ইউরোপিয়ান কমিশন থেকে এই ডিল এর অনুমতি পেতে।

গুগল ডকস বা গুগল সার্চ এর মত গুগল এর কিছু সার্ভিস এর মধ্যে ইতিমধ্যে গাণিতিক সমস্যা সমাধানের ফিচার রয়েছে, তবে এই ফিচারকে আরো সময়সাশ্রয়ী এবং সুবিধাজনক করবে নতুন ফটোম্যাথ অ্যাপ।

ফটোম্যাথ ব্যবহার করে ত্রিকোণমিতি থেকে শুরু করে ক্যালকুলাস পর্যন্ত অনেক ধরনের গাণিতিক সমস্যার সমাধান করা যায়। এই অ্যাপ ব্যবহার করা বেশ সহজ। যেকোনো সমীকরণের ছবি তুলে তা অ্যাপে আপলোড করেই পাওয়া যাবে স্টেপ-বাই-স্টেপ এক্সপ্লেনেশন এবং সমাধানের উপায়। এছাড়া গণিত এসাইনমেন্ট আপলোড করেও তার সমাধান পাওয়া যাবে। শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি যেসব প্যারেন্ট বাচ্চার হোমওয়ার্ক চেক করেন তাদের বেশ কাজে আসতে যাচ্ছে এই অ্যাপ।

ফটোম্যাথ অ্যাপের অসাধারণ বিষয় হলো এটি শুধুমাত্র অংকের সমাধানই দেয়না, বরং ধাপে ধাপে পুরো গাণিতিক সমস্যা বুঝিয়ে দেয়। এর মানে হল কোনো বাড়তি সাহায্য ছাড়াই নিজ থেকেই পুরো গাণিতিক সমস্যার সমাধান বুঝা যাবে এই অ্যাপ দ্বারা। মজার ব্যাপার হলো এই অ্যাপ ইন্টারনেট ছাড়াও কাজ করবে।

google photomath

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

ফটোম্যাথ প্লাস নামে অ্যাপটির সাবস্ক্রিপশন প্ল্যানও অফার করছে গুগল। মাসিক ৯.৯৯ ডলার বা বার্ষিক ৬৯.৯৯ ডলার ফি এর বিনিময়ে কেনা যাবে এই সাবস্ক্রিপশন প্ল্যান যাতে রয়েছে টেক্সটবুক সল্যুশনস, এনিমেটেড টিউটোরিয়ালস, এবং আরো বিস্তারিত এক্সপ্লেনেশন এর মত এক্সট্রা কিছু কাজের ফিচার।

ফটোম্যাথ নতুন কোনো অ্যাপ নয়। সর্বপ্রথম ২০১৪ সালে মুক্তি পাওয়া ১০০ মিলিয়নের অধিকবার ডাউনলোড হওয়া এই অ্যাপটির প্লে স্টোর রেটিং ৪.৫ স্টার এবং অ্যাপ স্টোর রেটিং ৪.৭ স্টার। অর্থাৎ বুঝতেই পারছেন ব্যবহারকারীগণ ইতিমধ্যে অ্যাপটি বেশ পছন্দ করেন, যার কৃতিত্ব অবশ্যই অ্যাপটির দ্রুত এবং সঠিক আউটপুট এর।

ইতিমধ্যে হয়ত গুগল লেন্স অ্যাপের Homework ফিচারটি অনেকেই ব্যবহার করে থাকবেন। ফটোম্যাথ এর শক্তিশালী এআই এর ব্যবহার লেন্স এর পাশাপাশি গুগল এর অন্যান্য প্রোডাক্টেও খুব শীঘ্রই ইন্ট্রিগ্রেটেড হবে বলে ধারণা করা যায়। এমনটা হলে টেক্সট রেকগনিশন ও প্রবলেম-সলভিং ফিচার সম্পূর্ণ নতুন মাত্রায় পৌঁছে যাবে।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,575 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *