স্মার্টফোন বিস্ফোরণে প্রাণ গেল কিশোরীর

মোবাইল ফোন বিস্ফোরণজনিত দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার ঘটনা নতুন কিছু নয়। এবার ১৮ বছর বয়সী এক কিশোরী প্রাণ হারালেন তার স্মার্টফোন বিস্ফোরণের শিকার হয়ে। উমা ওরমান নামের ঐ কিশোরী তার স্মার্টফোনটি চার্জ দিয়ে পরিবারের এক সদস্যকে ফোন করছিলেন। কিন্তু এরই মধ্যে ডিভাইসটি বিস্ফোরিত হলে তিনি তাতে আহত হন, এবং হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের ওড়িশা রাজ্যের খেরিয়াকানি গ্রামে ঐ কিশোরীর নিজ বাড়ীতে।

মোবাইল ফোনটি বিস্ফোরিত হলে উমা হাতে, বুকে ও পায়ে আঘাতপ্রাপ্ত হন ও জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। এরপর তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, দুপুরের খাবার শেষে উমা ফোনে কল করতে গিয়ে দেখেন যে তাতে চার্জ নেই। তখন তিনি এটি চার্জে দিয়ে কথা বলা শুরু করেন। এর মাঝে ফোনটি বিস্ফোরিত হয়।

অনলাইনে ফোনটির ছবিতে এতে নকিয়া লোগো দেখা যাচ্ছে। ছবি অনুযায়ী, যদি এটি আসলেই নকিয়া ফোন হয়ে থাকে, তাহলে এটি নকিয়া ৫২৩৩ মডেলের একটি ফোন হতে পারে, যা ২০১০ সালে প্রথম বাজারে এসেছিল।

এত পুরাতন একটি ফোন ঠিক কী কারণে বিস্ফোরিত হল তা এখনো জানা যায়নি। হতে পারে এর মধ্যে শর্ট সার্কিট ঘটেছিল যার ফলে ফোনটির ব্যাটারি উত্তপ্ত হয়ে বিস্ফোরণ ঘটেছে।

ফোন বিস্ফোরণ হওয়ার ঘটনা অত্যন্ত অনাকাঙ্ক্ষিত হলেও এটি এর আগেও বহুবার ঘটেছে। এমনকি আইফোন, স্যামসাং গ্যালাক্সি স্মার্টফোনও বিস্ফোরিত হয়েছে। গ্যালাক্সি নোট ৭ এর ব্যাটারিতে আগুন ধরার প্রবণতার কারণে ২০১৬ সালে ফোনটি লঞ্চ করার মাত্র দুই মাসের মধ্যেই বাজার থেকে তুলে নেওয়া হয়

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,409 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.