বয়স্ক লোকদের যত্ন নিতে তৈরি হল বিশেষ রোবট!

carebotবয়স বাড়লে মানুষ ধীরে ধীরে শিশুদের মত হতে শুরু করে। তখন প্রকৃতির নিয়মেই এক সময়কার ব্যস্ত পৃথিবীতে সে একাকীত্ব বোধ করতে থাকে। এসময় এঁদের দরকার হয় বাড়তি সেবা। কিন্তু লোকবলের অভাবে বা (দুঃখজনক হলেও সত্যি বাস্তবতায়) আপনজনদের অবহেলায় সেই যত্নটুকু সব সময় পাওয়া যায়না। তাই বলে এতটা সময় পরিশ্রমের পরে শেষবেলায় কষ্ট করতে হবে পরিবারের প্রবীন সদস্যটির?

না… এটি কখনো কোন অবস্থাতেই কাম্য হতে পারেনা। আর তাইতো বিজ্ঞানের এই যুগে রোবটিক্সের কল্যানে যুক্তরাজ্যের স্যালফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ভাবিত হল “কেয়ারবোট পি৩৭ এস৬৫” নামের যন্ত্রমানব যা আপনি এমনভাবে প্রোগ্রাম করতে পারবেন যে, এটি আপনার ঘরের প্রবীনতম সদস্যের ওষুধ খাওয়ানো, ব্যায়াম করানো, প্রশ্নের জবাব দেয়া এমনকি তাঁর সাথে কৌতুকও বলতে পারবে!

কেয়ারবোট প্রকল্পের গবেষক এবং প্রধান নির্মাতা এন্টনিও এসপিনগার্ডেইরো বলেন এই যন্ত্রটি বাসায় জীবনযাত্রার মান উন্নত করতে পারবে। এটি নির্দিষ্ট ব্যক্তির চেহারা সনাক্ত এবং সে অনুযায়ী প্রত্যেকের জন্য আলাদা আলাদা দরকারী বিষয় স্মরণ করতে পারে। স্মৃতিভ্রংশ মানুষদের স্পিস থেরাপি ও বিষয়বস্তু চেনার ব্যাপারে বিশেষভাবে প্রোগ্রাম করা যাবে কেয়ারবোট ডিভাইসকে।

রোবটটি ব্যবহার করে দূরে অবস্থানরত পরিবারের অন্যান্য সদস্য এবং চিকিৎসকের সাথে ভিডিও লিঙ্ক স্থাপন করে সরাসরি অবস্থার আপডেট খবর জানা যাবে। এটি মানুষের সাথে খেলাধুলায়ও অংশ নিতে পারে।

একজন স্বাভাবিক মানুষের উচ্চতার সমান এই কেয়ারবোট খাবার, ওষুধ ও অন্যান্য জিনিসপত্র আনা নেয়া করতে পারে।

মানুষের সাথে কাজ করতে পারা এই রোবটটি বিক্রির পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার আগে মিঃ এন্টনিও এর পেছনে আরও বিনিয়োগ চান, যাতে এটি সর্বোত্তম সেবা প্রদান করতে পারে।

হয়ত কিছুদিন পরে বাংলাদেশেও সুলভেই পাওয়া যাবে “নিঃসঙ্গের সাথী” অত্যাধুনিক এসব যন্ত্রমানব। ঠিক কতটা আকাঙ্ক্ষিত বা উপলভ্য হবে সেটি নিয়ে নাহয় পরেই ভাবা যাবে!

শুধু একাকীত্বের মধ্যে কেউ না থাকুন…… স্বপ্ন দেখুন! আমরাও আছি আপনার সাথে!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 5,038 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.