এন্ড্রয়েড জগতে স্যামসাংয়ের আধিপত্য দেখে দুশ্চিন্তায় গুগল!

Android-4.1-Jelly-Beanএই মুহুর্তে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত স্মার্ট ডিভাইস অপারেটিং সিস্টেম এন্ড্রয়েড নির্মাতা গুগল, ওএস’টির  অন্যতম প্রধান ওইএম (ওরিজিনাল ইকুইপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার) কোম্পানি স্যামসাংয়ের ক্রমবর্ধমান সাফল্য দেখে খুব একটা খুশি হতে পারছেনা। এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন বাজারে স্যামসাং এখন প্রতিষ্ঠিত ব্র্যান্ড। আরো বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান- এমনকি গুগল নিজেও তাদের ব্র্যান্ডের এন্ড্রয়েড ডিভাইস ব্র্যান্ডিংয়ে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। আর তাই, ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী সার্চ জায়ান্ট এখন স্যামসাং নির্মিত এন্ড্রয়েড ফোনের প্রভাব নিয়ে দুশ্চিন্তার মধ্যে আছে।

বিভিন্ন সংবাদ সূত্র থেকে জানা যায়, গত বছর এক মিটিংয়ে গুগলের এন্ড্রয়েড বিভাগ প্রধান অ্যান্ডি রুবিন তাদের অপারেটিং সিস্টেম ভিত্তিক ডিভাইস নির্মাতাদের অসাধারণ সাফল্যের প্রশংসা করলেও স্যামসাংয়ের ব্যাপারে একটু সতর্কতামূলক কৌশল নেয়ার প্রয়োজনীয়তা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, স্যামসাং যদি প্রতিযোগী কোম্পানিগুলো থেকে আরও বেশি এগিয়ে যায় তবে গুগল একটি অনিশ্চিত অবস্থায় পরে যেতে পারে।

২০১২ সালের হিসেবমতে দক্ষিণ কোরীয় স্যামসাং ইতোমধ্যেই বৈশ্বিক স্মার্টফোন মার্কেটের ৩৯.৬ শতাংশ দখল আয়ত্বে নিয়েছে। অন্যান্য এন্ড্রয়েড ওইএম এর ধারেকাছেও যেতে পারেনি। এই অবস্থানে থেকে স্যামসাং গুগলের কাছ থেকে অতিরিক্ত কোন সুবিধা দাবী করে বসতে পারে।

সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ব্যাপার হবে তখন, যদি গ্যালাক্সি নির্মাতা প্রতিষ্টানটিও অ্যামাজনের মত ওপেন সোর্স এন্ড্রয়েডের নিজস্ব ভার্সন তৈরি করে ডিভাইসে দিয়ে দেয়। এমন করলেও জনপ্রিয়তার এই পর্যায়ে এসে স্যামসাংকে গ্রাহক হারানোর ভয় তাড়িয়ে বেড়াবে না। সুতরাং গুগলের জন্য এটি প্রকৃতপক্ষেই একটি ভাবনার বিষয়।

তবে ওয়েব জায়ান্টও একেবারে ছাড় দেয়ার পাত্র নয়! তারা এন্ড্রয়েড সফটওয়্যারে ব্যবহৃত বিভিন্ন প্রযুক্তির পেটেন্ট সংগ্রহ ও হার্ডওয়্যার ইউনিট চালু করার জন্য ২০১১ সালে ১২.৫ বিলিয়ন ডলার মুল্যে মটোরোলা মবিলিটি কিনে নেয়। অবশ্য এখন পর্যন্ত এই অধিগ্রহণ থেকে চোখে পরার মত তেমন কোন উদ্ভাবন আসেনি। তবে ভবিষ্যতে বাজারে অন্যান্য হাই-প্রোফাইল এন্ড্রয়েড ডিভাইসের সাথে প্রতিযোগিতায় নামতে পারে “মটোরোলা এক্স ফোন”।

ফ্রি এন্ড্রয়েড ব্যবহার করতে গুগলকে কোন টাকা-পয়সা দিতে হয়না ঠিকই, কিন্তু এন্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্মে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে প্রতি বছর মোটা অংকের অর্থ আয় করে গুগল। যেহেতু স্যামসাংয়ের হাতে এর একটি বিশাল অংশ ভাসছে, তাই স্যামসাংকে নিয়ে একটু অন্যরকম ভাবনা আসা গুগলের জন্য মোটেই অস্বাভাবিক নয়।

স্যামসাং কি এন্ড্রয়েড নিয়ে গুগলের ওপর দাদাগিরি দেখাতে যাবে? আপনার কী মনে হয় ???

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,594 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.