ব্রাজিলে “আইফোন” ট্রেডমার্ক মামলায় হেরে গেল অ্যাপল

iphone5Comparison

আগেই হয়ত জেনে থাকবেন ব্রাজিলে অ্যাপল তাদের আইফোন হ্যান্ডসেটের ট্রেডমার্ক সংক্রান্ত অনিশ্চয়তায় ভুগছিল। স্থানীয় একটি কোম্পানি, গ্র্যাডিয়েন্ট ইলেকট্রনিকা’র সাথে “আইফোন” শব্দটিকে পণ্যের নাম হিসেবে ব্যবহার করার একচেটিয়া অধিকার পাওয়ার দাবী আদালত পর্যন্ত গড়ায়। এ ব্যাপারে অ্যাপলের আত্নবিশ্বাস একটু বেশিই ছিল বলে দেখা যায়, কেননা “আইফোন” ট্রেডমার্কের “এক্সক্লুসিভিটি” নিয়ে বেশ তোরজোড় করেছে এই মার্কিন কোম্পানি। শেষ পর্যন্ত কোর্টে এসে হেরে গিয়েছে অ্যাপল।

ব্রাজিলিয়ান প্রতিষ্ঠান গ্র্যাডিয়েন্ট ২০০০ সালে “আইফোন” নামটি তাদের হ্যান্ডসেটে ব্যবহার করার জন্য দেশটির ট্রেডমার্ক কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন জমা দেয় এবং ২০০৮ সালে তারা এর স্বত্ব পায়। মূলত এই যুক্তিতেই পরাজয় ঘটল অ্যাপলের।

ট্রেডমার্ক নিয়ে জটিলতার সম্মুখীন হলেও স্মার্টফোন বিক্রি চালিয়ে যেতে পারবে কোম্পানিটি। তবে এখানে গ্র্যাডিয়েন্ট কর্তৃক অ্যাপলের বিরুদ্ধে মামলা করার সুযোগ থাকবে, কারণ আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী “আইফোন” ট্রেডমার্কের মালিকানা এখন এই স্থানীয় প্রতিষ্ঠানের।

অবশ্য ইতোমধ্যেই সাম্প্রতিক রায়টির বিরুদ্ধে আপিল করেছে আইফোন নির্মাতা অ্যাপল। তাদের যুক্তি হচ্ছে, যেহেতু গ্র্যাডিয়েন্ট জানুয়ারি ২০০৮ থেকে জানুয়ারি ২০১৩ সালের মধ্যে আলোচ্য ট্রেডমার্ক ব্যবহার করে কোন মোবাইল সেট বাজারে ছাড়েনি তাই মার্কিন কোম্পানিটিই আইফোন নামের পূর্ন মালিকানা পাওয়ার অধিকার রাখে।

একই যুক্তিতে অ্যাপল গ্র্যাডিয়েন্টের “আইফোন” ট্রেডমার্ক বাতিল করার দাবী জানিয়েছে।

ব্রাজিলিয়ান ঐ মোবাইল ফোন নির্মাতা বর্তমানে “আইফোন নিও ওয়ান” নামক এন্ড্রয়েড নির্ভর স্মার্টফোন বিক্রি করছে যার বাজার মূল্য ৩০৪ মার্কিন ডলার।

দক্ষিন আমেরিকায় অ্যাপলের বৃহত্তম বাজার হছে ব্রাজিল, যেখানে তাদের ইলেকট্রনিক পণ্য নির্মাণ সহযোগী ফক্সকন স্থানীয় ফ্যাক্টরিতে আইফোন এবং আইপ্যাড উৎপাদন করে থাকে। অ্যাপল যদি আপিলে হেরেও যায়, তারপরেও আদালতের বাইরে আলোচনার মাধ্যমে ট্রেডমার্কের ব্যাপারটি সমাধান করতে পারে কোম্পানিটি। এক্ষেত্রে বেশ মোটা অংকের নগদ অর্থ হাত বদল করার সম্ভাবনা রয়েছে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 3,360 other subscribers

Comments