এন্ড্রয়েড ফোনকে আইফোনের মত সাজানোর উপায়

আপনার কি আইফোন হোমস্ক্রিন এর ডিজাইন ভালো লাগে? আপনার উত্তর যদি হ্যাঁ হয়, তবে আপনি জেনে খুশি হবেন যে গুগল প্লে স্টোরে অনেক অ্যাপ রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসকে আইফোনের রূপ দিতে পারবেন। ব্র‍্যান্ড ভ্যালুর পাশাপাশি অ্যাপল তাদের সাধারণ কিন্তু অসাধারণ ডিজাইন এর জন্য বেশ সুপরিচিত। এই বিষয়টি আইফোন এর অপারেটিং সিস্টেম, আইওএস এর ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।

অনেক অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী আইওএস এর ডিজাইন এর ফ্যান, তাদের জন্য ভালো খবর হলো প্লেস্টোরে থাকা বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে আইওএস এর ন্যায় হোমস্ক্রিন থেকে ক্যালেন্ডার পর্যন্ত ব্যবহার করা সম্ভব।

উল্লেখিত অ্যাপসমূহ ব্যবহার করে অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে আইফোন এর লুক দিতে পারবেন বেশ সহজে। প্লে স্টোর থেকে উল্লেখিত অ্যাপগুলো ইন্সটল করলেই তৎক্ষণাৎ কাজ করা শুরু করবে এসব অ্যাপ। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে আইফোনের মত দেখতে করবেন।

আইওএস লঞ্চার

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের হোমস্ক্রিন থেকে শুরু করে অনেক ফিচার একবারে পরিবর্তন করার ব্যবস্থা রয়েছে লঞ্চারের মাধ্যমে। লঞ্চার অ্যাপ ডাউনলোড করে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের লুক অনন্য মাত্রায় পরিবর্তন করা যায়। 

অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে আইফোনের লুক দিতে Phone 13 Launcher, OS 15 লঞ্চারটি ব্যবহার করতে পারেন। প্রথমে প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ইন্সটল করে নিন। এরপর অ্যাপটি ওপেন করলে সরাসরি আইওএস এর মত দেখতে লঞ্চারে ঢুকে যাবেন। এই লঞ্চার এর সেরা বিষয় হলো এটি অ্যান্ড্রয়েড প্রদত্ত উইজেটসমূহের পাশাপাশি আরো অনেক উইজেটস সাপোর্ট করে।

Phone 13 লঞ্চার এর বামদিকের প্যানেলে কনটাক্ট ও ওয়েদার এর পাশাপাশি সাজেস্টেড অ্যাপের শর্টকাট ও রয়েছে। এই অ্যাপটি পাসকোড ও প্যাটার্ন ব্যবহার করে লকস্ক্রিন ফাংশনালিটি ও সাপোর্ট করে।

আইওএস এক্সপেরিয়েন্স এর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো কন্ট্রোল সেন্টার। ভালো বিষয় হলো আমাদের এই লঞ্চার অ্যাপেই অ্যাকশন সেন্টার ইন-বিল্ট রয়েছে। অর্থাৎ এই অ্যাপটি থাকলে অ্যাকশন সেন্টার ব্যবহার করতে আলাদা অ্যাপ ইন্সটলের প্রয়োজন নেই। আইওএস নোটিফিকেশন বারে নোটিফিকেশন শো করতে হলে প্রথমে অ্যাপ ওভারলে এর পারমিশন প্রদান করতে হবে। এছাড়া লঞ্চার এর সেটিংস থেকে ওয়ালপেপার, সোয়াইপ অ্যাকশন, লক স্ক্রিন, অ্যাপ লক, স্ক্রল ইফেক্ট, ডক, আইফোন এক্স নচ সহ আরো অনেক ফিচার মডিফাই করার সুযোগ রয়েছে।

কলিং

ফোনে কথা বলার জন্য Phone অ্যাপটি ব্যবহার করা হয়। আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের কলিং অপশন ও কনটাক্ট বুক এ যদি আইওএস এর ছোঁয়া প্রদান করতে চান, তাহলে iCall iOS 15 – Phone 13 Call অ্যাপটি প্লে স্টোর থেকে ইন্সটল করে নিন। এই অ্যাপে আইওএস এর মত ডায়ালপ্যাড এর পাশাপাশি আইওএস এর ন্যায় কনটাক্ট বুক ও রয়েছে। অ্যাপটি ডাউনলোডের পর ওপেন করে প্রয়োজনীয় পারমিশন প্রদান করে এটিকে আপনার ফোন অ্যাপের সাথে রিপ্লেস করে দিতে পারেন। অর্থাৎ ডিফল্ট ডায়ালার হিসেবে সেট করতে পারেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

এন্ড্রয়েড ফোনকে আইফোনের মত সাজানোর উপায়

👉 আইফোনে যে নতুন চমক নিয়ে আসছে iOS 16

মিউজিক প্লেয়ার

আমাদের মধ্যে অধিকাংশ অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীগণ অফলাইন মিউজিক প্লেয়ার ব্যবহার করে অফলাইনে গান শুনে থাকে, তাই এখানে আমরা মিউজিক প্লেয়ার অ্যাপ এর আইওএস এর মত দেখতে অল্টারনেটিভ সম্পর্কে জানবো। iMusic – Music Player i-OS15 অ্যাপটি অনেকটা দেখতে অ্যাপল এর ডিফল্ট মিউজিক অ্যাপ, অ্যাপল মিউজিক এর মত। অ্যাপটি দ্বারা MP3, AAC, FLAC, 3GP, OGG, ও MIDI অডিও ফাইল শোনা যাবে। 

অ্যাপটিত ডিজাইন হুবহু অ্যাপল মিউজিক অ্যাপের মত। অ্যাপটিতে রয়েছে স্লিপ টাইমারের মত গুরুত্বপূর্ণ ফিচার। এছাড়া কোনো গান সার্চ করে খুঁজে নেওয়া বা অফলাইনের জন্য লিরিক ডাউনলোড করার সুবিধা প্রদান করে অ্যাপটি। উল্লেখ্য যে iMusic অ্যাপটিতে এড রয়েছে, যা মাঝেমধ্যে সম্পূর্ণ স্ক্রিনজুড়ে প্রদর্শিত হয়। অনেক সময় গানের এলবাম আর্টের স্থলেও দেখা যায়। এসব বিষয়ে যদি আপনার কোনো সমস্যা না থাকে তাহলে আইওএস এর মত দেখতে এই মিউজিক প্লেয়ার অ্যাপটি ডাউনলোড করুন ও গান শোনার কাজে ব্যবহার করুন।

👉 অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্পিড বাড়ানোর কার্যকরী উপায়

নোটস

ফোনের নোটস অ্যাপ আমাদের সবার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। iNotes iOS 15 – Phone 13 Notes অ্যাপ ব্যবহার করে আইফোন এর Notes অ্যাপের ডিজাইনে নোট করার সুবিধা পেয়ে যাবেন। iNotes অ্যাপটির ডিজাইন সম্পূর্ণভাবে আইওএস এর Notes থেকে তুলে আনা হয়েছে তা দেখেই বুঝা যায়। অ্যাপটি ব্যবহার করে অন্য দশটি অ্যাপের মত নোট নেওয়ার পাশাপাশি টু-ডু এড করার সুবিধাও রয়েছে। 

ক্যালেন্ডার

ফোনে ক্যালেন্ডার একটি দরকারি অ্যাপ, আর আপনি যদি নিয়মিত ক্যালেন্ডার অ্যাপ ব্যবহার করেন, সেক্ষেত্রে iCalendar – Calendar iOS 15 আইওএস ভিজ্যুয়াল এর পাশাপাশি অসাধারণ এক্সপেরিয়েন্স ও অফার করছে। অ্যাপটি ডাউনলোড করে তারিখ চেক করার পাশাপাশি ইভেন্ট এড করা যাবে।

এভাবে খুব সহজে উল্লেখিত অ্যাপগুলো ব্যবহার করে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে আইফোনে পরিণত করতে পারবেন।

👉 ভিডিওঃ স্মার্টফোনে ব্যাটারি ব্যাকআপ বৃদ্ধির সেরা উপায়

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,398 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.