মাইক্রোসফট ‘হলোলেন্স’ এর মাধ্যমে ঘরে বসেই দেখা যাবে মঙ্গল গ্রহ!

microsoft-hololens

মাইক্রোসফট তাদের পরবর্তী প্রজন্মের আবিস্কার উইন্ডোজ হলোগ্রাফিক ওয়্যারাবল ‘হলোলেন্স’ প্রকাশ করল। এর বর্ধিত সুবিধা হল, এটি একটি হেডসেট, যেটা অনেকটাই বর্তমান জনপ্রিয়তা অর্জনকারী গুগলের ভার্চুয়াল রিয়েলিটি গ্লাসের মত। কিন্তু প্রযুক্তি বিশ্বে মাইক্রোসফটই প্রথম যারা কিনা পরিধানযোগ্য ডিভাইসে হলোগ্রাফিক সুবিধা যোগ করল।

hololens 23423

হলোলেন্স এখন পর্যন্ত পৃথিবীর মধ্যে সর্বাধুনিক হলোগ্রাফিক কম্পিউটার যা আগে কেউ কখনো দেখেনি। এটি একটি স্বয়ংসম্পূর্ণ কম্পিউটার যাতে থাকছে সিপিইউ, জিপিইউ এবং হলোগ্রাফিক প্রসেসর। দেখার জন্য ডার্ক ভিজর যা ডিসপ্লের ভিতর দিয়ে দেখায়। আরও আছে হলোগ্রাফিক শব্দ শোনার ব্যবস্থা। হলোলেন্সে আরও আছে এক সেট মোশন এবং এনভায়রমেন্ট সেন্সর।

এই মুহুর্তে ডিভাইসটির প্রথমিক উন্নয়ন চলছে তবে উইন্ডোজ ১০ এর টাইম ফ্রেমে আমরা হলোলেন্স পাচ্ছি।

এন্টারপ্রাইজ এবং সাধারণ ব্যবহারকারীদের কথা চিন্তা করেই হলোলেন্স এর দাম নির্ধারণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মাইক্রোসফট এর সিইও সত্য নাদেলা।

hololens mars

ভবিষ্যৎ কম্পিউটিং এবং আনন্দের জন্য হলোলেন্স প্রকাশ একটি উচ্চাশা বটে। হলোলেন্স এর সাহায্যে লিভিং রুমে বসে গেম খেলা। মঙ্গল গ্রহে ঘোরার মত সব অভিজ্ঞতা নেয়া যাবে। এর মাধ্যমে আপনি আপনার কম্পিউটারের অ্যাপগুলোকে চোখের সামনে বাস্তব বস্তুর মত দেখতে পাবেন।

২১ জানুয়ারির বিশেষ উইন্ডোজ ১০ ইভেন্টে উইন্ডোজ ১০, হলোগ্রাফিক হেডসেট ‘হলোলেন্স’, উইন্ডোজ ১০ মোবাইল সহ বেশ কিছু নতুন প্রযুক্তি প্রদর্শন করেছে মাইক্রোসফট। সবগুলো চমক সম্বন্ধে একসঙ্গে জানতে চাইলে আমাদের এই লাইভ ব্লগ দেখুন।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,584 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *