আইফোনে কন্টাক্ট পোস্টার তৈরি এবং কাস্টমাইজ করার উপায়

যেকোনো অ্যাপল ডিভাইসে কল করা থেকে শুরু করে কন্ট্যাক্ট ইনফরমেশন শেয়ার এবং আরো অনেক কাজ করার ক্ষেত্রে আপনি অন্য অ্যাপল ডিভাইসে নিজেকে কিভাবে উপস্থাপন করবেন সে বিষয়ে কন্ট্যাক্ট পোস্টার আপনাকে আপনার নিজের ইচ্ছা মতো সিদ্ধান্ত নেয়ার সুযোগ প্রদান করে থাকে। অ্যাপল তাদের নতুন আইওএস ১৭ এর আপডেটে অনেক দারুন কিছু ফিচার নিয়ে এসেছে। এর মধ্যে কন্ট্যাক্ট পোস্টার অন্যতম।

কন্ট্যাক্ট পোস্টারের মাধ্যমে আপনি আপনার নিজস্ব এপিয়ারেন্স তৈরি করে সেটি অন্যান্য সকলের সাথে শেয়ার করতে পারেবেন। অনেকেই হয়তো আইফোনের কন্ট্যাক্ট পোস্টার কিভাবে তৈরি করতে হবে সেটি সম্পর্কে অবগত না। তাই আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে আমরা অ্যাপলের নতুন কন্ট্যাক্ট পোস্টার সম্পর্কে বিস্তারিত জানার পাশাপাশি কিভাবে নিজের কন্ট্যাক্ট পোস্টার বানাতে হয় সে বিষয়ে আলোচনা করবো। 

কিভাবে কন্ট্যাক্ট পোস্টার বানাতে হয়?

অ্যাপলের আইওএস ১৭ আপডেটের পর থেকে ব্যবহারকারীরা কন্টাক্ট পোস্টার নামের নতুন ফিচারটির সুবিধা নিতে পারবেন। আপডেটের পর থেকেই আইফোন ব্যবহারকারীদের কাছে সুবিধাটি অনেক আকর্ষণীয় একটি ফিচার হিসেবে পরিলক্ষিত হয়েছে। আপনি প্রথমবার আপডেট দেওয়ার পরে যখন ফোন অথবা কন্ট্যাক্টস অ্যাপ ওপেন করবেন তখন আপনাকে আপনার পোস্টার তৈরি করার জন্য বলা হবে।

অথবা আপনি চাইলে ফোন অ্যাপ থেকেও কন্টাক্ট পোস্টার বানাতে পারবেন। ফোন অ্যাপ ওপেন করার পরে লিস্টের একবারে উপরে থাকা কন্ট্যাক্ট ইনফরমেশনে ট্যাপ করতে হবে। এরপরে স্ক্রিনের উপরে থাকা কন্ট্যাক্ট ফটো এন্ড পোস্টার নির্বাচন করতে হবে। এবার স্ক্রিনে থাকা সকল নির্দেশনা অনুসরণ করে আপনার প্রথম নাম এবং উপাধি লিখুন। আপনি আপনার পুরো নাম, ছোট নাম কিংবা একটি ডাকনাম ব্যবহার করবেন কিনা সেটি নির্ধারণ করতে পারবেন। তার নিচে আপনি চাইলে ক্যামেরা দিয়ে নতুন ছবি তুলতে পারবেন অথবা ফটো থেকে একটি ছবি নির্বাচন করতে পারবেন। অথবা আপনি চাইলে একটি মেমোজি কিংবা আপনার নামের  প্রথম অক্ষর দিয়ে একটি সাধারন মনোগ্রাম নির্ধারন করতে পারবেন।

এই প্রোসেসটি আইওএস ১৬ তে থাকা ব্যাকগ্রাউন্ড ক্রিয়েশন টুলস এর সাথে অনেকটা সামঞ্জস্যপূর্ণ। ব্যাকগ্রাউন্ড ক্রিয়েশন টুলস ব্যবহার করার মাধ্যমে আইফোনের লক স্ক্রিনের জন্য বিভিন্ন উইজেট এবং ডেপথ ইফেক্ট সম্বলিত ওয়ালপেপার সুবিধা দেওয়া হয়েছে। কন্ট্যাক্ট পোস্টার তৈরি করার ক্ষেত্রেও আপনার নাম আপনার সাবজেক্টের সামনে ওভারলে করার মতো সুবিধা পেয়ে যাবেন। এছাড়া একই ছবির উপর ভিন্ন ভিন্ন ফিল্টার ব্যবহার করার মাধ্যমে প্রতিটি ছবিতেই দারুন অভিজ্ঞতা পাওয়া সম্ভব হয়।

এডিট করার পর আপনি যখন আপনার কাজের উপর সন্তুষ্ট হয়ে যাবেন তখন ডান বাটনে ক্লিক করে আপনি প্রিভিউ করে পোস্টার সেভ করতে পারবেন। আপনাকে এর পরে আপনার ব্যাকগ্রাউন্ডের উপর ভিত্তি করে একটি পোস্টার তৈরি করতে বলা হতে পারে। আপনাকে এখানে আপনার ছবি ক্রপ করার পাশাপাশি নতুন করেও ফিল্টার দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। আপনি চাইলে এই সেকশনের সুবিধা নিতে পারেন অথবা চাইলে স্কিপ করতে পারবেন। এখান থেকে যে ছবিটি এডিট করা হবে সেটি আপনার অ্যাপল আইডিতে থাকা লিংক করা ছবির সাথে পরিবর্তন হয়ে যাবে।

সর্বশেষে আপনার তৈরি করা পোস্টার শেয়ার করার জন্য অনেকগুলো অপশন থাকবে। এর মাধ্যমে আপনি আপনার নাম এবং ছবি অটোমেটিকালি শেয়ার করতে পারবেন এবং শেয়ার করার ক্ষেত্রে আপনার নাম কিভাবে ফুটে উঠবে অথবা আপনি কার সাথে শেয়ার করবেন সেগুলো নির্ধারণ করতে পারবেন। ডিফল্ট হিসেবে আপনার কন্ট্যাক্টের কাছে কন্ট্যাক্ট পোস্টার শেয়ার করার অপশন থাকলেও আপনি যদি আরো বেশি সিলেক্টিভ হন তাহলে অলওয়েজ আস্ক অপশন নির্বাচন করতে পারেন। এরপরে ডান বাটনে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনার পোস্টার সেভ করতে পারবেন। এর ফলে আপনার ফোন অথবা কন্ট্যাক্টস অ্যাপের কন্ট্যাক্ট ইনফরমেশন পরিবর্তন হয়ে যাবে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

contact poster

👉 আইফোন ১৫ প্রো ব্যবহারকারীদের জন্য দুঃসংবাদ

পোস্টার পরিবর্তন করে কন্ট্যাক্ট ইনফরমেশন আপডেট করা

আপনি যদি কোনো ধরনের পরিবর্তন আনতে চান তাহলে ফোন অ্যাপে থাকা কন্ট্যাক্টস ট্যাবে গিয়ে স্ক্রিনের উপরে থাকা কন্ট্যাক্ট ইনফোতে ট্যাপ করতে হবে। আপনি যদি আপনার কন্ট্যাক্ট ফটো এর স্টাইল পরিবর্তন করতে চান তাহলে প্রিভিউ এর নিচে থাকা কট্যাক্ট ফটো এন্ড পোস্টারে ট্যাপ করতে হবে। এখানে এডিট অপশনে ট্যাপ করার মাধ্যমে আপনি আপনার সেভ করা কন্ট্যাক্ট পোস্টার দেখতে পারবেন। আপনি এখানে লক্ষ্য করতে পারেন যে আপনি চাইলে একাধিক কন্ট্যাক্ট পোস্টার তৈরি করে নিজের ইচ্ছা মতো সেগুলোর মধ্যে নির্বাচন করতে পারবেন। কিংবা কাস্টমাইজ এ ট্যাপ করে আপনার বর্তমান কন্ট্যাক্ট পোস্টার এডিট করতে পারবেন। 

আপনি যদি নতুন কোনো লুক ব্যবহার করতে চান কিংবা বর্তমানে থাকা ছবি না হারিয়ে অন্য কোনো স্টাইল ব্যবহার করতে চান তাহলে এই পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন। আপনার কন্ট্যাক্ট কার্ড এবং বিস্তারিত তথ্যে যদি কোনো ধরনের পরিবর্তন আনতে চান তাহলে পেজের ডান দিকের উপরে থাকা এডিট অপশনে ট্যাপ করুন। এখানে আপনি আপনার কন্ট্যাক্ট কার্ডে আপনার জন্ম তারিখ, লিংক করা একাউন্ট সহ যাবতীয় সকল তথ্য সংযুক্ত করতে পারবেন। 

👉 আইফোন ১৫ নাকি স্যামসাং গ্যালাক্সি S23, কোনটি সেরা?

কন্টাক্ট পোস্টার তৈরিতে ক্রিয়েটিভ হওয়া

আপনি আপনার কন্ট্যাক্ট পোস্টার যেভাবেই শেয়ার করে থাকেন না আপনার কন্ট্যাক্টের মধ্যে অনেকেরই এটি প্রায়শই দেখার প্রয়োজন পড়বে। আপনি যখন কাউকে কল করবেন কিংবা কেউ কোনো মেসেজ বা ইমেইলের থ্রেডে আপনার নামের উপরে ক্লিক করবে তখন আপনার কন্ট্যাক্ট পোস্টার সামনে চলে আসবে। তাই আপনি আপনার কন্ট্যাক্ট পোস্টার তৈরির ক্ষেত্রে যতগুলো ইচ্ছা এবং যতটা পারেন ক্রিয়েটিভ হবার চেষ্টা করুন। যার ফলে আপনি আপনার এপিয়ারেন্স নির্ধারণ করার জন্য অনেক বেশি অপশন পেয়ে যাবেন। কন্ট্যাক্ট পোস্টার তৈরি করার ক্ষেত্রে কোনো ধরনের নিয়ম বেধে দেওয়া হয়নি। অর্থাৎ আপনি চাইলে আপনার সম্পূর্ণ নাম ব্যবহার না করে ডাকনাম ব্যবহার করতে পারবেন। কিংবা আপনি চাইলে আপনার সঠিক নামও ব্যবহার না করতে পারেন। 

অ্যাপল তাদের ব্যবহারকারীদের জন্য সর্বদা সর্বোচ্চ সেবা এবং প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ফিচার নিয়ে আসে। যার ফলে ব্যবহারকারীদের কাছে আইফোনের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আইওএস ১৭ এর ক্ষেত্রেও আইফোন কন্ট্যাক্ট পোস্টারের মতো দারুন ফিচার নিয়ে এসেছে যেটি ব্যবহারের ফলে আপনার আইফোন ব্যবহারের অভিজ্ঞতা অনেকাংশে বেড়ে যাবে। কন্ট্যাক্ট পোস্টার সম্পর্কিত আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনাদের কেমন লেগেছে তা আমাদের কমেন্ট এর মাধ্যমে জানিয়ে দিতে পারবেন। এছাড়া নিত্য নতুন টেকনোলজি বিষয়ক নানা ধরনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এবং প্রয়োজনীয় টিপস এন্ড ট্রিকস পেতে চোখ রাখুন আমাদের এই ওয়েবসাইটে। 

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,572 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *