সকল মোবাইলে ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স নেয়ার উপায়

উপরের ভিডিওটি প্লে করে অথবা নিচের পোস্টটি পড়ে আপনি সব সিমে ইমার্জেন্সি ব্যাল্যান্স ধার নেয়ার উপায় জানতে পারেন।

একসময় মোবাইলের ব্যাল্যান্স শেষ হয়ে গেলে মিসড কল ছাড়া আর কোন গতি ছিল না। কিন্তু বর্তমানে অপারেটররা ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নামে এক ফিচারের মাধ্যমে গ্রাহকদেরকে আর ব্যাল্যান্সহীন অবস্থায় অচল থাকতে দিচ্ছে না। সব মোবাইল অপারেটরই তাদের নিজস্ব বিভিন্ন শর্তের মাধ্যমে গ্রাহকদেরকে ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স দিচ্ছে। একেক অপাররেটরের এমার্জেন্সি ব্যালেন্স পাওয়ার শর্ট কোড ও শর্ত একেক রকম। তাই বিপদের সময় সবকিছু একসাথে পেতেই আজকের এই পোস্ট।

আরো পড়ুনঃ ইমারজেন্সি ইন্টারনেট বা ডেটা লোন নেয়ার উপায় জানতে এখানে ক্লিক করুন

সব সিমে ইমার্জেন্সি ব্যাল্যান্স ধার নেয়ার উপায়

সকল সিমে ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেয়ার উপায় ও এমারজেন্সি ব্যালেন্স জানার শর্টকোড এই পোস্টে তুলে ধরা হল।

গ্রামীণফোন ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স

শর্ট কোডঃ *121*1*3#

পরিমাণঃ সর্বনিম্ন ১১ টাকা থেকে গ্রাহকভেদে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা

শর্তাবলীঃ

  • সকল জিপি প্রিপেইড (বন্ধু, স্মাইল, বিজনেস সলিউশন (১,২,৩, ৫ ও সফল) প্রিপেইড, একতা (১,২,৩,৪), জিপিপিপি, ভিপি গ্রাহকগণ ডায়নামিক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স হিসেবে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা পাবেন
  • সকল গ্রাহকের জন্য সর্বনিম্ন ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স ১১ টাকা
  • *121*1010*2# ডায়াল করে আপনার জন্য বরাদ্দকৃত ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স জেনে নিন
  • ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স পেতে গ্রাহককে  *121*1*3# (চার্জ ফ্রি) ডায়াল করতে হবে
  • গ্রাহকগণ যেকোনো ভয়েস কল ও যেকোনো SMS-এর জন্য (পোর্ট সহ) ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স ব্যবহার করতে পারবেন
  • ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স থেকে কোনো ইনকামিং SMS, মাসিক সাবস্ক্রিপশন ফি এবং EDGE ইউসেজ-এর চার্জ গ্রহণ করা হবে না
  • ব্যবহারের দিক থেকে ক্রয়কৃত মিনিট (যেমন: বান্ডল) ও অন্যান্য ফ্রি বোনাস, ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স-এর চেয়ে অগ্রাধিকার পাবে
  • গ্রাহকের ইউসেজ-এর উপর ভিত্তি করে ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স-এর পরিমাণ নির্ধারিত হবে
  • ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স-এ রোমিং ইউসেজ প্রযোজ্য নয়
  • গ্রাহকের পরবর্তী রিচার্জ-এ, রিচার্জ কৃত বা রিফিল কৃত অ্যামাউন্ট থেকে যা খরচ শুধুমাত্র সেটুকুই ফেরত নেয়া হবে ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স অ্যামাউন্ট কেটে নেয়া হবে। আংশিক রিচার্জ-এর ক্ষেত্রে (খরচকৃত ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স-এর চেয়ে কম), আংশিক অ্যামাউন্ট রিচার্জ অ্যামাউন্ট থেকে কেটে নেয়া হবে এবং অবশিষ্ট অ্যামাউন্ট পরবর্তী রিচার্জ বা রিফিল থেকে কেটে নেয়া হবে
  • ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স অ্যামাউন্ট যেকোনো সময় ব্যবহার করা যাবে
  • পূর্বের অ্যামাউন্ট পরিশোধ করার পরই গ্রাহকগণ পরবর্তী ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স নিতে পারবেন
  • ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স অ্যামাউন্ট চেক করতে গ্রাহককে*121*1*2# ডায়াল করতে হবে (চার্জ ফ্রি)
  • ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স-এ প্রডাক্ট ট্যারিফ ও প্রডাক্ট পাল্‌স প্রযোজ্য
  • ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স উপভোগ করতে হলে গ্রাহকের মূল অ্যাকাউন্টের মেয়াদ থাকতে হবে
  • অন্যান্য সকল ট্যারিফ, সার্ভিস ও পাল্‌স অপরিবর্তিত থাকবে
  • সকল চার্জে ৫% সম্পূরক শুল্ক প্রযোজ্য। সম্পূরক শুল্কসহ মোট মূল্যের উপর ১৫% ভ্যাট প্রযোজ্য+ মূল কলরেটের উপর ১% সারচার্জ প্রযোজ্য
  • এই অফারটি skitto গ্রাহকদের জন্য প্রযোজ্য নয়
  • সূত্রঃ ওয়েবসাইট

স্কিটো ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স

স্কিটো সিমে ২টাকার কম ব্যালেন্স থাকাকালীন স্কিটো অ্যাপের মেন্যুতে গিয়ে ৫টাকা ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স পেতে পারেন। মেয়াদ ৩০ দিন। পরবর্তী রিচার্জে এই লোন কেটে নেয়া হবে। স্কিটো ইমার্জেন্সি লোন দিয়ে কল, মেসেজ এমনকি ইন্টারনেটও ব্যবহার করা যাবে। ব্যালেন্স দেখতে স্কিটো অ্যাপ ব্যবহার করুন।

রবি ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স ধার নেয়ার উপায়

শর্ট কোডঃ *123*007# অথবা START O লিখে 8811 নম্বরে পাঠান। *1# অথবা *222# ডায়াল করে আপনার ঝটপট ব্যালেন্স চেক করুন।

পরিমাণঃ সর্বনিম্ন ২১ টাকা থেকে গ্রাহকভেদে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা

শর্তাবলীঃ

  • এই ফিচারের মাধ্যমে সকল রবি প্রিপেইড গ্রাহক তাদের পূর্বের ব্যবহারের নিরিখে ২১-১০০ টাকা পর্যন্ত চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্স পাবেন।
  • গ্রাহকের ব্যবহার ও রিচার্জের ধরণ অনুযায়ী প্রতি মাসে চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্স ক্রেডিট সীমা পরিবর্তিত হবে।
  • চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্সের নিবন্ধন বাতিল করতে গ্রাহককে কোন নিবন্ধন বাতিলের কোড ডায়াল করতে হবে না। প্রতিবার কেবল ব্যালেন্স নেওয়ার জন্যে উপরের কোড ডায়াল করবেন।
  • গ্রাহক নিচের নির্দেশনা অনুযায়ী চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্সের স্টেটাস চেক করতে পারবেন:
  • ইউএসএসডি: *১২৩*০০৭# (বিনা মূল্যে) ডায়াল করতে পারেন, অথবা
  • এসএমএস: START O লিখে ৮৮১১ নম্বরে পাঠান।
  • গ্রাহক চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্টের টাকা যে কোন ভয়েস কল, লোকাল এসএমএস, এবং যে কোন ভয়েস ও বান্ডেল কেনার জন্যে ব্যবহার করতে পারবেন। লোনের টাকাসহ গ্রাহক ১ মিনিট অতিরিক্ত পাবেন। নিচে মিনিটের বিস্তারিত দেওয়া হলো:

 রবি ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স

  • ঋণ পরিশোধের সময় সামান্য পরিমাণ সেবার ফি কেটে রাখা হবে।
  • প্রথমে মূল ঋণের টাকা পরিশোধ হবে; এরপর ফি কর্তন হবে।
  • গ্রাহক পরবর্তীতে রিচার্জ করলে চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্স(রিচার্জের টাকা অথবা মোট ঋণের ৭০%, যেটি কম হয়, সেটি প্রযোজ্য) রিচার্জের টাকা থেকে কর্তন হয়ে যাবে।
  • গ্রাহক চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্সের সম্পূর্ণটা অথবা পুরো সীমাই ব্যবহার করতে পারবেন।
  • গ্রাহক এই ক্রেডিট সীমা পুরোপুরি ব্যবহার করার পরে ঋণ পরিশোধ না করলে অন্য কোন ক্রেডিট নিতে পারবেন না।
  • চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্স নিলেও গ্রাহকের প্যাকেজ সংশ্লিষ্ট কল চার্জ ও পালস্ অপরিবর্তিত থাকবে।
  • চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্স উপভোগ করতে হলে গ্রাহকের মূল অ্যাকাউন্টের মেয়াদ থাকতে হবে।
  • চাহিদা ভিত্তিক ঝটপট ব্যালেন্স দিয়ে কোন আইডিডি/রোমিং ব্যবহার করা যাবে না।
  • ক্যাম্পেইনের মেয়াদ: পরবর্তী নোটিস না দেওয়া পর্যন্ত চালু থাকবে।
  • সূত্রঃ ওয়েবসাইট

এয়ারটেল ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স

শর্ট কোডঃ *141# অথবা ডায়াল 20141

পরিমাণঃ গ্রাহকভেদে ১২ থেকে ১০০ টাকা

শর্তাবলীঃ

  • সার্ভিসটির এলিজিবিলিটি গ্রাহকদের প্রতি মাসে ক্রেডিট ব্যবহারের উপর নির্ভর করবে।
  • পূর্ববর্তী লোন ফেরত দেয়ার আগ পর্যন্ত নতুন করে ইমারজেন্সি ব্যাল্যান্স নেয়া যাবে না।
  • রিচার্জের পর অটোমেটিক লোণ এমাউন্ট ও সাথে সার্ভিস চার্জ কেটে নেয়া হবে।
  • ব্যালেন্স জানতে ডায়াল করুন *1#
  • প্রতিবার লোন নেয়ার জন্য সার্ভিস চার্জ হিসেবে ভ্যাট ও সারচার্জ সহ ২.৪৪ টাকা কর্তন করা হবে।
  • সূত্রঃ ওয়েবসাইট

বাংলালিংক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স

শর্ট কোডঃ *874#

পরিমাণঃ গ্রাহকভেদে সর্বনিম্ন ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা

শর্তাবলীঃ

  • অগ্রিম ব্যালেন্স আনলিমিটেড মেয়াদে যে কোনো উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা যেতে পারে
  • বাংলালিংক অ্যাডভান্স নেয়ার পর, ঋণের পরিমাণ স্বয়ংক্রিয়ভাবে গ্রাহকগণের পরবর্তী রিচার্জের সাথে সমন্বয় করা হবে
  • অ্যাডভান্স লোন (ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স) কত বাকী আছে তা জানতে ডায়াল করুন *874*0#
  • গ্রাহকদের বাংলালিংক অ্যাডভান্স সার্ভিস উপভোগ করতে মোবাইলে ৳১০ বা তার কম ব্যালেন্স থাকতে হবে
  • ১৫ টাকা বা তার বেশি লোন এর ক্ষেত্রে SMS চার্জ হিসাবে ১.৫ (VAT SD & SC সহ)কেটে নেয়া হবে
  • পূর্ববর্তী বাংলালিংক অ্যাডভান্স শোধ না হওয়া পর্যন্ত গ্রাহকরা আর একটি বাংলালিংক অ্যাডভান্স ব্যালেন্সের জন্য অনুরোধ করতে পারবেন না
  • সকল বাংলালিংক প্রিপেইড এবং কল অ্যান্ড কন্ট্রোল গ্রাহকরা এই সেবা উপভোগ করতে পারবেন।
  • সূত্রঃ ওয়েবসাইট

টেলিটক ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স

শর্ট কোডঃ *1122# ডায়াল করুন, অথবা Loan লিখে 1122 নম্বরে মেসেজ পাঠান

পরিমাণঃ গ্রাহকভেদে ১০, ২০, ৩০ কিংবা ৫০ টাকা পাবেন।

শর্তাবলীঃ

  • ইমারজেন্সি ব্যাল্যান্স এর মেয়াদ আনলিমিটেড থাকবে।
  • ইমারজেন্সি ব্যাল্যান্স রিচার্জের পর অটোমেটিক কেটে নেয়া হবে।
  • ব্যালেন্স জানতে *1122*0# ডায়াল করুন অথবা SMS করুন Loan info লিখে 1122 নাম্বারে
  • প্রতি মাসে ক্রেডিট ব্যবহারের উপর নির্ভর করে গ্রাহকের সর্বোচ্চ ইমারজেন্সি ব্যাল্যান্স লিমিট পরিবর্তিত হবে।
  • ইমারজেন্সি ব্যাল্যান্সে সার্ভিস ফি কর্তন করা হবে।
  • সার্ভিস ফি এর সাথে ভ্যাট ও সারচার্জও যুক্ত হবে।
  • ইমারজেন্সি ব্যাল্যান্স এর সর্বোচ্চ লিমিট নিচের ছকে দেয়া শর্তানুযায়ী নির্ধারিত হবে

 

 টেলিটক এমারজেন্সি ব্যালেন্স

সোর্সঃ ওয়েবসাইট

আরো পড়ুনঃ ইমারজেন্সি ইন্টারনেট বা ডেটা / MB লোন নেয়ার উপায় জানতে এখানে ক্লিক করুন

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 4,400 other subscribers

Comments