অনলাইনে আয় করার সেরা ওয়েবসাইট

অনলাইনে কাজ করা বর্তমানে বহুল পরিচিত একটি পেশা। দক্ষতা অনুযায়ী বিভিন্ন প্রকারের কাজ করে ঘরে বসেই হাজার হাজার ডলার আয় করা সম্ভব। বিশ্বের বিভিন্ন বড় বড় প্রতিষ্ঠান আউটসোর্সিং প্রজেক্টের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সারদের দ্বারা কাজ করিয়ে নিচ্ছে। এদের মধ্যে রয়েছে এয়ারবিএনবি, ড্রপবক্স প্রভৃতি। বাংলাদেশ এখন বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সার কমিউনিটি।

এই বিশাল সংখ্যক মানুষের অধিকাংশ বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং কাজ শুরু করেছেন। সেই ওয়েবসাইটগুলির ঠিকানা কী? জানতে চান? এই পোস্টে আমরা অনলাইনে ইনকাম করার সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইটগুলোর মধ্য থেকে কয়েকটি ওয়েবসাইট নিয়ে আলোচনা করছি।

ইন্টারনেটে আয় করার সেরা সাইট এর তালিকা

১. আপওয়ার্ক

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং সাইট কোনটি? অন্তত আমার কাছে মনে হয় উত্তরটা হবে ‘আপওয়ার্ক’। এটি প্রথমে ওডেস্ক নামে কার্যক্রম শুরু করে। ২০১৫ সালে সাইটটি ওডেস্ক নাম পরিবর্তন করে আপওয়ার্ক নাম নেয়। তখন আরেকটি জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম ‘ইল্যান্স’ আপওয়ার্কের সাথে একীভূত হয়।

আপওয়ার্কে ফিক্সড এবং ঘন্টা ভিত্তিক (আওয়ারলি) রেটে কাজ পাওয়া যায়। এখান থেকে অর্থ তুলতে পেপাল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি উপলভ্য আছে। আপনার পেপাল না থাকলেও চিন্তার কিছু নেই। কারণ সরাসরি বাংলাদেশি ব্যাংক একাউন্টে আপওয়ার্ক থেকে টাকা আনতে পারবেন। তাছাড়া পেওনিয়ার তো আছেই।

আপওয়ার্ক যেহেতু অনেক জনপ্রিয় একটি ফ্রিল্যান্সিং সাইট, তাই এতে প্রতিযোগিতাও অনেক বেশি। এখানে একাউন্ট খুলে সাথে সাথেই আপনি কাজের জন্য এপ্লাই করতে পারবেন না। আগে আপনার একাউন্ট এপ্রুভ হতে হবে। এছাড়া সাইটটিতে সঠিক তথ্য না দিলে পরে আপনার একাউন্টে সমস্যা হবে। তাই আপওয়ার্কে কাজ শুরু করার আগে প্ল্যাটফর্মটি সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিন।

অবশ্য সকল ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্মেই আপনাকে সঠিক এবং সত্য তথ্য দিয়ে একাউন্ট খুলতে হবে। কারণ তা না হলে পেমেন্ট এবং অন্যান্য বিষয় নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হবে। আপওয়ার্ক এর মাধ্যমে অনলাইনে আয় করার বিস্তারিত জানতে আমাদের ডেডিকেটেড পোস্টটি দেখুন।

২. ফাইভার

ফাইভারে ৫ ডলার থেকে শুরু করে ভাল অ্যামাউন্টের প্রজেক্ট পোস্ট করা হয়। লোগো ডিজাইন, ভয়েস রেকর্ড, আর্টিকেল লেখা, প্রভৃতির জন্য ফাইভার অত্যন্ত জনপ্রিয়। বায়াররা সরাসরি ফ্রিল্যান্সার সার্চ করেও প্রজেক্ট অফার করেন এই সাইটে।

ফাইভারে সবই ফিক্সড প্রাইসের প্রজেক্ট (ঘন্টাভিত্তিক কোনো জব ফাইভারে এখনও আসেনি)। ফাইভার থেকে আয়কৃত অর্থ তোলার জন্য পেপাল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন।

৩. ফ্রিল্যান্সার ডটকম

ফ্রিল্যান্সার ডটকম হচ্ছে একদম প্রথম সারিতে থাকা একটি অনলাইন ভিত্তিক জব মার্কেটপ্লেস, যেখানে ফিক্সড প্রাইস এবং আওয়ারলি রেটের প্রজেক্ট পাওয়া যায়। এখানে প্রচুর অনলাইন জব রয়েছে, এবং ফ্রিল্যান্সারের সংখ্যাও অনেক।

কোম্পানিটির হেডঅফিস অস্ট্রেলিয়ায়। ফ্রিল্যান্সার ডটকম থেকে প্রাপ্ত প্রজেক্টে কাজ করে অর্জিত অর্থ উত্তোলন করার জন্য আছে পেপাল, স্ক্রিল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার সিস্টেম।

৪. পিপল পার আওয়ার

লন্ডন, যুক্তরাজ্য ভিত্তিক পিপল পার আওয়ার হচ্ছে অনলাইনে আয় করার অন্যতম জনপ্রিয় সাইট। এখানে ফিক্সড প্রাইস ও আওয়ারলি রেটে প্রজেক্ট পাওয়া যায়। পিপল পার আওয়ার থেকে আয়কৃত অর্থ তোলার জন্য পেপাল, স্ক্রিল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন।

👉 অনলাইনে ইনকাম করার সেরা ১০ উপায়

অনলাইনে আয় করার সেরা ওয়েবসাইট

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

৫. নাইনটিনাইন ডিজাইনস – 99designs.com

আপনি যদি ফ্রিল্যান্স ডিজাইনার হয়ে থাকেন, তাহলে ৯৯ডিজাইনস আপনার জন্য বেশ ভালো একটি কাজের জায়গা হতে পারে। এখানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বায়াররা প্রজেক্ট অফার করেন এবং পেশাদার ডিজাইনারদের দ্বারা লোগো, ওয়েবসাইট ও অন্যান্য গ্রাফিক ডিজাইন করিয়ে নেন।

৯৯ডিজাইনস থেকে আপনার অর্জিত অর্থ তোলার জন্য পেওনিয়ার এবং পেপাল ব্যবহার করতে পারবেন। ৯৯ডিজাইনস যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্র্যানসিস্কো ভিত্তিক একটি বহুজাতিক কোম্পানি, যা অনলাইন ডিজাইনের জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত।

৬. গুরু ডটকম – www.guru.com

গুরু ডটকম হচ্ছে একটি অ্যামেরিকান ফ্রিল্যান্সিং সাইট, যেখানে ফিক্সড প্রাইস এবং আওয়ারলি- উভয় প্রকারের প্রজেক্ট পাওয়া যায়। গুরু ডটকম থেকে অর্থ উত্তোলনের জন্য পেপাল, পেওনিয়ার ও ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন।

৭. কাজ খুঁজি ডটকম

আপনি যদি একদম নতুন হিসেবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করে থাকেন তাহলে একটি দেশি ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম ট্রাই করতে পারেন। কাজ খুঁজি ডটকম একটি বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম। এখানে বিভিন্ন দেশি বায়ারের পোস্ট করা কাজ পেতে পারেন। আরও জানুন 👉 বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সিং সাইট ‘কাজখুঁজি’ এলো দারুণ সব সুবিধা নিয়ে

৮. বিল্যান্সার ডটকম – belancer.com

বিল্যান্সার হচ্ছে বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম যেখানে বিভিন্ন প্রকার দেশি প্রজেক্ট পাওয়া যায়। বিল্যান্সার দেশের বাইরে থেকেও ক্ল্যায়েন্ট ও ফ্রিল্যান্সার আনার পরিকল্পনা করছে বলে জানিয়েছে। বিল্যান্সার ডটকমে মাইক্রো আকারের (১০০ টাকা) প্রজেক্ট থেকে শুরু করে অনেক বড় অ্যামাউন্টের প্রজেক্টও আসে। বর্তমানে এখানে শুধু ফিক্সড প্রাইসের জব আছে। আপনি চাইলে বিল্যান্সারে রেজিস্ট্রেশন করে আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করতে পারেন।

বিল্যান্সারের মাধ্যমে আয়কৃত টাকা আপনি ব্যাংক ট্র্যান্সফার, বিকাশ, অথবা সরাসরি বিল্যান্সার অফিসে গিয়ে সংগ্রহ করতে পারেন।

আপনি যদি অনলাইনে কাজ করতে ইচ্ছুক হন, তাহলে এই পোস্টটি আপনার উপকারে আসবে বলে আশা করি। একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হওয়ার উপায় জানতে আমাদের এই পোস্টটি পড়ুন আপনার কোনো পরামর্শ থাকলে কমেন্টে জানানোর আমন্ত্রণ রইল। ধন্যবাদ।

বোনাস ভিডিওঃ অনলাইনে টাকা আয় করার সেরা ১০ উপায় জানুন

আপনি কি অনলাইনে কাজ করেন? বা অনলাইনে কাজ করতে আগ্রহী?

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,602 other subscribers

9 comments

  1. NUSRAT JHAHAN NISHI Reply

    আসসালামু আলাইকুম।আমি ফ্রিল্যান্সিং করতে চাই। তবে কিভাবে কী শুরু করবো আমার জানা নেই। আমি একজন শিক্ষার্থী তাই প্রথম থেকে শেষ পযর্ন্ত সবাটা জানতে চাই।এবং আমার ফেসবুক এক‍্যাউণ্ট রয়েছে। এখান থেকে পারব নাকি ভিন্ন পদক্ষেপ লাগবে তা জানতে চাই।

  2. NUSRAT JHAHAN NISHI Reply

    আমি নিশ্চিত আমি এই সম্পর্কে সব তথ্য জানতে পারলে নিজেকে প্রস্থুত করে যোগ হবো। কিভাবে যোগ হবো বা কোনো ধরনের এক‍্যাউণ্ট লাগবে কিনা এবং সেই এক‍্যাউণ্ট খোলার নিয়ম আমি জানতে চাই।

  3. Nasir Uddin Reply

    Excellent for publishing necessary information in this site. That’ll be very helpful for us. With thanks.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.