ঘূর্ণিঝড় মোখা আপডেট – লাইভ ব্লগ (সম্পন্ন)

এই পোস্টটি একটি লাইভ ব্লগ পোস্ট ছিল। স্ক্রল করে নিচের দিকে গিয়ে আগের আপডেটগুলো দেখতে পারবেন।

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় মোখা উত্তর উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে মায়ানমার উপকূল অতিক্রম করে দুর্বল হয়ে স্থল নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। সকল সমুদ্রবন্দরসমূহকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে

ঘূর্ণিঝড়টি ১৪ মে রবিবার সকাল থেকেই উপকুলে প্রভাব ফেলতে শুরু করেছিল। ঘূর্ণিঝড় মোখা এর প্রভাবে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম এবং তাদের কাছাকাছি দ্বীপ ও চরের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৫ থেকে ৭ ফুট বেশি উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে। এর প্রভাবে ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, বরিশাল, ভোলা, পটুয়াখালী, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা এবং তাদের কাছাকাছি দ্বীপ ও চরের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৩ থেকে ৫ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

ঘূর্ণিঝড় মোখা এর প্রভাবে মায়ানমার অংশে যেভাবে জলোচ্ছ্বাসের প্রভাব পড়বে তার তুলনায় বাংলাদেশের অংশে কমপক্ষে ১ থেকে ২ মিটার কম জলোচ্ছ্বাস হবে। রোববার অর্থাৎ ১৪ই মে সন্ধ্যা নাগাদ বাংলাদেশের কক্সবাজার এবং মিয়ানমারের সিটুয়ের মধ্যবর্তী এলাকা হয়ে ঘূর্ণিঝড়টি উপকূল অতিক্রম করেছে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে দেশের উপকূলে ভারী এবং অতি ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সারাদেশেও এ সময় দমকা হাওয়া ও বৃষ্টিপাত হবে বলে জানানো হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের অংশ কক্সবাজার এবং চট্টগ্রামের উপর দিয়ে গেছে বলে এই অংশে বৃষ্টিপাত হতে পারে।

🔻🔻 একটু নিচে স্ক্রল করে লাইভ আপডেট দেখুন 🔻🔻

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,558 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *