মাইক্রোসফটের নতুন ল্যাপটপ ক্লাউডবুক?

আগামী ২রা মে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিতব্য শিক্ষা সম্পর্কিত সফটওয়্যার ও হার্ডওয়্যার ইভেন্টে মাইক্রোসফট নিজস্ব ব্র‍্যান্ডের একটি নতুন ল্যাপটপ উন্মোচন করতে পারে। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, সেই ল্যাপটপটির নাম হতে পারে ক্লাউডবুক, যেটি মাইক্রোসফট সার্ফেস বুক ল্যাপটপের মত অত হাই-কনফিগারেশনের হবেনা, বরং মধ্যম ক্ষমতার এই ডিভাইসের দামও হবে মধ্যম ঘরানার।

প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, ক্লাউডবুক ল্যাপটপটি বর্তমানে উপলভ্য কোনো উইন্ডোজ ১০ সংস্করণে চালিত হবেনা, এটি আসবে উইন্ডোজ ১০ ক্লাউড অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে। যেটি ডিফল্টভাবে শুধুমাত্র উইন্ডোজ স্টোরে প্রাপ্ত অ্যাপস চালাতে সক্ষম হবে- যদিও এতে এই ডিফল্ট সেটিংস পরিবর্তন করার সুযোগও থাকতে পারে।

সীমিত উৎসের সফটওয়্যার ইনস্টলের পলিসিযুক্ত ডিভাইসগুলো আরো নিরাপদ হবে। তবে তার মানে এই নয় যে, আপনি স্টোরে উপলব্ধ অ্যাপস বাদে কোন অ্যাপস চালাতে পারবেননা।

আপনি হয়তো উইন্ডোজ আরটি অপারেটিং সিস্টেম চালিত সারফেস আরটি ট্যাবলেটের কথা স্মরণ করতে পারবেন, যার জন্য মাইক্রোসফট প্রায় ৯০ কোটি ডলার লোকসান মেনে নেয়। সারফেস আরটিতে পুরোনো কোনো অ্যাপ্লিকেশন চলতোনা, শুধুমাত্র ইউনিভার্সাল উইন্ডোজ অ্যাপ চলতো, যা উইন্ডোজ স্টোরে পাওয়া যেতো।

তবে বিগত বছরগুলিতে সারফেস ভালোই চলেছে। সারফেস প্রো ৪ কিংবা সারফেস বুক বাজারে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ প্রতিযোগিতা করতে পেরেছে। তবে এখন পর্যন্ত ম্যাকবুক ল্যাপটপের সাথে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে যেতে পারেনি মাইক্রোসফট সার্ফেস।

মাইক্রোসফট ক্লাউডবুকে কী কী ফিচার থাকতে পারে, বা এর দাম কত হতে পারে, এ সংক্রান্ত কোন তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি। পেলে তা আপনাদের জানিয়ে দেয়ার আশা রাখছি।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,571 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *