হ্যাশট্যাগ চালু করে অর্থ উপার্জনের নতুন পন্থা খুঁজছে ফেসবুক?

hashtag fbবিশ্বের সবচেয়ে বহুল ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগমূলক সাইট ফেসবুক এবার মাইক্রোব্লগ টুইটারের “হ্যাশট্যাগ” ফিচারটি “কপি” করতে যাচ্ছে। যদিও নতুন নতুন সব আইডিয়াই ফেসবুককে আজকের অবস্থানে নিয়ে এসেছে, তারপরেও হ্যাশট্যাগ নকল করে ডলার আয়ের লোভ যেন সামলাতে পারেনি জুকারবার্গ টিম। ইতোমধ্যেই ফেসবুকের সম্ভাব্য এই ফিচার ব্যাপক আকারে সমালোচিত হতে শুরু করেছে।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল এবং আরও বেশ কয়েকটি সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, বর্তমানে ফেসবুক হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করার পরীক্ষা চালাচ্ছে। তবে এই নিয়ে কোন ধরণের মন্তব্য করেনি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং কোম্পানিটি।

হ্যাশট্যাগ হচ্ছে একটি স্বতন্ত্র সুবিধা যা টুইটার পোস্টে বিশেষ বিশেষ এবং আকর্ষণীয় শব্দের আগে “#” চিহ্ন বসালে সেটি একটি লিঙ্ক তৈরি করে। হ্যাশট্যাগযুক্ত শব্দে ক্লিক করলে ঐ শব্দের অন্যান্য পোস্টগুলোও একই পেজে প্রদর্শিত হয়। ফলে নির্দিষ্ট কোন টপিক সহজেই ফিল্টার করা যায়।

টুইটারে জনপ্রিয় হ্যাশট্যাগগুলোর একটি লিস্ট “ট্রেন্ডিং” বিষয়বস্তু হিসেবে দেখানো হয়। এর পাশাপাশি বিজ্ঞাপনদাতারাও তাদের ব্যবসা সম্পর্কিত শব্দের হ্যাশট্যাগ কিনে প্রোমোট করতে পারে।

ফেসবুকে হ্যাশট্যাগ চালু হলে সেটি ব্যবহারকারীদের পোস্ট প্রোমোট করতে পারবে। কোন কোম্পানি তাদের পণ্য বা সেবার হ্যাশট্যাগ কিনে সে সম্পর্কিত কনটেন্ট সহজেই দীর্ঘক্ষণ ধরে আরও বেশি মানুষের নিউজফিডে প্রদর্শন করবে।

বর্তমানে ফেসবুকে স্ট্যাটাস, লিঙ্ক, ফটো পোস্ট, পেইজ প্রভৃতি প্রোমোট করা গেলেও হ্যাশট্যাগ চালু হলে সেটি আরও তৃনমূল পর্যায়ে কাজ করতে সক্ষম হবে। কেননা তখন এটি এক ধরণের “কিওয়ার্ড এডভার্টাইজিং” এর কাজ করবে যেখানে নির্দিষ্ট কোন শব্দের সাথে সংশ্লিষ্ট বহুবিধ কনটেন্ট একই পেজে নিয়ে আসা যাবে। তবে হ্যাশট্যাগ আইডিয়াটি কতটা সফল হয় তা দেখার জন্য আমাদের আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 5,052 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.