উইন্ডোজ ১১ এর সেরা কিছু গোপন ফিচার জানুন

উইন্ডোজ ১১ তে যুক্ত হয়েছে অসংখ্য নতুন ফিচার। তবে এই নতুন অপারেটিং সিস্টেমের গোপন ফিচারগুলো সম্পর্কে অধিকাংশ ব্যবহারকারী জানেন না। চলুন জেনে নেওয়া যাক উইন্ডোজ ১১ এর সেরা কিছু গোপন ফিচার সম্পর্কে যা কম্পিউটার ব্যবহারে আপনার প্রোডাক্টিভিটি বাড়িয়ে দিবে।

টাইটেল বার উইন্ডো শেক

একই সাথে একাধিক উইন্ডো খোলা থাকলে তা চোখে দেখতে বিরক্তিকর মনে হতে পারে। তবে উইন্ডোজ ১১ তে এই সমস্যার সমাধান রয়েছেঃ টাইটেল বার উইন্ডো শেক। এই গোপন ফিচার দ্বারা ব্যবহৃত উইন্ডোতে কোনো পরিবর্তন না এনে অন্যসব উইন্ডোসমূহ মিনিমাইজ ও পরে রিস্টোর করা যাবে। এই ফিচারটি চালু করতেঃ

  •  উইন্ডোজ ১১ এর এর সেটিংসে প্রবেশ করুন
  • এরপর System অপশনে ক্লিক করুন
  • এরপর Multitasking মেন্যুতে ক্লিক করুন
  • Title Bar Windows Shake অপশনটি চালু করে দিন

ফিচারটি চালু করা হয়ে গেলে ব্যবহৃত উইন্ডো ছাড়া বাকিগুলো মিনিমাইজ করতে ব্যবহৃত উইন্ডোর টাইটেল বারে ক্লিক ও হোল্ড করে রাখতে হবে।

গোপন স্টার্ট মেন্যু

উইন্ডোজে একটি গোপন স্টার্ট মেন্যু রয়েছে যা সম্পর্কে অধিকাংশ ব্যবহারকারী জানেন না। এই সিক্রেট মেন্যুতে উইন্ডোজ এর সেরা সব ফিচার এক স্থানে পাওয়া যায়। উইন্ডোজ ১১ এর পাশাপাশি উইন্ডোজ ১০ এ এই ফিচারটি রয়েছে। উইন্ডোজ আইকনে রাইট মাউস বাটন ক্লিক করে এই স্টার্ট মেন্যু ব্যবহার করা যাবে। এছাড়াও উইন্ডোজ কি ও “X” কি একসাথে প্রেস করলে এই স্টার্ট মেন্যু দেখতে পাবেন।

উইন্ডোজ ১১ এর সেরা কিছু গোপন ফিচার

ভয়েস টাইপিং

আপনার কাজের মধ্যে যদি টাইপিং একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ হয়ে থাকে, তবে উইন্ডোজ ১১ এর ভয়েস টাইপিং ব্যবহার করে টাইপিং এর কাজ অনেক সহজ করে ফেলতে পারেন। উইন্ডোজ ১১ এর ভয়েস ডিকটেশন টাইপ করা যায় এমন সকল অ্যাপে কাজ করে। এই ফিচারটি ব্যবহার করতে উইন্ডোজ কি ও “H” কি একসাথে প্রেস করুন। এরপর ফিচারটি চালু করুন।

একবার এই ফিচার চালু করার পর যেকোনো অ্যাপে টাইপের ক্ষেত্রে উল্লেখিত কি চেপে মাইক বাটনে ক্লিক করে কথা বললে তা অটোমেটিক টেক্সটে রুপান্তরিত হয়ে যাবে। সাধারণ টেক্সট এর পাশাপাশি অটো পাংচুয়েশন ফিচার এর মাধ্যমে কমা বা পিরিয়ড, ইত্যাদি বলে লেখা যাবে।

👉 মোবাইলে চলছে উইন্ডোজ ১১ – কীভাবে সম্ভব?

ক্যামেরা ও মাইক অ্যাকসেস

উইন্ডোজ ১১ এর সাথে নতুন অনেক প্রাইভেসি ফিচার যুক্ত হয়েছে। এর মধ্যে একটি হলো ক্যামেরা ও মাইক অ্যাকসেস নির্দিষ্ট অ্যাপ বা সফটওয়্যারের জন্য রেস্ট্রিক্ট করে দেওয়া। উইন্ডোজ ১১ এর পারমিশন চেক ও রেস্ট্রিক্ট করতেঃ

  •  কম্পিউটারে সেটিংসে প্রবেশ করুন
  • Privacy and Security অপশনে প্রবেশ করুন
  • App Permission সেকশনে স্ক্রল ডাউন করলে সকল অ্যাপের পারমিশন দেখতে পাবেন
  • এরপর যেকোনো অ্যাপের পারমিশন বন্ধ করে দিতে পারবেন অ্যাপের পাশে থাকা অপশন থেকে

👉 উইন্ডোজ ১১ আপনার পিসিতে চলবে কিনা জেনে নিন

ফোকাস এসিস্ট

নোটিফিকেশনের কারণে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে কাজে বাধা আসা অস্বাভাবিক কোনো বিষয় নয়। তবে “ফোকাস এসিস্ট” ফিচারটি ব্যবহার করে নোটিফিকেশনের মাত্রা নির্দিষ্ট করা যাবে।

উইন্ডোজ সেটিংসে প্রবেশ করে System সেকশন থেকে Focus Assist এ প্রবেশ করলে তিনটি অপশন দেখতে পাবেন, যথাঃ

  • Off: এই অপশন সিলেক্ট করলে সকল অ্যাপ ও কনটাক্টের নোটিফিকেশন পাবেন
  • Priority only: কাস্টমাইজ করা প্রায়োরিটি লিস্টের নোটিফিকেশন পাবেন ও বাকিগুলো অ্যাকশন সেন্টারে থাকবে
  • Alarms only: এলার্ম ব্যাতিত সকল নোটিফিকেশন হাইড থাকবে

এছাড়াও এই ফিচার দিনের নির্দিষ্ট সময়ে গেম খেলার সময় বা কোনো ফুল-স্ক্রিন অ্যাপ ব্যবহারের সময় ব্যবহার করতে পারেন। 

👉 উইন্ডোজ ১১ ইনস্টল করার নিয়ম (নতুন ও পুরাতন পিসিতে)

স্ন্যাপ উইন্ডোজ

উইন্ডোজ ১১ এর সবচেয়ে আন্ডাররেটেড ফিচার হলো একাধিক উইন্ডো স্ন্যাপ করার ফিচারটি। উইন্ডো স্ন্যাপ করলে একাধিক উইন্ডো অটোমেটিক রিসাইজ ও সুন্দরভাবে অ্যারেঞ্জ হয়ে যায়। এর ফলে যে উইন্ডোতে কাজ করছেন, উক্ত উইন্ডোতে ফোকাস রাখা বেশ সহজ হয়।

তবে অধিকাংশ উইন্ডোজ ১১ চালিত কম্পিউটারে এই ফিচারটি ডিফল্টভাবে চালু থাকেনা। তাই অনেক ব্যবহারকারী এই ফিচারটি সম্পর্কে জেনে থাকলেও ব্যবহার করতে পারেন না। “Snap Windows” ফিচারটি চালু করতেঃ

  • উইন্ডোজ এর সেটিংসে প্রবেশ করুন
  • System সিলেক্ট করুন 
  • এরপর Multi-tasking অপশনে ক্লিক করুন
  • পরের পেজে Snap Windows ফিচারটি চালু করে দিন

👉 উইন্ডোজ ১০ এবং উইন্ডোজ ১১ এর মধ্যে পার্থক্য কি? কোনটি বেশি ভাল?

ফিচারটি চালু করার পর যেকোনো উইন্ডোর টপ রাইট কর্নারে থাকা টু স্কয়ার আইকনে ক্লিক করলে উইন্ডো স্ন্যাপ করতে পছন্দমত লেআউট সিলেক্ট করা যাবে।

উইন্ডোজ ১১ এর কোন গোপন ফিচারটি আপনার সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,060 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.