ট্যাবলেট কম্পিউটারের যুগে বাজার হারাচ্ছে অ্যাপল আইপ্যাড!

samsung-logo_2471607b২০১২ সালের চতুর্থ প্রান্তিক অ্যাপলের জন্য একটি “দুঃস্বপ্ন” হিসেবে অভিহিত করলে খুব বেশি ভুল হবে না। কেননা এই সময়জুড়ে কোম্পানিটির বেশ কিছু হতাশার বীজ উপ্ত হয়েছে। আশানুরূপ পরিমাণ আইফোন, আইপ্যাড বিক্রি করতে না পারায় বিনিয়োগকারীদের স্বপ্নভঙ্গ এবং ফলস্বরূপ শেয়ার মূল্যে অবনতি- সবই সহ্য করতে হয়েছে বিশ্বের জনপ্রিয় এই কন্স্যুমার ইলেকট্রনিকস পণ্য নির্মাতাকে।

তবুও যদি রক্ষা হত! শেষ পর্যন্ত তেল কোম্পানি এক্সন মবিলের কাছে “সবচেয়ে দামী কোম্পানি”র অবস্থান হারাতে হয় অ্যাপলকে।

মার্কিন এই কোম্পানিটির কাছে বাজার বিশেষজ্ঞদের প্রত্যাশা যেন একটু বেশিই। গত কোয়ার্টারে আইফোন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের বিক্রি বাড়লেও মুনাফায় উল্লখযোগ্য কোন অগ্রগতি হয়নি। ট্যাবলেট ডিভাইস আইপ্যাড শিপমেন্ট বৃদ্ধি পেলেও তা প্রতিদ্বন্দ্বী এন্ড্রয়েড ট্যাবলেটের সাথে লড়াই করে বাজার দখলের মত অতটা শক্তিশালী ছিলনা।

২০১২ সালের শেষ তিন মাসে সাড়া বিশ্বে মোট ৫০ মিলিয়নেরও বেশি ট্যাবলেট কম্পিউটার বিক্রি হয়েছে, যা প্রত্যাশার চেয়ে বেশি।

গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইডিসি’র হিসেবানুযায়ী, ট্যাবলেট মার্কেটে ২০১২ সালের শেষ প্রান্তিকে ৪৩.৬ শতাংশ দখল রেখে এখন পর্যন্ত নেতৃত্ব দিচ্ছে অ্যাপল। অথচ এক বছর আগে একই সময়ে আইপ্যাডের মার্কেট শেয়ার ছিল ৫১.৭ শতাংশ।

এদিকে দক্ষিণ কোরীয় স্যামসাং এগিয়ে চলছে দুর্বার গতিতে। গত বছর চতুর্থ কোয়ার্টারে এসে গ্যালাক্সি ডিভাইস নির্মাতা কোম্পানিটির ট্যাবলেট মার্কেট দখল ছিল ১৫.১ শতাংশ। যদিও ২০১১ সালের একই সময়কালে এই পরিমাণ ছিল মাত্র ৭.৩ শতাংশ। এক বছরের ব্যবধানে এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম সাথে নিয়ে ট্যাবলেট মার্কেট শেয়ার দ্বিগুণ করে নিয়েছে স্যামসাং।

এছাড়া গত বছরের শেষ কোয়ার্টারে ট্যাবলেট মার্কেটে ১১.৫ শতাংশ শেয়ার নিয়ে তৃতীয় হয় অ্যামাজন, ৫.৮ শতাংশ শেয়ার নিয়ে চতুর্থ স্থানে আসে আসুস এবং ১.৯ শতাংশ বাজার ছিল বার্নিস এন্ড নোবেলের।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 3,427 other subscribers

Comments