ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার আগে যা অবশ্যই করা উচিত

ফেসবুক বর্তমানে আমাদের জন্য এমন এক মাধ্যম হয়ে গিয়েছে যে এটা থেকে দূরে থাকাই কষ্টকর। ফেসবুকে আপনি আপনার পছন্দের যে কোনো বিষয় পেয়ে যাবেন। তবে কখনও কখনও ফেসবুকও হারাতে পারে আকর্ষণ। তখন ব্যবহারকারীরা অনেকেই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ বা ডিলিট করে দিতে চান। অনেক কারণেই ব্যবহারকারীরা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে চাইতে পারেন।

তবে কারণ যেটাই হোক না কেনো, ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার আগে অন্তত এই আটটি জিনিস করা খুব দরকারী যা নিয়ে আমরা এই পোস্টে আলোচনা করবো। তো চলুন জেনে নেই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার আগে কী কী করা জরুরী।

১. আপনার কাছের মানুষদের জানানো

আপনি বিভিন্ন কারণে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করতে চাইতেই পারেন, তবে এটা অবশ্যই আগে থেকে আপনার বন্ধুদের জানিয়ে নেয়া জরুরী। সবথেকে কাছের বন্ধুদের দিয়ে জানানো শুরু করতে পারেন যে আপনি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করে দিচ্ছেন। আপনি আপনার বন্ধুরা আছে এমন কোনো গ্রুপে এটি জানিয়ে রাখতে পারেন। অনেকে স্ট্যাটাস দেবার মাধ্যমেও জানিয়ে দেয় যাতে তার ফ্রেন্ডলিস্টে থাকা সকলেই অবগত হয়। এছাড়াও আপনি চাইলে ভিডিও বার্তার মাধ্যমেও জানাতে পারেন

এভাবে আপনার সিদ্ধান্ত জানালে বন্ধুরা আপনাকে নিয়ে অযথা দুশ্চিন্তা করবে না এবং প্রয়োজনে আপনার সাথে যোগাযোগের অন্য বিকল্প ব্যবহার করতে পারবে। তাই অবশ্যই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার আগে কাছের লোকজনকে জানিয়ে রাখা প্রয়োজন।

২. দরকারী মিডিয়াগুলো সংরক্ষণ করে রাখা

ফেসবুকে আমরা দৈনন্দিন জীবনের স্মৃতি ধরে রাখতে নিয়মিত ছবি বা ভিডিও আপলোড করে থাকি। তাই এগুলো আমাদের জীবনের খুব গুরুত্বপূর্ণ অংশ হয়ে যায়। যা আপনার জীবনের সাথে খুব নিবিড়ভাবে যুক্ত তা সংরক্ষণ করে রাখা উচিত। যে কোনো ছবি সংরক্ষণ করে রাখতে ফেসবুকে ছবিটি ওপেন করে উপরের ডান পাশের কোণায় ৩ ডট বাটনে চাপ দিলেই ‘Save Photo’ নামের অপশন পাবেন যার মাধ্যমে ছবিটি আপনার ফোনে ডাউনলোড করে ফেলতে পারবেন। ফেসবুক হতে ভিডিও ডাউনলোড করতে চাইলে আপনাকে বিভিন্ন ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোডার অ্যাপের সাহায্য নিতে হবে।

তবে আপনি চাইলে আপনার সকল ফেসবুক মিডিয়া ফাইল গুগল ফটোতে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন। গুগল ফটো অ্যাপের ‘Import Media’ অপশন হতে এটি করতে পারবেন। এছাড়া পিসি ব্যবহার করলে আইডিএম বা অন্য ডাউনলোডার সফটওয়্যার ব্যবহার করেও ভিডিও ডাউনলোড করে রাখতে পারবেন।

৩. মেসেঞ্জার অ্যাপ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া

প্রথম যখন ফেসবুক চালু হয়েছিলো তখন ফেসবুক এবং মেসেঞ্জার দুটি একই সার্ভিস ছিলো। কিন্তু বর্তমানে দুটি আলাদা সার্ভিস হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ আপনি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করলেও, চাইলে মেসেঞ্জার ডিলিট হবে না কেননা মেসেঞ্জার আলাদাভাবে আপনার আইডি রেখে দেবে। তাই আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে ফেসবুক অফ করলেও মেসেঞ্জার চালু রাখবেন কিনা। মেসেঞ্জার চালু না রাখতে চাইলে মেসেঞ্জার আলাদাভাবে ডিলিট করতে হবে। এর জন্য নিচের নির্দেশনা অনুসরণ করতে পারেন:

  • মেসেঞ্জার খুলে উপরের বাম পাশে আপনার প্রোফাইল ছবিতে ট্যাপ করুন।
  • ‘Account Settings’ অপশনে যান। 
  • ‘Personal Information’ অপশন হতে ‘Manage Account’ সিলেক্ট করুন।
  • এখানে ‘Deactivate’ নামের অপশনটি দেখতে পাবেন। এটি সিলেক্ট করুন।
  • এরপর মেসেঞ্জার আপনার পাসওয়ার্ডটি চাইবে অ্যাকাউন্ট ডিঅ্যাক্টিভেশন নিশ্চিত করার জন্য। এটি সাবমিট করলেই আপনার মেসেঞ্জার অ্যাকাউন্টটিও বন্ধ হয়ে যাবে।

৪. পেজের অ্যাডমিন পরিবর্তন

আপনার নিজের কোনো পেজ থাকলে আপনার অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার ফলে সেটিও আক্রান্ত হতে পারে। আপনি যদি আপনার পেজের একমাত্র অ্যাডমিন হয়ে থাকেন তবে আপনার পেজ আপনার অ্যাকাউন্ট ডিলিট হবার সাথে সাথেই আনপাবলিশড হয়ে যাবে। অর্থাৎ পেজটি আর কেউ দেখতে পাবে না। পেজের সকল লাইক, ফলোয়ার হারিয়ে যাবে।

তাই অ্যাকাউন্ট ডিলিটের পরেও যদি আপনি আপনার পেজ ফেসবুকে রাখতে চান তাহলে পেজের নতুন একজন অ্যাডমিন সিলেক্ট করুন। এতে করে আপনার অ্যাকাউন্ট ডিলিট হলে পেজের সমস্ত নিয়ন্ত্রণ তার হাতে চলে যাবে এবং সে পেজটিকে এগিয়ে নিতে পারবে।

👉 ফেসবুক একাউন্ট ডিএকটিভ করার নিয়ম

৫. গ্রুপ এডিট বা ডিলিট করা

পেজের মতোই আপনার তৈরি করা যে কোনো গ্রুপও মুছে যেতে পারে আপনার অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার সাথে সাথে। তাই আপনার তৈরি করা কোনো গ্রুপে যদি আপনি একাই অ্যাডমিন হন এবং মনে করেন এই গ্রুপ ডিলিট হলে গ্রুপের অন্যান্য সদস্যদের সমস্যা হতে পারে তবে আপনাকে নতুন একজন অ্যাডমিন নির্বাচন করতে হবে। নতুন অ্যাডমিন গ্রুপটিকে সচল রাখতে পারবেন এবং আপনি নিশ্চিন্তে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করতে পারবেন।

৬. ফেসবুকে কোনো ব্যবসা থাকলে তা গুছিয়ে নেয়া

ফেসবুক বর্তমানে ব্যবসার অন্যতম একটি মাধ্যম হয়ে উঠেছে। অসংখ্য ব্যবসায়ী ফেসবুকের মাধ্যমেই ব্যবসা করে যাচ্ছেন। ফেসবুক নিজেদের মার্কেটপ্লেস নামক ফিচারও চালু করেছে এজন্য। আপনি যদি সেরকম কোনো ব্যবসায়ী হয়ে থাকেন তবে ফেসবুকের ব্যবসাটি গুছিয়ে নেয়া আবশ্যক আপনার আইডি ডিলিট করার আগে। 

আপনার সঙ্গে অনেক ক্রেতার লেনদেন এবং বিশ্বাসের সম্পর্ক গড়ে উঠতে পারে ফেসবুক হতেই। তাই ব্যবসা বন্ধ করে দিতে চাইলে সকল রকম লেনদেন মিটিয়ে ফেলা আবশ্যক। এরপর আপনার পেজ বা গ্রুপ হতে ক্রেতাদের জানানো প্রয়োজন যে আপনি ব্যবসাটি বন্ধ করে দিচ্ছেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার আগে যা অবশ্যই করা উচিত

👉 ফেসবুক একাউন্ট ডিলিট এবং ডিএক্টিভ করার মধ্যে পার্থক্য জানুন

আবার আপনি চাইলে অন্য কারো মাধ্যমেও ব্যবসাটি চালাতে পারেন। সেক্ষেত্রে তাকে অ্যাডমিন করে দিতে পারেন আপনার পেজ ও গ্রুপের। তবে এই পরিবর্তন সম্পর্কেও ক্রেতাদের জানানো প্রয়োজন। তাই আপনি ব্যবসায়ী হয়ে থাকলে যথাযথ ব্যবস্থা নেবার পরই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলিট করুন।

৭. ফেসবুকের তথ্য ও হিস্টোরি সংরক্ষণ

ফেসবুক বন্ধ করে দেবার আগে ফেসবুকের তথ্য আর সকল হিস্টোরি সংরক্ষণ করে রাখা বুদ্ধিমানের কাজ। ফেসবুক আপনার জীবনের একটি অংশ হয়ে দীর্ঘ সময় থাকলে নিজের অজান্তেই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফেসবুকে থেকে যেতে পারে। তাই সংরক্ষণ করে রাখলে তা খুঁজে বের করা সহজ হয়ে যায়।

ফেসবুক আপনাকে পুরো ফেসবুক ব্যবহার করা সময়ের হিস্টোরি ডাউনলোড করবার সুযোগ দেয়। তাই এটি ডাউনলোড করে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন। এটা আপনার নিরাপত্তার জন্যও দরকারী।

৮. ফেসবুকের স্মৃতিগুলো সাজিয়ে রাখা

ডাউনলোড করবার পড়ে বিভিন্ন নামে আলাদা ফোল্ডার করে ফেসবুকের সকল তথ্য ও মিডিয়াগুলো সাজিয়ে রাখা যেতে পারেন। এতে করে আপনি অপ্রয়োজনীয় তথ্যগুলো যেমন মুছে দিতে পারবেন, পরবর্তীতে দরকারী কোনো তথ্যও সহজে বের করে ফেলতে পারবেন। যেমন আপনার কোনো বন্ধু আপনার কলেজ জীবনের কোনো ছবি চাইলে টা সহজেই বের করে দিয়ে দিতে পারবেন যদি সবকিছু সাজিয়ে রাখেন।

👉 ভিডিওঃ মোবাইল চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,832 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.