গুগল একাউন্টের সুরক্ষার জন্য করণীয়

আপনার গুগল বা জিমেইল একাউন্টের অ্যাকসেস হারানো একটি হতাশাজনক ও বিরক্তিকর বিষয় হতে পারে। সেক্ষেত্রে একাউন্টের নিরাপত্তা আগেভাগে বৃদ্ধি করতে পারেন, যাতে একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে বা একাউন্ট লক হয়ে গেলে খুব সহজে একাউন্ট রিকভার করা যায়।

গুগল একাউন্ট রিকভার করার জন্য রিকভারি ফোন নাম্বার ও রিকভারি ইমেইল আগে থেকে এড করে রাখা যায়। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে আগে থেকে গুগল একাউন্টের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবেন যাতে পাসওয়ার্ড মনে না থাকলে বা লক হয়ে গেলে একাউন্ট খুব সহজে রিকভার করতে পারেন। 

নিয়মিত ব্যাকাপ নেওয়া

আপনার গুগল একাউন্টের অ্যাকসেস হারিয়ে ফেললে তেমন একটা সমস্যাতে পড়তে হবেনা, যদি আগে থেকেই একাউন্টের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের ব্যাকাপ নিয়ে রাখেন। গুগল একাউন্ট ব্যবহারের ক্ষেত্রে যত ডাটা তৈরী হয়, সব ডাউনলোড করার সুযোগ রেখেছে গুগল। আপনার সকল গুগল সার্ভিস বা আলাদা করে যেকোনো একটি সার্ভিস, যেমনঃ জিমেইলের ব্যাকাপ নিতে পারেন।

আপনি কি ধরনের ডাটা ডাউনলোড করবেন, তার উপর ডাউনলোড করা ডাটার ফাইল ফরম্যাট নির্ভর করবে। আপনি যদি শুধুমাত্র ইমেইলসমূহের ডাটা সেভ করে থাকেন, সেক্ষেত্রে এমবক্স (MBOX) ফরম্যাটে উক্ত ডাটা ডাউনলোড হবে। পরে জিমেইল বা যেকোনো  ইমেইল সার্ভিসে MBOX ফাইল আপলোড করে ইমেইলগুলো রিকভার করতে পারবেন।

পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার

পাসওয়ার্ড ভুলে যাওয়া থেকে বাঁচতে পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করতে পারেন। তবে অবশ্যই পাসওয়ার্ড ভুলে যাওয়ার আগে আপনার সমস্ত পাসওয়ার্ড কোনো পাসওয়ার্ড ম্যানেজারে ব্যাকাপ নিয়ে রাখতে ভুলবেন না। তবে হ্যাঁ, গুগল একাউন্টের পাসওয়ার্ড ওই একই গুগল একাউন্টে সেভ রেখে তেমন কোনো লাভ নেই। কিছু উল্লেখযোগ্য পাসওয়ার্ড ম্যানেজার হলোঃ

  • লাস্টপাসঃ সবদিক দিয়ে সেরা ফ্রি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার হলো লাস্টপাস। বিনামূল্যে পাসওয়ার্ড অডিটিং, টু-ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন সাপোর্ট, পাসওয়ার্ড শেয়ারিং, বিল্ট-ইন অথেনটিকেটর, ইত্যাদি ফিচার রয়েছে লাস্টপাস পাসওয়ার্ড ম্যানেজারে।
  • ড্যাশলেইনঃ ড্যাশলেইন একটি এডভান্সড পাসওয়ার্ড ম্যানেজার, যার সাথে একটি ফ্রি ভিপিএন, ওয়ান-ক্লিক পাসওয়ার্ড ইমপোর্টার ও চেঞ্জার, ডার্ক ওয়েব মনিটরিং ও এনক্রিপটেড ক্লাউড স্টোরেজ, ইত্যাদি ফিচার পাওয়া যাবে।

পূর্বের পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ

পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে আপনিই যে একাউন্টে লগিন করার চেষ্টা করছেন, গুগল তা নিশ্চিত করে আপনার পুরনো পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে। তাই আপনার আগের পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করা একটি ভালো বিষয় হতে পারে। তাই পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করলে আগের পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করার চেষ্টা করুন।

পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে রিকভারির ক্ষেত্রে আগের পাসওয়ার্ড জিজ্ঞেস করা হতে পারে। সেক্ষেত্রে আগের পাসওয়ার্ড বেশ কাজে আসতে পারে পাসওয়ার্ড রিকভার করার ক্ষেত্রে। পাসওয়ার্ড ম্যানেজারও কাজে আসতে পারে সকল পাসওয়ার্ড সংরক্ষণের ক্ষেত্রে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

রিকভারি তথ্য

আগে থেকেই গুগল একাউন্টে যথেষ্ট পরিমাণ রিকভারি সম্পর্কিত তথ্য যুক্ত করে রাখা দারুণ একটি কাজ হতে পারে। তাহলে কখনো আইডেন্টিটি ভেরিফাই করতে হলে খুব সহজে একাধিক উপায় থেকে যেকোনো একটি নির্বাচন করার সুযোগ থাকবে।

সম্ভব হলে একাউন্ট ভেরিফাই করার একাধিক উপায় এড করে রাখুন। এই উপায়ে একাউন্টের ভেরিফিকেশন চাওয়া হলে হাতে একাধিক অপশন থাকবে।

গুগল একাউন্ট পেজে প্রবেশ করুন ও Security ট্যাবে ট্যাপ করুন। নিচে স্ক্রল করে “Ways we can verify it’s you” সেকশনে কিভাবে আপনার একাউন্ট ভেরিফাই করতে পারবেন, তার উপায়সমূহ যুক্ত করার অপশন পাবেন। আপনি যদি আগে থেকে এড করে রাখেন, তবে এখানে রিকভারি ইমেইল ও ফোন নাম্বার দেখানো হবে।

এছাড়াও আপনি কোনো সিকিউরিটি কোয়েশনের আনসার এড করে রাখলে সেটিও এখানে দেখতে পাবেন। তবে যদি এই অপশনে ট্যাপ করে এই ভেরিফিকেশন মেথড যে আর কাজ করে না, সে সম্পর্কিত তথ্য দেখতে পারেন।

উল্লেখিত কোনো ভেরিফিকেশন মেথড যদি এড করা না থাকে, তবে অবশ্যই এক বা একাধিক ভেরিফিকেশন মেথড এড করে রাখুন।

👉 জিমেইল এর দারুণ কিছু ফিচার যা আপনার কাজে লাগবে

রিকভারি ইমেইল একাউন্ট

রিকভারি ইমেইল হিসেবে জিমেইল ছাড়াও যেকোনো ধরনের ইমেইল যুক্ত করা যাবে। এছাড়াও পরিবার বা বন্ধুদের মধ্যে যে কারো ইমেইল ও এড করতে পারবেন রিকভারি ইমেইল হিসেবে। রিকভারি ইমেইল যুক্ত করতেঃ

  • গুগল একাউন্ট সেটিংসে প্রবেশ করুন
  • Security ট্যাবে প্রবেশ করুন
  • “Ways we can verify it’s you” সেকশনে থাকা Recovery email অপশনে ট্যাপ করুন
  • রিকভারি ইমেইল টাইপ করুন ও Verify এ ট্যাপ করুন
  • এরপর উক্ত ইমেইলে ৬-ডিজিটের একটি কোড পাঠানো হবে, সেটি প্রদান করুন
  • রিকভারি ইমেইল সঠিকভাবে এড হয়ে গেলে সে সম্পর্কিত একটি নোটিশ দেখতে পাবেন
  • উল্লেখ্য যে, রিকভারি ইমেইলে একটি কোড পাঠানোর পর ২৪ঘন্টার আগে আরেকটি কোড পাঠানো যায়না

রিকভারি ফোন নাম্বার

রিকভারি ইমেইল এর মত রিকভারি ফোন নাম্বারও প্রয়োজনে ভেরিফিকেশন মেথড হিসেবে যুক্ত করা যাবে। রিকভারি ফোন নাম্বার এড করতে

  • গুগল একাউন্ট সেটিংসে প্রবেশ করুন
  • Security ট্যাবে প্রবেশ করুন
  • “Ways we can verify it’s you” সেকশনে থাকা Recovery email এ ট্যাপ করুন
  • এরপর Add Recovery Phone অপশনে ট্যাপ করে রিকভারি ফোন নাম্বার প্রদান করুন
  • উক্ত নাম্বারে কল বা এসএমএস এর মাধ্যমে আসা কোড প্রদান করে রিকভারি ফোন নাম্বার ভেরিফাই প্রসেস কমপ্লিট করুন।

👉 গুগল একাউন্টে টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন ব্যবহারের বিভিন্ন পদ্ধতি জানুন

একাউন্ট খোলার সময় মনে রাখুন

গুগল একাউন্টের পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে আপনার একাউন্ট কখন খুলেছেন, তা জিজ্ঞেস করা হতে পারে। এই তথ্য মনে থাকলে বেশ সহজে আপনার একাউন্ট রিকভার করতে পারবেন। যদি আপনার গুগল একাউন্ট কখন খুলেছেন, তা মনে না থাকে সেক্ষেত্রে জিমেইল এর সাহায্য নিতে পারেন। জিমেইলে প্রবেশ করে সর্বপ্রথম কোন মেইলটি এসেছে, সেটি থেকে একাউন্ট খোলার সময় সম্পর্কে ধারণা পেতে পারেন।

পাসওয়ার্ড রিসেট করা

পাসওয়ার্ড এর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ও মনে রাখার উল্লেখিত সকল উপায় যদি ব্যার্থ হয়, তবে পাসওয়ার্ড রিকভার করা ছাড়া আর কোনো উপায় থাকবেনা। সেক্ষেত্রে রিকভারি ইমেইল ব্যবহার করে পাসওয়ার্ড রিসেট করতে পারেন।

তবে গুগলের সিকিউরিটি সিস্টেম আগের থেকে কড়া হওয়ায় শুরুতে আপনার আগের পাসওয়ার্ড প্রদান করতে বলা হতে পারে। এরপর ভেরিফিকেশনের জন্য অন্য একটি ইমেইল প্রদান করুন, যেখানে ভেরিফিকেশন কোড আসবে। এরপর ফোন নাম্বারে একটি ভেরিফিকেশন কোড আসতে পারে, যা প্রদান করতে হবে। তবে এইসব উপায়ে একাউন্ট রিকভার করতে না পারলে শেষে Try Again এর অপশন আসবে, যা কিছুটা হতাশাজনক।

এছাড়া “Can’t sign into your Google Account” অপশনে ট্যাপ করে দেখুন সুবিধামত কোনো রিকভারি মেথড আছে কিনা। উল্লেখিত যেকোনো উপায় অনুসরণ করে গুগল একাউন্টের পাসওয়ার্ড রিকভারের চেষ্টা করতে পারেন।

তাহলে গুগল একাউন্ট ও এর ডাটা সুরক্ষিত রাখতে কি করা যেতে পারে? উত্তর অনেক সহজ। প্রয়োজনীয় তথ্য ব্যাকাপ নিয়ে রাখুন ও যত বেশি সম্ভব রিকভারি মেথড যুক্ত করে রাখুন।

উল্লেখিত কোনো উপায় কাজ না করলে নতুন একটি গুগল একাউন্ট খোলা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। গুগল একাউন্ট খোলা বেশ সহজ, গুগল একাউন্ট খোলার নিয়ম জেনে নিয়ে বেশ সহজে একাউন্ট খুলতে পারেন।

গুগল একাউন্ট বা জিমেইল খোলার নিয়ম সম্পর্কিত পোস্টঃ

👉 গুগল একাউন্ট খোলার নিয়ম

👉 জিমেইল আইডি খোলার নিয়ম

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 6,953 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

2 comments

  1. Parimal. Banerjee Reply

    Very useful & important information , which i didn’t know before ; you deserve lots of thanks for the same ; henceforth i will try to follow the steps . Thank you .

    • আরাফাত বিন সুলতান Reply

      Thank you so much. Please stay with us.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.