পুরাতন আইফোনের স্পিড কমিয়ে দিচ্ছে অ্যাপল!

By -

আপনি যদি কোনো পুরাতন মডেলের আইফোন ব্যবহার করতে থাকেন, তবে আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি খবর রয়েছে। সম্প্রতি অ্যাপল স্বীকার করেছে যে, কোম্পানিটি ইচ্ছে করেই পুরাতন আইফোনের কর্মক্ষমতা কমিয়ে দেয়। উদাহরণস্বরূপ, বর্তমানে আইফোন ৬এস ব্যবহারকারীরা পূর্বের চেয়ে তাদের ফোনের স্পিড কম পাচ্ছেন, কারণ অ্যাপল নিজে আইওএস আপডেটের মাধ্যমে অপেক্ষাকৃত পুরাতন আইফোনের প্রসেসর স্পিড কমিয়ে দিয়েছে। কিন্তু কেন এমন করছে অ্যাপল? নতুন মডেলের আইফোন বেশি বিক্রি করার জন্য? এই প্রশ্নেরও উত্তর দিয়েছে অ্যাপল। চলুন জেনে নিই।

এক বছরের বেশি পুরাতন হলেই আইফোনের স্পিড কমে যাওয়ায় ব্যাপারটি প্রায় সবারই জানা। আগে থেকেই ব্যবহারকারীদের মনে একটি প্রশ্ন ছিল যে অ্যাপল প্রতিবছর লেটেস্ট মডেলের আইফোন বিক্রি করার উদ্দেশ্যে ইচ্ছাকৃতভাবে আইওএস আপডেট দিয়ে পুরাতন মডেলের আইফোনগুলোর গতি কমিয়ে দেয়। সম্প্রতি বেশ কিছু ওয়েবসাইট এবং অভিজ্ঞ ব্যবহারকারীর পর্যবেক্ষণে আবারও দেখা যায়, নতুন আইফোন বাজারে আসার পর আইওএস আপডেট দেয়ায় আইফোন ৬এস এর গতি কমে গেছে। এরপর বিভিন্ন সেটাপে এই পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায় অপেক্ষাকৃত পুরাতন আইফোনের স্পিড উল্লেখযোগ্য হারে কমে গেছে। সবাই যখন এটা নিয়ে সমালোচনা করছিল তখন মুখ খুলেছে অ্যাপল। কোম্পানিটি ইচ্ছাকৃতভাবে আইফোনের স্পিড কমিয়ে দেয়ার কথা স্বীকার করেছে। তবে তারা এর পেছনে কঠিন যুক্তিও দেখিয়েছে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 2,407 other subscribers

অ্যাপল বলেছে, আইফোন পুরাতন হওয়ার সাথে সাথে এর ব্যাটারির চার্জ ধারণক্ষমতা কমে যায়। তখন আইফোনের প্রসেসর যদি অরিজিনাল পারফরম্যান্স করতে চায়, সেজন্য দরকারি বিদ্যুৎ ওই পুরাতন ব্যাটারি সরবরাহ করতে পারেনা। এরকম পরিস্থিতিতে আইফোন অপ্রত্যাশিতভাবে বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়া ব্যাটারির চার্জ ৪০% এর নিচে নেমে এলেও হঠাৎ করে আইফোন বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে শুধুমাত্র ব্যাটারির বয়স বেড়ে যাওয়ায় কারণে। এই পরিস্থিতি যাতে না হয়, সেজন্য যেসব আইফোনের হার্ডওয়্যার ব্যবহারের কারণে পুরাতন হয়ে যায় সেগুলোতে আইওএস আপডেটের মাধ্যমে স্পিড কমিয়ে দেয় অ্যাপল। ফলে তারপর আর প্রসেসর অরিজিনাল স্পিডে কাজ করতে পারেনা, আর আইফোন অপ্রত্যাশিতভাবে বন্ধও হয়ে যায়না। এটা ছিল অ্যাপলের যুক্তি।

তবে এতদিন এই কথাটি লুকিয়ে রেখেছিল কেন অ্যাপল? এখন সবার মনে এই প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। কেউ কেউ এটিকে ‘ট্রাস্ট ইস্যু’ বলেও মনে করছেন। এ ব্যাপারে আপনি কী ভাবছেন?

     
প্রযুক্তির সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন www.banglatech24.com সাইট। নতুন পোস্টের নোটিফিকেশন ইমেইলে পেতে এই লিংকে গিয়ে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Comments