স্টিভ জবস মুভিটি কি ফ্লপ হল?

steve-jobs-film-fassbender

অ্যাপল সহপ্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের জীবনী নিয়ে নির্মিত নতুন মুভি “স্টিভ জবস” বিশ্বব্যাপী মুক্তি পেয়েছে ২৩ অক্টোবর। অ্যাপল নিয়ে মানুষের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ্য করা গেলেও স্টিভ জবস মুভিটি সম্পর্কে দর্শকদের আগ্রহের বেশ কমতি আছে বলেই দেখা যাচ্ছে। অ্যারন সরকিন নির্মিত এই সিনেমাটি মুক্তির পর ঐ উইকএন্ডে মাত্র ৭.৩ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে, যা অ্যামেরিকান  বক্স অফিসে মুভিটিকে সপ্তম স্থানে পাঠিয়ে দিয়েছে।

steve-jobs-film m fassbender

স্টিভ জবস ছবিটির প্রাথমিক আয় ১৫-২০ মিলিয়ন ডলার হবে বলে বিশ্লেষকরা আশা করেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এটি অর্ধেক পরিমাণ আয় করল যা ২০১৩ সালে মুক্তি পাওয়া “জবস” ছবির তুলনায় কিঞ্চিৎ বেশি।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানাচ্ছে, একই সময়কালের মধ্যে স্টিভ জবসের জীবনীর ওপর নির্মিত জবস সিনেমা আয় করেছিল ৬.৭ মার্কিন ডলার।

প্রযুক্তি দুনিয়া নিয়ে সরকিনের আরেকটি মুভি, “দ্যা সোশ্যাল নেটওয়ার্ক” মুক্তির প্রথম সপ্তাহে ২২ মিলিয়ন ডলার আয় করেছিল। এটি ফেসবুক প্রতিষ্ঠার ইতিকথা নিয়ে তৈরি।

নতুন স্টিভ জবস মুভিটি অ্যাপলের আরেক সহপ্রতিষ্ঠাতা স্টিভ ওজনিয়াক কর্তৃক প্রশংসিত হলেও কোম্পানিটির সিইও টিম কুক ও ডিজাইনার জনি আইভ ছবিটি পছন্দ করেননি।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,052 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.