গ্রামীণফোন ৫জি এলো আরও একধাপ এগিয়ে বিভাগীয় শহরে (পরীক্ষামূলক)

চলতি বছরের জুলাই মাসে নিজেদের ৫জি নেটওয়ার্ক নিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে কাজ করার বিষয়টি নিশ্চিত করে গ্রামীণফোন। আজ একটি লাইভ ইভেন্টে বিভাগীয় শহরগুলোতে ৫জি নিয়ে মাঠ পর্যায়ে পরীক্ষা শুরু করেছে গ্রামীণফোন।

জুন মাসে গ্রামীণফোনকে সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে বিটিআরসি। ঠিক পরের মাসেই ৫জি নিয়ে কাজ করছে বলে ঘোষণা দেয় টেলিকম কোম্পানিটি। তবে সম্প্রতি আবার সীমিত আকারে সিম বিক্রি শুরু করেছে গ্রামীণফোন। যদিও বেড়েছে জিপি সিম এর দাম (বর্তমানে ৩০০ টাকা)। এসবের মধ্যে আবার ৫জি প্রযুক্তি নিয়ে দেশের মধ্যে পরীক্ষা চালানোর বিষয়টি জানায় গ্রামীণফোন। আজ এক বিশাল ইভেন্টে এই ঘোষণা দেয় জিপি।

উল্লেখ্য যে বিভাগীয় শহরগুলোতে গ্রামীণফোন ৫জি নিয়ে পরীক্ষা শুরু করেছে, তবে এটি কোনো বাণিজ্যিক লঞ্চ নয়। অর্থাৎ গ্রামীণফোন এখনো বাণিজ্যিকভাবে ৫জি চালু করেনি। উল্লেখিত ঘোষণা মূলত ৫জি নিয়ে পরীক্ষা শুরু সম্পর্কে, অর্থাৎ গ্রাহকগণ তাদের ৫জি ডিভাইসে এখনো সরাসরি ৫জি ব্যবহার করতে পারবেন না।

উল্লেখিত গ্রামীণফোন ইভেন্টে গ্রামীণফোন জানায় যে বাংলাদেশের সংযোগ মাধ্যমে নতুন সম্ভাবনা ৫জি প্রযুক্তির মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতে চায় কোম্পানিটি। ‘5G প্রযুক্তিতে আগামীর পথে’ শিরোনামের এই ইভেন্টে উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার সহ সংস্থাটির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ। এই সকল বিষয় থেকে দেশে খুব শীঘ্রই বাণিজ্যিকভাবে ৫জি চালু হতে যাচ্ছে বলে ধারণা করা যায়।

প্রশ্ন করতে পারেন দেশে ৫জি ব্যবস্থা চালু হলে কি লাভ হবে। দেশের প্রায় সকল অপারেটর বর্তমানে ৫জি নিয়ে কাজ করছে। আবার এদিকে স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের মিড-রেঞ্জ থেকে বাজেট ফোনগুলোতেও ৫জি নিয়ে আসছে। সব বিষয় একসাথে দেখলে ৫জি নিয়ে বেশ বদ্ধ পরিকর সকল সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো। এর কারণ হলো ৫জি এর বহুমুখী সুবিধা।

গ্রামীণফোন ৫জি এলো আরও একধাপ এগিয়ে বিভাগীয় শহরে (পরীক্ষামূলক)

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

৫জি নেটওয়ার্ক এর মাধ্যমে প্রথমত খুব ভালো স্পিড ট্রান্সমিশন পাওয়া যাবে, সাথে কমবে লেটেন্সি এবং রিমোট এরিয়াগুলোতে ভালো ইন্টারনেট পাওয়া যাবে। এছাড়া ভার্চুয়াল নেটওয়ার্ক এর সাহায্যে কানেক্টেড ডিভাইস এর পরিমাণ বৃদ্ধি করা যাবে। গ্রাহক পর্যায়ে সুবিধার কথা বলতে গেলে আগের চেয়ে অনেক দ্রুত ইন্টারনেট স্পিড, আরো উন্নত কল কোয়ালিটি, ও সব মিলিয়ে উন্নত নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা উপভোগ করা যাবে। ৫জি এর সুবিধা অনেক বিস্তৃত।

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ইভেন্টের বরাতে দেশে খুব শীঘ্রই ৫জি বাণিজ্যিকভাবে চালু হতে পারে বলে আশা করা যায়। আপনি যদি এখনি একটি ৫জি ফোন কিনতে চান তাও সুলভ মূল্যে, তাহলে বাংলাটেক এর সুলভ মূল্যে ৫জি মোবাইল এর তালিকা ঘুরে আসতে পারেন উপরে লিংক করা পোস্ট থেকে।

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,584 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *