গ্রামীণফোন নিয়ে এলো “ইমারজেন্সি ব্যালেন্স”

Emergency-Balance-GPবাংলাদেশের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন নতুন সুবিধা “ইমারজেন্সি ব্যালেন্স” চালু করেছে। এই ফিচারের আওতায় নেটওয়ার্কটির অধীনে সকল প্রিপেইড গ্রাহক অপর্যাপ্ত অথবা শূন্য ব্যালেন্স থাকাকালীন ৩০ দিনের মেয়াদ সহ ক্রেডিট নিতে পারবেন। এটি সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৩ থেকে চালু হয়েছে।

চলুন জেনে নিই এর বিস্তারিত তথ্যঃ

> ইমারজেন্সি ব্যালেন্স ফিচারটি শুধুমাত্র গ্রামীণফোনের প্রিপেইড গ্রাহকদের জন্য প্রযোজ্য

> গ্রামীণফোনের সকল প্রিপেইড গ্রাহকগণ (সহজ,বন্ধু,আপন,স্মাইল,স্পন্দন, বিজনেস সলিউশনস প্রিপেইড (১,২,৩,সফল),একতা (১,২), নিশ্চিন্ত, ডিজুস) ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নিতে পারবেন যখন তাদের অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স শূন্য অথবা অ্যাকাউন্টে যথেষ্ট পরিমাণ টাকা থাকবে না

গ্রামীণফোনের একতা প্যাকেজের বর্তমান ইমারজেন্সি ব্যালেন্স ফিচারটি এই ফিচার দ্বারা প্রতিস্থাপিত হবে

> এই ফিচারের আওতায় গ্রামীণফোনের সকল প্রিপেইড গ্রাহকগণ ৫ টাকার ইমারজেন্সি ব্যালেন্স এবং স্টার গ্রাহকগণ ১০ টাকার ইমারজেন্সি ব্যালেন্স পাবেন

> প্রতিবার ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নিতে গ্রাহককে ডায়াল করতে হবে *121*1*3# নম্বরে (ফ্রি)

> গ্রাহকগণ যেকোনো ভয়েস কল এবং SMS (পোর্টে SMS এর ক্ষেত্রেও) পাঠানোর জন্য এই ইমারজেন্সি ব্যালেন্স ব্যবহার করতে পারবেন

> কোন ইনকামিং SMS, মাসিক সাবস্ক্রিপশন ফি এবং ইন্টারনেট ইউসেজ ইমারজেন্সি ব্যালেন্স থেকে কাটা হবে না

> ক্রয়কৃত মিনিট (যেমনঃ ২৫ পয়সা অফার, বান্ডল অফার) এবং অন্যান্য ফ্রি বোনাস অফার ইমারজেন্সি ব্যালেন্স এর আগে ব্যবহৃত হবে

> ‘মাই জোন’ গ্রাহকগণ ইমারজেন্সি ব্যালেন্স উপভোগ করতে পারবেন এবং ইমারজেন্সি ব্যালেন্সের ক্ষেত্রে ‘ মাই জোন’ ডিস কাউন্ট প্রযোজ্য হবে

> রোমিং ইউসেজ ইমারজেন্সি ব্যালেন্সের আওতায় পড়বে না

>গ্রাহকের পরবর্তী রিচার্জের পর রিচার্জ করা অ্যামাউন্ট থেকে ইমারজেন্সি ব্যালেন্সের টাকা কেটে নেয়া হবে

> ইমারজেন্সি ব্যালেন্স দিনের যেকোনো সময় ব্যবহার করা যাবে এবং এর মেয়াদ থাকবে ৩০ দিন

> গ্রাহকগণ তাদের বকেয়া অ্যামাউন্ট পরিশোধ করেই শুধুমাত্র পরবর্তী ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নিতে পারবেন

> গ্রাহকগণ ইমারজেন্সি ব্যালেন্স অ্যামাউন্ট চেক করতে পারবেন *121*1010*2# (ফ্রি) ডায়াল করে

> ইমারজেন্সি ব্যালেন্সের ক্ষেত্রে প্রোডাক্ট ট্যারিফ এবং পালস্‌ প্রযোজ্য হবে

> ইমারজেন্সি ব্যালেন্স উপভোগ করতে হলে গ্রাহকের অ্যাকাউন্টের মেয়াদ থাকতে হবে

> অন্য সকল ট্যারিফ, সার্ভিস,পালস্‌ অপরিবর্তিত থাকবে

> ইমারজেন্সি ব্যালেন্স নেয়ার পর যদি অ্যাকাউন্ট রিচার্জ করা হয় তাহলে রিচার্জ অ্যামাউন্ট দিয়ে কোন রিচার্জ ভিত্তিক (যেমনঃ নিশ্চিন্ত লোয়ার ট্যারিফ) অফার অ্যাকটিভেট করা যাবে না

> সকল চার্জের উপর ১৫% ভ্যাট প্রযোজ্য

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,572 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *