টেলিগ্রাম অ্যাপ ব্যবহার করার নিয়ম

মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে টেলিগ্রাম এর জনপ্রিয়তা ধীরে ধীরে বেড়েই চলেছে। টেলিগ্রাম এর প্রতিষ্ঠাতা, পাভেল দুরোভ জানান যে বর্তমানে টেলিগ্রাম অ্যাপ এর প্রায় ৫০০মিলিয়ন স্বক্রিয় ব্যবহারকারী রয়েছে। চলুন জেনে নিই তুমুল জনপ্রিয় এই মেসেজিং অ্যাপ সম্পর্কে বিস্তারিত।

ফেসবুক এর বিভিন্ন অ্যাপ, যেমন মেসেঞ্জার, ইন্সটাগ্রাম কিংবা হোয়াটসঅ্যাপ এর পাশাপাশি টেলিগ্রাম একটি আদর্শ কলিং ও মেসেজিং অ্যাপ হতে পারে। এই অ্যাপটি এতোটাই ফিচারে ভরপুর যে সব ফিচার হয়ত আপনার ব্যবহার করাও হয়ে উঠবে না।

টেলিগ্রাম অ্যাপ এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো এর ক্রস প্ল্যাটফর্ম সাপোর্ট সুবিধা। পিসি, লিনাক্স, ম্যাক, বা ব্রাউজার থেকে শুরু করে অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস পর্যন্ত এমন কোনো অপারেটিং সিস্টেম নেই যাতে টেলিগ্রাম অ্যাপ এর সাপোর্ট নেই।

টেলিগ্রাম কি নিরাপদ?

যেকোনো কলিং বা মেসেজিং অ্যাপে মানুষ তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপারসমূহ কাছের মানুষদের সাথে শেয়ার করেন বলে এসব অ্যাপ এর ক্ষেত্রে নিরাপত্তা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। টেলিগ্রাম অ্যাপ এর নিরাপত্তা নিয়ে উদ্ধিগ্ন হওয়াটা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

টেলিগ্রাম অ্যাপটিতে অসংখ্য ফিচার থাকলেও, এই অ্যাপের প্রধান আকর্ষণ মূলত অ্যাপটির এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন। তবে টেলিগ্রাম এর সকল চ্যাটই এই লেভেলের প্রাইভেসি বজায় রাখে, এমন কিন্তু না।

টেলিগ্রাম এর অধিকাংশ মেসেজই ক্লায়েন্ট-টু-সার্ভার এনক্রিপশন পদ্ধতি ব্যবহার করে। তবে এই ফিচারটি যেকোনো ডিভাইসে একই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে টেলিগ্রাম এর চ্যাটসমুহ অ্যাকসেস এর সুবিধা দেয়। তাই এটি তেমন চিন্তার কোনো বিষয় নয়।

আপনি যদি একান্তই এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন চান, সেক্ষেত্রে টেলিগ্রাম এর Secret Chat ফিচারটি ব্যবহার করতে পারেন। এসব চ্যাট শুধুমাত্র একটি ডিভাইসে অ্যাকসেস করা যায় এবং নিরাপত্তার দিকে দিয়ে দারুণ কার্যকর।

টেলিগ্রাম এর প্রাইভেসি ও সিকিউরিটিকে বিশ্বাসযোগ্য বলে বিবেচনা করা হয়। টেলিগ্রাম এর সার্ভিস সমুহের এপিআই (API) ওপেন সোর্স কোড এর উপর ভিত্তি করে নির্মিত।

টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট এর ধরন

টেলিগ্রাম ব্যবহার এর সময় একাধিক ধরনের একাউন্ট দেখতে পাবেন। টেলিগ্রামে সাধারণ চ্যাট এর পাশাপাশি রয়েছে চ্যানেল, বট, ইত্যাদি। টেলিগ্রাম চ্যানেল অনেকটা ফেসবুক পেজ এর মতো। এসব চ্যানেলে পোস্ট করা মিডিয়া পাবলিকালি দেখা যায়। আবার অন্যদিকে বট হচ্ছে অটোমেটেড চ্যাট এজেন্ট, যেগুলো নিজ থেকেই মেসেজের রিপ্লাই দিয়ে বিভিন্ন কাজ করতে সক্ষম।

টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

টেলিগ্রাম ব্যবহার করতে প্রথমেই একটি টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। চলুন ধাপে ধাপে জেনে নেওয়া যাক অ্যাপ ব্যবহার করে টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম।

টেলিগ্রাম অ্যাপ ডাউনলোড

টেলিগ্রাম অ্যাপ ব্যবহার করার নিয়ম

টেলিগ্রাম অ্যাপ আপনার হাতের কাছে থাকা যেকোনো ডিভাইসেই ব্যবহার করা যাবে। টেলিগ্রাম অ্যাপ ডাউনলোড করতে নিচের তালিকা থেকে আপনার ডিভাসটি নির্বাচন করুনঃ

উল্লেখ্য যে ডেস্কটপ থেকে টেলিগ্রাম ব্যবহার করতে হলে প্রথমে অবশ্যই মোবাইল অ্যাপ এর মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট সেটিংস করে নিতে হবে।

রেজিস্ট্রেশন

টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট চালু করতে প্রথমেই টেলিগ্রামে প্রবেশ করে আপনার ফোন নাম্বার প্রদান করুন। এরপর টেলিগ্রাম থেকে কল বা মেসেজ এ আসা কোডটি প্রদান করুন ও ভেরিফিকেশন প্রসেস সম্পন্ন করুন।

টেলিগ্রাম অ্যাপ ব্যবহার করার নিয়ম - telegram number verification

ফোন নাম্বার নিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করার পর অ্যাপে ব্যবহার এর জন্য একটি নাম দিন। চাইলে তৎক্ষণাৎ একটি প্রোফাইল পিকচারও জুড়ে দিতে পারেন আপনার টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্টের সাথে।

আরো জানুনঃ ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট খোলার নিয়ম ও ব্যবহার করার নিয়ম

পারমিশন

টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট খোলার পর আপনার কন্টাক্টস এর অ্যাকসেস এর পারমিশন চাওয়া হবে। আপনার ফোন নাম্বার লিস্টের কে কে টেলিগ্রাম ব্যবহার করে তা জানতে Allow করে দিন।

এরপর আপনার ফোনের ফটোস, মিডিয়া ও ফাইলস এর অ্যাকসেস এর পারমিশন চাইবে টেলিগ্রাম। আপনি যেহেতু টেলিগ্রাম ব্যবহার করে ছবি, ভিডিও, ইত্যাদি পাঠাবেন বা সেভ করবেন, তাই নিশ্চিন্তে Allow ট্যাপ করুন।

telegram permissions

এরপর লকস্ক্রিনে চলমান কল কিংবা রিসিভ করা মেসেজ এর নোটিফিকেশন দেখা জারি রাখতে লকস্ক্রিন এর অ্যাকসেস এর পারমিশন Allow করে দিন।

সেটিংস

টেলিগ্রাম অ্যাপে প্রবেশ করে হ্যামবার্গার মেন্যু তে ট্যাপ করে Settings এ প্রবেশ করলে টেলিগ্রাম এর সকল সেটিংস দেখতে পাবেন। এখান থেকে টেলিগ্রাম এর সকল ফিচার নিজের ইচ্ছানুযায়ী কাস্টমাইজ করার সুযোগ রয়েছে।

টেলিগ্রাম পিন

টেলিগ্রাম একাউন্ট তৈরী করতে কোনো ধরনের পাসওয়ার্ড এর প্রয়োজন হয় না। তাই আপনার ফোনের লক খোলা থাকলে যেকেউ খুব সহজে আপনার টেলিগ্রাম চ্যাটস দেখতে পারবে।

আপনার টেলিগ্রাম চ্যাটসমুহ এই সমস্যা থেকে নিরাপদ ও গোপন রাখতে ব্যবহার করতে পারেন টেলিগ্রাম এর পিন ফিচারটি। এই ফিচারটি ব্যবহার করে আপনি একটি পিন সেট করতে পারবেন, যা টেলিগ্রাম অ্যাপে প্রতিবার প্রবেশের সময় এন্টার করতে হবে।

telegram pin

টেলিগ্রাম পিন সেট করতে টেলিগ্রাম অ্যাপে প্রবেশ করে টপ লেফট কর্নার থেকে হ্যামবার্গার মেন্যু তে ট্যাপ করুন। এরপর Settings এ ট্যাপ করুন। Privacy & Security সেকশনে প্রবেশ করুন। Passcode Lock এ ট্যাপ করলে আমাদের কাংখিত সেটিংস পেয়ে যাবেন।

আপনার টেলিগ্রাম অ্যাপ এর জন্য যে পিন সেট করতে চান সেটি লিখে টিক মার্কে ক্লিক করে পাসকোড লক সেট করুন। এছাড়াও প্রতিবার পাসকোড সেট করার পর একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য টেলিগ্রাম ব্যবহারের ফিচার ও রয়েছে।

আরো জানুনঃ ফেসবুক পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে করণীয়

টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন

প্রতিবার নতুন কোনো ডিভাইসে লগিন করার পর বাড়তি নিরাপত্তার জন্য টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন প্রক্রিয়া হিসেবে পাসওয়ার্ড সেট করা যায়। এই পাসওয়ার্ডটি কিন্তু লগিন এর ওটিপি কোড থেকে আলাদা।

অ্যাপ এর হ্যামবার্গার মেন্যু থেকে Settings এ ট্যাপ করুন। এরপর প্রথমে Privacy & Security ও এরপর Two-step Verification এ ট্যাপ করুন।

এরপর টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন এর জন্য পাসওয়ার্ড সেট করতে Set Password এ ট্যাপ করুন। এরপর পাসওয়ার্ড প্রদান করে Continue চাপুন।

telegram two-step verification

উল্লেখ্য যে এই পাসওয়ার্ডটি ভুলে গেলে চলবে না। পাসওয়ার্ডটি ভুলে গেলে সেক্ষেত্রে শুধুমাত্র একটি ডিভাইসেই টেলিগ্রাম ব্যবহারে সীমাবদ্ধ হয়ে যাবেন।

টেলিগ্রাম অ্যাপ ব্যবহার করার নিয়ম

টেলিগ্রাম অ্যাপ কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপ এর মতো খুব সহজেই ব্যবহার করা যায়। অ্যাপ এ প্রবেশের পর ডানদিকে নিচের কর্নারে থাকা পেন্সিল আইকনে ক্লিক করে যে কারো সাথে টেলিগ্রামে চ্যাট করা যাবে।

আবার টেলিগ্রামে একটি গ্রুপ চ্যাটে সর্বোচ্চ ২০,০০০ জন মেম্বার যুক্ত করা যায়। একই পেনসিল আইকনে ক্লিক করার পর New Group এ ক্লিক করে খুব সহজেই টেলিগ্রাম গ্রুপ চ্যাট খোলা যাবে।

telegram group chat

টেলিগ্রাম এর যেকোনো চ্যাটে প্রবেশ করে থ্রি-ডট মেন্যুতে ট্যাপ করলে অডিও কল, ভিডিও কল, সার্চ, ক্লিয়ার হিস্টোরি, নোটিফিকেশন মিউট করার অপশন, ইত্যাদি অপশন পাওয়া যাবে।

telegram chat menu

টেলিগ্রাম সিক্রেট চ্যাট

টেলিগ্রাম অ্যাপ এ সিক্রেট চ্যাট ফিচারটি যে নিরাপত্তার একটি বাড়তি স্তুর হিসেবে কাজ করে, তা আমরা ইতিমধ্যে জেনেছি। এবার জেনে নিই চলুন টেলিগ্রাম এর সিক্রেট চ্যাট ফিচারটি ব্যবহার করবেন কিভাবে।

আরো জানুনঃ ভিডমেট অ্যাপ সম্পর্কে যেসব তথ্য আপনার জানা উচিত

একটি সিক্রেট চ্যাট শুরু করতে অ্যাপে প্রবেশ করে পেন্সিল আইকনে ক্লিক করে New Secret Chat এ ট্যাপ করুন। এরপর যে কন্টাক্টের সাথে সিক্রেট চ্যাট করতে চান, সে কন্টাক্ট সিলেক্ট করুন।

telegram secret chat

সিক্রেট চ্যাট ফিচারটি অনেকটা সিগন্যাল অ্যাপ এর মত গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা প্রদান করে। সিক্রেট চ্যাট এর মেসেজগুলো এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপটেড হওয়ায়, তৃতীয় কোনো ব্যাক্তি বা ডিভাইস এসব মেসেজ দেখতে পায়না।

সিক্রেট চ্যাট এর কোনো স্ক্রিনশট নেওয়া যায় না। এছাড়াও সিক্রেট চ্যাট এর মেসেজসমুহ কারো কাছে ফরওয়ার্ডও করা যায় না। যে ডিভাইসে সিক্রেট চ্যাট তৈরী করা হয়েছে, সেটি ছাড়া অন্য কোনো ডিভাইসে ঐ সিক্রেট চ্যাট দেখাও যায় না।

সিক্রেট চ্যাট এর থ্রি-ডট মেন্যুতে ক্লিক করে কোনো মেসেজ এর জন্য সেল্ফ-ডেস্ট্রাক্ট টাইম সেট করা যাবে। অর্থাৎ কোনো মেসেজ পাঠানোর পর ওপেন করা থেকে সেট করা সময়ের মধ্যে মেসেজটি অদৃশ্য হয়ে যাবে। এই অদৃশ্য হওয়ার সময় এক সেকেন্ড থেকে ১সপ্তাহ পর্যন্ত সেট করা যায়।

আপনি কি টেলিগ্রাম অ্যাপ ব্যবহার করেন? যদি টেলিগ্রাম অ্যাপ ব্যবহার করেন, তবে অ্যাপটি ব্যবহারের অভিজ্ঞতা আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 5,570 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.