ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায়

একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করতে এক মিনিটেরও কম সময় লাগে। কিন্তু ফেসবুক পেজ খোলার নিয়ম যতই সহজ হোকনা কেন, একে সফল করতে আপনার কিছু কৌশল জানা দরকার। এখন প্রশ্ন হচ্ছে ব্যবসা কিংবা পাবলিক ফিগারের জন্য তৈরি করা ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায় কী?

আমাদের দেশের অনেকেই তাদের ব্যবসার জন্য আলাদা ফেসবুক ইউজার প্রোফাইল খুলে থাকেন। মনে রাখতে হবে, ফেসবুক ইউজার প্রোফাইল হচ্ছে ব্যক্তি হিসেবে ব্যক্তিগত ব্যবহারের উদ্দেশ্যে তৈরি। আর ব্যবসায়িক বা পাবলিক ফিগারের ব্যবহারের জন্য হচ্ছে ফেসবুক পেজ। আর ব্যবসার জন্য অসাধারণ সব টুলস রয়েছে ফেসবুক পেজে। তাই ব্যবসার জন্য অথবা সুপরিচিত কোনো ব্যক্তি, ধারণা বা প্রতিষ্ঠানের জন্য অবশ্যই ফেসবুক প্রোফাইল ব্যবহার না করে ফেসবুক পেজ ব্যবহার করুন। চলুন জেনে নেওয়া যাক ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায়। পেজের বিভিন্ন ফিচার ব্যবহার করে কিভাবে আপনার ফেসবুক পেজ এর জনপ্রিয়তা বাড়াবেন সে সম্পর্কে আলোচনা করা যাক।

প্রোফাইল পিকচার ও কভার ফটো

আপনার ফেসবুক পেজ যখনই কোনো ফেসবুক ইউজার ভিজিট করবে, সর্বপ্রথম তাদের নজরে আসবে আপনার পেজ এর প্রোফাইল পিকচার ও কভার ফটো। এছাড়াও আপনার পেজ থেকে করা সকল পোষ্টের নামের সাথে আপনার পেজ এর প্রোফাইল পিকচার ও প্রদর্শিত হয়।

তাই ফেসবুক পেজ খোলার পর সর্বপ্রথম আপনার ফেসবুক পেজ এর প্রোফাইল পিকচার ও কভার ফটো সেট করুন। আপনার পেজ যদি কোনো ব্যবসার হয়, তাহলে আপনার ব্যবসাকে রিপ্রেজেন্ট করে এমন লোগো প্রোফাইল পিকচার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

ফেসবুক প্রোফাইল পিকচার ও কভার ফটো এমন হওয়া উচিত, যাতে যেকোনো স্ক্রিন সাইজেই দেখতে ভালো লাগে। কভার ফটো প্রোডাক্ট প্রোমোশনের কাজেও ব্যবহার করা যায়। ফেসবুক পেজ এর জন্য সহজেই ও বিনামূল্যে প্রোফাইল পিকচার ও কভার ফটো ডিজাইন করতে ক্যানভা ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করতে পারেন।

ইউজারনেম

ফেসবুক পেজ এর ইউআরএল (URL) কী হবে, সেটি নির্ভর করে পেজ এর ইউজারনেম এর উপর। এই কারণে পেজ এর ক্ষেত্রে ইউজারনেম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

বাংলাটেক এর ফেসবুক পেজ এর ইউজারনেম Banglatech24, যার ফলে ফেসবুক পেজ এর ইউআরএল বা লিংক হচ্ছেঃ

https://facebook.com/Banglatech24/

ফেসবুক পেজ এর জন্য ইউজারনেম হিসেবে মনে রাখা সহজ, এমন কিছু সেট করুন। ফেসবুক পেজ এর ইউজারনেম চাইলেই তৎক্ষণাৎ পরিবর্তন করা যায়না। তাই ফেসবুক পেজ এর ইউজারনেম নির্বাচন এর সময় যাচাই বাছাই করে ইউজারনেম ঠিক করুন।

যেকোনো নতুন ফেসবুক পেজ এর ইউজারনেম থাকেনা। সেক্ষেত্রে পেজ এর ইউজারনেম সেট করতে পেজ এর নাম এর নিচে থাকা Create Page @Username এ ক্লিক করে ইউজারনেম সেট করতে পারবেন।

আরো জানুনঃ যেভাবে সাজাবেন আপনার ফেসবুক প্রোফাইল ও নিউজফিড

পেজ টেমপ্লেট ও ট্যাব – ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায় এর অন্যতম ধাপ

ফেসবুকে আলাদা আলাদা বিষয়ের পেজ এর জন্য কিন্তু আলাদা আলাদা পেজ টেমপ্লেট ও ডেডিকেটেড ট্যাব রয়েছে। মুলত কোনো পেজ টেমপ্লেট নির্বাচন করার পর ওই সম্পর্কিত ফিচার ও ট্যাব পেজে যুক্ত হয়ে যায়।

ফেসবুক পেজ এর Settings এ প্রবেশ করলেই দেখা মিলবে Templates and Tabs এর। এখান থেকে আপনার পেজের সাথে মানানসই টেমপ্লেট ও ট্যাব পেজে যুক্ত করার সুযোগ থাকছে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি একজন ভিডিও ক্রিয়েটর হন, তাহলে আপনার পেজের জন্য সংশ্লিষ্ট একটি টেম্পলেট নির্বাচন করলে ভিডিওগুলো আরও ভালভাবে উপস্থাপন করা হবে।

আরো জানুনঃ ফেসবুক থেকে আয় করার উপায়

এবাউট – ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায় এর গুরুত্বপুর্ণ ধাপ

ফেসবুক পেজের ক্ষেত্রে প্রোফাইল পিকচার ও কভার ফটোর পর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো পেজ এর About সেকশন। এবাউট সেকশনে মুলত একটি ফেসবুক পেজ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেওয়া থাকে।

ধরুন, ফেসবুকে কেউ প্রথমবার আপনার ব্যবসার ফেসবুক পেজ খুঁজে পেলো। সেক্ষেত্রে তারা আপনার ব্যবসা সম্পর্কে আরো বিস্তারিতভাবে জানতে আপনার পেজের এবাউট সেকশন দেখবে।

এবাউট সেকশনে আপনার পেজ এর ডেসক্রিপশন থেকে শুরু করে অর্জিত এওয়ার্ড পর্যন্ত, প্রায় যেকোনো তথ্যই যুক্ত করা যায়।

আরো জানুনঃ ফেসবুক হ্যাক হলে কিভাবে বুঝব ও করণীয়

কল টু অ্যাকশন

ফেসবুক পেজে প্রবেশের পর মোবাইলে পেজের নামের নিচে ও কম্পিউটারে কভার ফটোর নিচে একটি কল-টু-অ্যাকশন বাটন দেখা যায়। এই কল টু অ্যাকশন বাটন ব্যবহার করে আপনার ফেসবুক পেজে প্রবেশের পর ভিজিটরগণ পরবর্তী স্টেপ কী নিবে, তার ধারণা পায়।

আপনার ফেসবুক পেজ এর মূল লক্ষ্য নির্ধারণ করে এই কল টু অ্যাকশন বাটন। এই কল টু অ্যাকশন বাটন ব্যবহার করে পেজ এর ভিজিটরদের বুকিং নেওয়া থেকে শুরু করে অ্যাপ ডাউনলোড করা পর্যন্ত বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণে উৎসাহী করতে পারবেন।

সার্ভিসেস

আপনি যদি কোনো ব্যবসার জন্য পেজ খুলে থাকেন, সেক্ষেত্রে এটি নিশ্চিত যে আপনি কোনো না কোনো ধরনের সার্ভিসেস অর্থাৎ সেবা প্রদান করে থাকেন। আপনার ফেসবুক পেজ এর মাধ্যমেই আপনার ব্যবসার যেকোনো সার্ভিস কাস্টমারদের কাছে পৌঁছাতে পারবেন সহজেই।

ধরুন আপনি একজন ফটোগ্রাফার। সেক্ষেত্রে আপনার বিভিন্ন ফটোগ্রাফি সেবা ফেসবুক পেজ এর সার্ভিসেস ট্যাব এর মাধ্যমে যুক্ত করে পেজের ভিজিটরদের আপনার কাস্টমারে রুপান্তরিত করতে পারেন।

মেসেজিং – ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায় এর জরুরি টুল

ব্যবসার ক্ষেত্রে কাস্টমার কেয়ার সাপোর্ট হিসেবে মানুষ এখন সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করে উক্ত ব্যবসার ফেসবুক পেজ। তাই প্রতিটি ব্যবসাই তাদের ফেসবুক পেজ এ আসা মেসেজ এর গুরুত্ব দেয়।

আপনি যদি কোনো ব্যবসার জন্য ফেসবুক পেজ খুলে থাকেন, সেক্ষেত্রে অবশ্যই ফেসবুক পেজ এর Settings এ প্রবেশ করে Messaging ফিচারটি অন করে দিন (অবশ্য ডিফল্টভাবে মেসেজিং অন করাই থাকে)। এতে আপনার কাস্টমারগণ প্রয়োজনে বা কোনো সাহায্য চাইতে আপনার সাথে সহজেই যোগাযোগ করতে পারবে।

রিভিউস

আপনি যদি কোনো ব্যবসার ফেসবুক পেজ চালান, সেক্ষেত্রে আপনার ব্যবসার মানদন্ড নির্ভর করে আপনার কাস্টমারদের রিভিউ এর উপর। আপনার ব্যবসা নিয়ে যদি আপনার কনফিডেন্স থাকে, তাহলে ফেসবুক পেজের ক্ষেত্রে অবশ্যই রিভিউস ট্যাবটি যুক্ত করুন।

রিভিউস ট্যাব এ আপনার কাস্টমারদের পোস্ট করা আপনার ব্যবসা সম্পর্কে রিভিউ প্রদর্শিত হয়। এসব রিভিউ দেখে অন্যরা আপনার ব্যবসার প্রতি আগ্রহী হবে ও ফলাফলে আপনার কাস্টমার বাড়বে।

এছাড়াও এই ফিচারটি চালু থাকলে গুগলে যখন কেউ আপনার ব্যবসার নামে সার্চ করবে, তখন আপনার পেজ এর নামের নিচে রিভিউ রেটিংস স্টার আকারে প্রদর্শিত হয়। এই রিভিউ রেটিংস আপনার ব্যবসা সম্পর্কে একজন কাস্টমারের মনে ইতিবাচক ধারণা আনতে সক্ষম।

ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায়

লাইক

ফেসবুক পেজ খোলার পর সবচেয়ে বড় সমস্যা হয় ফেসবুক পেজ এ লাইক আনতে গিয়ে। তবে ফেসবুক পেজ এর লাইক বাড়ানো আসলে তেমন কঠিন কোনো কাজ নয়।

ফেসবুক পেজ খোলার পর আপনার ফেসবুক ফ্রেন্ড লিস্টে থাকা বন্ধুদের আপনার ফেসবুক পেজে লাইক দেওয়ার জন্য ইনভাইট করতে পারেন। তবে কাউকে পেজে ইনভাইট দেওয়ার আগে অবশ্যই উপরে উল্লিখিত স্টেপগুলো আগে পুরণ করুন। এছাড়াও আপনার ওয়েবসাইটে কিংবা ইমেইল সিগনেচারের মাধ্যমেও আপনার ফেসবুক পেজের প্রচার ও প্রসার করতে পারেন। 

আপনার ব্যবসার সাথে মিল রেখে পোটেনশিয়াল কাস্টমারদের লক্ষ্য করে ফেসবুক এড ক্যাম্পেইন চালিয়ে বা পেজ বুস্ট করে আপনার ফেসবুক পেজ এর লাইক বৃদ্ধির পাশাপাশি কাস্টমারও বাড়াতে পারবেন।

কনটেন্ট – সেরা ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করার উপায়

এবার কথা বলা যাক ফেসবুক পেজ এর এনগেজমেন্ট বাড়াতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, অর্থাৎ কনটেন্ট নিয়ে। ফেসবুক পেজ এর লাইক বাড়াতে কিংবা ব্যবসার দিকে নতুন কাস্টমারকে আকৃষ্ট করতে ফেসবুক পেজে কনটেন্ট পোস্ট করা আবশ্যক।

ফেসবুক এ টেক্সট, ফটো, ভিডিওসহ বিভিন্ন ফরম্যাটের কনটেন্ট পোস্ট করা যায়। এসব কনটেন্ট ফরম্যাট ব্যবহার করে একটি পেজ এর লাইক বাড়িয়ে নেওয়া যায়।

স্ট্যান্ডার্ড ফেসবুক পোস্ট সাধারণত ফটোসহ পোস্ট করা হয়ে থাকে। ফেসবুক এ ব্যবসার পেজগুলোতে সবচেয়ে জনপ্রিয় পোস্ট ফরম্যাট হলো ক্যাপশন সহ ছবি।

আবার ফেসবুকে ভিডিও কনটেন্ট এর জনপ্রিয়তা দিনদিন ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফেসবুকে ভিডিও কনটেন্ট এতোটাই জনপ্রিয় যে, ফেসবুক শুধুমাত্র ভিডিওর জন্য আলাদা প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে দিয়েছে। লাইভ ভিডিও পোস্ট করে অনেক পেজই সাফল্য পেয়েছে। তাই আপনি লাইভ ভিডিও ট্রাই করতে ভুলবেন না।

পেজ এর অডিয়েন্স এর এনগেজমেন্ট পাওয়া যাবে, এমন সব ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে অল্প সময়ের মধ্যেই একটি ফেসবুক পেজ এর লাইক তথা জনপ্রিয়তা বাড়ানো সম্ভব।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,562 other subscribers

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *