যে কারণে উড়ন্ত গাড়ি পছন্দ করেন না ইলন মাস্ক

আজকাল ফ্লাইং কার বা উড়ুক্কু গাড়ি নিয়ে বেশ হইচই চলছে। গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ থেকে শুরু করে উবারের মত বড় বড় প্রতিষ্ঠান উড়ন্ত গাড়ির প্রযুক্তি নিয়ে বিভিন্ন প্রজেক্ট হাতে নিচ্ছে। কিন্তু টেসলা সিইও ইলন মাস্ক মাটির নিচ থেকে মহাশূন্য পর্যন্ত পরিবহন সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করলেও, তিনি ফ্লাইং কার বা উড়ন্ত গাড়ির ধারণা নিয়ে ততটা আগ্রহী নন।

গত ফেব্রুয়ারিতে ব্লুমবার্গকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ইলন মাস্ক বলেন, ফ্লাইং কার ট্রাফিক ব্যবস্থার জন্য কোনো ভালো সমাধান নয়। সম্প্রতি ভূগর্ভস্থ যোগাযোগ ব্যবস্থা (টানেল সিস্টেম) নিয়ে ইলন মাস্কের পরিকল্পনার একটি কনসেপ্ট ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে। টানেল সিস্টেমকে উড়ন্ত গাড়ির চেয়ে ‘কম পাগলাটে/কম আজগুবি’ বলে মনে করেন ইলন মাস্ক।
 

মাস্ক ব্লুমবার্গকে বলেন, “আমি নিশ্চয়ই উড়ন্ত বস্তু ভালোবাসি। কিন্তু এটা চিন্তা করা খুবই কঠিন যে, উড়ন্ত গাড়ি একটি পরিবর্ধনযোগ্য সমাধান হয়ে উঠবে।”

বেশ কয়েকটি কোম্পানি উড়ন্ত গাড়ির ব্যাপারে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করছে। গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ নিজেও একটি উড়ন্ত গাড়ি তৈরিকারী স্টার্টআপ জি.অ্যারো (Zee.Aero) এ অর্থায়ন করছেন এবং উবার’ও একটি উড়ন্ত গাড়ি প্রকল্প চালু করেছে।

এরা সবাই-ই যে স্বাভাবিক আকারের গাড়ি তৈরি করছে এমন নয়। কারণ তারা এসকল গাড়ি রাস্তায় চালানোর জন্য তৈরি করছেনা, বরং বিমানের মতই তৈরি হচ্ছে এগুলো। যেমন, জি অ্যারো ও উবার ভার্টিক্যাল টেইকঅফ অ্যান্ড ল্যান্ডিং (VTOL) প্রযুক্তির উড়ন্ত যান তৈরি করছে। যেগুলো কোনো রানওয়ে ছাড়া উড্ডয়ন ও অবতরণে সক্ষম।

ইলন মাস্ক বলেন, উড়ন্ত গাড়িকে আকাশে ভাসিয়ে রাখতে প্রচুর নিম্নমুখী বল প্রয়োগ করতে হবে। যেটা নিচে প্রচুর বাতাস এবং শব্দের সৃষ্টি করতে পারে যা লোকজনের জন্য বিরক্তির কারণ হতে পারে। তিনি আরো বলেন, যদি এসকল গাড়ি সঠিকভাবে পরিচালনা না করা হয়, তবে আকাশে ওড়ার সময় গাড়িগুলোর মধ্যে সংঘর্ষ হলে গাড়িগুলো অথবা এগুলোর ভগ্নাংশ নিচে পড়ে যেতে পারে, যা দ্বারা মানুষজন আহত কিংবা নিহতও হতে পারে। এছাড়া ফ্লাইং কার সব সময় মাথার ওপর আওয়াজ করে ঘুরতে থাকবে, যা উদ্বেগের কারণ হবে।

উড়ন্ত গাড়ি আপনার কাছে কেমন মনে হয়?

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,269 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.