নতুন হাই-রেস্যুলেশন ক্যামেরা প্রযুক্তিতে বিনিয়োগ করছে নকিয়া

ফিনিশ মোবাইল কোম্পানি নকিয়া তাদের স্মার্টফোন ক্যামেরা প্রযুক্তিতে আরও উন্নয়ন আনার চেষ্টা অব্যাহত রাখছে। আর এই ধারার অংশ হিসেবে ক্যালিফোর্নিয়া ভিত্তিক স্টার্টআপ “পেলিক্যান ইমেজিং” এ বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে লুমিয়া নির্মাতা। সংবাদ মাধ্যম ব্লুমবার্গ জানাচ্ছে, নতুন এই বিনিয়োগের উদ্দেশ্য হচ্ছে স্মার্টফোনে অ্যারেই ক্যামেরা প্রযুক্তি’র সূচনা করা, যা নিয়ে বর্তমানে খুব কম কোম্পানিই কাজ করছে। আর পেলিক্যান ইমেজিং এগুলোর মধ্যে অন্যতম।

অ্যারেই ক্যামেরায় বিশেষ কিছু সুবিধা পাওয়া যায় যা এদেরকে প্রতিযোগী ক্যামেরাসমূহের চেয়ে এগিয়ে থাকতে সাহায্য করে। এতে প্রচলিত ক্যামেরায় ব্যবহৃত আলাদা লেন্সের প্রয়োজনীয়তা কমিয়ে দেয়।

ফলে স্মার্টফোনে আরও ক্ষুদ্র অথচ দক্ষ ক্যামেরা স্থাপন করা সম্ভব হয়। সাধারণ ক্যামেরায় ছবি তোলার সময় ফোকাস পয়েন্ট নির্ধারণ করার দরকার হলেও অ্যারেই ক্যামেরা আপনাকে ছবি তোলার পরেও ফোকাস এডজাস্ট করার সুবিধা দেবে।

“নকিয়া গ্রোথ পার্টনার” নামক একটি ভেঞ্চার ক্যাপিটাল গ্রুপ এই বিনিয়োগের ব্যাপারে পিওরভিউ ডেভলপারকে সাহায্য করবে। তবে কবে নাগাদ এই প্রকল্পটি শুরু হবে কিংবা কী পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ হবে সে সম্বন্ধে কিছু জানা যায়নি।

উন্নতমানের ক্যামেরা সমৃদ্ধ স্মার্টফোন তৈরিতে নকিয়ার দীর্ঘদিনের সুনাম রয়েছে। এর ৪১ মেগাপিক্সেল ক্যামেরাযুক্ত ৮০৮ পিউরভিউ হ্যান্ডসেট এবং ইমেজ স্ট্যাবিলাইজিং ফিচার সহ লুমিয়া ৯২০ বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে। লুমিয়া সিরিজে ক্যামেরা দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটি গত বছর ইমেজিং কোম্পানি স্ক্যালাডো অধিগ্রহণ করে তাদের ফটোগ্রাফি প্রযুক্তি উইন্ডোজ ফোন ওএস চালিত ডিভাইসের সাথে যুক্ত করে দেয়। এছাড়া ভবিষ্যতে লুমিয়া স্মার্টফোনে ৪১ মেগাপিক্সেল পিওরভিউ যুক্ত করার কথাও শোনা যাচ্ছে।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,558 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *