সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং করে সফল ক্যারিয়ার গড়ার উপায়

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বর্তমানে পেশা হিসেবে খুব জনপ্রিয়। এতটা জনপ্রিয়তার অন্যতম কারণ এর চাহিদা। ধীরে ধীরে সকল ব্র্যান্ড বা প্রতিষ্ঠান তাদের প্রচারণার মূল মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করছে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামের মতো সোশ্যাল মিডিয়া। বর্তমানে টিভি বিজ্ঞাপন বা বিল বোর্ড থেকেও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। ইন্টারনেট ও স্মার্টফোনের এই যুগে সোশ্যাল মিডিয়া পেয়েছে অভাবনীয় জনপ্রিয়তা।

মানুষের সাথে যোগাযোগ রাখা হতে শুরু করে ই-কমার্সের বড় মাধ্যম এখন সোশ্যাল মিডিয়া। কাজেই এই জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগাতে এবং নিজেদের অস্তিত্বকে জানান দিতে সোশ্যাল মিডিয়ার মতো বড় প্রচার মাধ্যম আর নেই বর্তমানে। আজকের পোস্ট থেকে জানতে পারবেন কীভাবে আপনি একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে নিজের সফল ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে পারেন।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের খাতটি ধীরে ধীরে আরও বিশাল হয়ে উঠছে। সোশ্যাল মিডিয়ার ট্রেন্ডগুলোকে জেনে এবং মানুষের অভ্যাসের সাথে মিলিয়ে একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার সহজেই পণ্যের প্রচারণায় সফলতা লাভ করতে পারেন। তবে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং সহজ কোনো বিষয় নয়। সেক্ষেত্রে সফল হতে হলে সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার সম্পর্কে পরিপূর্ণ জ্ঞান ছাড়াও নিজের দক্ষতা বাড়িয়ে নিয়মিত উন্নতি করবার দরকার হয়। কাজেই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে সফল হতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে সঠিক পথে সঠিকভাবে আপনার দক্ষতা বাড়াতে হবে।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং করে সফল হতে প্রয়োজনীয় দক্ষতা

যে কোনো কাজের ক্ষেত্রেই আলাদা আলাদা দক্ষতা থাকবার প্রয়োজন হয়। অনেকেই মনে করে থাকেন সোশ্যাল মিডিয়া চালাতে জানলেই এবং কিছুটা সৃজনশীলভাবে উপস্থাপন করলেই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে সফল হওয়া যায়। তবে ব্যাপারটি মোটেও তেমন নয়। এখানে সফল হতে হলে বেশ কিছু দক্ষতার নিয়মিত উন্নতি করা প্রয়োজন। এসব দক্ষতা আপনাকে নিয়মিত নতুন নতুন ভাবে পোস্ট তৈরি করতে এবং মানুষের নজর কাড়তে সাহায্য করবে।

যোগাযোগ দক্ষতা

যোগাযোগে পটু হওয়া একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটারের প্রধান দক্ষতার একটি। যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আপনি নিয়মিত সম্ভাব্য গ্রাহক বা ক্রেতাদের সাথে যোগাযোগ করবেন কাজেই আপনাকে গ্রাহক বা ক্রেতাদের মন জয় করে নিতে হবে। অর্থাৎ গ্রাহক বা ক্রেতাদের সামলানোর ক্ষেত্রে আপনাকে অত্যন্ত দক্ষ হয়ে উঠতে হবে। ভালো ব্যবহার ও ভালো যোগাযোগ ক্রেতাদের আকৃষ্ট করে কোনো পণ্য বা সেবা নেবার ক্ষেত্রে। কাজেই যোগাযোগ দক্ষতার উন্নতি করতে হবে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং করতে চাইলে। এক্ষেত্রে বিভিন্ন কোর্স বা টিউটোরিয়াল দেখে নিতে পারেন অনলাইনে। নিয়মিত চর্চার মাধ্যমে যোগাযোগ দক্ষতার উন্নতি করা যায় সহজেই। বেকারত্ব থেকে মুক্তির উপায় হিসেবে এই দক্ষতা অর্জন অন্যতম কার্যকর।

সৃজনশীলতা

এটি অন্যতম বড় একটি দক্ষতা যা সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটারদের থাকা অতি জরুরি। একই ধরনের পোস্ট বারবার করে কখনোই ক্রেতাদের আকর্ষণ করা যায় না। এক্ষেত্রে নিয়মিত ট্রেন্ডি বিভিন্ন ঘটনা ও আকর্ষণীয় বিভিন্ন ভাষা দিয়ে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে হয়। বর্তমান সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হতে নতুন কিছুর দরকার হয় যা অন্য সবকিছু থেকে আলাদা। ক্রেতাদের কাছে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে এই নতুন নতুন বিভিন্ন আইডিয়া নিয়ে নিয়মিত কনটেন্ট তৈরি করলেই শুধুমাত্র সফল হওয়া যায় সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে। আর এজন্যই সবথেকে দরকারী সৃজনশীলতা। সৃজনশীল কেউ সহজেই বিভিন্ন নতুন নজরকাড়া কনটেন্ট তৈরি করতে পারেন।

সোশ্যাল মিডিয়ার টেকনিক্যাল দক্ষতা

সোশ্যাল মিডিয়া বর্তমানে অনেক রকম ফিচার দিয়ে থাকে। সোশ্যাল মিডিয়ার প্রত্যেকটি ফিচার নিয়ে জানা ও সোশ্যাল মিডিয়াকে সঠিকভাবে ব্যবহার করা একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটারের জন্য অত্যাবশ্যকীয়। অর্থাৎ আপনাকে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার ইত্যাদি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে পরিপূর্ণ জ্ঞান রাখতে হবে। নতুন কোনো ফিচার আসলে সে সম্পর্কেও নিয়মিত নজর রাখতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়া দক্ষতা বাড়ালেই আপনি প্রচারণার ব্যাপারে সঠিক পথ ধরে এগোতে পারবেন। এতে করে সহজে মানুষের কাছে আপনার পোস্ট বা প্রচারণা পৌঁছাবে।

কনটেন্ট তৈরি

কনটেন্ট তৈরি করার দক্ষতা খুবই দরকারি। কনটেন্ট বা পোস্ট লেখার ক্ষেত্রে সঠিক ও আকর্ষণীয় ভাষার ব্যবহার, ছবি বা ভিডিওর ব্যবহার খুবই জরুরি। নজরকাড়া ছবি, ভিডিও ব্যবহার করলে সহজেই মানুষের কাছে জনপ্রিয়তা পাওয়া যায়। কাজেই কনটেন্ট তৈরির ক্ষেত্রে দক্ষতা থাকা দরকার একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটারের। সুন্দর কনটেন্ট তৈরি করলে এক্ষেত্রে সফলতা পাওয়া অনেকটাই সহজ হয়ে যায়। সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং শেখার উপায় জেনে নিন আমাদের আগের পোস্ট থেকে।

পরিবর্তনযোগ্যতা

সময়, গ্রাহক, ক্রেতা ইত্যাদি বুঝে সময়মতো নিজের কৌশল পরিবর্তন করে এগোনো খুবই কাজের একটি দক্ষতা সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের জন্য। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারের ক্ষেত্রে ধরাবাঁধা কৌশল প্রয়োগ করতে থাকলে অনেকসময়ই সফলতা পাওয়া যায় না। পরিস্থিতি অনুযায়ী নিজের কৌশল বারবার পরিবর্তন করতে হয়। আর তাই পরিবর্তনযোগ্যতা অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি গুণ।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

Career as social media marketer

প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট

প্রজেক্ট সামলানোর মতো যথেষ্ট দক্ষতা থাকা দরকার একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটারের। একজন সফল সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার সঠিক সময়ে সঠিক ফলাফল এনে দিতে পারেন। ফলে সফলতার অন্যতম চাবি হচ্ছে সঠিকভাবে সকল প্রজেক্টের কাজ শেষ করা। প্রজেক্ট সামলানোর কাজটি বেশ জটিল। ফলে এই ব্যাপারে দক্ষতা বৃদ্ধিতে বাড়তি নজর রাখা উচিত।

মার্কেটিং

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের একটি বড় অংশই হচ্ছে মার্কেটিং বা প্রচারণা। প্রচারণার ধরণে পরিবর্তন এলেও প্রচারণার সাধারণ বেশ কিছু তত্ত্ব রয়েছে। কাজেই এসব ব্যাপারে পূর্ণ জ্ঞান রাখা উচিত সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে সফল হতে চাইলে। তাই মার্কেটিং সম্পর্কে বাস্তব জ্ঞান অর্জন করে তবেই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং শুরু করা উচিত। বোনাসঃ ওয়েব ডিজাইনার হিসেবে সফল ক্যারিয়ার গড়ার উপায় জেনে নিন।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে কাজের বিভিন্ন ধরণ

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং একটি বিস্তৃত পরিসরের পেশা। সকল সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার একই ধরনের কাজ করেন না। বরং বিভিন্ন ধরনের কাজ রয়েছে এখানেও অন্য সকল কাজের ক্ষেত্রের মতোই। এসব কাজের মধ্যে বেশ কিছু কাজের তালিকা বা রোলের তালিকা এখানে দেয়া হলো:

  • মার্কেটিং কোঅর্ডিনেটর
  • মার্কেটিং ম্যানেজার
  • মার্কেটিং কনসালট্যান্ট
  • পিআর ম্যানেজার
  • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার
  • ব্র্যান্ড ম্যানেজার
  • মার্কেটিং স্পেশালিস্ট
  • মার্কেটিং অ্যানালিস্ট
  • চিফ মার্কেটিং অফিসার

প্রতি কাজই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের সাথে সম্পর্কযুক্ত হলেও কাজের দায়িত্ব অনুযায়ী ভাগ রয়েছে এখানে। আপনি কোনো কোম্পানি বা ব্র্যান্ডের পেজের মাধ্যমে প্রচারণা চালানোর দায়িত্ব নিতে পারেন কিংবা আলাদা করে নিজের প্রোফাইল বা অ্যাকাউন্টের মাধ্যমেও এটি করতে পারেন। সমস্ত কিছুই নির্ভর করে আপনার কৌশলের উপর। আর কৌশলভেদে তাই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে বিভিন্ন রকম দায়িত্ব পালন করতে হয়। প্রতিটি ক্ষেত্রেরই প্রচুর চাহিদা রয়েছে। কাজেই সবার আগে প্রয়োজন দক্ষতা অর্জন করে নিজেকে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে তৈরি করা। এরপর আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী যে কোনো দিকে বিশেষজ্ঞ হয়ে উঠতে পারেন। আরও জানুনঃ ডিজিটাল মার্কেটিং কি? এটা থেকে কিভাবে আয় করে?

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের চাহিদা

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংয়ের চাহিদা দিনে দিনে আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে এখানে কাজ করার প্রচুর জায়গা রয়েছে। কাজেই সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংকে ক্যারিয়ার হিসেবে নিলে এখানে ব্যর্থ হবার ভয় কম। আপনি প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জন করতে পারলে এখানে সহজেই সফল হওয়া সম্ভব।

মার্কেটিং প্রতিটি ব্র্যান্ডের জন্যই খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার। নিজেদের লক্ষ্য অর্জনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সোশ্যাল মিডিয়া উপস্থিতি অত্যন্ত দরকারি। ভবিষ্যতেও এটি পরিবর্তন হবে না। কাজেই এই জায়গাতে সবসময়ই একটি বাড়তি চাহিদা থেকে যাবে। ফলে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটার হিসেবে ক্যারিয়ার খুবই ভালো একটি ক্যারিয়ার যেখানে উন্নতির সুযোগ থাকে সবসময়। ভালো আয় করবার পাশাপাশি নিজের দক্ষতার পুরোটাই ব্যবহার করা যায় এখানে। কাজেই চাহিদার দিক থেকে এটি অন্যতম সেরা ক্যারিয়ার গড়ার স্থান।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,561 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *