সস্তা ৪জি স্মার্টফোন তালিকা ২০২৪

কম দামে ৪জি কানেকটিভিটি যুক্ত ফোন খুঁজছেন? এই পোস্টে জানতে পারবেন সস্তা ৪জি স্মার্টফোন সম্পর্কে। এর মধ্যে কিছু ফোন বাজারে গিয়ে কিনতে হবে, আবার কিছু ফোন কিনতে পারবেন গ্রামীণফোন এর মাধ্যমে। এই ফোনগুলোর দাম ২থেকে ৭হাজার টাকার মধ্যে। এর চেয়ে বেশি যদি আপনার বাজেট হয়ে থাকে তবে বাংলাটেক এর ১০হাজার বা ২০হাজার টাকার মধ্যে সেরা স্মার্টফোনের তালিকা দেখতে পারেন।

সিম্ফনি ভি১৩৮ – Symphony V138

Symphony V138

সিম্ফনি বর্তমানে বাজারে সবথেকে সুলভ মূল্যে ৪জি ফোনগুলো নিয়ে আসে। তাদের একটি অন্যতম জনপ্রিয় মডেল ভি১৩৮। এই মডেলটি মাত্র ৬ হাজার টাকার কিছু উপরেই পেয়ে যাবেন। ফোনটির মধ্যে বেশ কিছু ভালো ফিচার দিয়েছে সিম্ফনি ৪জি ছাড়াও। এখানে আপনি দুটি সিম পাবেন এবং দুটি সিমেই ৪জি ব্যবহার করতে পারবেন। সামনে রয়েছে ৫.৪৫ ইঞ্চির একটি ডিসপ্লে। ইউনিসকের এসসি৯৮৬৩এ এই মডেলের একটি চিপ দেয়া আছে এখানে। অক্টা কোরের চিপ হওয়ায় এতে ভালো পারফর্মেন্স পাওয়া যায়।

এছাড়া স্মুথ পারফর্মেন্সের জন্য দেয়া আছে অ্যান্ড্রয়েডের গো এডিশন। ফোনের পিছনে আছে ৫ মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা আর সামনে ২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। এছাড়াও ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজের সাথে পাবেন ফোনটি। ২৫৮০ মিলিএম্প ব্যাটারি থাকায় ডিভাইসটির ব্যাটারি ব্যাকআপও বেশ ভালো। এছাড়া ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর রয়েছে নিরাপত্তার সুবিধার জন্য। ফোনটি বেশ ভালো একটি ৪জি স্মার্টফোন কম দামের দামের মধ্যেই।

একনজরে সিম্ফনি ভি১৩৮ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫.৪৫ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক এসসি৯৮৬৩এ
  • র‍্যামঃ ২ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ৩২ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ২৫৮০ মিলিএম্প

সিম্ফনি ভি১৩৮ এর দামঃ ৬,৪৯০ টাকা

সিম্ফনি ভি১৩৯ – Symphony V139

Symphony V139

সিম্ফনির বাজেট ফোনগুলোর মধ্যে এই ফোনটি অন্যতম সেরা ৪জি সুবিধা দিচ্ছে। গত বছর বাজারে আসা এই ফোনের দামও কমে এসেছে কিছুটা। ৬ হাজার টাকার নিচেই বর্তমানে ফোনটি পেয়ে যাবেন। এই দামেই আপনি পেয়ে যাবেন ডুয়াল সিম ৪জি সুবিধা। ৫.৪৫ ইঞ্চির এই ফোনের সাথে পেয়ে যাবেন ইউনিসকের এসসি৯৮৩২ই নামের একটি অক্টা কোরের প্রসেসর। সেই সঙ্গে আছে ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ। পুরো ফোন চলছে অ্যান্ড্রয়েড ১১ এর গো এডিশনে।

ফলে সব মিলিয়ে ফোনটি স্মুথভাবে চলে। এছাড়া ফোনের পিছনে মাঝে মধ্যে চলনসই ছবি তুলবার জন্য আছে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। সামনে পাবেন ২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। ২৬০০ মিলিএম্প ব্যাটারি পাবেন এই ফোনে। কাজেই এই ছোট ফোনটি সারাদিন চলবে। এছাড়া ফেস আনলক ও ফিঙ্গারপ্রিন্টের মতো নিরাপত্তা ব্যবস্থাও পাবেন এই ফোনে। সব মিলিয়ে কম বাজেটে বেশ সুন্দর একটি ৪জি ফোন এটি।  

একনজরে সিম্ফনি ভি১৩৯ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫.৪৫ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক এসসি৯৮৩২ই
  • র‍্যামঃ ২ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ৩২ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ২৬০০ মিলিএম্প

সিম্ফনি ভি১৩৯ এর দামঃ ৫,৫৯৯ টাকা

সিম্ফনি আই৭৩ – Symphony i73

Symphony i73

গত বছর বাজারে আসা সিম্ফনির এই একদম কম দামের ফোনটি বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে বাজারে। এতো কম দামেই ৪জি স্মার্টফোন নিয়ে অনেকেই আগ্রহী হচ্ছেন। ডুয়াল সিম ৪জি সুবিধা রয়েছে এই ফোনে। সামনে থাকছে ৬ ইঞ্চির এলসিডি ডিসপ্লে। ফোনটির সামনে চিন ও বেজেল রয়েছে। ফোনের পারফর্মেন্স দিতে আছে ইউনিসকের এসসি৯৮৩২ই অক্টা কোরের চিপ। এছাড়া ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজও পাওয়া যাবে।

অ্যান্ড্রয়েড গো এডিশন থাকায় এই কম শক্তিশালী চিপেও ভালো পারফর্মেন্স পাওয়া যায় ফোন থেকে। ৮ মেগাপিক্সেলের মূল ক্যামেরাটি ভালো আলোতে ভালো ছবি তুলতে পারে। সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরাও রয়েছে। ফোনে দেয়া হয়েছে ৩১৫০ মিলিএম্প ব্যাটারি যা সারাদিন ব্যাকাপ দিতে সক্ষম। এছাড়া পাবেন ফেস আনলক ও ফিঙ্গারপ্রিন্টের মতো কার্যকরী বিভিন্ন ফিচার। মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহার করে স্টোরেজ বাড়ানোর সুবিধাও দেয়া হয়েছে এই ফোনে।

একনজরে সিম্ফনি আই৭৩ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৬ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক এসসি৯৮৩২ই
  • র‍্যামঃ ২ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ৩২ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৩১৫০ মিলিএম্প

সিম্ফনি আই৭৩ এর দামঃ ৫,৯৯৯ টাকা

সিম্ফনি আই৮৫ – Symphony i85

Symphony i85

এই ফোনে আধুনিক বেশ কিছু ফিচারের সাথে ৪জি সুবিধা দিচ্ছে সিম্ফনি। ফোনের আউটলুক ও ডিজাইন বেশ আধুনিক এবং ওয়াটারড্রপ ডিসপ্লে রয়েছে। ৬.৬ ইঞ্চির বড় এলসিডি ডিসপ্লে কন্টেন্ট ওয়াচিংয়ের ক্ষেত্রেও ভালো অভিজ্ঞতা দেবে। ডুয়াল সিম ৪জি এর সাথে আছে মাইক্রোএসডি কার্ডের সাপোর্ট। ইউনিসকের এসসি৯৮৬৩এ১ অক্টা কোরের প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে এই ফোনে। সাথে আছে ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ।

অ্যান্ড্রয়েড ১২ গো এডিশন থাকায় এখানে খুব স্মুথ কাজ করা যায় এই কম শক্তিশালী চিপ ব্যবহার করেও। ফোনের পিছনে পাবেন ৫ মেগাপিক্সলের একটি মোটামুটি মানের ক্যামেরা। সামনেও একই মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া পাবেন ৪০৫০ মিলিএম্পের বড় একটি ব্যাটারি। ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও ফেস আনলক রয়েছে বাড়তি নিরাপত্তার ফিচার হিসেবে।

একনজরে সিম্ফনি আই৮৫ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক এসসি৯৮৬৩এ১
  • র‍্যামঃ ২ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ৩২ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৩১৫০ মিলিএম্প

সিম্ফনি আই৭৩ এর দামঃ ৭,১৯৯ টাকা

আইটেল এ২৬ – Itel A26

Itel A26

আইটেলের ফোনগুলো সুলভ মূল্যে ৪জি দিতে বেশ জনপ্রিয়। তাদের এ২৬ মডেলের ফোনটি ৭০০০ টাকার নিচেই ডুয়াল সিম ৪জি সাপোর্ট নিয়ে বাজারে এসেছে। সেই সাথে আছে আরও নানা ফিচার। ফোনের ডিজাইন ও আউটলুক বেশ আধুনিক। সামনে রয়েছে ৫.৭ ইঞ্চির একটি ডিসপ্লে। ইউনিসকের এসসি৯৮৩২ই অক্টা কোরের চিপ ফোনটিকে চালাচ্ছে।

সেই সাথে আছে ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ। স্টোরেজ বাড়ানো যাবে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে। ফোনটি একটু পুরনো অ্যান্ড্রয়েড ১০ এ চলছে। কাজেই লেটেস্ট অ্যান্ড্রয়েডের স্বাদ পাবেন না। পিছনে ৫ ও সামনে ২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা রয়েছে। ৩০২০ মিলিএম্প ব্যাটারি পাবেন ফোনের সাথে। তবে নেই কোন ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরের সুবিধা। বাজেট ৪জি ফোনের মধ্যে এটি কিছুটা পুরনো মডেলের ফোন।

একনজরে আইটেল এ২৬ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫.৭ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক এসসি৯৮৩২ই
  • র‍্যামঃ ২ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ৩২ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৩০২০ মিলিএম্প

সিম্ফনি আই৭৩ এর দামঃ ৬,৮৯০ টাকা

ওয়ালটন প্রিমো ইএফ১০ – Walton Primo EF10

Walton Primo EF10

ওয়ালটনের ছোট ও সুন্দর একটি কম বাজেটের ৪জি স্মার্টফোন এটি। অফিসিয়ালভাবে এই ফোনটি ৬ হাজার টাকার কিছুটা বেশি মূল্যে পাওয়া যাচ্ছে। এই ফোনের সাথে পাবেন বেশ ভালো কিছু ফিচার। ডুয়াল সিম ৪জি সাপোর্ট দেয়া আছে এখানে। সামনে ৫.৪৫ ইঞ্চির একটি সুন্দর এলসিডি ডিসপ্লে রয়েছে।

এছাড়াও পাবেন একটি ৫ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। অন্ধকারে সেলফি তুলতে সামনে একটি ফ্ল্যাশও দেয়া আছে। পিছনেও রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের একটি চলনসই ক্যামেরা। ফোনের ভিতরে চিপ হিসেবে রয়েছে একটি অক্টা কোরের প্রসেসর। সেই সঙ্গে আছে ১ জিবি র‍্যাম ও ১৬ জিবি স্টোরেজ। অ্যান্ড্রয়েড ১১ তে চলা এই ফোনটি খুব বেশি শক্তিশালী না হলেও ছোটখাটো স্বাভাবিক কাজগুলো করা যায় সহজেই। ফোনের সাথে আছে ৩০০০ মিলিএম্প ব্যাটারি। এছাড়া রেডিও, ওয়াইফাই, ব্লুটুথের মতো ফিচারগুলোতো রয়েছেই।

একনজরে ওয়ালটন প্রিমো ইএফ১০ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫.৪৫ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ অক্টা কোর
  • র‍্যামঃ ১ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ১৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৩০০০ মিলিএম্প

ওয়ালটন প্রিমো ইএফ১০ এর দামঃ ৬,৩০০ টাকা

সিম্ফনি জি৫০ – Symphony G50

সিম্ফনি জি৫০ – Symphony G50

সিম্ফনি কমদামে সেরা ফিচারের ফোন বাজারে আনে সবসময়। একদম কম মূল্যে ৪জি ফোন চাইলে সিম্ফনি হতে পারে আপনার পছন্দের ব্র্যান্ড। তাদের জি৫০ মডেলটি বেশ কিছু অসাধারন ফিচার সহ ৪জি সুবিধা নিয়ে বাজারে এসেছে। ৫.৭ ইঞ্চির এলসিডি ডিসপ্লের এই ছোট ফোনটির চারপাশে বেজেল দেখতে পাবেন কিছুটা।

তবে এই দামে সেটা নিয়ে অভিযোগ করার সুযোগ নেই। বেশ ভালোভাবেই ফোনের সকল কাজ করা যাবে এই ডিসপ্লে দিয়ে। পিছনে একটি ও সামনে একটি সেলফি ক্যামেরা রয়েছে ফোনে। পেছনের ক্যামেরাটি ৫ মেগাপিক্সেল এবং সামনে ২ মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা যা দিয়ে ভিডিওকলে টুকিটাকি কথা বলে নিতে পারবেন।

এছাড়া কোয়াড কোরের প্রসেসর আছে এই ফোনে। অ্যান্ড্রয়েড ১১ গো এডিশন থাকায় হালকা সব কাজ বেশ ভালোভাবেই করা যায়। ফোনে মাত্র ১ জিবি র‍্যাম পাবেন, তবে স্টোরেজের ক্ষেত্রে ৩২ জিবি পেয়ে যাবেন। এছাড়া ৩০০০ মিলিএম্প ব্যাটারিও সারাদিন ব্যাকাপ দিতে পারবে।

একনজরে সিম্ফনি জি৫০ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫.৭ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ কোয়াড কোর ১.৪ গিগাহার্জ
  • র‍্যামঃ ১ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ৩২ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৩০০০ মিলিএম্প

সিম্ফনি জি৫০ এর দামঃ ৫,৯৯০ টাকা

সিম্ফনি জি১০+ – Symphony G10+

সিম্ফনি জি১০+ – Symphony G10+

সিম্ফনির এই ফোনটি জি৫০ থেকে আরেকটু ছোট ও কম শক্তিশালী। তবে এতেও আছে ৪জি ইন্টারনেটের সুবিধা। ফোনটির ডিসপ্লে মাত্র ৫ ইঞ্চি এবং হাতে ধরে বেশ মজা পাবেন। একহাতে ব্যবহারের জন্য এটি বেশ ভালো একটি ফোন। এতে একটু পুরনো অ্যান্ড্রয়েড ১০ এর গো এডিশন পাবেন। তবে এটিও বেশ ভালোভাবেই স্বাভাবিক কাজ করতে পারে। অক্টাকোর প্রসেসর আছে ফোনে। এই ফোনের স্টোরেজ মাত্র ১৬ জিবি, র‍্যাম রয়েছে ১ জিবি।

ফোনের ব্যাটারি ২৫০০ মিলিএম্প। তবে সামনে কিছুটা ভালো সেলফি ক্যামেরা রয়েছে এই ফোনে। সামনে ও পিছনে উভয় জায়গাতেই ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে ভিডিওকলে আরেকটু ভালো অভিজ্ঞতা পেয়ে যাবেন ফোন থেকে। তবে মাত্র ৩০০ টাকা কমে এই ফোনটি না নিয়ে জি৫০ মডেলের ফোনটি নেয়াই ভালো হবে যদি না আপনার একটু ভালো সেলফি ক্যামেরার দরকার না হয়।

একনজরে সিম্ফনি জি১০+ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ অক্টাকোর ১.৬ গিগাহার্জ
  • র‍্যামঃ ১ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ১৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ২৫০০ মিলিএম্প

সিম্ফনি জি১০+ এর দামঃ ৫,৭০০ টাকা

আইটেল এ২৪ প্রো – Itel A24 Pro

আইটেল এ২৪ প্রো – Itel A24 Pro

বাজারে নতুন আসা এই ফোনটি ৬ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যেই বেশ ভালো সব ফিচার নিয়ে হাজির হয়েছে। ৪জির সুবিধা ছাড়াও পারফর্মেন্সের দিক থেকে এই দামের অন্যান্য অনেক ফোনের থেকেই এই ফোনটি এগিয়ে থাকবে। এই ফোনে ২ জিবি র‍্যাম দেয়া আছে যা সাধারণত এই দামে খুব একটা দেখা যায় না। তাছাড়া ৩২ জিবির স্টোরেজ সুবিধাও পাবেন। ফোনটি একদম ছোট ও ৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে আছে।

ফোনের অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ১২ গো এডিশন পাবেন। লেটেস্ট অপারেটিং সিস্টেম হওয়ায় নতুন বিভিন্ন ফিচারও পেয়ে যাবেন এখানে। ক্যামেরার ক্ষেত্রে ফোনটি কিছুটা পিছিয়ে থাকবে। পিছনের মূল ক্যামেরাটি ২ মেগাপিক্সেলের আর সামনে ভিজিএ কোয়ালিটির একটি ক্যামেরা পাবেন। তবে এই ছোট ফোনেরও আছে ৩০২০ মিলিএম্প ব্যাটারি। ফলে দীর্ঘক্ষণ একটানা এই ফোনটি ব্যবহার করা যাবে। এছাড়া ফেস আনলকের মতো ফিচারও দেয়া হয়েছে এই ফোনে।

একনজরে আইটেল এ২৪ প্রো এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ কোয়াড কোর ১.৪ গিগাহার্জ
  • র‍্যামঃ ২ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ৩২ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ২ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ০.৩ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৩০২০ মিলিএম্প

আইটেল এ২৪ প্রো এর দামঃ ৫,৯৯০ টাকা

ওয়ালটন প্রিমো এফ১০ – Walton Primo F10

ওয়ালটন প্রিমো এফ১০ – Walton Primo F10

দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের এই ফোনটি ৬ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে অন্যতম সেরা ৪জি ফোন। ফোনটি ভোলটিই সাপোর্ট করে এবং ৪জি এর সেরা সুবিধাগুলো এই ফোনে উপভোগ করা যায়। আছে কোয়াড কোরের প্রসেসর। দৈনন্দিন কাজ স্মুথলি করতে অ্যান্ড্রয়েড ১০ গো এডিশন দেয়া হয়েছে। র‍্যাম পাবেন ১ জিবি এবং ১৬ জিবি স্টোরেজও থাকবে। ফোনটি বেশ বড়, ৫.৯৯ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে আছে এখানে যা এই দামে বেশ ভালো একটি ডিসপ্লে।

ফোনটির বড় সুবিধা এর ক্যামেরা সেকশনে। পিছনে ৮ মেগাপিক্সেলের মূল ক্যামেরা দেয়া হয়েছে যা দাম হিসেবে ভালো ছবি তুলতে সক্ষম। ক্যামেরাটি ফিচার সমৃদ্ধ। সামনে ৫ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা থাকায় ভিডিওকল করতে পারবেন অনায়াসে। এছাড়া ৩০০০ মিলিএম্পের ব্যাটারিও রয়েছে লম্বা ব্যাটারি ব্যাকাপ দেয়ার জন্য। এই দামেও ওয়ালটন ফোনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দিয়েছে, তাছাড়া ফেস আনলকের সুবিধাও রেখেছে তারা।

একনজরে ওয়ালটন প্রিমো এফ১০ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫.৯৯ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ কোয়াড কোর ১.৪ গিগাহার্জ
  • র‍্যামঃ ১ জিবি 
  • স্টোরেজঃ ১৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৩০০০ মিলিএম্প

ওয়ালটন প্রিমো এফ১০ এর দামঃ ৫,৭৯৯ টাকা

আইটেল এ২৩ প্রো – itel a23 Pro

৫হাজার টাকার মধ্যে ৪জি ফোন এর খোঁজে থাকলে দেখতে পারেন আইটেল এ২৩ প্রো ফোনটি৷ কোয়াড কোর প্রসেসরের পাশাপাশি ফোনটিতে ৫ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে। ১জিবি র‍্যাম ও ৮জিবি স্টোরেজ রয়েছে ফোনটিতে। ২মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা ও ভিজিএ ক্যামেরা রয়েছে ফোনটির ফ্রন্টে। ২৪০০মিলিএম্প এর ব্যাটারি থাকছে আইটেল এ২৩ প্রো ফোনটিতে। এতে সফটওয়্যার ভিত্তিক ফেস আইডি সুবিধা রয়েছে।

আইটেল এ২৩ প্রো - itel a23 Pro

একনজরে আইটেল এ২৩ প্রো এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ কোয়াড কোর ১.৪গিগাহার্জ
  • র‍্যামঃ ১জিবি
  • স্টোরেজঃ ৮জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ২মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ভিজিএ
  • ব্যাটারিঃ ২৪০০মিলিএম্প

আইটেল এ২৩ প্রো এর দামঃ ৪৯৯০টাকা

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

ওয়ালটন প্রিমো ই১২ – Walton Primo E12

ওয়ালটন প্রিমো ই১২ ফোনটির দাম ৫হাজার টাকার কম হলেও ফোনটিতে ৪জি সুবিধার পাশাপাশি রয়েছে ফেস আনলক ফিচার৷ ৫ইঞ্চি ডিসপ্লের ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ১.৪গিগাহার্জ এর কোয়াড কোর প্রসেসর। ১জিবি র‍্যাম ও ৮জিবি স্টোরেজ থাকছে ফোনটিতে। ৫মেগাপিক্সেল ব্যাক ও ২মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা রয়েছে ওয়ালটন প্রিমো ই১২ ফোনটিতে। ২০০০মিলিএম্প এর ব্যাটারি থাকছে ফোনটিতে।।

walton primo e12

একনজরে ওয়ালটন প্রিমো ই১২ এর স্পেসিফিকেশন

  • ডিসপ্লেঃ ৫ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ কোয়াড কোর ১.৪গিগাহার্জ
  • র‍্যামঃ ১জিবি
  • স্টোরেজঃ ৮জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫মেগাপিক্সেল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ২মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ২০০০মিলিএম্প

ওয়ালটন প্রিমো ই১২ এর দামঃ ৪৯৯০টাকা

আপনি কি এগুলোর মধ্য থেকে কোনো ফোন কিনতে আগ্রহী? আপনার মতামত কমেন্টে জানান!

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,584 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *