পুরাতন এন্ড্রয়েড ডিভাইস নিয়ে যত চিন্তা

সম্প্রতি একদল গবেষক এন্ড্রয়েড জেলি বিন ৪.৩ এবং এর থেকে পুরাতন ভার্সনগুলোতে মারাত্নক নিরাপত্তা ত্রুটি চিহ্নিত করেছেন। অপারেটিং সিস্টেমটির ‘ওয়েব ভিউ’ অংশে এই ত্রুটি পাওয়া গেছে যা ব্যবহার করে দুষ্কৃতিকারীরা অন্যের স্মার্টফোন হাইজ্যাক করতে পারবে। বর্তমানে প্রায় ৬০ শতাংশ (১০০ কোটির কাছাকাছি) এন্ড্রয়েড ডিভাইসেই এন্ড্রয়েড ৪.৩ কিংবা এর চেয়ে পুরাতন সফটওয়্যার ভার্সন ব্যবহৃত হচ্ছে। কিন্তু গুগল বলছে, কোম্পানিটি এন্ড্রয়েডের এই পুরাতন ভার্সনগুলোর জন্য উক্ত ত্রুটির প্রেক্ষিতে কোনো নিরাপত্তামুলক আপডেট প্রদান করবে না।

অবশ্য গুগল তাদের এই অবস্থানের স্বপক্ষে কিছু যুক্তিও দিয়েছে। কোম্পানিটির একজন কর্মকর্তা আদ্রিয়ান লুডুইগ বলেন, দুই বছরের অধিক পুরাতন এই এন্ড্রয়েড ৪.৩ (ও এর পূর্ববর্তী) অপারেটিং সিস্টেমের ওয়েবকিট আপডেট করতে গেলে এখন অনেক কিছুই পরিবর্তন করতে হবে যা বেশ সময়সাপেক্ষ এবং এর দ্বারা আরও নতুন সমস্যার উদ্ভব হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই গুগল উক্ত ত্রুটি আপডেট করতে চাইছে না। এছাড়া লোকজন এমনিতেই এখন তাদের ডিভাইসকে ক্রমান্বয়ে নতুন এন্ড্রয়েড ভার্সনে আপগ্রেড করে নিচ্ছে। সুতরাং ঝুঁকিও কমছে।

তিনি বলেন, কিছু কৌশল অবলম্বন করে এন্ড্রয়েডের এই সমস্যা এড়িয়ে চলা যেতে পারে। এমন কোনো ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করা যেতে পারে যেগুলো ওয়েব ভিউ ব্যবহার করে না এবং আপডেট নেয়। যেমন ক্রোম, যেটা এন্ড্রয়েড ৪.০ তে ব্যবহার করা যায় অথবা ফায়ারফক্স, এন্ড্রয়েড ২.৩ এর জন্যও যেটা উপযোগী। যদি দুর্বল সফটওয়্যার ব্যবহার করা না হয় তাহলে আর সাইবার আক্রমণকারীরা কোন ক্ষতি করতে পারবে না।

তবে অনেক এন্ড্রয়েড ব্যবহারকারী অন্যান্য ব্রাউজার সম্পর্কে জানেন না অথবা সেগুলো কিভাবে চালাতে হবে সে সম্পর্কেও ধারণা নেই। তাদের জন্য এটি একটি সমস্যা।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,818 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.