হুয়াওয়ে অপারেটিং সিস্টেম হারমোনিওএস সম্পর্কে বিস্তারিত

হুয়াওয়ে এর নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম, হারমোনিওএস এর নাম কমবেশি সবাই শুনে থাকবেন। এটি হুয়াওয়ে দ্বারা তৈরিকৃত একটি নতুন অপারেটিং সিস্টেম যা হুয়াওয়ে এর সকল ডিভাইসসমূহ, অর্থাৎ মোবাইল, ওয়্যারেবল, স্মার্ট-হোম ডিভাইসসমূহতে ব্যবহার করা হবে। মূলত হুয়াওয়ে এর ডিভাইসসমূহকে একই ইকোসিস্টেমে আনার প্রয়াস এই হারমোনিওএস।

মেইটপ্যাড ট্যাবলেট ও ওয়াচ ৩ ওয়্যারেবলস এর সাথে হারমোনিওএস ঘোষণা করে হুয়াওয়ে। এরপর অনেক চায়না-অনলি ডিভাইসে হারমোনিওএস এর দেখা মিলে। যুক্তরাষ্ট্রের সাথে চলমান বাণিজ্য দ্বন্দ্বের কারণে বর্তমানে গুগল প্লে সার্ভিস সহ এন্ড্রয়েড ব্যবহার করতে পারছেনা হুয়াওয়ে।

ফলে বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোন সরবরাহ প্রায় বন্ধ করেছে হুয়াওয়ে, যার কারণে হুয়াওয়ে এর রিসেন্ট আপডেট সম্পর্কে জানেন না অনেকে। এই পোস্টে আমরা জানবো হুয়াওয়ে এর এই নতুন অপারেটিং সিস্টেম হারমোনিওএস ও হুয়াওয়ে ডিভাইসে এর ব্যবহার সম্পর্কে।

হারমোনিওএস কি?

হুয়াওয়ে এর ভাষ্যমতে হারমোনিওএস হলো “একটি ফিউচার-প্রুফ ডিস্ট্রিবিউটেড অপারেটিং সিস্টেম,” যার অর্থ হলো এটি হুয়াওয়ে এর নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম যা ব্যবহার করা হবে হুয়াওয়ে এর আইওটি (IoT) ডিভাউস থেকে শুরু করে স্মার্ট হোম প্রোডাক্ট পর্যন্ত সকল ক্ষেত্রে।

স্মার্ট ওয়্যারেবল অর্থাৎ হুয়াওয়ে এর স্মার্টওয়াচ এর পাশাপাশি হুয়াওয়ে স্মার্টফোনেও ব্যবহৃত হবে হারমোনিওএস।

হুয়াওয়ে আরো জানিয়েছে, একজন ডেভলপার হারমোনিওএস ব্যবহার করে যেকোনো ধরনের এক্সপেরিয়েন্স তৈরী করতে পারবেন। হারমোনিওএস এডাপ্টেবল হওয়ায় সকল প্ল্যাটফর্মে উক্ত এক্সপেরিয়েন্স কোনো সমস্যা ছাড়াই কাজ করবে।

হুয়াওয়ে হারমোনিওএস

অর্থাৎ সম্পূর্ণ ইকোসিস্টেম এর জন্য একবার একটি অ্যাপ ডেভলপ করাই যথেষ্ট। ইকোসিস্টেমে থাকা সকল ডিভাইস উক্ত অ্যাপ সাপোর্ট করবে কোনো বাড়তি টুইকিং ছাড়াই।

👉 হুয়াওয়ে পি৫০ পকেট – চোখ ধাঁধানো ডিজাইনের শক্তিশালী ফোল্ডিং ফোন

যেসব ডিভাইসে আসতে যাচ্ছে হারমোনিওএস

হারমোনিওএস এর ভার্সন ২.০ এর মুক্তির মাধ্যমে স্মার্টফোন এর জন্য হারমোনিওএস এর সাপোর্ট নিয়ে এসেছে হুয়াওয়ে। হারমোনিওএস ভার্সন ১.০ এ হুয়াওয়ে এর নিজস্ব স্মার্ট টিভি ও এএক্স৩ ওয়াইফাই রাউটারে হারমোনিওএস এর ব্যবহার দেখা যায়।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

মেইটপ্যাড ও মেইটপ্যাড প্রো ট্যাবলেট এর সাথে হারমোনিওএস বান্ডেলড করে লঞ্চ করা হয়। সদ্য লঞ্চ হওয়া হুয়াওয়ে এর পি৫০ সিরিজের ফোনসমূহেও হারমোনিওএস এর দেখা মিলেছে।

মেইট ৪০ প্রো, মেইট ৪০ই, মেইট এক্স২, নোভা ৮ প্রো, ইত্যাদি ডিভাইসেও হারমোনিওএস এর ব্যবহার দেখা যায়। সময়ের সাথে সাথে হুয়াওয়ে এর নিজস্ব প্রোডাক্টসমূহের পাশাপাশি পার্টনারদের প্রোডাক্টসমূহেও হারমোনিওএস যুক্ত করতে যাচ্ছে হুয়াওয়ে।

👉 শাওমি MIUI কি? মিইউআই এর সুবিধা কি?

অ্যান্ড্রয়েড vs হারমোনিওএস

তবে কি হুয়াওয়ে এর ফোনগুলোতে অ্যান্ড্রয়েড এর বদলে এখন থেকে হারমোনিওএস ব্যবহার হবে? এই প্রশ্নের উত্তর একই সাথে হ্যাঁ ও না। হুয়াওয়ে এর ডকুমেন্টেশন ও মার্কেটিং এর তথ্য অনুসারে অ্যান্ড্রয়েড এর রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে হারমোনিওএস।

আবার ArsTechnica এর হারমোনিওএস ২.০ এর রিভিউতে দেখা যায় হারমোনিওএস এর বর্তমান অবস্থার মূলে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড।

হুয়াওয়ে এর স্মার্টফোন যাত্রার শুরু থেকেই অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করা হয়েছে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে। যার ফলে হারমোনিওএস এর অনেক গুরুত্বপূর্ণ কম্পোনেন্টস এখনো অ্যান্ড্রয়েড থেকে এডাপ্টেড বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আবার অনেকে জানিয়েছেন হুয়াওয়ে এর অ্যান্ড্রয়েড ভিত্তিক কাস্টম ওএস, ইএমইউআই (EMUI) এর সাথে অনেকটা সামঞ্জস্যপূর্ণ এই নতুন হারমোনিওএস।

হুয়াওয়ে এর প্রদত্ত তথ্যে হারমোনিওএস এর ভিত্তি হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ওএস কে সরাসরি স্বীকার করা হয়নি। কিন্তু বাস্তবিক পক্ষে হারমোনিওএস এ এন্ড্রয়েড অ্যাপ চালানোর জন্য অ্যান্ড্রয়েড এর কোডও ব্যবহৃত হয়েছে।

তার মানে হুয়াওয়ে ফোনগুলোতে অ্যান্ড্রয়েড এর বদলে হারমোনিওএস ব্যবহার হলেও আসলে কিন্তু সেই অ্যান্ড্রয়েড এর বিভিন্ন সুফল পাবে এই অপারেটিং সিস্টেম।

👉 অ্যান্ড্রয়েড ১২ এর নতুন ফিচারসমুহ

হারমোনিওএস এ কি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ চলবে?

হ্যাঁ, হুয়াওয়ে এর নতুন অপারেটিং সিস্টেমে ব্যবহার করা যাবে যেকোনো ধরনের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া হুয়াওয়ে স্মার্টফোনগুলোতে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ গুগল মোবাইল সার্ভিস ছাড়াই বেশ ভালোভাবে চলতে দেখা যায়। হারমোনিওএস এ প্লে স্টোরের পরিবর্তে রয়েছে হুয়াওয়ে এর নিজস্ব অ্যাপ মার্কেট, অ্যাপগ্যালারি।

যেসব অ্যাপ অ্যাপগ্যালারিতে নেই, সেসব অ্যাপ এর অ্যান্ড্রয়েড প্যাকেজ, অর্থাৎ এপিকে (APK) ফাইল ব্যবহার করা যাবে হারমোনিওএস চালিত ডিভাইসে।

তবে ডাটা সিন্ক এর জন্য গুগল মোবাইল সার্ভিস এর উপর নির্ভরশীল অ্যাপ, যেমনঃ গুগল এর অ্যাপ বা যেকোনো থার্ড পার্টি অ্যাপ, ঠিকমত কাজ করবেনা হারমোনিওএস চালিত ডিভাইসসমূহে।

কোন অ্যাপসমূহ হারমোনিওএস এ কাজ করবে আর কোন অ্যাপসমূহ কাজ করবেনা, এর কোনো তালিকা নেই। মূলত ব্যবহারকারীদের পরীক্ষা করে জানতে হবে কোনো অ্যাপ হারমোনিওএস এ আসলে কাজ করবে কি না।

👉 অ্যান্ড্রয়েড ফোন আপডেট করার নিয়ম

হারমোনিওএস দেখতে কেমন

ইতিমধ্যে অনেক হুয়াওয়ে ডিভাইসে হারমোনিওএস এর আপডেট চলে এসেছে। হারমোনিওএস কে প্রথম দেখায় হুয়াওয়ে এর ইএমইউআই এর সাথে অ্যাপল এর আইওএস বা আইপ্যাডওএস এর সংমিশ্রন বলে মনে হবে। 

ইএমইউআই এর সাথে ডিজাইনের দিক দিয়ে অনেকটা মিল রয়েছে হারমোনিওএস এর। ইএমইউআই এর মত একই ডিজাইন ল্যাংগুয়েজ, কালার স্কিম, আইকন ও অ্যান্ড্রয়েডের মত নোটিফিকেশন সিস্টেম চোখে পড়বে হারমোনিওএস এ।

তবে সবকিছু ইএমইউআই থেকে তুলে হারমোনিওএস এ বসিয়ে দেওয়া হয়েছে, এমন নয়। যেমনঃ হারমোনিওএস এ বামদিক থেকে সোয়াইপ ডাউন করলে নোটিফিকেশন দেখা যায়। আবার ডানদিকে সোয়াইপ ডাউন করলে কন্ট্রোল সেন্টার দেখা যায়। এই ধরনের একই ফিচার দেখা যায় শাওমি এর মিইউআই তে (এবং আইফোনে)।

ট্যাবলেট এর জন্য হারমোনিওএস এ রয়েছে নতুন অ্যাপ ডক, যা মূলত হোমস্ক্রিনে থাকা কিছু অ্যাপ শর্টকাট এর কম্বো মাত্র। তবে এই ফিচারটি স্মার্টফোন এর জন্য আসবে কিনা সে সম্পর্কে জানা যায়নি।

অ্যান্ড্রয়েড ১২ ও আইওএস ১৪ এর মত হারমোনিওএস এ ও গুরুত্ব পেয়েছে উইজেটস। উইজেটসমূহের সাথে হারমোনিওএস এর বাড়তি সুবিধাও যুক্ত হয়েছে। খুব সহজে অ্যাপ আইকনে সোয়াইপ আপ করে উইজেটস তৈরী করা যাবে।

👉 অ্যান্ড্রয়েড ডেভলপার অপশনে লুকানো ফিচারগুলো জেনে নিন

মাল্টিটাস্কিং এর ক্ষেত্রে উন্নতি এসেছে হারমোনিওএস এ। স্প্লিট স্ক্রিনের পাশাপাশি হুয়াওয়ে এর অ্যাপ মাল্টিপ্লাইয়ার ফিচার ব্যবহার করে একই অ্যাপ থেকেই একাধিক অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে মাল্টিপল উইন্ডো ব্যবহার করে।

হুয়াওয়ে এর প্রদত্ত তথ্যমতে ইতিমধ্যে ৪,০০০অ্যাপ এই ফিচারটি সাপোর্ট করে। তবে সাইডলোড করা অ্যাপসমূহে এই ফিচারটি কাজ না ও করতে পারে।

ইকোসিস্টেম এর উপর গুরুত্ব দিয়ে তৈরী করা হয়েছে এই হারমোনিওএস। এরই অংশ হিসেবে হুয়াওয়ে এর ওয়্যারেবলস ও একসেসরিজ এর সাথে খুব ভালোভাবে পেয়ার হবে হারমোনিওএস চালিত সকল ডিভাইস। হারমোনিওএস চালিত ডিভাইসসমূহে কোনো ফাইল সরাসরি ড্রাগ করে এক ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসে পাঠানোর ফিচার পর্যন্ত রয়েছে।

👉 আইফোনের মত দেখতে হারমোনিওএস চালিত ফোন লঞ্চ হল চীনে

“Super Device” উইজেট ব্যবহার করে সকল ডিভাইসসমূহে আইকন ড্রাগ ও ড্রপ করা যাবে। অর্থাৎ ফোনের হেডফোন আইকন ড্রাগ করে টিভিতে ড্রপ করলে সেক্ষেত্রে টিভি থেকে অডিও আউটপুট আসবে হেডফোনের মাধ্যমে।

এমনকি অ্যাপ উইন্ডো পর্যন্ত এক ডিভাইস থেকে অন্য ডিভাইসে ড্রাগ এন্ড ড্রপ করা যাবে। অর্থাৎ সিমলেস একটি অপারেটিং সিস্টেম হতে যাচ্ছে হারমোনিওএস। 

উইন্ডোজ ১০ চালিত হুয়াওয়ে ল্যাপটপসমূহ ও হারমোনিওএস এর সুফল ভোগ করবে। উইন্ডোজ ডিভাইসের স্ক্রিন মিরর করে ট্যাবলেট বা ফোনে ব্যবহার করা যাবে, এমনকি ফোন বা ট্যাবলেটের ডিসপ্লে ব্যবহার করা যাবে সেকেন্ডারি ডিসপ্লে হিসেবে। এছাড়া ড্রাগ এন্ড ড্রপ ওয়্যারলেস ফাইল শেয়ারিং ও করা যাবে।

হুয়াওয়ে এর হারমোনিওএস সম্পর্কে আপনার মতামত কি? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,628 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.