অ্যান্ড্রয়েডে ‘শেয়ার ইট’ এর বিকল্প ‘নিয়ারবাই শেয়ার’ এর সুবিধা ও ব্যবহারবিধি

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি ফাইল শেয়ারিং অ্যাপ ‘শেয়ার ইট’। অন্য অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সঙ্গে ফাইল শেয়ারিং ব্যবস্থা সহজ করে তুলেছে এই অ্যাপ। দীর্ঘ সময় ধরে এই অ্যাপের বেশ কিছু বিকল্প এলেও প্রথম দিকের অ্যাপ হিসেবে এর জনপ্রিয়তা ছিল সবসময়। তবে বর্তমানে ‘শেয়ার ইট’ অ্যাপটির বিকল্প খুঁজছেন অনেকেই।

ব্যবহারকারীরা এমন একটি অ্যাপ খুঁজছেন যেটি আরও সহজে ব্যবহার করা যাবে এবং যাতে শুধুমাত্র যেসব ফিচার দরকার সেগুলোই সাজানো থাকবে। এক্ষেত্রে শাওমির ‘মি শেয়ার’ বা ‘শেয়ারমি’ এর মতো বিভিন্ন অ্যাপের দিকে ঝুঁকছেন কেউ কেউ। তবে অনেকেরই এখনও অজানা যে গুগল নিজেই অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জন্য অফিসিয়ালভাবে বিকল্প নিয়ে এসেছে।

‘শেয়ার ইট’ বা এই ধরনের ফাইল শেয়ারিং অ্যাপগুলো কাজ করে ওয়াইফাইয়ের মাধ্যমে। একই ওয়াইফাইয়ে কানেক্ট হয়ে অপর অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সঙ্গে খুব সহজে এবং দ্রুতগতিতে ফাইল ট্রান্সফার করতে পারে এসব অ্যাপ। গুগলের ‘নিয়ারবাই শেয়ার’ও একই রকম ভাবে কাজ করে এবং অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ ভার্সন হতে সকল অ্যান্ড্রয়েড ফোনেই এটি রয়েছে। ২০২০ সালে একটি আপডেটের মাধ্যমে অ্যাপলের এয়ারড্রপ ফিচারের মতো করেই গুগল ফিচারটি চালু করেছে। 

এন্ড্রয়েডের নিয়ারবাই শেয়ার ফিচারের সবথেকে বড় সুবিধা হল যে কোন অ্যান্ড্রয়েড ফোনে আলাদা করে কোন অ্যাপ ইন্সটল করার ঝক্কি নেই। ‘শেয়ার ইট’ বা এই ধরনের থার্ড পার্টি অ্যাপগুলো ব্যবহার করতে চাইলে দুটি ফোনেই সেই অ্যাপ ইন্সটল থাকতে হয়। আরও একটি সুবিধা, অযাচিত কোন এড নেই, আলাদা করে বিরক্তিকর কোন নোটিফিকেশন এসে আপনার কাজে ব্যঘাত ঘটাবে না। সহজে এবং দ্রুত ফাইল ট্রান্সফার করে নিতে পারবেন ‘নিয়ারবাই শেয়ার’ ব্যবহার করেই।

নিয়ারবাই শেয়ার যেভাবে চালু করবেন

নিয়ারবাই শেয়ার চালু করা খুবই সহজ। তবে ফিচারটি ব্যবহারের আগে আপনাকে এটা এনাবল করে নিতে হবে সেটিংস থেকে।

  • Settings ওপেন করুন।
  • Connected devices এ ট্যাপ করুন।
  • Connection preferences এ যান।
  • Nearby Share সিলেক্ট করুন।
  • Use Nearby Share টগলটি অন করে দিন।

অনেক ডিভাইসের সেটিংসে  অপশনটি এভাবে নাও থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে সেটিংসের সার্চ অপশন হতে Nearby Share লিখে সার্চ করলে সহজেই খুঁজে পাবেন। আপনার ফোনটি অবশ্যই গুগল প্লে সাপোর্ট করা ফোন হতে হবে।

এভাবে করে চালু করবার পরে আপনি চাইলে আপনার ডিভাইস কে কে খুঁজে পাবে সেটি সেট করে দিতে পারেন Device Visibility অপশন থেকে।

  • Hidden – অপশনটি সিলেক্ট করলে কেউ আপনার ডিভাইসটি খুঁজে পাবে না
  • Contacts – অপশনটি সিলেক্ট করলে শুধুমাত্র আপনার আশেপাশে ফোন কন্টাক্টে থাকা কেউ খুঁজে পাবে।
  • Everyone – অপশনটি সিলেক্ট করলে আশেপাশে থাকা সবাই আপনার ডিভাইস খুঁজে পাবে।

এছাড়া আপনি আপনার ডিভাইসের নামও এখান থেকে নির্দিষ্ট করে দিতে পারবেন। এছাড়া আপনি যদি পুরোপুরি ডাটা বা ইন্টারনেট ব্যবহার না করেই ফাইল শেয়ার করতে চান তবে Data Usage অপশন হতে Without internet সিলেক্ট করে দিন।

‘নিয়ারবাই শেয়ার’ চালু করার সাথে সাথে আপনার ফোনের ওয়াইফাই, ব্লুটুথ এবং জিপিএসও চালু করতে চাইবে গুগল। এই ৩ টি ছাড়া ‘নিয়ারবাই শেয়ার’ ব্যবহার করা যাবে না। এছাড়া নিয়ারবাই শেয়ার অপশন আপনার ফোনে খুঁজে না পেলে Files by Google অ্যাপ দিয়েও একই কাজ করতে পারবেন। আমাদের শেয়ারইটের বিকল্প অ্যাপ পোস্টে বিস্তারিত জানুন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

অ্যান্ড্রয়েডে ‘শেয়ার ইট’ এর বিকল্প ‘নিয়ারবাই শেয়ার’ এর সুবিধা ও ব্যবহারবিধি

👉 এন্ড্রয়েড ফোনে ডাটা লিমিট সেট করে অনাকাঙ্ক্ষিত খরচ থেকে বাঁচুন

‘নিয়ারবাই শেয়ার’ যেভাবে ব্যবহার করবেন

‘নিয়ারবাই শেয়ার’ চালু করার পরে আপনি চাইলে অন্য একটি ফোনের সাথে ছবি, ভিডিও, অ্যাপ, লিঙ্ক, কন্টাক্টের তথ্য এমনকি স্পটিফাই হতে গানও শেয়ার করতে পারবেন। এমনকি কোন টেক্সট কপি করে সেটিও আপনি শেয়ার করতে পারবেন। 

  • প্রথমে যে ফোনে আপনি ফাইল পাঠাতে চান সেই ফোনের ‘নিয়ারবাই শেয়ার’ চালু করতে হবে এবং Device Visibility হতে সঠিক অপশন সিলেক্ট করতে হবে যাতে আপনি তার ডিভাইস খুঁজে পান।
  • এরপর যে ফাইল বা অন্য কিছু শেয়ার করতে চান সেটি সিলেক্ট করে শেয়ার অপশনে চলে যান।
  • শেয়ার অপশন হতে Nearby Share সিলেক্ট করুন।
  • কিছুক্ষন সার্চ করার পর যে ডিভাইসে আপনি ফাইল পাঠাতে চান সেই ডিভাইসের নামটি দেখাবে। সেটি সিলেক্ট করুন।
  • এবার যে ডিভাইসে ফাইলটি পাঠিয়েছেন সেখানে একটি পপ আপ আসবে ফাইল রিসিভ করতে অনুমতি চেয়ে। অনুমতি দিয়ে দিলেই ট্রান্সফার শুরু হয়ে যাবে।

‘নিয়ারবাই শেয়ার’এর মাধ্যমে যেভাবে অ্যাপ শেয়ার করবেন

‘নিয়ারবাই শেয়ার’ এর মাধ্যমে যে কোন অ্যাপ শেয়ারের পদ্ধতি একটু ভিন্ন। এজন্য আপনাকে গুগল প্লেস্টোর অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে।

  • প্রথমে গুগল প্লেস্টোর অ্যাপটি ওপেন করুন।
  • উপরে ডানে কোনায় আপনার প্রোফাইল পিকচারে ট্যাপ করুন।
  • Manage apps & device সিলেক্ট করুন।
  • Share apps অপশন হতে Send এ ট্যাপ করুন।
  • যে ফোনে অ্যাপটি রিসিভ করবেন সেই ফোনেও উপরের স্টেপ ফলো করুন। শুধু Send এ ট্যাপ না করে Receive ট্যাপ করুন।
  • এবার যে ফোন থেকে অ্যাপ পাঠাতে চান সেই ফোনে অ্যাপ সিলেক্ট করে সেন্ড করে দিন।
  • রিসিভার ডিভাইসের নামটি সিলেক্ট করে দিলেই রিসিভার ডিভাইসে অনুমতির জন্য পপ আপ দেখাবে। অনুমতি দিলেই অ্যাপ ট্রান্সফার শুরু হয়ে যাবে।
  • ট্রান্সফার শেষ হলে ইন্সটলের অপশন পেয়ে যাবেন।

ক্লিন ও সিম্পল সহজ ইউআই এর মাধ্যমে এই পদ্ধতিতে খুব দ্রুত ফাইল ট্রান্সফার করতে পারবেন অফিসিয়াল ও নিরাপদভাবে। তাই অন্য থার্ড পার্টি অ্যাপগুলোর বদলে অফিসিয়ালভাবে ফাইল ট্রান্সফার করতে পারেন এই পদ্ধতিতে।

👉 ভিডিওঃ মোবাইল চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,992 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.