করোনা টিকার বুস্টার ডোজ সম্পর্কে যা জানা দরকার

বাংলাদেশে কোভিড-১৯ করোনাভাইরাস টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হয়েছে। যোগ্য সকল কোভিড-১৯ ডোজ গ্রহণকারী ব্যক্তি এই ডোজ গ্রহণ করতে পারবেন।

চলুন জেনে নেওয়া যাক এই কোভিড বুস্টার ডোজ কি, কারা ও কিভাবে কোভিড বুস্টার ডোজ পাবেন সে সম্পর্কে বিস্তারিত।

কোভিড বা করোনা টিকার বুস্টার ডোজ কি ও কেন?

ইতোমধ্যে কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের ভ্যাক্সিন দেশের অসংখ্য মানুষ গ্রহণ করেছেন। আর কোভিড-১৯ বা করোনা টিকার দীর্ঘমেয়াদী স্থায়িত্ব নিশ্চিত করতে কোভিড বুস্টার ডোজ প্রদান করা হচ্ছে। যারা ইতোমধ্যে করোনার ২টি টিকা নিয়েছেন তাদের মধ্য থেকে বাছাই করে বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে। এটি হচ্ছে বাড়তি একটি টিকা যা করোনার বিরুদ্ধে আরো বেশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দেবে।

তিনটি কোম্পানি/জোটের তৈরি করোনা টিকা বুস্টার ডোজ হিসেবে প্রদান করা হবেঃ ফাইজার-বায়োএনটেক, মডার্না এবং অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রোজেনেকার।

এই নির্দিষ্ট তিনটি বুস্টার ডোজ থেকে যে কোনো একটি ডোজ প্রদান করা হবে যোগ্য কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন গ্রহীতাদের। তবে নিজ থেকে বেছে নেওয়া সুযোগ থাকছেনা কোন বুস্টার ডোজ নিতে চান। ২০২১ সালের ডিসেম্বরের ১৯ তারিখ পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকায় কোভিড বুস্টার ডোজ এর টিকা প্রদান করা হয়। “বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা” প্রণিত প্রটোকল মেনেই দেশে এই বুস্টার ডোজগুলো দেওয়া হবে।

দেশে বর্তমানে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজ হিসেবে ফাইজার, মডার্না, সিনোফার্ম, অ্যাস্ট্রোজেনেকা এবং সিনোভ্যাকের টিকা দেওয়া হচ্ছে। বুস্টার ডোজ হিসেবে ন্যাশনাল ইমিউনাইজেশন টেকনিক্যাল কমিটি (নাইট্যাগ) তিনটি টিকার সুপারিশ করেঃ ফাইজার, মডার্না ও অ্যাস্ট্রোজেনেকা। প্রথম ধাপে গ্রহণ করা যেকোনো টিকার ক্ষেত্রেই উল্লেখিত তিনটি বুস্টার ডোজের যেকোনো একটি প্রদান করা হবে।

করোনা বুস্টার টিকা বা বুস্টার ডোজ কারা পাবেন?

প্রাথমিকভাবে কোভিড বুস্টার ডোজ নিতে পারবেন ইতোমধ্যে দুইটি কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন ডোজ গ্রহণকারী দুই শ্রেণীর ব্যক্তিগণ। প্রথমত যারা কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে সামনের সারিতে আছেন, যেমন ডাক্তার, বিভিন্ন সরকারি সেবার কর্মকর্তাগণ, প্রমুখ ব্যক্তিগণ কোভিড বুস্টার ডোজ পাবেন। এর পাশাপাশি ৪০ বছর বা এর বেশি বয়স যাদের এবং করোনাভাইরাসের দুইটি টিকাই নিয়েছেন, তারাও পাবেন কোভিড বুস্টার ডোজ।

তবে শুধুমাত্র কোভিড-১৯ এর প্রথম দুইটি ভ্যাক্সিন নিলেই বুস্টার ডোজ নেওয়া যাবেনা। কোভিড-১৯ এর প্রাথমিক ভ্যাক্সিন পুরোপুরি গ্রহণের কমপক্ষে ৬মাস পর নেওয়া যাবে কোভিড বুস্টার ডোজ। অর্থাৎ করোনাভাইরাস এর দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার ৬মাস পর তৃতীয় ডোজ অর্থাৎ বুস্টার ডোজ নেওয়া যাবে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

করোনাভাইরাস এর প্রাথমিক টিকার দুইটি ডোজ ইতিমধ্যে গ্রহণ করেছেন অনেকেই। কোভিড বুস্টার ডোজকে কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিনের তৃতীয় ডোজ হিসেবে বিবেচনা করা যায়।

প্রথম কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিনের একমাস পর দ্বিতীয় ভ্যাক্সিন নেওয়ার নিয়ম রয়েছে। আর তৃতীয় কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন, অর্থাৎ কোভিড বুস্টার ডোজ নেওয়া যাবে দ্বিতীয় ভ্যাক্সিন নেওয়ার অন্তত ৬মাস পর।

কিভাবে পাবেন করোনা টিকার Booster Dose (বুস্টার ডোজ)?

পূর্বে কোভিড-১৯ ভ্যাক্সিন নিতে সুরক্ষা অ্যাপ ব্যবহার করে করোনা টিকা রেজিস্ট্রেশনের প্রয়োজন হয়েছিলো। কিন্তু কোভিড বুস্টার ডোজ গ্রহণে কোনো ধরনের রেজিস্ট্রেশনের প্রয়োজন নেই।

👉 করোনা টিকা নিবন্ধন করার উপায়

টিকা পাওয়ার যোগ্য যেকোনো ব্যক্তি কোভিড বুস্টার ডোজ গ্রহণ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে উল্লেখিত তিনটি বুস্টার ডোজ থেকে যেকোনো একটি টিকা প্রদান করা হবে। তবে এক্ষেত্রে টিকাগ্রহীতার নিজের পছন্দমত টিকা বেছে নেওয়ার সুযোগ থাকছেনা। প্রথমবার যে মোবাইল নম্বর দিয়ে করোনা টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন সেই মোবাইলেই বুস্টার ডোজ নেয়ার জন্য SMS পাবেন। এরপর টিকা কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নিতে হবে।

কোভিড বুস্টার ডোজ সম্পর্কে যা জানা দরকার

করোনা টিকা বুস্টার ডোজ কখন দেওয়া হবে?

ইতোমধ্যে কোভিড বুস্টার ডোজ প্রদান শুরু হয়েছে। যারা যারা বয়স এবং কাজের সুবাদে বুস্টার ডোজের জন্য উপযোগী হয়েছেন তাদের ফোনে মেসেজ পৌঁছে যাবে যত দ্রুত সম্ভব। এছাড়া আপনি চাইলে আপনার টিকা কেন্দ্রে গিয়েও জিজ্ঞাসা করতে পারেন। তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ২৪, বাসস

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 6,957 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.