ইনফিনিক্স মোবাইলের দাম ২০২৪

শাওমি, রিয়েলমি, স্যামসাং – এসব ফোনের নাম তো সবার জানা। কিন্তু এসব পরিচিত ফোনের ভিড়ে টেকনো, ইনফিনিক্স এর মতো স্মার্টফোন ব্র‍্যান্ডগুলো মানুষের মনে জায়গা করে নিচ্ছে। ইনফিনিক্স মোবাইল এর দাম কম হওয়ার পাশাপাশি অসাধারণ সব ফিচারে ভরপুর। তাই অনেকে শাওমি, রিয়েলমি ও স্যামসাং ছেড়ে ছুটছেন ইনফিনিক্স ব্র‍্যান্ডের ফোনগুলোর দিকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক দেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে এমন ইনফিনিক্স মোবাইলের দাম ও স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে বিস্তারিত।

ইনফিনিক্স জিটি ১০ প্রো – Infinix GT 10 Pro

ইনফিনিক্স জিটি ১০ প্রো - Infinix GT 10 Pro

ইনফিনিক্স জিটি ১০ প্রো এর ডিজাইন স্পিড বা রেস ইন্সপায়ারড তা যেকেউ এক দেখাতেই বুঝে যাওয়ার কথা। বেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ধরনের ডিজাইন রাখা হয়েছে ফোনটির ব্যাকে। ফোনের ফ্রন্টে রয়েছে পাঞ্চ-হোল ডিসপ্লে যাতে আবার এর ইন-ডিসপ্লে ফিংগারপ্রিন্টও স্থান পেয়েছে। 

ইনফিনিক্স জিটি ১০ প্রো ফোনটিতে ৬.৬৭ ইঞ্চি এমোলেড ডিসপ্লে রয়েছে যাতে ১২০ হার্জ রিফ্রেশ রেট সুবিধা পেয়ে যাবেন। ১০৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ থাকছে ফোনটিতে। ফোনের ফ্রন্টে পেয়ে যাবেন ৩২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। 

ইনফিনিক্স জিটি ১০ প্রো ফোনটিতে প্রসেসর রয়েছে মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮০৫০ যা বেশ শক্তিশালী একটি প্রসেসর। ৮ জিবি র‍্যাম এর সাথে ২৫৬ জিবি বিশাল স্টোরেজ থাকার পরেও এই ফোনে ডেডিকেটেড মাইক্রো এসডি কার্ড স্লট রয়েছে। ৫০০০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি থাকছে ফোনটিতে, সাথে পাওয়া যাবে ৪৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং। বলে রাখা ভালো ফোনটি দেশের বাজারে অফিসিয়ালি পাওয়া যাবেনা। তবে আনঅফিসিয়ালি চাইলে ফোনটি কিনতে পারবেন যার দাম নিচে দেওয়া আছে।

ইনফিনিক্স জিটি ১০ প্রো এর স্পেসিফিকেশনঃ 

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬৭ ইঞ্চি ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮০৫০
  • র‍্যামঃ ৮ জিবি জিবি
  • স্টোরেজঃ ২৫৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ১০৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ  ৩২ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স জিটি ১০ প্রো এর দামঃ ২৮,৯৯০ টাকা  (আনঅফিসিয়াল)

ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি – Infinix Zero 30 5G

ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি - Infinix Zero 30 5G

ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি ফোনটির ডিজাইন থেকে শুরু করে ফিচার পর্যন্ত দেখলে বুঝা যায় ইনফিনিক্স এই ফোনটিকে ফ্ল্যাগশিপ ফোনের রুপ দেওয়ার সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে। ফোনটির মিনিমাল কিন্তু প্রিমিয়াম লুকিং ডিজাইন যে কাউকে মুগ্ধ করবে। ফ্রন্ট ও ব্যাকে গরিলা গ্লাস এর পাশাপাশি বাকে ইকো লেদার ব্যবহৃত হয়েছে ফোনটিতে। পাঞ্চ-হোল ডিসপ্লের এই ফোনের ব্যাকে বেশ সুন্দরভাবে স্থান পেয়েছে এর ক্যামেরা আইল্যান্ড।

ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি ফোনটিতে ৬.৭৮ ইঞ্চি এমোলেড ডিসপ্লে রয়েছে, যাতে আবার ১৪৪ হার্জ রিফ্রেশ রেট ফিচারও থাকছে। এই ফোনের ডিসপ্লেতেই আবার পেয়ে যাবেন ইন-ডিসপ্লে ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর। 

ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি ফোনটিতে প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮০২০ যা শক্তিশালী একটি প্রসেসর। একাধিক র‍্যাম ও স্টোরেজ ভ্যারিয়ান্টে ফোনটি পাওয়া যাবে, তবে থাকছেনা মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে স্টোরেজ বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ।

১০৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা ও ৫০ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা থাকছে ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি ফোনটিতে। ৫০০০ মিলিএম্প ব্যাটারির এই ফোনে অসাধারণ ৬৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং ফিচার থাকছে। বলে রাখা ভালো ফোনটি এখনো দেশের বাজারে অফিসিয়ালি পাওয়া যায়না।

ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি এর স্পেসিফিকেশনঃ 

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭৮ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক ডাইমেনসিটি ৮০২০
  • র‍্যামঃ ৮ জিবি / ১২ জিবি
  • স্টোরেজঃ ২৫৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ১০৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল 
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ  ৫০ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স জিরো ৩০ ৫জি এর দামঃ

  • ৮ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি টোরেজঃ ৩৬,৯৯০ টাকা
  • ১২ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজঃ ৩৯,৯৯০ টাকা 

ইনফিনিক্স হট ৩০ –  Infinix Hot 30

বাজেটের মধ্যে গেমিং ফোন হিসেবে এই ফোনটি বাজারে এনেছে ইনফিনিক্স। গেম খেলার সুবিধার জন্য বেশ কিছু বাড়তি সুবিধা দেয়া হয়েছে এই ফোনে। আর তাই ক্রেতাদের মাঝেও বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে এ বছর বাজারে আসা নতুন এই ফোনটি।

ফোনের সামনে পেয়ে যাবেন ৬.৭৮ ইঞ্চির বড় এবং উজ্জ্বল একটি আইপিএস এলসিডি প্যানেল। সেই সাথে আছে ৯০ হার্টজের হাই রিফ্রেশ রেট সুবিধা। হাই ফ্রেমরেটের গেম খেলা বা কনটেন্ট ওয়াচিংয়ের জন্য ডিসপ্লেটি সেরা একটি ডিসপ্লে। এছাড়া গেমিং পারফরমেন্সের জন্য দেয়া হয়েছে মিডিয়াটেকের হেলিও জি৮৮ চিপ। সেটি মোটামুটি মানের একটি বাজেট গেমিং চিপ। আর তাই গেম খেলা যায় সহজেই। সেই সাথে পাওয়া যাচ্ছে ৪ অথবা ৮ জিবি র‍্যামের সহায়তা। ৮ জিবি পর্যন্ত বাড়তি র‍্যাম বাড়িয়ে নেয়া যাবে সফটওয়্যারের সাহায্যে। এছাড়া গেমিংয়ের জন্য আলাদা সফটওয়্যারও দেয়া আছে ফোনে। 

ফোনের ক্যামেরা সেকশনে পাবেন ৫০ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ। বেশ ভালো ছবি তোলা যায় ফোনটি থেকে। সামনের সেলফি ক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেলের সেলফি তুলতে সক্ষম। ফোনে আছে ৫০০০ মিলিএম্পের বড় ব্যাটারি এবং ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ফলে ব্যাটারি ব্যাকাপ পাওয়া যায় লম্বা সময়ের এবং রিচার্জও হয়ে যায় দ্রুত।

অর্থাৎ সব মিলিয়ে বাজেটে গেমিং করতে চাইলে ফোনটি আপনার পছন্দের তালিকার শীর্ষে থাকতে পারে। ভালো পারফর্মেন্সের ফোন হিসেবে এই ফোনটি যথেষ্ট জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এছাড়া ফোনের ডিজাইন ও আউটলুকও বেশ প্রিমিয়াম ও নজরকাড়া।

Infinix Hot 30

ইনফিনিক্স হট ৩০ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭৮ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৮
  • র‍্যামঃ ৪/৮ জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ডুয়াল ক্যামেরা ( ৫০ + ০.০৮ মেগাপিক্সেল )
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ৩০ এর দামঃ

  • ৪ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজঃ ১৪,৯৯৯ টাকা
  • ৬ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজঃ ১৬,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স হট ৩০আই –  Infinix Hot 30i

Infinix Hot 30i

ইনফিনিক্সের নতুন হট ৩০ সিরিজের সবথেকে কম দামের ফোন এটি। কম দামের মধ্যেই ক্রেতাদের ভালো ফিচার ও পারফর্মেন্স প্রদান করতে এখানে প্রসেসরের ক্ষেত্রে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। ফোনটির ডিজাইন ও আউটলুকেও রয়েছে কিছুটা পরিবর্তন। তবে সুন্দর প্রিমিয়াম একটি ডিজাইন আছে এই ফোনেও। 

সামনে থাকছে ৬.৫৬ ইঞ্চির কিছুটা ছোট একটি আইপিএস এলসিডি প্যানেল। তবে মানের দিক থেকে এটি হট ৩০ মডেলটির মতই, আছে ৯০ হার্টজের হাই রিফ্রেশ রেট। ফোনের প্রসেসর হিসেবে এখানে দেয়া হয়েছে মিডিয়াটেকের হেলিও জি৩৭ গেমিং চিপ। এটি কিছুটা কম শক্তিশালী একটি প্রসেসর এবং বাজেট ফোনের জন্য তৈরি করা। আর তাই এতে টুকিটাকি বিভিন্ন গেম খেলা গেলেও খুব ভারী কোন গেম খেলতে পারবেন না। এছাড়া দৈনন্দিন সাধারন কাজের ক্ষেত্রে বেশ ভালো পারফর্ম করবে ফোনটি। গেমের জন্য আলাদা ডারলিঙ্ক নামক সফটওয়্যার রয়েছে ফোনে। ৪ জিবি ও ৮ জিবি দুটি র‍্যামের ভ্যারিয়েন্টে ফোনটি পাওয়া যাবে। সফটওয়্যারের মাধ্যমে এই র‍্যাম আরও ৮ জিবি বাড়িয়ে নেয়া যাবে।

ফোনের ক্যামেরা হিসেবে থাকছে ৫০ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ। বাজেট ফোন হিসেবে ভালো সব ছবি তোলা যায় এই ফোনটিতে। এছাড়াও সামনে আগের মতই ৮ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরা থাকবে। ৫০০০ মিলিএম্প ব্যাটারিও পাওয়া যাবে এই ফোনে। তবে থাকছে না ফাস্ট চার্জ করার সুবিধা। ফোনে পাবেন সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

ইনফিনিক্স হট ৩০আই এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৫৬ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৩২
  • র‍্যামঃ ৪/৮ জিবি
  • স্টোরেজঃ ৬৪/১২৮ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ডুয়াল ক্যামেরা ( ৫০ + ০.০৮ মেগাপিক্সেল )
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ৩০আই এর দামঃ

  • ৪ জিবি র‍্যাম + ৬৪ জিবি স্টোরেজঃ ১১,৯৯৯ টাকা
  • ৪ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজঃ ১২,৪৯৯ টাকা
  • ৮ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজঃ ১৩,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স নোট ৩০ –  Infinix Note 30

Infinix Note 30

অসাধারন ডিজাইন, ফাস্ট চার্জিং এবং ভালো পারফর্মেন্স সবকিছু একসাথে আছে এই ফোনে। বাজেটের মধ্যেই এসকল সুবিধা থাকায় বাজারে দ্রুতই ক্রেতাদের মন জয় করেছে ইনফিনিক্সের একদম নতুন এই বাজেট ফোনটি।

ফোনের সামনেই পেয়ে যাবেন ৬.৭৮ ইঞ্চির একটি বিশাল আইপিএস এলসিডি প্যানেল। এলসিডি হলেও এটি বেশ উন্নত মানের এবং ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের সুবিধাও থাকছে। ফলে সব কাজ খুব সাবলীলভাবে করা সম্ভব এই ফোনে। প্রসেসরের দিক থেকেও এটি পিছিয়ে নেই, ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেকের বাজেটের সেরা চিপ হেলিও জি৯৯। গেমিং বা ভারী কোন কাজ সহজেই সামলে নিতে সক্ষম এই চিপটি। শক্তিশালী এই চিপের সঙ্গে রয়েছে ৮ জিবি র‍্যাম। সব মিলিয়ে মাল্টি টাস্ক বা ভারী যে কোন কাজে ফোনটির পারফর্মেন্স খুবই ভালো। ১৬ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম বাড়িয়ে নেয়ার সুবিধাও আছে এখানে।

ফোনের ৬৪ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা থেকে খুবই ভালো সব ছবি তোলা যায়। সেই সাথে সামনে আছে ১৬ মেগাপিক্সেলের ভালো মানের একটি সেলফি ক্যামেরা। ফোনের আকর্ষণের অন্যতম দিক এর ৪৫ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। ৫০০০ মিলিএম্প ব্যাটারি থাকায় ব্যাটারি ব্যাকাপেও ফোনটি সেরা। সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, ২৪০ হার্টজ টাচ স্যামপ্লিং রেট, জেবিএল এর ডিজাইন করা অসাধারন স্টেরিও স্পিকার ইত্যাদি সকল বাড়তি ফিচার মিলিয়ে এই ফোনটি অল্প বাজেটেই খুব ভালো কিছু সুবিধা দিচ্ছে।

ইনফিনিক্স নোট ৩০ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭৮ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৯
  • র‍্যামঃ ৮ জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮/২৫৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ট্রিপল ক্যামেরা ( ৬৪ + ২ + ০.০৮ মেগাপিক্সেল )
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স নোট ৩০ এর দামঃ

  • ৮ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজঃ ১৮,৯৯৯ টাকা
  • ৮ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজঃ ২৩,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স নোট ৩০ প্রো –  Infinix Note 30 Pro

Infinix Note 30 Pro

নোট ৩০ সিরিজের আরও উন্নত দামী ফোন এটি। এই ফোনে পাবেন বেশ কিছু প্রিমিয়াম ফিচার। সকল দিকেই ভারসাম্য রেখে ফোনটি ডিজাইন করা হয়েছে বলে এই ফোনকে ইনফিনিক্স বলছে অল রাউন্ডার ফোন।

ফোনের সামনে পাবেন ৬.৬৭ ইঞ্চির একটি অ্যামোলেড প্যানেল যেখানে ১২০ হার্টজের হাই রিফ্রেশ রেটের সুবিধাও আছে। এছাড়া ৯০০ নিটস ব্রাইটনেস ও ১ বিলিয়ন কালার সাপোর্ট মিলিয়ে এটি খুবই উন্নত মানের একটি ডিসপ্লে। কনটেন্ট ওয়াচিং বা গেমিং সকল ক্ষেত্রে সেরা অভিজ্ঞতা দেবে এই ডিসপ্লে। ফোনের প্রসেসর হিসেবে আছে আগে মতই মিডিয়াটেকের হেলিও জি৯৯। ৬ ন্যানোমিটারের এই প্রসেসর বাজেট ফোনের অন্যতম সেরা প্রসেসর। গেমিং বা দৈনন্দিন কাজ সবকিছুই খুব সাবলীলভাবে করা যায় এখানে। আছে ৮ জিবি র‍্যাম যা সফটওয়্যার দ্বারা আরও বাড়িয়ে নিয়ে ১৬ জিবি করা সম্ভব।

ফোনের পিছনে পাবেন ১০৮ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। খুব শার্প ও সুন্দর ছবি তোলা যায় এই ক্যামেরা থেকে। সামনের সেলফি ক্যামেরাটি ৩২ মেগাপিক্সেলের। অর্থাৎ সব ক্যামেরা থেকেই সুন্দর ছবি পাওয়া যায় ফোনটিতে।

ফোনের চার্জ ও ব্যাটারি সেকশনটি এই ফোনের অন্যতম সেরা অংশ। এতে ৫০০০ মিলিএম্পের বিশাল ব্যাটারি আছে সারাদিন ব্যাকাপ পেতে। সেই সাথে আছে ৬৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং সুবিধা। মাত্র ৩০ মিনিটেই ফোনটিকে ৮০ শতাংশ চার্জ করে ফেলা সম্ভব। শুধু তাই নয় ১৫ ওয়াটের ওয়্যারলেস চার্জিং সুবিধাও দেয়া হয়েছে এখানে যা শুধুমাত্র ফ্ল্যাগশিপ ফোনে দেখা যায়। সব মিলিয়ে বাজেটেই ফ্ল্যাগশিপ চার্জিং ফিচার দিচ্ছে এই ফোনটি।

ইনফিনিক্স নোট ৩০ প্রো এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬৭ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৯
  • র‍্যামঃ ৮ জিবি
  • স্টোরেজঃ ২৫৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ট্রিপল ক্যামেরা ( ১০৮ + ২ + ২ মেগাপিক্সেল )
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৩২ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স নোট ৩০ প্রো এর দামঃ

  • ৮ জিবি র‍্যাম + ২৫৬ জিবি স্টোরেজঃ ২৭,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৭  –  Infinix Smart 7

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৭  –  Infinix Smart 7

ইনফিনিক্স স্মার্ট সিরিজের এই নতুন ফোনটি খুব কম দামেই বেশ ভালো কিছু ফিচার নিয়ে বাজারে এসেছে। ৬.৬ ইঞ্চির ডিসপ্লের বড় এই ফোনটি দেখতে মিনিমাল এবং আকর্ষণীয়। ডিসপ্লেটি ৫০০ নিট পর্যন্ত উজ্জ্বল এবং কন্টেন্ট ওয়াচিংয়ে বেশ ভালো অভিজ্ঞতা দেয়।

ফোনের পারফর্মেন্স দিতে কোন প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে তা না জানালেও ফোনটি ৩ ও ৪ জিবি র‍্যামের দুটি ভ্যারিয়েন্টে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। আরও ৩ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম এক্সপানসন সুবিধাও দিচ্ছে ইনফিনিক্স। দৈনন্দিন কাজগুলো ভালোভাবেই সামলাতে পারে ফোনটি। পিছনে আছে ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ যার মূল ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেলের। কাজ চলার মতো ছবি তুলতে পারবেন স্মার্ট ৭ ফোন থেকে। ৫০০০ মিলিএম্পের বড় ব্যাটারি রয়েছে সারাদিন ব্যাকাপ দেয়ার মতো। এছাড়া ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, ফেস আনলক ইত্যাদি বিভিন্ন সুবিধাও রয়েছে। কম দামে ভালো ফিচারযুক্ত ফোন চাইলে ইনফিনিক্স স্মার্ট ৭ হতে পারে ভালো একটি পছন্দ।

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৭ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ অজানা
  • র‍্যামঃ ৩/৪ জিবি
  • স্টোরেজঃ ৬৪ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ১৩ মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৭ এর দামঃ

  • ৩ জিবি র‍্যাম+৬৪ জিবি স্টোরেজঃ ৯,৪৯৯ টাকা
  • ৪ জিবি র‍্যাম+৬৪ জিবি স্টোরেজঃ ১০,৪৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স নোট ১২ ২০২৩  –  Infinix Note 12 2023

ইনফিনিক্স নোট ১২ ২০২৩  –  Infinix Note 12 2023

নতুন বছরে ইনফিনিক্স তাদের আগের বছরের নোট ১২ ফোনেও এনেছে নতুন আপডেট। মিডিয়াটেকের নতুন হেলিও জি৯৯ প্রসেসর দিয়ে ফোনটি আবারও বাজারে ছেড়েছে তারা। ৬ ন্যানোমিটারের এই প্রসেসরের কারণে ফোনের পারফর্মেন্সের ব্যাপক উন্নতি এসেছে। ফলে হালকা গেমিং বা দৈনন্দিন কাজে ফোনটি আরও দ্রুতগতির সাথে কাজ করতে পারে। ৬.৭ ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লেও দেয়া হয়েছে এখানে। হাই রিফ্রেশ রেট না থাকলেও কন্টেন্ট ওয়াচিংয়ে এই ডিসপ্লে অসাধারন। এছাড়া রয়েছে ৮ জিবি র‍্যাম ও ৫ জিবি পর্যন্ত র‍্যাম এক্সপান্সন সুবিধা।

পাতলা ডিজাইনের ফোনটির পিছনে আছে ৫০ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ যা দাম অনুযায়ী বেশ ভালো ছবি তুলতে সক্ষম। ৫০০০ মিলিএম্পের বড় ব্যাটারির সাথে আছে ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং। সেই সাথে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, ডুয়াল স্পিকারের মতো আরও বেশ কিছু ভালো ফিচার উপস্থিত রয়েছে। ২০ হাজার টাকার নিচের বাজেটে এটি অন্যতম সেরা একটি ফোন।

ইনফিনিক্স নোট ১২ ২০২৩ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৯
  • র‍্যামঃ ৮ জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮/২৫৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ট্রিপল ক্যামেরা (৫০+২+০.৩ মেগাপিক্সেল)
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স নোট ১২ ২০২৩ এর দামঃ

  • ৮ জিবি র‍্যাম+১২৮ জিবি স্টোরেজঃ ১৮,৯৯৯ টাকা
  • ৮ জিবি র‍্যাম+২৫৬ জিবি স্টোরেজঃ ২০,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স হট ২০আই  –  Infinix Hot 20i

ইনফিনিক্স হট ২০আই  –  Infinix Hot 20i

ইনফিনিক্সের হট সিরিজের নতুন এই ফোনটি মূলত কম বাজেটে ভালো পারফর্মেন্স দেয়ার দিক থেকে সেরা। এই ফোনে আছে মিডিয়াটেকের হেলিও জি২৫ গেমিং প্রসেসর। প্রসেসরটি বেশ শক্তিশালী এবং দৈনন্দিন কাজ ছাড়াও কিছুটা গেমিং করতেও সক্ষম। সামনে আছে ৬.৬ ইঞ্চির উজ্জ্বল একটি ডিসপ্লে। ৪ এবং ৬ দুটি র‍্যাম ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে ফোনটি। পিছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপের মূল ক্যামেরাটি ১৩ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড অ্যাপারচার ক্যামেরা। দাম অনুযায়ী বেশ ভালো মানের ছবি তুলতে পারে ক্যামেরাটি। ৫০০০ মিলিএম্পের বিশাল ব্যাটারি ব্যাকাপ পেয়ে যাবেন ফোনের সঙ্গে। যদিও ফাস্ট চার্জ করবার মতো কোন সুবিধা নেই এখানে। ফোনের পিছনে একটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর দেয়া রয়েছে নিরাপত্তার জন্য। কম বাজেটে বেশ ভারসাম্যপূর্ণ একটি ফোন এটি।

ইনফিনিক্স হট ২০আই এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি২৫
  • র‍্যামঃ ৪/৬ জিবি
  • স্টোরেজঃ ৬৪/১২৮ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ট্রিপল ক্যামেরা (১৩+০.৩+০.৩ মেগাপিক্সেল)
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ২০আই এর দামঃ

  • ৪ জিবি র‍্যাম+৬৪ জিবি স্টোরেজঃ ১১,৪৯৯ টাকা
  • ৬ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজঃ ১২,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স হট ২০এস  –  Infinix Hot 20S

ইনফিনিক্স হট ২০এস  –  Infinix Hot 20S

মধ্যম বাজেটে ইনফিনিক্সের গেমিং ফোন এটি। গেম খেলতে যারা ভালোবাসেন তাদের সুবিধার জন্য এই ফোনে রয়েছে বিশেষ কিছু ফিচার। ৬.৭৮ ইঞ্চির ১২০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লে রয়েছে স্মুথ গেমপ্লের জন্য। সেই সাথে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেকের জি৯৬ গেমিং প্রসেসর। সাধারণ কাজ ছাড়াও গেমিং করতে এই ফোন বেশ পারদর্শী। গেম খেলবার সময় যেন ফোনটি গরম না হয় এজন্য ফোনের মধ্যে দেয়া রয়েছে বিশেষ কুলিং ব্যবস্থা।

গেম খেলতে সুবিধার জন্য আলাদা কিছু সফটওয়্যার সুবিধাও রয়েছে। ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজে পাওয়া যাচ্ছে এই ফোন। পিছনে আছে ৫০ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরার সুবিধা। দীর্ঘ সময় গেম খেলার সুবিধার জন্য ৫০০০ মিলিএম্পের বড় ব্যাটারি দেয়া আছে, সেই সঙ্গে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং। সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর, স্টেরিও স্পিকার, মাইক্রোএসডি কার্ডের সুবিধাসহ আরও বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে ফোনটিতে। গেমারদের জন্য বেশ ভালো একটি ফোন এটি।

ইনফিনিক্স হট ২০এস এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭৮ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৬
  • র‍্যামঃ ৮ জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ট্রিপল ক্যামেরা (৫০+২+২ মেগাপিক্সেল)
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ২০এস এর দামঃ ১৮,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স হট ২০  –  Infinix Hot 20

ইনফিনিক্স হট ২০  –  Infinix Hot 20

এই ফোনটি হট ২০এস মডেলের ফোনটির কিছুটা কম দামী ভার্সন। দাম কম রাখতে গিয়ে বেশ কিছু জায়গায় কমতি রয়েছে এই ফোনের। ফোনের ডিসপ্লে হিসেবে দেয়া আছে ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের ৬.৮২ ইঞ্চির বিশাল ডিসপ্লে। তাই কন্টেন্ট ওয়াচিং বা ভিডিও দেখতে আরাম পাবেন। পারফর্মেন্সের জন্য আছে মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৫ চিপ যা একটি ১২ ন্যানোমিটারের চিপ। খুব বেশি শক্তিশালী না হলেও দৈনন্দিন স্বাভাবিক কাজ ও টুকটাক গেমিং সহজেই সামলাতে পারে এটি। এছাড়া ৪ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি এর স্টোরেজ সুবিধা পাবেন। পিছনে আছে ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ যেখানে প্রধান লেন্সটি ৫০ মেগাপিক্সেলের। দিনের আলোতে বেশ ভালো ছবি তোলা যায় এই ফোন থেকে। ৫০০০ মিলিএম্পের বিশাল ব্যাটারি ও ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জ সুবিধাও থাকছে। গেমিংয়ের জন্য কিছু সফটওয়্যার ফিচার, সাইড মাউন্টেড ফিঙ্গারপ্রিন্ট ইত্যাদি বেশ কিছু সুবিধাও থাকছে এই ফোনে।

ইনফিনিক্স হট ২০ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৮২ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৫
  • র‍্যামঃ ৪ জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ডুয়াল ক্যামেরা (৫০+০.৩ মেগাপিক্সেল)
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ২০ এর দামঃ ১৪,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো  –  Infinix Note 12 Pro

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো  –  Infinix Note 12 Pro

ইনফিনিক্সের নোট সিরিজের ভালো একটি ফোন এটি। পারফর্মেন্সের দিকে আলাদা নজর রেখে এই ফোনটি বাজারে আনা হয়েছে। ব্যবহার করা হয়েছে শক্তিশালী হেলিও জি৯৯ প্রসেসর যা ভালো পারফর্মেন্সের সাথে ভালো গেম খেলার অভিজ্ঞতাও দিতে সক্ষম। ফোনে ৮ জিবি র‍্যাম রয়েছে যা সফটওয়্যারের মাধ্যমে এক্সটেন্ড করে ১৩ জিবি পর্যন্ত পাওয়া যাবে। ফলে স্মুথ ও দ্রুতগতির পারফর্মেন্স পাওয়া যায় ফোন থেকে। শুধু পারফর্মেন্স নয় ক্যামেরার দিকেও নজর রাখা হয়েছে ফোনটিতে। পিছনের ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপের মূল ক্যামেরাটি ১০৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা যা নিখুঁত ও পরিষ্কার ছবি তুলতে পারে দিনে কিংবা রাতে। সামনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। ফোনের ডিসপ্লে হাই রিফ্রেশ রেটের না হলেও এটি একটি ৬.৭ ইঞ্চির বড় অ্যামোলেড ডিসপ্লে। ফলে ভালো কন্টেন্ট ওয়াচিং অভিজ্ঞতা পাওয়া যায় এই ফোনে। সেই সাথে ভালো ডুয়াল স্পিকার সিস্টেম রয়েছে। ৫০০ মিলিএম্প ব্যাটারি ও ৩৩ ওয়াটের ফাস্ট চার্জ সুবিধা থাকায় ব্যাকাপের দিক হতেও পিছিয়ে নেই ফোনটি। সব মিলিয়ে মধ্যম বাজেটে বেশ ভালো একটি ফোন এটি।

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭ ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৯
  • র‍্যামঃ ৮ জিবি
  • স্টোরেজঃ ২৫৬ জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ট্রিপল ক্যামেরা (১০৮+২+০.৩ মেগাপিক্সেল)
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬ মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০ মিলিএম্প

ইনফিনিক্স নোট ১২ প্রো এর দামঃ ২২,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স নোট ১২ জি৯৬  –  Infinix Note 12 G96

ইনফিনিক্স নোট ১২ জি৯৬  –  Infinix Note 12 G96

ইনফিনিক্স নোট সিরিজ ইনফিনিক্সের মিডরেঞ্জ ক্যাটাগরির ফোনগুলো অফার করে থাকে। নোট ১২ জি৯৬ এ ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেকের জি৯৬ গেমিং প্রসেসর যা অসাধারন পারফর্মেন্স দিতে সক্ষম। সাথে আছে ৬.৭ ইঞ্চির অ্যামোলেড ফুল এইচডি ডিসপ্লে আর ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি রম।

ক্যামেরা সেকশনেও ফোনটি অফার করছে পিছনে ৩ টি ক্যামেরা যার মধ্যে মেইন লেন্সটি ৫০ মেগাপিক্সেলের ছবি দিতে সক্ষম। আছে ৩৩ ওয়াট পর্যন্ত ফাস্ট চার্জ সুবিধাও। ৫০০০মিলিএম্প এর ব্যাটারি সারাদিন ব্যাকাপ দিতে সক্ষম। তাই আপনি যদি গেম খেলতে ভালোবাসেন আর আপনার স্মার্টফোন থেকে স্পিডি পারফর্মেন্স চান এই ফোনটি আপনার জন্যই।

ইনফিনিক্স নোট ১২ জি৯৬ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৯৬
  • র‍্যামঃ ৬ / ৮জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫০মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স নোট ১২ জি৯৬ এর দামঃ

  • ৬ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ – ১৯,২৯৯ টাকা
  • ৮ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ – ২০,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ প্লাস  –  Infinix Smart 6 Plus

বড়সড় ৬.৮২ ইঞ্চির এইচডি ডিসপ্লের এই ফোনে আছে সানলাইট ডিসপ্লে বাইরে গেলেও যেটি অনেক ব্রাইট থাকবে। যারা বড় ডিসপ্লে পছন্দ করেন এবং সূর্যের আলোর নিচে ফোন ব্যবহার করেন তাদের জন্য এটি একটি ভালো চয়েস হতে পারে। এতে ডুয়াল ক্যামেরা দেয়া হয়েছে যার মেইন লেনসটি ৮ মেগাপিক্সেলের। এর ক্যামেরার অন্যতম ফিচার হচ্ছে সামনে এবং পিছনে দুটি ক্যামেরাতেই ডুয়াল ফ্ল্যাশ ব্যবহার করা হয়েছে। তাই চাইলে অন্ধকারেও সেলফি তুলতে পারবেন সহজেই। সাথে আছে ৫০০০ মিলিএম্প এর বড় ব্যাটারি এবং অক্টাকোরের হেলিও জি২৫ প্রসেসর পারফর্মেন্সেও একে পিছিয়ে রাখে নি। বাজেট ফোন হিসেবে এটি ফিচার রিচ একটি ফোন।

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ প্লাস  –  Infinix Smart 6 Plus

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ প্লাস এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৮২ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি২৫
  • র‍্যামঃ ২জিবি
  • স্টোরেজঃ ৬৪জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ প্লাস এর দামঃ ৯,৯৯৯ টাকা

👉 টেকনো মোবাইলের দাম জানুন

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ এইচডি  –  Infinix Smart 6 HD

একদম কম বাজেটের ব্যাসিক একটি স্মার্টফোন এটি। ব্যবহার করা হয়েছে ইউনিসকের চিপ। ৬.৬ ইঞ্চির ডিসপ্লে এবং ৫০০০মিলিএম্পের ব্যাটারি রয়েছে এতে। পিছনে আছে দুটি ক্যামেরা যার মেইন লেন্স ৮ মেগাপিক্সেলের। বাজেট ফোন হলেও এতে ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও ফেস আনলক দেয়া রয়েছে। ডিজাইনটিও বেশ মনকাড়া এই ফোনের। যদি কম বাজেটে ফোন কিনতে চান তবে এটি হতে পারে আপনার প্রথম পছন্দ।

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ এইচডি  –  Infinix Smart 6 HD

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ এইচডি এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক এসসি৯৮৬৩এ
  • র‍্যামঃ ২জিবি
  • স্টোরেজঃ ৩২জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ এইচডি এর দামঃ ৯,৯৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স হট ১২আই  –  Infinix Hot 12i

আকর্ষণীয় ডিজাইনের এই বাজেট ফোনটি ৬.৬ ইঞ্চির আইপিএস ডিসপ্লে দেয়া হয়েছে যার পিক ব্রাইটনেস ৪৮০ নিটস। ফলে বাইরে গেলেও ফোন ব্যবহার করতে কোন সমস্যায় পড়তে হবে না আপনাকে। এছাড়া ব্যবহার করা হয়েছে ৪ জিবি র‍্যাম যা ভার্চুয়াল র‍্যাম প্রযুক্তি ব্যবহার করে ৭ জিবি পর্যন্ত বাড়িয়ে নিতে পারবেন। ১৩ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ভিউ মেইন ক্যামেরার সহ পিছনে মোট ৩ টি ক্যামেরা রয়েছে। এছাড়া এর স্পিকার অডিওতে ডিটিএস প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। বাজেটে এটি একটি ভালো পছন্দ হতে পারে এর ফিচার ও স্টাইলের জন্য।

ইনফিনিক্স হট ১২আই  –  Infinix Hot 12i

ইনফিনিক্স হট ১২আই এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও এ২২
  • র‍্যামঃ ৪জিবি
  • স্টোরেজঃ ৬৪জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ১৩মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ১২আই এর দামঃ ১২,৪৯৯ টাকা

👉 পোকো মোবাইল এর দাম জানুন

ইনফিনিক্স হট ১২  –  Infinix Hot 12

পারফর্মেন্স ও গেমিং সেন্ট্রিক এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে হেলিও জি৮৫ চিপ যা ভালো গেমিং এক্সপেরিয়েন্স ও পারফর্মেন্স দিতে সক্ষম। সে সাথে ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ আছে, র‍্যাম ভার্চুয়ালভাবে বাড়িয়ে নেবার সুবিধাও রেখেছে ইনফিনিক্স ১১ জিবি পর্যন্ত। এর পাঞ্চ হোল ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লেও ফোনকে আধুনিক করে তুলেছে। গেম খেলার ক্ষেত্রে সুবিধার জন্য এতে ১৮০ হার্টজ পর্যন্ত টাচ স্যামপ্লিং রেটের সুবিধাও রয়েছে। ক্যামেরা সেকশনে পিছনে আছে তিনটি ক্যামেরা (মেইন লেন্স ১৩মেগাপিক্সেল) ও সামনে একটি। সামনে ও পিছনে উভয় ক্যামেরাতেই ডুয়াল ফ্ল্যাশ ব্যবহার করা হয়েছে।

ইনফিনিক্স হট ১২  –  Infinix Hot 12

ইনফিনিক্স হট ১২ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৮২ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৫
  • র‍্যামঃ ৪ জিবি / ৬জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ১৩মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ১২ এর দামঃ

  • ৪ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ – ১৪,৯৯৫ টাকা
  • ৮ জিবি র‍্যাম + ১২৮ জিবি স্টোরেজ – ১৬,৪৯৯ টাকা

ইনফিনিক্স হট ১২ প্লে  –  Infinix Hot 12 Play

এটিও পারফর্মেন্স ও গেমিং সেন্ট্রিক একটি ফোন। এই সিরিজের অন্য ফোনগুলোর মতোই ব্যবহার করা হয়েছে ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেটের ডিসপ্লে এবং ১৮০ হার্টজ টাচ স্যামপ্লিং রেট। সাথে আছে ৬০০০মিলিএম্প এর বড় ব্যাটারি। অক্টাকোরের সিপিইউ গেমিং ও পারফরমেন্সে এগিয়ে রেখেছে এই ফোনকে। ভার্চুয়াল র‍্যামের মাধ্যমে র‍্যাম বাড়ানোর সুবিধা থাকছে এতেও। ১৩ মেগাপিক্সেল মেইন ক্যামেরাসহ ডুয়াল ক্যামেরা আছে পিছনে এবং সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

ইনফিনিক্স হট ১২ প্লে  –  Infinix Hot 12 Play

ইনফিনিক্স হট ১২ প্লে এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৮২ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ অক্টাকোর ২.৩গিগাহার্টজ
  • র‍্যামঃ ৪জিবি
  • স্টোরেজঃ ৬৪/১২৮জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ১৩মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৬০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স হট ১২ প্লে এর দামঃ 

  • ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজঃ ১২,৯৯৯ টাকা

👉 কম দামে ভালো ফোন

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬  –  Infinix Smart 6

লো বাজেটের মধ্যে ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ একটি অসধারন ফিচার রিচ ফোন। এতে আছে ৫০০ নিট পিক ব্রাইটনেসের ডিসপ্লে। সেই সাথে ৫০০০মিলিএম্প ব্যাটারি, ৮ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা, ডিটিএস প্রযুক্তির স্পিকার সবকিছুই এই ফোনকে করে তুলেছে আকর্ষণীয়। স্টাইলিশ ডিজাইনের সাথে এর ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর ও অন্যান্য ফিচারগুলো বাজেট ফোন হিসেবে একে আলাদা করে রেখেছে।

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬  –  Infinix Smart 6

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৬ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ ইউনিসক এসসি৯৮৬৩এ
  • র‍্যামঃ ২/৩জিবি
  • স্টোরেজঃ ৩২/৬৪জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৮মেগাপিক্সেল ডুয়াল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ৫মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স স্মার্ট ৬ এর দামঃ

  • ২ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজঃ ৯,০৯০ টাকা
  • ৩ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজঃ ১০,৯৯৯ টাকা

👉 রিয়েলমি ফোনের দাম জানুন

ইনফিনিক্স নোট ১২ – Infinix Note 12

Infinix note 12

ইনফিনিক্স নোট ১২ ফোনটি দাম বিবেচনায় তেমন একটা সুবিধার ডিল নয়। ১৮হাজার টাকার ফোন হওয়ার পরেও ফোনটিতে নচ ডিসপ্লে রয়েছে, যা বেশ বেমানান। আবার থাকছেনা কোনো ধরনের হাই রিফ্রেশ রেট যা একই বাজেটের অন্য সব ফোনেই রয়েছে। চিপসেট এর দিকে দিয়েও কোনো চমক আনতে পারেনি ফোনটি। ফোনটিতে ৫০০০মিলিএম্প এর ব্যাটারি রয়েছে, যা ৩৩ওয়াট এর ফাস্ট চার্জার দ্বারা চার্জ করা যাবে। ইনফিনিক্স নোট ১২ এর দাম হিসেবে ফোনটির স্পেসিফিকেশন তেমন একটা কারোই পছন্দ হওয়ার কথা নয়। 

ইনফিনিক্স নোট ১২ এর স্পেসিফিকেশনঃ

  • ডিসপ্লেঃ ৬.৭ইঞ্চি
  • প্রসেসরঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৮
  • র‍্যামঃ ৬জিবি
  • স্টোরেজঃ ১২৮জিবি
  • ব্যাক ক্যামেরাঃ ৫০মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা
  • ফ্রন্ট ক্যামেরাঃ ১৬মেগাপিক্সেল
  • ব্যাটারিঃ ৫০০০মিলিএম্প

ইনফিনিক্স নোট ১২ এর দামঃ ১৬,৪৯৯টাকা

👉 নকিয়া ফোনের দাম জানুন

ইনফিনিক্স মোবাইল কেমন?

বাজারে যেসব ব্র্যান্ডের এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন পাওয়া যায় তার মধ্যে বর্তমানে ইনফিনিক্স মোটামুটি পরিচিত একটি নাম। খুব বেশি জনপ্রিয় ব্র্যান্ড না হলেও আকর্ষণীয় স্পেসিফিকেশন এবং দাম নিয়ে সুলভ মূল্যের স্মার্টফোন ক্রেতাদের নিকট ধীরে ধীরে পরিচিত হয়ে উঠছে ইনফিনিক্স। বাজেটের মধ্যে ভাল ডিল হতে পারে ইনফিনিক্স ফোনগুলো।

ইনফিনিক্স মোবাইল কোন দেশের কোম্পানি?

ইনফিনিক্স হচ্ছে একটি হংকং ভিত্তিক মোবাইল ফোন কোম্পানি। এদের মূল কোম্পানির নাম ট্রানজিশন হোল্ডিংস। ইনফিনিক্স কোম্পানির যাত্রা শুরু হয় ২০১৩ সালে। ফ্রান্সের প্যারিসেও এদের একটি হেডকোয়ার্টার আছে।

আপনার পছন্দের ইনফিনিক্স ফোন কোনটি? আমাদের জানান কমেন্ট সেকশনে।

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,558 other subscribers

1 Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *