গিনেজ বুকে মাইক্রোসফটের বিশ্বরেকর্ড

ms room

প্রযুক্তির ক্ষেত্রে বাহ্যিক রূপই সব কিছু নয়। অডিওর মত গুরুত্বপূর্ণ জিনিসের বেলায়ই ধরা যাক। আর এ জন্যই মাইক্রোসফট তাদের সদরদপ্তর রেডমন্ড, ওয়াশিংটনে একটি আন্তর্জাতিক মানের অডিও ল্যাব তৈরি করেছে।

পারসোনাল অ্যাসিস্ট্যান্ট সফটওয়্যার করটানার মত আরও অনেক গুরুত্বপূর্ণ জিনিস ভাল মানের অডিওর উপর নির্ভরশীল। লি শ্যালে মুনরো, মাইক্রোসফট সার্ফেস ডিভাইসের সিনিয়র প্রকৌশলী বলেন এসব সিস্টেম কাজ করার জন্য মাইক্রোফোন থেকে শুরু করে স্পিকার পর্যন্ত ভাল মানের যন্ত্রপাতি দরকার। আর এজন্যই তারা পৃথিবীর সবচেয়ে শান্ত বা নীরব জায়গা তৈরি করেছে। এরই মধ্যে গিনেজ বুকেও বিশ্বরেকর্ডের স্থান দখল করে নিয়েছে এই চেম্বারটি।

এখানে পৃথিবীর বুকে নিরবতম স্থানের বেশ কিছু ছবি দেয়া হলঃ

মাইক্রোসফট অডিও ল্যাবের ‘অ্যানইকোয়িক চেম্বার’ যার মানে হচ্ছে সম্পূর্ণ প্রতিধ্বনি মুক্ত যা সকল প্রকার শব্দ শোষণ করে নেয়।

microsoft anechoic room

 

আপনি এখানে যে বড় বড় ওয়েজ গুলো দেখছেন সেগুলো শব্দ শোষণকারী উপাদান দিয়ে তৈরি।

metal ms

 

এটা হল ১৩৬ ডেসিবল(এ) মাত্রার শব্দের গ্রাফ যা জেট বিমানে হয়।

graph sound

 

এটা হল ০ ডিবিএ মাত্রার শব্দ যা মানুষের শোনার মত সব থেকে নিম্ন মাত্রা।

0 dba

 

আর এটা হল -২৩ ডিবিএ যা শূন্যস্থানে বায়ুকণার চলাচল থেকে সৃষ্ট।

minus 23 dba

 

এটা হচ্ছে মাইক্রোসফট অডিও ল্যাব তৈরির আগ পর্যন্ত পৃথিবীর সবথেকে নীরব স্থান, অরফিল্ড ল্যবেরটরি, মিনিয়াপলিস, মিনেসটা। যেখানে শব্দের মাত্রা পরিমাপ করা হয়েছিলো -১৩ ডিবিএ।

-13 dba

 

আর মাইক্রোসফট আগের সকল রেকর্ড ভেঙে দিয়ে তৈরি করেছে মাত্র -২০ ডিবিএ রেঞ্জের কক্ষ।

- 20 dba

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,832 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.