মহাকাশের ছবিগুলো যেভাবে ফটোশপের মাধ্যমে ‘সুন্দর’ করে তোলা হয়

OrionM42_WISE

আমরা নাসা থেকে প্রকাশিত মহাশূন্য অথবা ছায়াপথ বা গ্যালাক্সির যে চমৎকার সব ছবি দেখি তা কি সত্যি এরকমটাই ধারণ করা হয়েছিল? সরাসরি উত্তর হবে “না”। ছবিগুলো তোলার পর তা কম্পিউটারের সাহায্যে অত্যাধিক মাত্রায় এডিট করে সেগুলোর ‘সৌন্দর্যবর্ধন’ করা হয়।

সম্প্রতি  অ্যাডোবি তাদের এক ব্লগ পোস্টে বলেছে যে, আসলে এ ছবিগুলো ফটোশপে এডিট করা হয়ে থাকে। তবে এর ফটোশপিংয়ের কাজ কোনো সাধারণ গ্রাফিক্স ডিজাইনারের নয় বরং এর ফটোশপিং করা হয় ওই বিষয়ে দক্ষ জ্যোতির্বিজ্ঞানী দ্বারা যিনি ফটোসপকৃত ছবির ব্যাখ্যা দিতে পারবেন এবং অবশ্যই মূল ছবির সাথে এর যথেষ্ট তথ্যগত মিল রাখবেন। তিনি এই ছবি বর্ণনা করার কাজটিও করে থাকেন।

OrionM42_WISE

এরকমই একজন জ্যোতির্বিজ্ঞানী রবার্ট হার্ট যিনি বর্ণনা করেন এ ধরনের কাজ কীভাবে হয়ে থাকে। তিনি বলেন এক্ষেত্রে কাজ শুরু হয় একটি ‘র’ গ্রেস্কেল ডাটা থেকে যেগুলো কিনা বিভিন্ন ইনফ্রারেড স্পেকট্রাম এর অংশ। তিনি এগুলোর কন্ট্রাস্ট ঠিক করেন এবং ইনফ্রারেড রঙ অনুবাদ করেন যা খালি চোখে দেখা সম্ভব না। সঠিক ইমেজ তৈরির জন্য কখনো কখনো তিনি ছবি গুলোর বিভিন্ন লেয়ার আলাদা আলাদা টেলিস্কোপ থেকে নিয়ে থাকেন।

SombreroSpitzerHST

সুতরাং কী বোঝা গেল? পশুপাখি, মানুষ, প্রকৃতি থেকে শুরু করে সুদূর মহাকাশ পর্যন্ত অনেক কিছুর ক্ষেত্রেই ফটোশপের মাধ্যমে ‘চেহারা সুন্দর’ করা হয়।

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 6,947 other subscribers

[★★] প্ৰযুক্তি নিয়ে লেখালেখি করতে চান? এক্ষুণি একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! techbaaj.com ভিজিট করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন। হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.