ওয়ানপ্লাস ফোনের সেরা কিছু ফিচার

স্টক অ্যান্ড্রয়েডের কাছাকাছি অভিজ্ঞতা প্রদান করার পরেও বেশ অসাধারণ সব এক্সক্লুসিভ ফিচার প্রদান করে থাকে অক্সিজেনওএস চালিত ওয়ানপ্লাস ফোনগুলো। এই পোস্টে জানবেন অক্সিজেন ওএস অর্থাৎ ওয়ানপ্লাস ফোনের অসাধারণ কিছু ফিচার সম্পর্কে।

কুইক লঞ্চ

আমাদের সবারই এমন কিছু প্রিয় অ্যাপ থাকে যেগুলো ফোন আনলক করার পরপর ব্যবহার করা হয় অধিকাংশ সময়ে। অধিক ব্যবহৃত এসব অ্যাপ সিংগেল ট্যাপে লঞ্চ করা যাবে কুইক লঞ্চ ফিচার ব্যবহার করে। অর্থাৎ কুইক লঞ্চ ফিচার ব্যবহার করলে লকস্ক্রিন থেকে সরাসরি প্রিয় অ্যাপে প্রবেশ করতে পারবেন ফোন আনলক করার পরপর।

এই ফিচারটি শুধুমাত্র ইন-ডিসপ্লে ফিংগারপ্রিন্ট আছে এমন ওয়ানপ্লাস ডিভাইসগুলোতে কাজ করে। সেটিংস থেকে Utilities মেন্যুতে প্রবেশ করে Quick Launch অপশনে প্রবেশ করে প্রিয় অ্যাপ বা শর্টকাট কুইক লঞ্চ এর জন্য সেট করতে পারবেন।

পাওয়ার বাটন শর্টকাট

ওয়ানপ্লাস ফোনগুলোতে থাকা পাওয়ার কি সেটিংস কাস্টমাইজ করে ক্যামেরা বা অ্যাসিস্ট্যান্ট সেট করা যাবে। অর্থাৎ পাওয়ার কি এর মাধ্যমে গুগল এসিস্ট্যান্ট বা ক্যামেরা চালু করা যাবে সহজে। সেটিংস থেকে Buttons & Gestures অপশনে প্রবেশ করে পাওয়ার বাটন শর্টকাট সেট করতে পারবেন।

ডার্ক মোড

অক্সিজেন ওএস এর ডার্ক মোড অন্য অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ডার্কমোড থেকে কিছুটা হলেও আলাদা। ওয়ানপ্লাস ফোনে তিন ধরনের অপশন থেকে ডার্ক মোড সেট করা যায়। Enhanced অপশন ব্যবহার করে পিচ-ব্ল্যাক ডার্ক মোড সেট করা যায়। অন্যদিকে Medium ও Gentle ডার্ক মোড মূলত সুর্যের আলোতেও ফোন ব্যবহারের উপযোগী গ্রে শেড প্রদান করে।

প্রাইভেট সেইফ

অক্সিজেন ওএস এর Private Safe ফিচার ব্যবহার করে ওয়ানপ্লাস ফোনে ছবি, ভিডিও, ডকুমেন্ট, অডিওসহ যেকোনো ধরনের ফাইল লুকিয়ে রাখা যাবে নিরাপদে। এই ফিচার ব্যবহার করে হাইড করা ফাইল আপনি ছাড়া অন্যকেউ অ্যাকসেস করতে পারবেনা। সেটিংস থেকে Privacy মেন্যুতে প্রবেশ করে Private Safe অপশন থেকে এই ফিচার চালু করতে পারবেন। ৬ডিজিট এর পিন এর পাশাপাশি পিন সেট করে প্রাইভেট সেইফ সেটাপ করা যাবে। আবার চাইলে হোমস্ক্রিনে শর্টকাট এড করা যাবে সহজে লুকানো ফাইল অ্যাকসেস করতে।

এডভান্সড ব্যাটারি অপশন

ওয়ানপ্লাস ফোনে ব্যাটারি নিজের সুবিধামত ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে, অর্থাৎ আপনার প্রয়োজন অনুসারে ব্যাটারির ব্যবহারকে অপটিমাইজ করতে পারবেন। Advanced সেটিংস থেকে হাই-পারফরম্যান্স মোড চালু করে ফোনে বাড়তি স্পিড যোগ করতে পারেন প্রয়োজনে। ওদিকে স্লিপ স্ট্যান্ডবাই অপটিমাইজেশন এর মাধ্যমে ফোন অফ থাকলে তখন ব্যাটারি সেভ হয়। অপটিমাইজড নাইট চার্জিং মূলত এডাপ্টিচ চার্জিং সুবিধা প্রদান করে ওয়ানপ্লাস ফোনে।

থিম স্টোর

ওয়ানপ্লাস ফোনগুলোতে সবচেয়ে আন্ডাররেটেড ফিচার হলো থিম স্টোর। থিম স্টোর ব্যবহার করে খুব সহজে ফোনের লুক বদলে দিতে পারবেন। আইকন প্যাক, ওয়ালপেপার,ফন্টস, আনলক স্টাইল ইত্যাদি বিষয় কাস্টমাইজ করা যাবে থিম স্টোর এর মাধ্যমে৷ আপনার হাতের ওয়ানপ্লাস ফোনটিকে নিজের মত করে সাজাতে চাইলে Theme Store ঘুরে আসতে পারেন।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

ওয়ানপ্লাস ফোনের সেরা কিছু ফিচার

👉 ওয়ানপ্লাস ফোনের দাম

গেম মোড ফিচার

ওয়ানপ্লাস ফোনগুলোর স্পেসিফিকেশন বেশ উন্নত হওয়ায় গেমিং এর ক্ষেত্রে আলাদাভাবে পারফরম্যান্স অপটিমাইজেশন এর প্রয়োজন পড়েনা। Game Mode ফিচার ব্যবহার করে গেম খেলার সময় বাড়তি প্রয়োজনীয় ফিচার পাওয়া যায়। এই মোড চালু থাকলে ডান বা বামদিকে সোয়াইপ করে ফিচার অ্যাকসেস করা যাবে। এক্ষেত্রে একটি মেন্যু দেখা যায় যেখানে ফোনের ব্যাটারির অবশিষ্ট চার্জ, ফোনের তাপমাত্রা, ইত্যাদি দেখা যায়।

তিনটি পারফরম্যান্স মোড থেকে নিজের প্রয়োজনমত মোড বেছে নেওয়ার সুযোগও রয়েছে। আবার গেমে ফোকাস রাখতে যেকোনো ধরনের কল ব্লক করা ও ভুলে ন্যাভিগেশন জেশ্চার চাপা থেকে বাঁচা যায়। স্ক্রিন রেকর্ডার, ভয়েস মডুলেটর, ওরিয়েন্টেশন লক, ইত্যাদি ফিচারও পাওয়া যায় গেম মোড চালু থাকলে। এছাড়া ডিসকর্ড বা হোয়াটসঅ্যাপের মত অ্যাপগুলো গেম থেকে অ্যকসেস করা যাবে।

জেন মোড

যারা ফোন হাত থেকে রাখতেই চায়না, তাদের সাহায্য করে জেন মোড। টাইমার সেট করে জেন মোড চালু করলে আপনি ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না, যার ফলে যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে মনোযোগ নিবেশ করা যায়। তাই আপনার ওয়ানপ্লাস ফোনের জেন মোড এর সাহায্য নিয়ে দূর করতে পারেন স্মার্টফোন আসক্তি।

স্ক্রিন অফ জেশ্চার

ওয়ানপ্লাস ফোনগুলোতে স্ক্রিন জেশ্চারকে অন্য লেভেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ফোন বন্ধ থাকা অবস্থায় স্ক্রিনে জেশ্চার এঁকে কুইক একশন, যেমনঃ ফ্ল্যাশলাইট অন কিংবা সরাসরি ভিডিও রেকর্ডিং, ইত্যাদি ব্যবহার করা যাবে। আবার চাইলে স্ক্রিন অফ থাকা অবস্থায় কোনো অ্যাপে সরাসরি প্রবেশ করে স্ক্রিন লক অবস্থায় জেশ্চার ব্যবহার করতে পারবেন।

আরো অসাধারণ হলো pause (||), forward (>), and backward (<) এঁকে স্ক্রিন লক থাকা অবস্থায় মিউজিক প্লেব্যাক কন্ট্রোল করা যাবে। সেটিংস থেকে Buttons & Gestures মেন্যুতে প্রবেশ করে Quick Gestures অপশন থেকে এই ফিচার সেট করা যাবে।

👉 এন্ড্রয়েড অ্যাপ ক্লোন করে ডুপ্লিকেট অ্যাপ চালানোর কৌশল

প্যারালাল অ্যাপস

মূলত অ্যাপ ডুপ্লিকেট বা ক্লোন করার জন্য ওয়ানপ্লাস ফোনগুলোতে Parallel Apps ফিচার প্রদান করা হয়েছে। এই ফিচার ব্যবহার করে ন্যাটিভলি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের যেকোনো অ্যাপ ক্লোন করা যাবে। এই ফিচার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন নিচে লিংক করা পোস্ট থেকে।

ওয়ানপ্লাস ফোন বা অক্সিজেন ওএস এর কোন ফিচারটি আপনার সবচেয়ে বেশি ভালো লাগে? আপনার মতামত আমাদের জানাতে পারেন কমেন্ট সেকশনে।

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

📌 পোস্টটি শেয়ার করুন! 🔥

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 8,561 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *