আইফোন ১৫ থেকে বাটন বাদ দিবে অ্যাপল?

প্রতি বছর নতুন নতুন ডিভাইসে নতুন কিছু চমক দেখানোর চেষ্টা করে অ্যাপল। কখনো কখনো এই চমক হয়ে থাকে উদ্ভাবনী কোনো ফিচার। আবার অনেক ক্ষেত্রে ডিভাইস থেকে কিছু একটা বাদ দিয়ে প্রযুক্তি বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দেয় অ্যাপল। এই যেমন আইফোন ১৪ এর স্যাটেলাইট সংযোগ ফিচারটির কথাই ধরুন। এই ফিচারটি দ্বারা কোনো প্রকার মোবাইল নেটওয়ার্ক ছাড়াই প্রয়োজনের মুহূর্তে জরুরি সেবা চাওয়া যাবে। এটা একটা উদ্ভাবনী সুবিধা বলতেই হয়।

অপরদিকে আইফোন ১৪ সিরিজের সকল মডেলের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ভ্যারিয়েন্টে থাকছেনা কোনো সিম কার্ড স্লট। অর্থাৎ এগুলোতে আপনি সচরাচর প্লাস্টিকের সিম কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন না। তারা আইফোন ১৪ এর ইউএস ভ্যারিয়েন্ট থেকে সিম ট্রে বাদ দিয়েছে। এগুলোতে শুধুমাত্র ই-সিম ব্যবহার করা যাবে।

নতুন আইফোনের সাথে চার্জার অ্যাডাপ্টার দেওয়া তো অনেক আগেই বাদ দিয়েছে অ্যাপল। আগে তারা ইয়ারফোন দিতো, কিন্তু এখন তাও দেয়না। আবার ম্যাকবুকের মনিটর অংশের পেছনে অনেক আগে অ্যাপল লোগোতে একটি লাইট জ্বলত। কিন্তু কয়েক বছর আগে সেই লাইটও বাদ দিয়েছে অ্যাপল।

এভাবে বাদ দিতে দিতে এখন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে যে, আইফোন ১৫ থেকেও কিছু বিষয় বাদ দিতে পারে অ্যাপল। এগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে চার্জিং পোর্ট। সেই সাথে বাদ যেতে পারে বাটন। বর্তমানে আইফোনে ভলিউম বাটন ও পাওয়ার বাটন আছে। ভলিউম বাটনের উপরের দিকে ফোন সাইলেন্ট করার একটি সুইচও আছে। সেগুলো বাদ দিয়ে ফোর্স-টাচ ভিত্তিক ভার্চুয়াল বাটন নিয়ে আসতে পারে অ্যাপল।

আপনি যদি ম্যাকবুকের ট্র্যাকপ্যাড ব্যবহার করে থাকেন তাহলে হয়ত লক্ষ্য করেছেন, সেখানে একটু আলতো চাপ দিলে ক্লিক হয়ে যায়। তখন ট্র্যাকপ্যাডে সামান্য ভাইব্রেশন হয়। এতে আপনার মনে হবে যেন আপনি একটি বাটনে চাপ দিয়েছেন। আসলে কিন্তু ট্র্যাকপ্যাডে কোনো বাটন নেই। আপনি যখন ট্র্যাকপ্যাডে আলতো চাপ দেন তখন সেটির মধ্যে থাকা ভাইব্রেশন মোটর (ট্যাপটিক ইঞ্জিন) আপনার আঙ্গুলে হালকা ভাইব্রেশন দেয় যার ফলে আপনার মনে হয় একটি বাটনে প্রেস হয়েছে।

🔥🔥 গুগল নিউজে বাংলাটেক সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন 🔥🔥

আইফোন ১৫ মডেলে ফিজিক্যাল বাটন বাদ গেলেও এরকম ভাইব্রেশন বা হ্যাপটিক ফিডব্যাক ভিত্তিক ফিচার যুক্ত হতে পারে। এটা আইফোন ১৫ সম্পর্কে নতুন একটা গুঞ্জন। তবে আইফোন ১৫ সম্পর্কে গুঞ্জনের এখানেই শেষ নয়। কিছুদিন আগে শোনা যাচ্ছিল অ্যাপল হয়ত আইফোন ১৫ থেকে চার্জিং পোর্ট বাদ দিয়ে শুধুমাত্র ওয়্যারলেস চার্জিং ব্যবস্থা রাখবে। অন্তত একটি মডেল এরকম হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছিল। এছাড়া আইফোনে USB-C আসছে, নিশ্চিত করলো অ্যাপল

জেনে রাখা ভাল, প্রতি বছর নতুন আইফোন আসার ব্যাপারে অনেক গুঞ্জন শোনা যায়। এদের মধ্যে কিছু মিলে আবার কিছু মিলেনা। তাই আইফোন ১৫ সম্পর্কে উপরোক্ত প্রচলিত কথাগুলো মিলবে কিনা তা জানতে আমাদের বেশ কিছুটা সময় অপেক্ষা করতে হবে। আপনি সেই অপেক্ষাটুকু করতে রাজি তো?

👉 ভিডিওঃ আইফোন ১৪ প্রো এবং ১৪ প্রো ম্যাক্স সম্পর্কে বিস্তারিত

👉 আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে সাথেই থাকুন। এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রিপশন কনফার্ম করুন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য সরাসরি আপনার ইমেইলে পেতে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Join 7,635 other subscribers

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.